এ হিউজ ক্রাশ অন হারঃশ্রাবন্তি

ফিল্মি নায়িকাদের উপর সাধারণ মানুষের ক্রাশ খাওয়ার ব্যাপারটা ফিল্ম ইন্ডাস্ট্রির সাফল্যের শুরু থেকেই ছিলো।এক্ষেত্রে বলিউড সব থেকে অগ্রগামী।মধুবালার উপর তৎকালীন তরুণ সমাজের যে বিশাল ক্রাশ ছিলো তা এখনো শুনতে পাওয়া যায়।পরবর্তী সময় রেখা,মাধুরী দীক্ষিতের উপরও ক্রাশ খাওয়া লোকের অভাব ছিলো না কোনো।

বাংলা ছবিকে আজ সবাই ছিঃছিঃ করলেও বেশ সম্ দ্ধ ছিলো বাংলা ছবি।ববিতার নতুন কোন মুভি রিলিজ করলে তখনকার তরুণ হলবিমুখ করে রাখা রীতিমতো অসম্ভব ছিলো।পরবর্তী সময় মৌসুমীর উপর ক্রাশ খাওয়া তরুণের সংখ্যাও ছিলো চোখে পড়ার মতো।


ফিল্মি নায়িকাদের উপর সাধারণ মানুষের ক্রাশ খাওয়ার ব্যাপারটা ফিল্ম ইন্ডাস্ট্রির সাফল্যের শুরু থেকেই ছিলো।এক্ষেত্রে বলিউড সব থেকে অগ্রগামী।মধুবালার উপর তৎকালীন তরুণ সমাজের যে বিশাল ক্রাশ ছিলো তা এখনো শুনতে পাওয়া যায়।পরবর্তী সময় রেখা,মাধুরী দীক্ষিতের উপরও ক্রাশ খাওয়া লোকের অভাব ছিলো না কোনো।

বাংলা ছবিকে আজ সবাই ছিঃছিঃ করলেও বেশ সম্ দ্ধ ছিলো বাংলা ছবি।ববিতার নতুন কোন মুভি রিলিজ করলে তখনকার তরুণ হলবিমুখ করে রাখা রীতিমতো অসম্ভব ছিলো।পরবর্তী সময় মৌসুমীর উপর ক্রাশ খাওয়া তরুণের সংখ্যাও ছিলো চোখে পড়ার মতো।

একটা নির্দিষ্ট সময় পর্যন্ত এসব ব্যাপার স্যাপার আমার মাথায় ছিলো না।সিনেমা দেখবো সাথে নায়ক নায়িকা দেখবো।নির্দিষ্ট কোন নায়ক বা নায়িকাকে পছন্দ করা আবার কী?

তখন ক্লাস নাইনে পড়ি।আব্বার কড়া খবরদারিতে আমাদের বাসাতে ডিস ক্যাবলের সংযোগ নেয়া হয়নি তখনো।অনেক জোরাজুরির পর বাসাতে ক্যাবল লাইন নেয়া হলো।সবাই খুশি।
তো ডিস লাইন লাগানোর পর আমার কাজটা ছিলো কোচিং শেষ করে বাসায় এসে টিভি অন করেই নাশতা শেষ করা।যেহেতু সকাল সাতটা থেকে আমার কোচিং ছিলো তাই কোচিং থেকে ফিরে এসেই নাশতা করতাম।

নাশতা করার সময় টিভিতে কিছু চলুক আর না চলুক টিভি অন রাখতেই হবে।তো এমনি একদিন টিভি দেখছি।চ্যানেল ঘুরাতে ঘুরাতে হঠাৎ একটা চ্যানেলে চোখ আটকে যায়।বেশ সুন্দর একটা মেয়ে ইন্টারভিউ দিচ্ছে।ওর একটা মুভির শুট্যিং চলছিলো এই সম্পর্কে বিভিন্ন কথা।মেয়েটার নাম লেখা আছে দেখলাম শ্রাবন্তী।বেশ ভালো লাগলো মেয়েটাকে।

কিছুদিন পর একটা মুভি রিলিজ হলো নাম ভালবাসা ভালবাসা।নায়িকা শ্রাবন্তী।একদিন ভিডিও চ্যানেলে এই মুভিটা চলছিলো।দেখতে বসলাম।মুভি শেষ হতেই বুঝতে পারলাম হার্টে চিনচিন ব্যথা করতাছে।আমি এই মেয়ের প্রেমে পড়ে গেছি।

এসএসসি পরীক্ষার পর ফেসবুক একাউন্ট খুললাম।তখন নেটে যেখানেই শ্রাবন্তীর ছবি পেতাম তা কালেক্ট করে রাখতাম।বর্তমানে আমার সংগ্রহে শ্রাবন্তীর মোট ১২৩৭টা পিক আছে।

নায়িকাদের উপর কেমনে পোলাপানে ক্রাশ খায়,আগে বুঝতাম না আমি।এখন বুজছি,পোলাপানে কেমনে ক্রাশ খায়।

২১ thoughts on “এ হিউজ ক্রাশ অন হারঃশ্রাবন্তি

  1. বর্তমানে আমার সংগ্রহে
    বর্তমানে আমার সংগ্রহে শ্রাবন্তীর মোট ১২৩৭টা পিক আছে।

    :মাথানষ্ট: :মাথানষ্ট: :মাথানষ্ট:

    1. মাইরালা, এতো বড় ক্রাশ…
      মাইরালা, এতো বড় ক্রাশ… :খাইছে: :খাইছে: :মাথানষ্ট: :মাথানষ্ট: :মাথানষ্ট: :মাথানষ্ট: :ভেংচি: :বিষয়ডাকী: :চোখমারা: 😀

      1. আমি তো কলকাতার মুভি খুব কম
        আমি তো কলকাতার মুভি খুব কম দেখি, তাই চিনতে পারতেছি না॥ আপনার প্রোফাইল পিকে চেহারা স্পষ্ট বুঝা যাচ্ছে না॥

    1. ক্যারে ভাই, আপ্নের আবার মন
      ক্যারে ভাই, আপ্নের আবার মন ভাংল ক্যা :মাথাঠুকি: :মাথাঠুকি: … মাইরালা কেউ আম্রে, এইখানে চলতেছে টা কি?? :খাইছে: :খাইছে: :দেখুমনা: :ভেংচি: ওহে শ্রাবন্তী আফা, দেইখা যান এইখানে কি চলতেছে… :পার্টি: :পার্টি: :নৃত্য: 😀 😀

  2. আমার সর্বপ্রথম ক্রাশ হইলো এমা
    আমার সর্বপ্রথম ক্রাশ হইলো এমা ওয়াটসন। চরম ভালো লাগে এই মেয়েটারে। কিন্তু ভালো লাইগা আর কি হইবো? :মাথাঠুকি: :টাইমশ্যাষ: :আমারকুনোদোষনাই:

  3. প্রথমে তো বাংলাদেশী শ্রাবন্তী
    প্রথমে তো বাংলাদেশী শ্রাবন্তী ভাবসিলাম… তাঁর বর্তমান ছবি দেখলে…পরে বুঝলাম দাদার দেশের দিদি 🙂

  4. এনাকে নিয়ে এত কথা???
    এনাকে নিয়ে এত কথা???
    :ফুল: :ভালুবাশি: :ভালাপাইছি: :ভালাপাইছি: :ভালাপাইছি: :ভালাপাইছি: :গোলাপ: :ধইন্যাপাতা:

    1. দুই ছবিতে তো দুই মানুষ মনে
      দুই ছবিতে তো দুই মানুষ মনে হয়তেছে :খাইছে: :মাথানষ্ট: :ভাবতেছি: । যাইহোক ভাই ছবি দিয়েছেন না হলে তো চেনা মুশকিল হয়ে যেত। :-B

  5. আমিতো ভাই এই শ্রাবন্তির নাম
    আমিতো ভাই এই শ্রাবন্তির নাম আজকেই প্রথম শুনলাম …..হুম দিদির দেশের দাদারাই উনারে ভালো চিনবে

  6. যতটুকু জানি, এই শ্রাবন্তীর তো
    যতটুকু জানি, এই শ্রাবন্তীর তো একটা ছেলেও আছে … বিয়ে হয়েছে ক্লাস টেনে থাকতে!!!!!! :মাথানষ্ট: :মাথানষ্ট:
    আর নায়িকা পাইলেন না দাদা!!!! :খাইছে: :খাইছে:

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *