ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি হতে চাও যারা… (শূন্য)

আমাকে বেশ ক’দিন থেকে অনুজপ্রতিমেরা মেসেজ দিয়ে জিজ্ঞেস করছে ঢাবি’তে অমুক সাবজেক্ট এ পড়ার জন্য কি আলাদা করে এক্সাম দিতে হয় ভাইয়া…? অমুক ইন্সটিটিউটে নাকি ফিজিক্স এ ৫০ আর কেমিস্ট্রিতে ৫০ এক্সাম দিয়ে অ্যাডমিশন নিতে হয়…? ইত্যাদি ইত্যাদি ইত্যাদি… তোমাদের ক্লেয়ার করে জানাচ্ছি সব…


আমাকে বেশ ক’দিন থেকে অনুজপ্রতিমেরা মেসেজ দিয়ে জিজ্ঞেস করছে ঢাবি’তে অমুক সাবজেক্ট এ পড়ার জন্য কি আলাদা করে এক্সাম দিতে হয় ভাইয়া…? অমুক ইন্সটিটিউটে নাকি ফিজিক্স এ ৫০ আর কেমিস্ট্রিতে ৫০ এক্সাম দিয়ে অ্যাডমিশন নিতে হয়…? ইত্যাদি ইত্যাদি ইত্যাদি… তোমাদের ক্লেয়ার করে জানাচ্ছি সব…

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে পাঁচটি ইউনিটের (ক, খ, গ, ঘ, চ) অধীনে স্নাতক সম্মানে শিক্ষার্থী ভর্তি নেওয়া হয়[এছারাও ব্যবসায় প্রশাসন ইন্সটিটিউট(IBA) আলাদা ভাবে স্নাতক শিক্ষার্থী ভর্তি নেয়… ]… আজ আমি ‘ক’ ইউনিট নিয়ে লিখব…

‘ক’ ইউনিট কয়েকটি অনুষদ ও বেশ কয়েকটি ইন্সটিটিউট গঠিত। অনুষদ গুলো হচ্ছে বিজ্ঞান অনুষদ, জীববিজ্ঞান অনুষদ, ফার্মেসি অনুষদ…

বিজ্ঞান অনুষদের বিষয়গুলো হচ্ছে-
পদার্থবিজ্ঞান(১৪০ টি আসন), গণিত(১৭০ টি আসন), রসায়ন(৯০ টি আসন), পরিসংখ্যান(৮৮ টি আসন), কম্পিউটার বিজ্ঞান ও প্রকৌশল(৬০ টি আসন), ভূগোল ও পরিবেশ(৫০ টি আসন), ভূতত্ত্ব(৫০ টি আসন), ফলিত পদার্থবিজ্ঞান, ইলেক্ট্রনিক্স অ্যান্ড কমিউনিকেশন ইঞ্জিনিয়ারিং(৭০ টি আসন), ফলিত রসায়ন ও রাসায়নিক প্রযুক্তি(৬০ টি আসন)…
:জলদিকর: :জলদিকর:

জীববিজ্ঞান অনুষদের বিষয়গুলো হচ্ছে-
মৃত্তিকা পানি ও পরিবেশ(১২০ টি আসন), উদ্ভিদ বিজ্ঞান(৭৫ টি আসন), প্রাণীবিদ্যা(১০০টি আসন), প্রাণরসায়ন ও অনুপ্রাণবিদ্যা(৬০ টি আসন), মনোবিজ্ঞান(৪৫ টি আসন), অণুজীব বিজ্ঞান(৪০ টি আসন), মৎস্য বিজ্ঞান(৩০ টি আসন), জিন প্রকৌশল ও জীবপ্রযুক্তি(১৫ টি আসন)…
ফার্মেসি বিষয়টি ফার্মেসি অনুষদের অধীনেই পড়ান হয়…

ইন্সটিটিউটগুলো হল-
পরিসংখ্যান ও গবেষণা ইন্সটিটিউট(৬০ টি আসন)
পুষ্টি ও খাদ্যবিজ্ঞান ইন্সটিটিউট(৫০ টি আসন)
তথ্য প্রযুক্তি ইন্সটিটিউট(সফটওয়্যার ইঞ্জিনিয়ারিং) (৩০ টি আসন)
লেদার ইঞ্জিনিয়ারিং অ্যান্ড টেকনোলোজি ইন্সটিটিউট(১২০টি আসন)

দ্রষ্টব্যঃ কিছু বিষয়ের আসন সংখ্যাগুলোর একটু হের-ফের হতে পারে, কিন্তু ইঞ্জিনিয়ারিং বিষয়গুলোর আসন নির্ধারিত… সব মিলিয়ে ১৫৫৫ থেকে ১৫৯৩ জনের মত স্নাতক সম্মান এর শিক্ষার্থী ভর্তি করানো হবে…[২ বছরের হিসাব থেকে বললাম।]

এবার আসল কথায় আসি… এখানে উল্লেখিত সব বিষয়গুলোতে ভর্তির সুযোগ পাবার একমাত্র উপায় হল ‘ক’ ইউনিটের অধীনে অনুষ্ঠিতব্য পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করা… যারা এস.এস.সি ও এইচ.এস.সি উভয় পরীক্ষার মোট পয়েন্ট(চতুর্থ বিষয় বাদে) ৮ এর সমান বা তার উর্ধ্বে, তারা এই পরীক্ষার জন্য আবেদন করতে পারবে। এবারের পরীক্ষা আগামী ২২ নভেম্বর হবে বলে বিজ্ঞপ্তিতে প্রকাশ করা হয়েছে। তাই, আর কারও কোন কনফিউশন থাকার কথা না… ভর্তি পরীক্ষা সম্পর্কে বিস্তারিত জানতে এখানে ক্লিক করো…

একটা কমন প্রশ্ন হল, কোনটা এক নাম্বার সাবজেক্ট? কোনটা দুই নাম্বারে? তিনে কোনটা ভাইয়া? চারে কোনটা জানাবেন? উত্তর হল, বিশ্ববিদ্যালয়ের কাছে এক নাম্বার বলে কোন বিষয় নেই… মেধা তালিকার সামনে যারা থাকে তাদের পছন্দক্রম অনুযায়ী নির্ধারিত যেকোনো বিষয়ের আসন সবার আগে শেষ হয়ে গেলে সেটা এক নাম্বার। যেমন, সবচেয়ে কম আসন থাকে বলে জেনেটিকে সবার আগে শেষ হয়ে যায়, এবারও তাই হয়েছিল, দ্বিতীয়তে গিয়ে শেষ হয়েছিল তথ্য প্রযুক্তি ইন্সটিটিউট(সফটওয়্যার ইঞ্জিনিয়ারিং) এর আসন, তারপর ফার্মেসি, তারপর কম্পিউটার বিজ্ঞান ও প্রকৌশল এভাবে বাকিগুলো… তার মানে এই না জেনেটিক ঢাবি’র এক নাম্বার সাবজেক্ট, সফটওয়্যার ইঞ্জিনিয়ারিং দ্বিতীয়… ঘটনা হল সবগুলোই প্রথম… আমার এক বন্ধু প্রথম ১০০ জনের মাঝে থেকেও পদার্থবিজ্ঞান নিয়ে পড়ছে। যার যেখানে ইন্টারেস্ট সে সেখানে যাবে… প্রথম দ্বিতীয় বলে কিছু নেই… তাই সামনের দিকে পজিশন হলে ইচ্ছামত বিষয় নিয়ে পড়া যায়… এই হল কথা।

আরেকটা কমন প্রশ্ন… ভাইয়া/আপু আমি কত নম্বর পেলে/ কত তম অবস্থান করলে অমুক ইউনিটে অমুক সাবজেক্ট পাবো?/ কতর মধ্যে থাকলে অমুক সাবজেক্ট পাওয়া যাবে? গতবারের সর্বশেষ কততম অবস্থান থেকে অমুক সাবজেক্ট পেয়েছে?

উত্তরঃ এটি কখনোই বলা সম্ভব নয়। দেখা গেলো কোন বারের ভর্তি পরিক্ষায় সর্বোচ্চ নম্বর হল ১৯৫ সর্বনিম্ন নম্বর ১৮৫ ( হতেই পারে) সেক্ষেত্রে আগে থেকে কখনোই বলা যায়না তুমি ১৮০ পেলেই প্রথম হয়ে যাবে, অথবা আগে কেউ কখনো ১৮০র উপর পায়নি, তুমি পেলে কেল্লা ফতে।

তেমনি কখনো সর্বোচ্চ নম্বর হতে পারে ১৪০ সর্বনিম্ব নম্বর ১৩০!! ( হতেই পারে) সেক্ষেত্রে ১৩৯ পেয়েও তুমি ১০ এর মাঝে থাকতে পারো![এইটা মাসুক ভাইয়ার উত্তর!]
অর্থাৎ, ভর্তি পরীক্ষায় কোন পরিসংখ্যান বা পূর্বের রেকর্ড খাটেনা। তাই পূর্ণ প্রস্তুতি নাও যুদ্ধের…
যুদ্ধে তোমরাই জয়ী হবে এই সুভকামনায়…

৮ thoughts on “ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি হতে চাও যারা… (শূন্য)

  1. ভর্তি পরীক্ষায় অংশ গ্রহণের
    ভর্তি পরীক্ষায় অংশ গ্রহণের যোগ্যতা বা রিজাল্টে গড়ে কত পয়েন্ট থাকতে হবে এই বিষয়ে কিছু বললেন না?
    আমার এক ছোট ভাই পরীক্ষা দিবে তাই জানার প্রয়োজন ছিল ।

  2. ধন্যবাদ ।কষ্ট যখন করতেছেন তখন
    ধন্যবাদ ।কষ্ট যখন করতেছেন তখন আপনার কষ্টটাকে আরেকটু বাড়াতে চাই ।অর্থ্যাৎ অনলাইনে কিভাবে আবেদন করা যায়?কোন ওয়েব সাইটে ঢুকে করা যাবে(ডিরেক্ট লিংক সহ)?কোন ফি লাগবে কি না?লাগলে পরিশোধের উপায়? নিজে পারা যায় কি না? আবেদন ফরম পুরনের নিয়মাবলী (একটি উদাহরনের স্ক্রীনশট সহ) ইত্যাদি বিস্তারিত জানতে চাই ।

    1. আচ্ছা… ১২ তারিখ হতে অনলাইন
      :ফুল:
      আচ্ছা… ১২ তারিখ হতে অনলাইন আবেদন শুরু হবে… শুরু হলেই এই লিঙ্কে বিস্তারিত সব পাওয়া যাবে… এবং আপনার অনুরোধে আমি অনলাইন আবেদন পদ্ধতি নিয়েও একটা পোস্ট দিব(একটি উদাহরনের স্ক্রীনশট সহ)… 🙂

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *