তেভাগা অন্দোলন খ্যাত বাংলার কৃষকের রাণী মা কমরেড ইলা মিত্রের জন্মদিনে শ্রদ্ধাঞ্জলি

আজ ১৮ অক্টোবর, বাংলার অবহেলিত সাঁওতাল কৃষকের রাণীমা, তেভাগা অন্দোলনের অন্যতম কিংবদন্তী ইতিহাস খ্যাত কমরেড ইলা মিত্রের ৮৮ তম জন্মদিন। ১৯২৫ সালের আজকের এই দিনে কোলকাতায় জন্মগ্রহণ করেন এই সংগ্রামী নারী। জন্মের পর তাঁর নাম রাখা হয় ইলা সেন। তাঁর বাবা নগেন্দ্রনাথ সেন ছিলেন ব্রিটিশ সরকারের অধীন বাংলার একাউন্টেন্ট জেনারেল। তাঁদের আদি নিবাস ছিল তৎকালীন যশোরের ঝিনাইদহের বাগুটিয়া গ্রামে।


আজ ১৮ অক্টোবর, বাংলার অবহেলিত সাঁওতাল কৃষকের রাণীমা, তেভাগা অন্দোলনের অন্যতম কিংবদন্তী ইতিহাস খ্যাত কমরেড ইলা মিত্রের ৮৮ তম জন্মদিন। ১৯২৫ সালের আজকের এই দিনে কোলকাতায় জন্মগ্রহণ করেন এই সংগ্রামী নারী। জন্মের পর তাঁর নাম রাখা হয় ইলা সেন। তাঁর বাবা নগেন্দ্রনাথ সেন ছিলেন ব্রিটিশ সরকারের অধীন বাংলার একাউন্টেন্ট জেনারেল। তাঁদের আদি নিবাস ছিল তৎকালীন যশোরের ঝিনাইদহের বাগুটিয়া গ্রামে।

বাবার চাকুরীর সুবাদে তাঁরা কলকাতায় থাকতেন। এ শহরেই তিনি বেড়ে ওঠেন, লেখাপড়া করেন কলকাতার বেথুন স্কুল ও কলেজে। পরে কলকাতা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে বাংলা সাহিত্য ও সংস্কৃতি বিষয়ে এম এ ডিগ্রি লাভ করেন। কৈশোরে তিনি খেলাধুলায় তুখোড় ছিলেন। ১৯৩৫ থেকে ১৯৩৮ সাল পর্যন্ত তিনি ছিলেন রাজ্য জুনিয়র এথলেটিক চ্যাম্পিয়ন। সাঁতার, বাস্কেটবল ও ব্যাডমিন্টন খেলায়ও তিনি ছিলেন পারদর্শী। তিনিই প্রথম বাঙালি মেয়ে যিনি ১৯৪০ সালে জাপানে অনুষ্ঠিতব্য অলিম্পিকের জন্য নির্বাচিত হন। যুদ্ধের জন্য অলিম্পিক বাতিল হয়ে যাওয়ায় তার অংশগ্রহণ করা হয়নি। খেলাধুলা ছাড়াও গান, অভিনয়সহ বিভিন্ন সাংস্কৃতিক কর্মকাণ্ডেও তিনি ছিলেন সমান পারদর্শী।


(ছবি – স্বামীর সাথে কমরেড ইলা মিত্র)

ইলা সেন যখন বেথুন কলেজে বাংলা সাহিত্যে বি এ সম্মানের ছাত্রী তখন থেকেই রাজনীতির সাথে পরিচয়। নারী আন্দোলনের মধ্য দিয়ে তাঁর রাজনীতিতে প্রবেশ। সময়টা ছিল ১৯৪৩ সাল, ইলা সেন কলকাতা মহিলা সমিতির সদস্য হলেন। রাওবিল বা হিন্দু কোড বিল এর বিরুদ্ধে সে বছরই মহিলা সমিতি আন্দোলন শুরু করে। সমিতির একজন সক্রিয় সদস্য হিসেবে তিনি এই আন্দোলনে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করেন। এ সময় তিনি সনাতন পন্থীদের যুক্তির বিরুদ্ধে অবস্থান নিয়ে অনেক প্রচার আন্দোলনে অংশগ্রহণ করেন। নারী আন্দোলনের এই কাজ করতে করতে তিনি ভারতীয় কমিউনিস্ট পার্টির সদস্য পদ লাভ করেন।


(ছবি – ঢাকার হাসপালাতে সেবিকাদের সাথে অসুস্থ ইলা মিত্র)

সেই থেকে বাংলার শোষিত ও বঞ্চিত কৃষকের অধিকার আদায়ে স্বেচ্ছায় জীবনের সুখ স্বাচ্ছন্দ্য বিসর্জন দিয়ে জীবনের শেষ দিনটি পর্যন্ত সাধারণ মানুষের জন্য লড়ে যাওয়া আজীবন সংগ্রামী এই মহীয়সী নারীর জন্মদিনে গভীর শ্রদ্ধার সাথে স্মরণ করছি তাঁকে। লাল সালাম কমরেড ইলা মিত্র।

আজীবন সংগ্রামী এই মহীয়সী নারীকে কয়েক দিন আগেই ইষ্টিশন ব্লগেই একটা পোস্ট দিয়েছিলাম “বাংলার সাঁওতাল কৃষকের রাণীমা ইতিহাস খ্যাত কমরেড ইলা মিত্র” শিরোনামে। পড়ে দেখতে পারেন।

৬ thoughts on “তেভাগা অন্দোলন খ্যাত বাংলার কৃষকের রাণী মা কমরেড ইলা মিত্রের জন্মদিনে শ্রদ্ধাঞ্জলি

  1. কমরেড ইলামিত্রের প্রতি
    কমরেড ইলামিত্রের প্রতি শ্রদ্ধাঞ্জলী… :salute: :salute: :salute:
    আর বরাবরের মত উত্তর বাঙলা ভাইকে :ধইন্যাপাতা: :ধইন্যাপাতা: :ধইন্যাপাতা: :গোলাপ: :গোলাপ:

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *