বাস্তবতার দুষ্টচক্র

যতই দিন বয়ে যায়,
জীবনের বোধগুলো পাল্টে যেতে থাকে।
বিষণ্ণতা জমে জমে শেষও হয়ে যায়
সব উতফুল্লতার মূল্য ফুরিয়ে যায়।
দিশেহারা দিগন্তে আশা বাস বাধে,
তারপর ?আবার সেই দুষ্টু-চক্রের খেলা।
আন্তপক্ষ সমর্থনের অর্থ খুজে বাড়ি ফিরছিলাম একদিন;
নিজে নিজে।
সাথে কেউ ছিল না।



যতই দিন বয়ে যায়,
জীবনের বোধগুলো পাল্টে যেতে থাকে।
বিষণ্ণতা জমে জমে শেষও হয়ে যায়
সব উতফুল্লতার মূল্য ফুরিয়ে যায়।
দিশেহারা দিগন্তে আশা বাস বাধে,
তারপর ?আবার সেই দুষ্টু-চক্রের খেলা।
আন্তপক্ষ সমর্থনের অর্থ খুজে বাড়ি ফিরছিলাম একদিন;
নিজে নিজে।
সাথে কেউ ছিল না।
ধুসর মাঠ পেরিয়ে এক নিঝুম বাগান
হঠাৎ ডেকে উঠা হুতুম জানিয়ে দিল,
অবাস্তবতা আর বাস্তবতার সংজ্ঞা।
অর্থহীন বাস্তবতার মাঝে আলোর ঝিলিক
কিভাবে “বোকা জীবনবোধ” শান্তি এনে দেয়।
বোকার রাজ্যের কত সুখের কথা শুনলাম তার কাছে!
অর্থহীন আবেগে কত সুখ,
কান্নার মাঝে লুকানো কত মায়া।
কিন্তু ঐ বোকা জীবন বোধ আর অর্থহীন আবেগ যে
টানে না আমাকে ?
তার চেয়ে বরং মরুভূমির বেদুইন হয়ে জীবন সংগ্রাম ঢের ভাল
আমার কাছে।
কর্মশ্রান্ত দিন শেষে নিঝুম শান্তি, ঘুম দেবতার আহবান;
বরং অনেক ভাল।
তুমি থাক তোমার অর্থহীন আবেগের রাজ্যে,
রাজকুমার হয়ে।
হুতুমের সাথে মিতালি করেছি,
সেই অনেক দিন আগে।

১ thought on “বাস্তবতার দুষ্টচক্র

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *