বর্ষণে পিছুটান

সূর্য্যিমামা, ও সূর্য্যিমামা, বিশ্বাস করে আমায় তুমি বলো,
তোমার ওই ওতো আলো, কে আজ কেড়ে নিলো?
গাছের শাঁখায়, তরুলতায়, মাতাল আন্দোলন,
ফিসফিস বাতাসে, কিসের এই আলাপন?

লুকোচুরি?লুকোচুরি! জেনে গেছি সব,
ব্যাথানীল হৃদয়ের কান্নার রব।
প্রথম ফোঁটায় তার মৃদু শিহরন,
দুষ্টু মেঘ, এ তোমার কেমন আচরন?



সূর্য্যিমামা, ও সূর্য্যিমামা, বিশ্বাস করে আমায় তুমি বলো,
তোমার ওই ওতো আলো, কে আজ কেড়ে নিলো?
গাছের শাঁখায়, তরুলতায়, মাতাল আন্দোলন,
ফিসফিস বাতাসে, কিসের এই আলাপন?

লুকোচুরি?লুকোচুরি! জেনে গেছি সব,
ব্যাথানীল হৃদয়ের কান্নার রব।
প্রথম ফোঁটায় তার মৃদু শিহরন,
দুষ্টু মেঘ, এ তোমার কেমন আচরন?

সোঁদা-সোঁদা মাটি, বুনো পথে হাটি, যেতে হবে দূর,
হিয়া মাঝে, বড় বাজে, সেই চেনা সুর;
আধো-আধো সুখ, প্রাঞ্জল দুখ, বুকে রাখি ধরি,
নেই কাঁটাতার, সপ্নের ঘর, কোথা খুজে ফিরি?

বৃষ্টির জল, চোখ ছলছল, মিশ্রনখানি বেশ,
একে অপরের জন্যে তবুও,দুঃখ হয়না শেষ;
ওরে ও মন, পায়ে পড়ি তব, পারিনা সইতে এই ব্যাথা,
স্মৃতিগুলো মোর মুছে ফেলো নাকো, লঘু কোরে দাও তীব্রতা।

রাজপথ ঘুরে, নর্দমা খুড়ে, খুজি জীবনের মানে,
পাইলাম তারে ক্লিষ্ট শিশুর জীবনের আবেদনে;
জ্বলজ্বলে চোখ, ব্যাথা করে বুক, বলি কাছে আয় ভাই,
জীবন-লটারি হেরেছি আমিও, আজ আর গুমর নাই।

নব-জীবনের নব প্রভাতে,তোদের মাঝে ঠাঁই,
হাতে রেখে হাত, কল্পিত তাঁত, সপ্ন বুনে যাই;
ওহে জ্ঞানী, ঋষি-মুনি, লিখে যাও গাথা,
দেখেছো কি বালকের ঘুড়িছেঁড়া ব্যাথা?

সে কোন অব্যাক্ত ব্যাথা?বিষাদের ইতিকথা, বার্তা বেতার,
ওরা বলে, দুর ছাই! কেন করো নষ্ট? সময় অসার।

বেলা যে বড় বয়ে গেল, সময় কাল গিলে নিল,এখানেই থাক,
ভালো থেকো বুড়াবুড়ি, ভালো থেকো কাক,
ভালো থেকো চেনা দুটো বিড়াল শাবক;
আর?ভালো থাক ভিখারির জীবনের ছক।

৬ thoughts on “বর্ষণে পিছুটান

  1. নব-জীবনের নব প্রভাতে,তোদের

    নব-জীবনের নব প্রভাতে,তোদের মাঝে ঠাঁই,
    হাতে রেখে হাত, কল্পিত তাঁত, সপ্ন বুনে যাই;
    ওহে জ্ঞানী, ঋষি-মুনি, লিখে যাও গাথা,
    দেখেছো কি বালকের ঘুড়িছেঁড়া ব্যাথা?

    চমৎকার। :থাম্বসআপ: :থাম্বসআপ: :থাম্বসআপ:

  2. আপনি প্রচুর লিখেন।কিন্তু ভালো
    আপনি প্রচুর লিখেন।কিন্তু ভালো লিখেন।যারা প্রচুর লিখে তারা সাধারনত ভালো লিখতে পারেনা।কিন্তু আপনি পারছেন।
    জগত বড়ই রহস্যময়।

    1. রহস্যের অবসান ঘটিয়ে দিই, কি
      রহস্যের অবসান ঘটিয়ে দিই, কি বলেন, রাজু ভাই :শয়তান:
      আমি এখন পর্যন্ত আমার ইদানিংকার নতুন লেখা দিইনি; এগুলো সব আগের লেখা।
      আর ভার্সিটি ছুটি, হাতে তাই নিরবিচ্ছিন্ন অবসর। :খুশি:
      শুভ কামনা রইল। :ফুল: :গোলাপ:

  3. আগের লেখা!বলেন কি!
    কিন্ত

    আগের লেখা!বলেন কি!
    কিন্ত নিঃসন্দেহে ভালো হয় কবিতাগুলো।
    এখন পর্যন্ত ইস্টিশনে আপনি আর কঙ্কাবতী তিতলিকে দেখেছি যারা ছাইপাশ দিয়ে ভরে রাখেনা।
    কবিতা কবিতাই হয়ে উঠে।লিখে যান ভাই।তবে আপনার নাম জানা হয়নাই।

  4. অসংখ্য ধন্যবাদ, রাজু ভাই।
    অসংখ্য ধন্যবাদ, রাজু ভাই। :ধইন্যাপাতা: :ধইন্যাপাতা:
    আর নালায়ের নাম “রাতুল ইসলাম”
    শুভ কামনা রইল। :ফুল:

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *