অদ্ভুত জীবন

রাস্তায় রাস্তায় মানুষ।
কত যে মানুষ।

এক একটা করে খুটি পোঁতা,
এক একটা করে কবর খোড়া।
এক একটা করে চিতা তৈরি,
এক এক পা করে সবাই চলছি।



রাস্তায় রাস্তায় মানুষ।
কত যে মানুষ।

এক একটা করে খুটি পোঁতা,
এক একটা করে কবর খোড়া।
এক একটা করে চিতা তৈরি,
এক এক পা করে সবাই চলছি।

চলছি, হাঁটছি, ভাবছি, করছি, হাসছি, কাঁদছি।
হয়তো বা খুজছি।

অর্থ খুজছি অর্থহীনের মধ্যে।

অদ্ভুত।

রাস্তায় কত যে মানুষ;
তারা জগতের সাথে, মধ্যে থেকে ঘুরছে।
তারা কাপুরুষ, সপুরুষ, মহাপুরুষ।

এ চোখ দুটো দেখতে পায় সব।
সবকিছু তাই ফুটে ওঠে খুব।

অদ্ভুত কিছু জিনিসগুলো কেমন অস্পষ্ট, তবু কেমন স্পষ্ট।

কত অদ্ভুত এ সব কিছু!
একজনের কাছে যা ঠিক, অপরের কাছে তা বেঠিক।

একজনের চোখে অপর একজন চরিত্রহীন।
আরেকজনের চোখে সেই একই জন, মহান এক বীর।

আসলে সব মানুষেরই যে দুটো চোখ।
এক জোড়া চোখ যা দেখে, অপর এক জোড়া তা দেখে না।

কোটি কোটি জোড়া চোখ।
তারা একে অপরের দিকে মেলা।
তাদের ভিতরে কত প্রশ্ন আর ভাবনা।

এতসব চিন্তা ভাবনা মিলমিশ খেয়ে যায় যখন,
তখন বদলে যায় অনেক কিছু অনেক রকম।
কেউ আসলে জানে না, কি হবে কখন কেমন।
সবাই শুধু জানে…

এক একটা করে খুটি পোঁতা,
এক একটা করে কবর খোড়া।
এক একটা করে চিতা তৈরি,
এক এক পা করে সবাই চলছি।

শেষ পর্যন্ত এ অদ্ভুত জীবন,
করতেই হবে যাপন।

৪ thoughts on “অদ্ভুত জীবন

  1. “রাস্তায় কত যে মানুষ;
    তারা

    “রাস্তায় কত যে মানুষ;
    তারা জগতের সাথে,
    মধ্যে থেকে ঘুরছে।
    তারা কাপুরুষ, সপুরুষ, মহাপুরুষ।”

    বেশ!!! :থাম্বসআপ:

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *