হেই ডুড, ওয়েক আপ…!!!

হুম, মেনে নিলাম তোমার বাবার টাকা পয়সা আছে। তুমি ১৫/২০ লাখ টাকা ঢেলে নামী-দামী কোন একটা বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয় থেকে পাস করেছ। মেনে নিলাম তুমি একজন ইঞ্জিনিয়ার, ডাক্তার কিংবা বিবিএ হোল্ডার। এটাও মেনে নিলাম, ইউ গট স্কিল।

কিন্তু তুমি যখন ১০/১২ হাজার টাকা বেতনে বিনা বাক্যে রাজী হয়ে যাচ্ছ তখন আর মেনে নিতে পারলাম না।

তোমার কাছে হয়ত চাকুরীটা কেবল দেয়ার মত একটা পরিচয় কিংবা ভিজিটিং কার্ডে লিখে ফেলা একটা অজুহাতের নাম। কিন্তু কারো কাছে এটা দেড় যুগ ধরে দেখে আসা স্বপ্ন, প্রিয়জনদের তাকিয়ে থাকা কয়েক ডজন চোখ।


হুম, মেনে নিলাম তোমার বাবার টাকা পয়সা আছে। তুমি ১৫/২০ লাখ টাকা ঢেলে নামী-দামী কোন একটা বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয় থেকে পাস করেছ। মেনে নিলাম তুমি একজন ইঞ্জিনিয়ার, ডাক্তার কিংবা বিবিএ হোল্ডার। এটাও মেনে নিলাম, ইউ গট স্কিল।

কিন্তু তুমি যখন ১০/১২ হাজার টাকা বেতনে বিনা বাক্যে রাজী হয়ে যাচ্ছ তখন আর মেনে নিতে পারলাম না।

তোমার কাছে হয়ত চাকুরীটা কেবল দেয়ার মত একটা পরিচয় কিংবা ভিজিটিং কার্ডে লিখে ফেলা একটা অজুহাতের নাম। কিন্তু কারো কাছে এটা দেড় যুগ ধরে দেখে আসা স্বপ্ন, প্রিয়জনদের তাকিয়ে থাকা কয়েক ডজন চোখ।

আজ যখন তুমি স্যুট-টাই পড়ে বাবার টাকায় কেনা ৩০/৪০ লাখ দামের গাড়ি হাঁকিয়ে অফিসে আস, যখন মাসের এক তারিখে পাতলা ফিনফিনে অপুষ্টিতে ভোগা স্যালারীর খামটা ড্র কর (তোমার এক মাসের সিগারেট খরচের থেকেও কম), তোমার পাশের ডেস্কের সহকর্মীটি হয়ত তখন অবাক চোখে তাকিয়ে থাকে তোমার দিকে। অনিদ্রায় কালো হওয়া যে চোখ জোড়া থেকে আজকাল স্বপ্ন মুছে গেছে…

আচ্ছা, কোন বিকেলে একবারও কি ভেবে দেখেছ, যেই প্রতিষ্ঠানটা তোমাকে দিয়ে লাখ লাখ টাকা ব্যাবসা করে যাচ্ছে তার কাছ থেকে একটা সম্মানজনক বেতন আশা করা অন্যায় কিছু নয়? লোকাল বাসে ঝুলে মেসে ফেরা সহকর্মীটির দীর্ঘশ্বাসে যখন তোমার গাড়ীর উইন্ডশিল্ড ঝাপসা হয়ে যায়, তখন একবারও কি ভেবেছ কিভাবে মানুষটা এত অল্প টাকায় গোটা মাস চালিয়ে আবার বাড়ীতেও টাকা পাঠায়?

জানি, এসবে তোমার কিছু যায় আসে না। অহেতুক ভাবনা চিন্তার সময় কই? তুমি হয়ত তখন নির্জন রাস্তা খুঁজে বেড়াবে, পাসে বসা গার্লফ্রেন্ডের ঠোঁটে চুমু খাবার জন্য…

তোমাকে দোষ দেব না। গালিও দেব না। শুধু একটা কথাই বলব…
“হেই ডুড, ওয়েক আপ…!!!”

৩ thoughts on “হেই ডুড, ওয়েক আপ…!!!

  1. যাক আবার নিয়মিত হচ্ছেন তাহলে?
    যাক আবার নিয়মিত হচ্ছেন তাহলে? আপনার লেখা পড়ে বেশ মজা পেয়েছি। সেই সাথে আপনার ম্যাসেজটাও খুব ভালো লেগেছে। খুব বিব্রতকর (!!!) একটা বিষয় খুব সহজে তুলে ধরেছেন। বাংলার Dudeগনের বিবেক জাগ্রত হোক, এই কামনা করি। আর আপনার জন্য শুভেচ্ছা। :ফুল:

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *