তোমাদের চুলাচুলি বনাম আমাদের স্বপ্ন

একজন বৃদ্ধ বাবা দৌড়ে যাচ্ছেন তার ছেলে অথবা মেয়ের হাত ধরে, শত শত মানুষের মধ্য দিয়ে। বাবার চোখে আগুন, ছেলের চোখে পানি, ভয়। মায়েরা কাঁদছেন তার ছেলে অথবা মেয়ের সাথে সাথে, আর দৌড়ে যাচ্ছেন পরীক্ষা কেন্দ্রের দিকে। সকাল দশটায় পরীক্ষা শুরু হয়েছে, অথচ তারা যথাসময়ে পরীক্ষা কেন্দ্রে পৌছাতে পারেনি। যদিও বিশেষ বিবেচনায় বিশ্ববিদ্যালয় কতৃপক্ষ ১ ঘন্টা ১৫ মিনিট পর পর্যন্ত পরীক্ষা কেন্দ্রে প্রবেশ করতে দিয়েছে।


একজন বৃদ্ধ বাবা দৌড়ে যাচ্ছেন তার ছেলে অথবা মেয়ের হাত ধরে, শত শত মানুষের মধ্য দিয়ে। বাবার চোখে আগুন, ছেলের চোখে পানি, ভয়। মায়েরা কাঁদছেন তার ছেলে অথবা মেয়ের সাথে সাথে, আর দৌড়ে যাচ্ছেন পরীক্ষা কেন্দ্রের দিকে। সকাল দশটায় পরীক্ষা শুরু হয়েছে, অথচ তারা যথাসময়ে পরীক্ষা কেন্দ্রে পৌছাতে পারেনি। যদিও বিশেষ বিবেচনায় বিশ্ববিদ্যালয় কতৃপক্ষ ১ ঘন্টা ১৫ মিনিট পর পর্যন্ত পরীক্ষা কেন্দ্রে প্রবেশ করতে দিয়েছে।

পূর্ব নির্ধারিত সময় অনুযায়ী, চট্টগ্রাম প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় (চুয়েট) এর এবছরের ভর্তি পরীক্ষা ০৯/১১/২০১৩ইং, শনিবারে অনুষ্ঠিত হয়। দেশের সামগ্রিক অবস্থা বিবেচনা করেই, ছুটির দিন শুক্রবারের পরের দিন পরীক্ষার তারিখ নির্ধারন করে কতৃপক্ষ। কিন্তু ঢাকা- চট্টগ্রাম মহাসড়কের সীতাকুণ্ডে হাজার হাজার পরীক্ষার্থী আটকা পড়ে থাকে আট থেকে নয় ঘন্টা। বিএনপির’ র শীর্ষ নেতাদের আটকের পর শুক্রবার রাতে ঢাকা- চট্টগ্রাম মহাসড়কে দলীয় কর্মীদের সড়ক অবরোধ ও ভাংচুরের কারনে তীব্র যানজটের সৃষ্টি হয়।

প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়গুলোতে একজন পরীক্ষার্থী একবার মাত্র পরীক্ষা দিতে পারে। সারা বছর অক্লান্ত পরিশ্রম করে যে ছেলে অথবা মেয়ে প্রকৌশলী হবার স্বপ্ন নিয়ে ঘর থেকে বের হয়, তাকে পরীক্ষা কেন্দ্রে পৌছাতে দেয়নি বিরোধীদল, আর তাকে পৌছে দিতে পারেনি আমাদের সরকার।

আমরা এইসব চাই না। আর হরতাল চাই না। আমরা পড়াশুনা করেছি, পরীক্ষা দিতে চাই। আমরা ধ্বংস দেখতে চাই না। আমরা চাই আলোচনা হোক, সমাধান হোক সবকিছু।

তবে, এটা কি অরন্যে রোদন? হতেই পারে। কারন, প্রধান দুই নেত্রীর ফোনালাপ আমরা শুনেছি।

১২ thoughts on “তোমাদের চুলাচুলি বনাম আমাদের স্বপ্ন

  1. হানজালা ভাই, আজ ছেলেমেয়ে
    হানজালা ভাই, আজ ছেলেমেয়ে গুলোর চেহারা দেখে নিজেরই অনেক কষ্ট হচ্ছিল;
    স্বপ্নভাঙার ব্যাথা লেগে ছিল সবার চোখে।
    লেখার জন্য ধন্যবাদ। :ধইন্যাপাতা: :থাম্বসআপ:
    ~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~

  2. বাকরুদ্ধ হয়ে শুধু তাকিয়ে থাকি
    বাকরুদ্ধ হয়ে শুধু তাকিয়ে থাকি এই ছেলেমেয়েগুলোর দিকে… কি অপরাধ তাদের… কেন তারা শিক্ষা অর্জন করতে এসে বোমা খেয়ে ছিন্নভিন্ন হয়ে পড়ে থাকবে দূষিত ও পচাগলা এই রাজনীতির উঠানে :মাথাঠুকি: … এটা কোন নিয়ম :মানেকি: … তাদের এই স্বপ্নভঙ্গের দায় নেবে কে? :এখানেআয়: ক্ষতিপূরন হবে কিভাবে? :এখানেআয়:

    হানজালা, আপনাকে ধন্যবাদ এই বিষয়টা তুলে আনার জন্য। প্রাসঙ্গিক আরও কিছু কথা তুলে আনতে পারতেন এই লেখাটায়। তারপরও চমৎকার লিখেছেন। ভালো থাকবেন। ধন্যবাদ… :ধইন্যাপাতা: :ধইন্যাপাতা: :গোলাপ:

  3. এসব কে দেখবে? যারা দেখার ছিল
    এসব কে দেখবে? যারা দেখার ছিল তারা তো ক্ষমতার মোহে বধির ও অন্ধ হয়ে গেছে ।
    ধিক শালার পুতদের ।ধিক ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *