ম্যাৎকার -২

ছাগপোনা-১। যুদ্ধাপরাধীদের রক্ষা নয় নিরপরাধ মানুষদের যুদ্ধাপরাধী সাজানোরই প্রতিবাদ করছে জামায়াত।

ছাগপোনা-২। বিক্ষোভ, আন্দোলন ও ত্যাগের মধ্য দিয়েই ইসলামী বিপ্লবের পথ সুগম করতে হবে। ধীরে ধীরে তৈরী করতে হবে খেলাফতের উপযুক্ত পরিবেশ। ইসলামী আন্দোলনের সৈনিকদেরকে এভাবেই তৈরী হতে হয়। এভাবেই তৈরী হয় ইসলামী হুকুমত কায়েম করার মত যোগ্য প্লাটফর্ম।.
কবি কাজী নজরুল ইসলাম তাঁর কবিতায় বলেছিলেনঃ.
শেকল পরা চল মোদের এই শেকল পরা চল.
এই শেকল পরেই শেকল তোদের করব রে বিকল।.


ছাগপোনা-১। যুদ্ধাপরাধীদের রক্ষা নয় নিরপরাধ মানুষদের যুদ্ধাপরাধী সাজানোরই প্রতিবাদ করছে জামায়াত।

ছাগপোনা-২। বিক্ষোভ, আন্দোলন ও ত্যাগের মধ্য দিয়েই ইসলামী বিপ্লবের পথ সুগম করতে হবে। ধীরে ধীরে তৈরী করতে হবে খেলাফতের উপযুক্ত পরিবেশ। ইসলামী আন্দোলনের সৈনিকদেরকে এভাবেই তৈরী হতে হয়। এভাবেই তৈরী হয় ইসলামী হুকুমত কায়েম করার মত যোগ্য প্লাটফর্ম।.
কবি কাজী নজরুল ইসলাম তাঁর কবিতায় বলেছিলেনঃ.
শেকল পরা চল মোদের এই শেকল পরা চল.
এই শেকল পরেই শেকল তোদের করব রে বিকল।.

আমরাও এই নির্জাতন ভোগের মাধ্যমে ওদের ফ্যাসীবাদি সরকারকে উৎখাৎ করব ইনশাল্লাহ। একবার উৎখাত হলে দ্বিতীয় বার আর ক্ষমতায় আসার সাধ মিটে যাবে ওদের চিরতরে। ইনশাহ আল্লাহ।.

ছাগপোনা-৩। শাহবাগ নাটকের মূল উদ্দেশ্য: কুইক রেন্টাল কেলেঙ্কারী, পদ্মা সেতু কেলেঙ্কারী, রেল কেলেঙ্কারী, সোনালী ব্যাংক এ হরির লুট, হলমার্ক কেলেঙ্কারী, ডেসটিনী কেলেঙ্কারী, শেয়ার বাজার লুটপাট, বিডিআর হত্যাকাণ্ড, সারা দেশে গুম-খুন-ধর্ষণ-গণ ধর্ষণ, ছাত্রলীগের সন্ত্রাস-টেন্ডারবাজী-চাদাবাজী-হত্যা সহ নানাবিধ অপকর্ম থেকে জনগণের দৃষ্টি অন্যদিকে সরানোর মাধ্যমে আগামীতেও ক্ষমতায় আসা। কারণ যে দলের নেতা যুদ্ধের ডাক দিয়া পাবলিকরে বিপদে ফালাইয়া নিজে হানাদারগো দেশে দিন কাটাইছে, চিহ্নিত এবং অভিযুক্ত ১৯৫ জন পাকিস্তানী যুদ্ধাপরাধীকে দেশে যাইতে দিছে, এই দেশের সহযোগীদের জন্য ‘সাধারণ ক্ষমা’ ঘোষণা দিয়া সবার সাত খুন মাফ কইরা দিছে, তারা অন্তত আর যাই করুক, যুদ্ধাপরাধীগোর বিচার চায় না।তাগোর দরকার শুধু ক্ষমতা স্হায়ীকরণ। বেকুব বাঙালীরে আরো বেকুব বানাইতে পারাতেই বাকশালীদের সফলতা, লগে যোগ হইছে ছাগলের তিন নম্বর বাচ্চা যারা কিনা নিজেগোরে বুদ্ধিজীবী মনে করে।

খাঁটি ছাগূ -১। এই সাপই একদিন ওদের ছোবল দিবে, অপেক্ষায় আছি সেই দিনের ।

খাঁটি ছাগূ -২। ভাই, রাতের তোলা ছবিগুলাতে আলোর ঝলকানি দেখতাসি তবে মনে হয় মাইনষেরচে মোমবাতি একটু বেশি দিনের ছবি গুলাতে মানুষ গোনা যায়
সব-ই মিডিয়ার তেলেসমাতি কান্ড
যেমনেই হোক শিকারতো ধরা লাগব,সেটা শাহবাগ দিয়া হোক আর অন্য ছিপ দিয়াই হোক

খাঁটি ছাগূ -৩। এ সব শয়তানদের কাজ। জোর করে নিরপরাধের বিচার চাওয়া জুলুম। আল্লাহ নিশ্চয়ই এদেরকে দমন করবেন। আমিন!

খাঁটি ছাগূ ৪।আহারে বাংলার জনগন!!!!!এইভাবে যদি অন্যায়ের,দুর্নিতির বিরুদ্ধ্বে সবাই ঐক্যবদ্ধ হত তাহলে আজ দেশ অনেক দূর এগিয়ে যেতে পারত।
খাঁটি ছাগূ ৫।সাঈদী যদি এখন তাফসীর মাহফিল করে, তাহলে শাহবাগের চেয়ে ও বেশী সমাগম হবে। তাহলে এই জন সমাগম-জনমতের কোন ভ্যালু নেই? অথচ: অনেকে শাহবাগের জন সমাগম দেখে আবিভুত এবং আইন সংশোধন করা হবে বলতেছে। তাফসীর মাহফিলে শুধু ভোটারেরাই জমায়েত হয়, আর শাহবাগে এসেছে পুরা বাসার লোক।

ছাগী ১।খ্রীষ্টানরা কারো মৃত্যুতে শোক দিবস হিসেবে মোমবাতি ব্যবহার করে, হিন্দুরা দেওয়ালীতে আলোকসজ্জা করে। ভাষা আন্দোলনের মাসে শাহবাগের মেলা ভালই জমেছে, তবে শোকের , না উৎসবের, বুঝতে পারছিনা। অনেকেই কেনাকাটাও করতে যাচ্ছেন, কেউ কেউ যাচ্ছেন জনস্রোত দেখতে। আমার এক পরিচিতা গিয়েছিলেন তিন ডজন চুড়ি কিনতে, হাসবো , না কাঁদবো, তা-ও বুঝতে পারছিনা।

ছাগী ২।
শাহবাগে দেশপ্রেমের যে শিক্ষা দেয়া হচ্ছে। তার প্রভাব পরিবার গুলোতে পড়া শুরু হয়েছে। টিন এজারদের ভিতর এমন এক ধরনের ইমোশন তৈরি করা হয়েছে তারা এখন পিতামাতা কিংবা মুরুব্বিদের কোন কথাও শুনতে চাচ্ছেনা।

৩ thoughts on “ম্যাৎকার -২

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *