হুমায়ুন আহমেদ ও আমার ব্যক্তিগত মতামত

গতকাল কথা সাহিত্যিক হুমায়ুন আহমেদের জন্মদিন ছিল। তার ব্যপারে কিছু লিখার প্রয়োজনিয়তা অনুভব করলাম, গত কালের টিভি চ্যানেল গুলোর নগ্ন বেহায়াপনা দেখে।

হুমায়ুন আহমেদের ব্যপারে আমার নিজস্ব কিছু দৃষ্টিভঙ্গী আছে। তবে একজন লেখক হুমায়ুন আহমেদের ব্যপারে আমার সবচেয়ে নেগেটিভ (পজেটিভও বলা যেতে পারে) মন্তব্য হলঃ একজন লেখক তার লেখাটাকেও যে পেশাহিসেবে গ্রহণ করতে পারে তা সম্ভবত হুমায়ুন আহমেদই দেখাতে সক্ষম হয়েছেন। লেখনীতে তার পেশাদারীত্ব দেখিয়ে।

এক জন লেখক আমাকে মজা করেই বলছিলেনঃ মাজেদ, লেখালেখীকেও পেশা হিসেবে নিতে পার। টাকা হয়ত কম উপার্জন হবে। কিন্তু মৃত্যুর পরও বেঁচে থাকতে পারবে।

গতকাল কথা সাহিত্যিক হুমায়ুন আহমেদের জন্মদিন ছিল। তার ব্যপারে কিছু লিখার প্রয়োজনিয়তা অনুভব করলাম, গত কালের টিভি চ্যানেল গুলোর নগ্ন বেহায়াপনা দেখে।

হুমায়ুন আহমেদের ব্যপারে আমার নিজস্ব কিছু দৃষ্টিভঙ্গী আছে। তবে একজন লেখক হুমায়ুন আহমেদের ব্যপারে আমার সবচেয়ে নেগেটিভ (পজেটিভও বলা যেতে পারে) মন্তব্য হলঃ একজন লেখক তার লেখাটাকেও যে পেশাহিসেবে গ্রহণ করতে পারে তা সম্ভবত হুমায়ুন আহমেদই দেখাতে সক্ষম হয়েছেন। লেখনীতে তার পেশাদারীত্ব দেখিয়ে।

এক জন লেখক আমাকে মজা করেই বলছিলেনঃ মাজেদ, লেখালেখীকেও পেশা হিসেবে নিতে পার। টাকা হয়ত কম উপার্জন হবে। কিন্তু মৃত্যুর পরও বেঁচে থাকতে পারবে।
তবে বাংলাদেশের মিডিয়া তাকে নিয়ে যে ধরনের কার্যকলাপ করছে তাকে টাকা উপর্জনের মাধ্যম ছাড়া আর কিছু বলা যাবে না। কেউ হিমু দিবস, কেউ মিসির আলি দিবস বা শুভ্র দিবস পালন করবে তা অত্যন্ত বাড়াবারি। হুমায়ুন আহমেদের যত উপন্যাস আছে এর মধ্যে যদি অন্তত ৫০টা উপন্যাস টিকে যায়! আর তার নাটক গুলো আমার মনেহয় কখনই হারিয়ে যাবে না।
তিনি অন্তত কিছু চরিত্র তৈরি করতে সক্ষম হয়েছেন যা বাংলা সাহিত্যে অমিত-লাবন্যের মতই জনপ্রিয়। অথবা তার নাটকে বাকের ভাইয়ের মত চরিত্র তৈরি করতে পেরেছেন যা দেশের মানুষের ভালবাসায় সিক্ত। এর আগে বাকের ভাই চরিত্র যদি কেউ তৈরি করে থাকেন তাহলে তা আমার মতে মধুসুদন ই তৈরি করেছিলেন। যা পাঠকের হৃদয়ে ঢুকাতে পেরেছে। আমি প্রায়ই বলে থাকি, লেখক তার লেখায় পাঠককে হাসায় আবার ইচ্ছাহলেই কাঁদায়। এর আগে নজরুলের কলমে তরবারীর ধার দেখেছি যা শাসকের শোষণের বিরোদ্ধে আন্দোলনের সূচনা ঘটাতে পেরেছে। কিন্তু একজন লেখক তার বিরুদ্ধেই একদল পাঠককে আন্দোলনে নামাতে পারে তা বাংলাসাহিত্যে আর অন্যটি দেখি নাই। পাশ্চাত্যে আছে কিনা তা জানি না। এই বাকের ভাইয়ের মধ্যেই হয়ত হুমায়ুন আহমেদ অমর হয়ে থাকবেন।
আবার একটা নাটকে ঘোড়ায় চড়ে ভিক্ষাবৃত্তি করার মত কমেডি চরিত্রও দেখেছি। ঐ চরিত্রে ধর্মীয় কুসংস্কারের বিরোদ্ধে একটা নিরব আন্দোলন ছিল বলেই আমার মনে হয়েছে। সময় পেলে আমি তাঁকে ঐ চরিত্রের ব্যপারেই প্রশ্নকরতাম।

আসলে আমার কাছে উপন্যাসিক হুমায়ুন আহমেদের চেয়ে নাট্যকার হুমায়ুন আহমেদ অনেক প্রিয়।

তার গানগুলোও হয়ত ক্লাসিকের মর্যাদা পাবে।
রবীন্দ্র বা নজরুল সঙ্গীতের মত ভিন্ন কোন ধারা হয়ত তার গানে নেই। কিন্তু তার গানের মধ্যে কেমন যেন একটা আবেগ আর আবেদন আছে। যা রবীন্দ্র সঙ্গীতেও পেয়েছি। তিনি যে গানকে কতটা ভালবেসেছেন আর তার গান গুলো কতটা আবেগ দিয়ে তিনি সৃষ্টি করেছেন তা জানতে পেরেছি যখন শুনেছি তার মৃত্যু শয্যায় গান শুনে শুনে কেঁদেছেন।
এক জন মানুষ তার প্রতিটি কর্মের মধ্যেইযে বেঁচেথাকবেন তা তো নয়। হাজার হাজার কর্মের মধ্যে হয়ত একটা এম কিছু করে ফেলবেন যেটার মধ্যেই সে অমরত্ব লাভ করতে পারে। আর হুমায়ুন আহমেদের সৃষ্টিতে এম কিছু ছিল যা তাকে বাঁচিয়ে রাখবে।

৮ thoughts on “হুমায়ুন আহমেদ ও আমার ব্যক্তিগত মতামত

    1. হ্যাঁ ব্যবসা তো আছেই; কিন্তু
      হ্যাঁ ব্যবসা তো আছেই; কিন্তু রাহাত ভাই, শুধু হুমায়ুনে শুধু যদি ব্যবসাই দেখতে পান তাহলে বলব আপনি হয়তো হুমায়ুনের ব্যাপারটা ধরতে পারেননি।

    2. পাঠকের রুচি ঠিক করে দেওয়ার
      পাঠকের রুচি ঠিক করে দেওয়ার ব্যাপারটা আমার বিশ্রী লাগে। আমি যেই ধরনের সাহিত্য পছন্দ করবো, সেটাই যে রহিমকেও পছন্দ করতে হবে এমন কেন?

  1. কিন্তু একজন লেখক তার

    কিন্তু একজন লেখক তার বিরুদ্ধেই একদল পাঠককে আন্দোলনে নামাতে পারে তা বাংলাসাহিত্যে আর অন্যটি দেখি নাই। পাশ্চাত্যে আছে কিনা তা জানি না। এই বাকের ভাইয়ের মধ্যেই হয়ত হুমায়ুন আহমেদ অমর হয়ে থাকবেন।

    এই পয়েন্টটা দারুন ধরেছেন। আপনি নিয়মিত এখানে লেখেন না ক্যান? ভালো লাগত নিয়মিত হলে।

    1. ধন্যবাদ, ডাঃ আতিক ভাই। আমি
      ধন্যবাদ, ডাঃ আতিক ভাই। আমি একজন বিজ্ঞানের ছাত্র। আমার লেখা গুলো বেশির ভাগ ক্ষেত্রেই অন্য কোথাও ছাপা হয়ে যায়। তবে যখন লেখতে আসি দেখা যায় একই সাথে একাধিক লেখা তৈরি হয়েগেছে। ফলে একটা পোষ্ট করলেও অন্যটা আর পোষ্ট করা হয়ে উঠে না। বিজ্ঞানের ছাত্র হওয়ায় লেখা গুলোও বিজ্ঞান বা ঐ ধরণের দৃষ্টিকোণ থেকেই লেখা হয়।

  2. বিখ্যাত লোকদের সমালোচনা করলে
    বিখ্যাত লোকদের সমালোচনা করলে ইজ্জত বাড়ে তাই সমালোচনা করে যাই।একই কাজ ইংলেন্ডের সমালোচকরাও শেক্সপিয়ারকে নিয়ে করেছিল।উনারা বলতো,শেক্সপিয়ারেরতো সাহিত্য জ্ঞ্যানই নাই।সব আজেবাজে জিনিস লেখে।উপরন্তু তার আবার বানানে ভুরি ভুরি ভুল।আজ একটু খেয়াল করেন,সেই সকল সমালোচকদের কিন্তু হাবল টেলিস্কোপ দিয়েও খুঁজে পাওয়া যায়না।অথচ শেক্সপিয়ার অমর হয়ে আছেন।

  3. আসলে আমার কাছে উপন্যাসিক

    আসলে আমার কাছে উপন্যাসিক হুমায়ুন আহমেদের চেয়ে নাট্যকার হুমায়ুন আহমেদ অনেক প্রিয়।

    ….আমারও

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *