ফিরে আসা অথবা ফিরে যাওয়া

জীবন পথে চলার, এক অচেনা পথিক আমি
মাঝে মাঝে পিছনে ফেলে আসা পথে ফিরে তাকাই
আবার হাটি হাটি পা পা করে অনেক দূর চলে যাই।

একটা সময় বিশাল জলরাশি সমূহ আমাকে টানত
সমুদ্র, নদী অথবা কোন ঝর্ণার কাছে যেতে খুব ইচ্ছে হত
মন চাইত সাগরের বিশাল ঢেউ গুনতে,নদীর টলমল শব্দ শুনতে
অথবা কখনো ইচ্ছে হত,কোন পাহাড়ি ঝর্নার বয়ে চলা দেখতে।



জীবন পথে চলার, এক অচেনা পথিক আমি
মাঝে মাঝে পিছনে ফেলে আসা পথে ফিরে তাকাই
আবার হাটি হাটি পা পা করে অনেক দূর চলে যাই।

একটা সময় বিশাল জলরাশি সমূহ আমাকে টানত
সমুদ্র, নদী অথবা কোন ঝর্ণার কাছে যেতে খুব ইচ্ছে হত
মন চাইত সাগরের বিশাল ঢেউ গুনতে,নদীর টলমল শব্দ শুনতে
অথবা কখনো ইচ্ছে হত,কোন পাহাড়ি ঝর্নার বয়ে চলা দেখতে।

তারপর সাগর-নদীর প্রতি আকর্ষণ আচমকাই উবে গেল
বরং পাহাড়ের কাছে যাবার প্রচণ্ড ইচ্ছে জাগলো
যেখান থেকে চাইলেই সাদা মেঘগুলোকে হাত বাড়ালেই ছোঁয়া যাবে
অথবা তার বদলেও, যাওয়া যায় শান্ত কোন নিবিড় বনে
যেখানে হঠাৎ ঘন গাছের সারির ফাঁকে মাঝ রাত্রে
চাঁদটা নেমে আসে দৃষ্টি সীমানার খুব কাছে,একেবারে হাতের কাছে।

কিন্তু আবার সেই পুরনো স্থবিরতা আর বদ্ধতায় চলে এলাম
এত পথ ঘুরে সেখানেই ফিরলাম, ঠিক যেখানে আমি ছিলাম
চারপাশের সুবিশাল জগতটার আজ পুরোটাই ফাঁকা।
আমার গড়া অনেক সাধের জগতটাতে আমি আজ একা,অনেক একা
আবার গভীর রাত পর্যন্ত সিলিঙের তারাদের দিকে তাকিয়ে জেগে থাকা
ইদানিং কিছুই ভালো লাগে না,জানি না সোনালি সে দিনগুলো ফিরবে কি না।

সময় কেন এতটা আঘাত হানে, কি দিয়ে বোঝাই ভেতরটাকে
নিষ্টুর বাস্তবতায় আজ বসে আছি অবহেলার নিস্তব্ধ এক ইষ্টিশনে
অচেনা অজানা এক ট্রেনের আশায় সময়ের কাছে হয়ে অসহায়
হয়তো কোথাও যাবো অথবা কারো ফিরে আসার মিছে অপেক্ষায়………

৭ thoughts on “ফিরে আসা অথবা ফিরে যাওয়া

  1. এটা নিশ্চয় কবিতা?এবং অবশ্যই
    এটা নিশ্চয় কবিতা?এবং অবশ্যই সুন্দর কবিতা। তাহলে বিভাগের নাম দিলেন না কেন?আপনি অনেক ভালি লিখেন।

    1. বিভাগের নাম দেয়ার কথা ভুলে
      বিভাগের নাম দেয়ার কথা ভুলে গিয়েছিলাম… এখন ঠিক করে দিয়েছি
      আর আপনাকে ধন্যবাদ বিষয়টা ধরিয়ে দেবার জন্য :খুশি:

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *