মায়ের জন্য ভালোবাসা; মায়ের জন্য কান্না

অনেকদিন আগে জাফর ইকবাল স্যারের লেখা একটা বই পড়েছিলাম। বইটার নাম শান্তা পরিবার। শান্তা নামের এক মহিলা স্বামীসহ তাঁর ৬ সন্তানকে বুকে আগলে রাখত। স্বামী বেচারা ছিল গোবেচারা শিক্ষক মানুষ। কারও সাতে পাঁচে নেই। বউ এর ঘাড়ে সন্তানদের দায়িত্ব চাপিয়ে দিতে পেরে সে নিশ্চিন্ত। মা হিসাবে শান্তা ছিল একদম পারফেক্ট। তাঁর আদর এবং শাসনে পুরো পরিবারটা সুখেই দিন কাটাচ্ছিল।


অনেকদিন আগে জাফর ইকবাল স্যারের লেখা একটা বই পড়েছিলাম। বইটার নাম শান্তা পরিবার। শান্তা নামের এক মহিলা স্বামীসহ তাঁর ৬ সন্তানকে বুকে আগলে রাখত। স্বামী বেচারা ছিল গোবেচারা শিক্ষক মানুষ। কারও সাতে পাঁচে নেই। বউ এর ঘাড়ে সন্তানদের দায়িত্ব চাপিয়ে দিতে পেরে সে নিশ্চিন্ত। মা হিসাবে শান্তা ছিল একদম পারফেক্ট। তাঁর আদর এবং শাসনে পুরো পরিবারটা সুখেই দিন কাটাচ্ছিল।

এর মাঝেই ছন্দপতন। হঠাত করেই একদিন শান্তা মারা গেল। পুরো পরিবারটা এক মুহূর্তেই ভয়ানক বাস্তবতার সন্মুখিন হল। বাজার করা, বাচ্চাদের স্কুলে নিয়ে যাওয়া, সময়মত খাওয়া সবকিছুই উলটপালট হয়ে গেল নিমেষেই। নিজেদেরকে গোছাতে তাঁদের অনেক সময় এবং শ্রম দিতে হল। তারপরেও, কিছু অপূর্ণতা তো থেকেই যায়। মা ছাড়া একটা সংসার সবসময়ই অসম্পূর্ণ। মায়ের অভাব কি আর কেউ পূরণ করতে পারে? মায়ের দায়িত্বগুলো কি আর কেউ পালন করতে পারে? মা তো মা ই।

আজ, আপনাদের সামনে একজন মা কে বাঁচানোর আর্তি নিয়ে হাজির হয়েছি। এই মা কে বাঁচাতে প্রায় ১৫ লক্ষ টাকা লাগবে। টাকাটা আমার কাছে অনেক টাকা। আমি জানি আপনার কাছেও এটা অনেক বড় একটা এমাউন্ট। কিন্তু এই শহড়ে যত মানুষ আছে তাদের ১% ও যদি মাত্র ১০ টাকা করে দেয় তাহলেই ১৫ লক্ষ টাকা হয়ে যায়। ১০ টাকা বা ৫০ টাকা নিশ্চয় আমাদের কাছে খুব বড় কোন ব্যাপার নয়? এর চেয়ে বেশি টাকা আমরা প্রতিদিন চা, সিগারেট, আলুর চপ খেয়ে বা KFC-Pizza Hutt এ খেয়ে খরচ করি। আসুন না একদিন কয়টা সিগারেট কম খাই। একদিন চা না খেয়েই আড্ডা দেই অথবা KFC তে গিয়ে কোক না খেয়ে পানি খাই। আপনার এই ছোট ছোট ত্যাগ ই একজন মা কে ফিরিয়ে দিতে পারে তার সন্তানদের কাছে।

এতক্ষন যার কথা বলছিলাম তিনি আমাদের বন্ধু Afifa Parvin Shanta-র মা। তিনি Breast Cancer এ আক্রান্ত। এই মুহূর্তে তাঁকে দেশের বাইরে নিয়ে চিকিৎসা করানো প্রয়োজন। কিন্তু সেই সামর্থ্য শান্তার পরিবারের নেই। তাই Lalmatia Oncology Center এ Dr. Monjur Kader এর তত্ত্বাবধানে উনার চিকিৎসা চলছে। ৭ টা chemotherapy দিতে হবে যার মধ্যে ২ টা দেওয়া হয়েছে। ৩য় chemotherapy দেওয়া হবে এই মাসের ২১ তারিখে। Chemotherapy গুলো শেষ হলে তারপর বোঝা যাবে উনার পুরোপুরি সুস্থ হবার সম্ভাবনা কতটুকু।

তার চিকিৎসার জন্য যে ১৫ লক্ষ টাকা দরকার তা আপনার আমার মতই তার পরিবারের কাছেও অনেক বিশাল একটা অঙ্ক। শান্তা ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে ফার্মেসিতে পড়ছে। তাঁর বন্ধু এবং শুভাকাঙ্ক্ষীরা মিলে এখন পর্যন্ত ৬ লক্ষ টাকা যোগাড় করতে পেরেছে। বাকি ৯ লক্ষ টাকাও যেন ম্যানেজ করা যায় সেই জন্য আপনাদের কাছে সাহায্য চাইছি। আমার-আপনার-আমাদের সবার সন্মিলিত প্রচেষ্টা হয়ত বাঁচিয়ে তুলবে একজন মা কে। হাসি ফিরিয়ে আনবে একটি পরিবারের মুখে।

আপনারা যারা টাকা পাঠাতে ইচ্ছুক তাঁরা bKash করে কিংবা Bank Account এ টাকা পাঠাতে পারেন। bKash নাম্বারগুলো হলঃ

১ # ০১৯৬১৫৫৪০২৫ (01961554025) শান্তা
২ # ০১৭৫২৮৪৯০১৯ (01752849019)
৩ # ০১৬৮০৪৭১১১৬ (01680471116)
8 # ০১৯১৪৮৮০৭৯৮ (01914880798) শান্তার বাবা

Bank accounts:

1 # Anisur Rahman
Current A/C NO : 200000372
Sonali Bank-Bashabo Branch , Dhaka

2 # Farkhanda Shamim
Savings A/C NO : 100003397
Sonali Bank , Bashabo Branch , Dhaka

3 # Anisur Rahman
Dutch Bangla Bank ACCOUNT.
A/c NO : 108101606679

4 # Anisur Rahman
BRAC BANK ACCOUNT.
A/c NO : 1513102506728001

যারা বিকাশ অথবা ব্যাংক আকাউনট গুলোতে সাহায্য পাঠাবেন তারা অবশ্যই অনুগ্রহ করে নিচের নাম্বার এ কল করে টাকা এসেছে কিনা তা কনফার্ম করে নিবেন নিশ্চয়তার জন্য।

AFIFA PARVIN SHANTA – 01961554025

এছাড়াও ফেসবুকে একটা ইভেন্ট খোলা হয়েছে “Whoever saves one life, saves the world entire.” নামে। শান্তার আম্মার চিকিৎসার নিয়মিত আপডেট পেতে চাইলে এই ইভেন্টে জয়েন করতে পারেন।

শেষ কথাঃ এই প্রথমবারের মত ইষ্টিশন মাষ্টারের কাছে আমি একটা দাবী জানাব যেই দাবী নিজের কোন লেখার ক্ষেত্রে আগে কখনও করি নি। সেটা হচ্ছে এই পোস্টটাকে অন্তত কয়েকদিনের জন্য স্টিকি করা হোক। এমন দাবী করাটা আমার উচিৎ হচ্ছে না বুঝতে পারছি। কিন্তু যেহেতু ইষ্টিশনের শুরু থেকেই সাথে আছি তাই এইটুকু দাবী করার অধিকার মনে হয় আমি রাখি। আমার এই দাবীর জন্য ইষ্টিশনের যাত্রীরা যদি বিরক্ত হয়ে থাকেন তবে আগেই তাঁদের কাছে ক্ষমা চেয়ে নিচ্ছি।

৯ thoughts on “মায়ের জন্য ভালোবাসা; মায়ের জন্য কান্না

  1. আপনাকে ধন্যবাদ ।হয়তো আমাদের
    আপনাকে ধন্যবাদ ।হয়তো আমাদের সকলের কিঞ্চিত প্রচেষ্টায় বেচে যেতে পারেন একজন মা ।

    একজন মায়ের আর্থিক অসহায়ত্বের বিবেচনায় পোস্টটি কিছুদিনের জন্য স্টিকিতে রাখার অনুরোধ করলাম ।

  2. উনার সুস্থতা কামনা করছি এবং
    উনার সুস্থতা কামনা করছি এবং আমি আমার যথাসাধ্য চেস্টা করবো পরিবারটির জন্য কিছু করার।এবং সেই সাথে ইস্টিশনের সকল ব্লগারদের কাছে অনুরোধ করবো পোস্টটি শেয়ার করে এই মানবিক আবেদনটি সবার কাছে পৌছে দেবার।

  3. যে যার সাধ্যমতো আসুন এগিয়ে
    যে যার সাধ্যমতো আসুন এগিয়ে আসি। আমরা ১০০০ জন ১০০ টাকা করে দিলেও কিন্তু ১ লাখ হয়ে যায়। শুধু আলস্য কাটিয়ে বিকাশ করতে হবে। আর পোস্টটি সবাই শেয়ার করে ছড়িয়ে দিন। এটাও অনেক বড় হেল্প। জাস্ট ওই অ্যান্টির জায়গায় আমার/আপনার মায়ের মুখ চিন্তা করুন।

  4. শঙ্খচিলের ডানা ভাই, আর একটা
    শঙ্খচিলের ডানা ভাই, আর একটা কথা বলি। শান্তা যেহেতু ফার্মেসীর স্টুডেন্ট। আমার ধারণা বিহস্ববিদ্যালয়ের ছাত্ররা মিলে যদি বড় কোন ফার্মা কোম্পানির কাছে এপ্রচ করা যায় তাহলে বড় আকারের একটা ডোনেশন পাওয়া সম্ভব। এটা এমন এক পরিস্থিতি যেখানে চক্ষু লজ্জা দেখিয়ে লাভ নেই।

  5. প্রথম প্যারা পড়ে মনে করেছিলাম
    প্রথম প্যারা পড়ে মনে করেছিলাম কোন বইয়ের রিভিও।
    সাধ্যমত চেষ্টা করবো সাহায্য করার।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *