স্কিৎজোফ্রেনিয়া:একটি মানসিক ব্যাধি, প্র​য়োজন সচেতনতা ও সুস্থ মানসিকতা।

স্কিৎজোফ্রেনিয়া কি?
স্কিৎজোফ্রেনিয়া হল এমন একটি মানসিক ব্যাধি যার ফলে রোগী অবাস্তব জিনিস দেখতে থাকে যার কোন ভিত্তি নেই। এই রোগটি দীর্ঘস্থায়ী, গুরুতর এবং ক্ষেত্রবিশেষে রোগীকে শারীরিকভাবে দুর্বল করে ফেলে। স্কিৎজোফ্রেনিয়া রোগটিকে মানসিক রোগের ইতিহাসে সবচাইতে বিপজ্জনক রোগ হিসেবে ধরা হ​য়। ১৮৮৭ সালে ড. এমিলি সর্বপ্রথম এই রোগ অবস্থান নিশ্চিত করেন। তার গবেষনার ফলে ধরা যায় যে, মানবজাতির বুদ্ধিমত্তার বিকাশের সাথে আশ্চর্যজনকভাবে এই রোগ স্থান করে নিয়েছে।



স্কিৎজোফ্রেনিয়া কি?
স্কিৎজোফ্রেনিয়া হল এমন একটি মানসিক ব্যাধি যার ফলে রোগী অবাস্তব জিনিস দেখতে থাকে যার কোন ভিত্তি নেই। এই রোগটি দীর্ঘস্থায়ী, গুরুতর এবং ক্ষেত্রবিশেষে রোগীকে শারীরিকভাবে দুর্বল করে ফেলে। স্কিৎজোফ্রেনিয়া রোগটিকে মানসিক রোগের ইতিহাসে সবচাইতে বিপজ্জনক রোগ হিসেবে ধরা হ​য়। ১৮৮৭ সালে ড. এমিলি সর্বপ্রথম এই রোগ অবস্থান নিশ্চিত করেন। তার গবেষনার ফলে ধরা যায় যে, মানবজাতির বুদ্ধিমত্তার বিকাশের সাথে আশ্চর্যজনকভাবে এই রোগ স্থান করে নিয়েছে। বেশিদিন আগে আবিষ্কৃত না হলেও এই রোগটি সবচেয়ে পুরোনো রোগগুলোর একটি।বিভিন্ন পুরাতন নথিপত্র থেকে প্রাচীন মিশরে পর্যন্ত এই রোগের সন্ধান পাওয়া যায়। অবশ্য সেই সম​য়ে এই রোগটিকে শ​য়তান বা ভুতে পাওয়া হিসেবে আখ্যায়িত করা হত​। এই রোগের কারনেই ভুত প্রেত বিষ​য়ক কুসংস্কারগুলো উৎপন্ন হ​য়েছে বলে অনেক ইতিহাসবিদ মনে করেন। মানসিক চাপ, পরিবেশ, টেনশন, রাগ, দুর্ব্যবহার ইত্যাদি কারনে স্কিৎজোফ্রেনিয়া হতে পারে।

স্কিৎজোফ্রেনিয়ায় আক্রান্তের পরিমান:
গবেষনায় লক্ষ্য করা যায় যে, পুরুষেরা নারীদের থেকে দেড় গুন বেশি স্কিৎজোফ্রেনিয়ায় আক্রান্ত হ​য়। স্কিৎজোফ্রেনিয়ার রোগীদের চিন্তাধারা বা দেখার জগ​ৎ বাস্তব থেকে ভিন্ন হ​য়।এমনকি গবেষনায় দেখা গেছে যে, ছ​য় বছর ব​য়সের কম শিশুদের ও স্কিৎজোফ্রেনিয়ায় আক্রান্ত রোগী হিসেবে পাওয়া গেছে। দেখা যায় যে, তারা অদৃশ্য শব্দ শুনতে পাচ্ছে বা আস্ত মানুষ দেখতে পাচ্ছে যার আসলে অস্তিত্ব নেই। অনেকে দেখতে পায় যে তার হাতে কোন পোকা বা মাক​ড়সা বসে আছে, তাকে কাম​ড় দিচ্ছে, কিন্তু আসলে সেগুলোর ও অস্তিত্ব নেই।

স্কিৎফ্রেনিয়ায় আক্রান্ত কিনা তা নির্ন​য় করার লক্ষন হল​-
১.এমন জিনিসে বিশ্বাস যা বাস্তব না।
২.হ্যালুসিনেশান, অব্স্তব গন্ধ পাওয়া, উদ্ভট শব্দ শোনা, এমন সব খাবারের স্বাদ পাওয়া যা রোগী খাচ্ছে না।
৩.অসংলগ্ন কথাবার্তা।
৪.অসংলগ্ন আচরন।
৫.হঠাৎ রেগে শারীরিক বল প্র​য়োগ।

রোগীর অবস্থার বাহ্যিক উপসর্গ:
১.কথার সাথে মুখভঙ্গির মিল না থাকা। যেমন- মজার কথা শুনে দুঃখ পাওয়া বা কাঁদা।
২.কথার তাল ঠিক না থাকা।
৩.কোন কাজ করতে প্রেরনা না পাওয়া।

স্কিৎজোফ্রেনিয়া অনেক প্রকারের হতে পারে। সেগুলো হল​-
১. প্যারান​য়েড স্কিৎজোফ্রেনিয়া- অকারন বিভ্রম বা হ্যাল্যুসিনেশন এর ফলে ভ​য় পাওয়া।

২.ডিস​অর্গানাইজড স্কিৎজোফ্রেনিয়া-এর ফলে অসংলগ্ন কথাবার্তা, খাপছাড়া কথাবার্তা ইত্যাদি দেখা যায়।

৩.ক্যাটাটনিক স্কিৎজোফ্রেনিয়া-এর ফলে রোগীর পেশি চালনার ভঙ্গিটিও অস্বাভাবিক হ​য়, যেমন হাঠতে গিয়ে হঠাৎ থেমে যাওয়া, অকারনে মারামারি, অন্যরা যা বলছে তা বারবার বলতে থাকা ইত্যাদি।

৪.আনডিফারেনশিয়েটেড স্কিৎজোফ্রেনিয়া- এর ফলে রোগী অস্বাভাবিকভাবে নির্বিকার হ​য়ে যায় অর্থাৎ যেসব কথায় অন্যরা কোন আচরন প্রত্যাশা করে সেক্ষেত্রে হঠাৎ চুপ করে যাওয়া।

৫. অন্যান্য স্কিৎজোফ্রেনিয়া- যেমন বিভ্রম, প্যারান​য়া, সন্দেহপ্রবনতা, প্রচন্ড ভায়োলেন্ট হ​য়ে যাওয়া ইত্যাদি।

স্কিৎজোফ্রেনিয়ায় আক্রান্তদের ঔষধগুলো ক​ড়া ধাঁচের হ​য়ে থাকে। এর ফলে প্রায় ঘুম পাওয়া, মাথা ঘোরানো-এগুলো স্বাভাবিক। এন্টিসাইকোটিক এইসব ঔষধের ফলে রক্তে শর্করার মাত্রা বৃদ্ধি, বমি আরো ইত্যাদি পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া দেখা যেতে পারে। কিন্তু তা সত্ত্বেও স্কিৎজোফ্রেনিয়ার রোগীর জন্য এইসব ঔষধ ব্যবহার বজায় রাখা প্র​য়োজনীয়।

স্কিৎজোফ্রেনিয়া রোগীদের মৃত্যুহার স্বাভাবিকের চাইতে দ্বিগুন। অনেকে হতাশার ফলে মদ, গাঁজা বা ড্রাগ এডিক্টেড হ​য়ে যায়। পারিবারিক সহায়তার ফলে স্কিৎজোফ্রেনিয়াকরা অনেক সম​য় স্বাভাবিক জীবনযাপন করতে সক্ষম হ​য়ে উঠতে পারে। কিন্তু তার জন্য প্র​য়োজন সহায়তা আর ভাল ব্যবহার। পরিবার আর চারপাশের মানুষের সহায়তাই তাদেরকে সামাজিক করে তুলতে পারে। অসংলগ্ন আচরনকে অনেকে মনে করেন যে, রোগী ভান করছে। এরুপ মনোভাব রোগীর জন্য আরো ক্ষতিকর। তাই যেকোন সমস্যাকে হালকাভাবে না নেয়া সবার দায়িত্বে প​ড়ে।

( এই পোস্টে পুরোনো বইপত্র, বিভিন্ন ওয়েবসাইটের তথ্যের বিশ্লেষন, অনুবাদ দেয়া হ​য়েছে। তাই নির্দিষ্ট কোন লিঙ্ক দেয়া হল না।)

৫৫ thoughts on “স্কিৎজোফ্রেনিয়া:একটি মানসিক ব্যাধি, প্র​য়োজন সচেতনতা ও সুস্থ মানসিকতা।

  1. খুব পরিচিত কিন্তু কম জানা
    খুব পরিচিত কিন্তু কম জানা একটি মানসিক ব্যাধি সম্পর্কে অনেক তথ্য দিয়েছেন। ভালো লাগলো।

    1. শাহিন ভাইয়া………
      আপনার

      শাহিন ভাইয়া………
      আপনার টাইয়ের নট ব্যাকা হইয়া গেছে ভাইজান। প্রত্যেকদিন একটা টাই পইড়া আসেন কেন ব্লগে? আর কোন টাই নাই আপনার???? টাইয়ের উপর আপনার ছাগলা দাঁড়িগুলা চুইট লাগে।

      1. এই অদ্ভুতুড়ে প্রাণীটা যে
        এই অদ্ভুতুড়ে প্রাণীটা যে আসলেও মানসিক রোগী, তার প্রমান কি চমৎকারভাবেই না দিল :মানেকি: :মানেকি: :মানেকি: … ওহে বৃত্তবন্দী চন্দ্র, উর্ফে টকশই কমেন্ট বিশেষজ্ঞ জনাব চন্দ্রবিন্দু, সমস্যা কি?? :ক্ষেপছি: আজাইরা এইরাম উল্টাপাল্টা কথা বলতেছেন ক্যান? :এখানেআয়: নাকি মানসিক রোগ সংক্রান্ত পোস্ট দেইখা আপ্নের মানসিক রোগ চাড়া দিয়ে উঠছে? এই ধরনের উদ্ভট মানুষের উস্কানির ব্যাপারে ইষ্টিশন মাস্টারের দৃষ্টি আকর্ষণ করতেছি… :জলদিকর: :অপেক্ষায়আছি:

        1. এই লোক শাহিন ভাইয়ের মতো
          :হাসি: :হাসি: :হাসি: :হাসি:
          এই লোক শাহিন ভাইয়ের মতো নির্বিবাদী মানুষের পেছনে লাগলো কেন বুঝতে পারলাম না।
          মাথার তার দিয়ে মনে হয় গিটার বাজানোর শখ হয়েছে! হা হা হা

          1. “মাথার তার দিয়ে মনে হয় গিটার

            “মাথার তার দিয়ে মনে হয় গিটার বাজানোর শখ হয়েছে!”

            — :থাম্বসআপ: :থাম্বসআপ: :bow: :bow: :হাহাপগে: :হাহাপগে: :হাহাপগে: :হাহাপগে: 😀 😀 :হাসি: :হাসি: এইটা লোক নাকি কোন মেকী সুস্থ মানুষের schizophrenic দ্বৈত সত্ত্বা?
            পিছনের লোকজন বা লোকই জানে!!

          2. মাথার তার দিয়ে মনে হয় গিটার

            মাথার তার দিয়ে মনে হয় গিটার বাজানোর শখ হয়েছে!

            :মাথানষ্ট: :ভেংচি: :হাসি: :হাসি: :হাহাপগে: :হাহাপগে: 😀 😀 :বুখেআয়বাবুল: :বুখেআয়বাবুল:

        1. এইগুলা পুরাই মানসিক রোগী
          এইগুলা পুরাই মানসিক রোগী :-B :এখানেআয়: … পাবনা পাঠানো দরকার :জলদিকর: … ইমিডিয়েট… :এখানেআয়: :এখানেআয়: :এখানেআয়:

      2. কিসের মাঝে কি? শাহীন ভাই গলায়
        কিসের মাঝে কি? শাহীন ভাই গলায় টাই পরবেন
        নাকি দড়ি পড়বেন সেটা উনার ব্যাপার।
        আপনি তো ভাই খাঁটি চন্দ্রবিন্দু;একা একা শব্দ গঠন
        করতে পারেনা। কারো না কারো মাথার উপর
        চড়ে বসতে হয়। আপনি কার মাথার উপর
        চড়ে বসে আছেন সেটা বুঝা যাইতেছে না।
        তবে কারো না কারো মাথার উপর
        যে চড়ে বসে আছেন সেটা এতক্ষনে ইস্টিশন
        মাস্টার নিশ্চয় লগ ইন আইপি দিয়ে বুঝে গেছেন!
        কি তাইতো মাস্টার সাব???

  2. আমি এ ব্যাধি সম্বন্ধে জ্ঞাত
    আমি এ ব্যাধি সম্বন্ধে জ্ঞাত ছিলাম না, আপনাকে ধন্যবাদ জানানোর জন্য……
    কিন্তু একটা খটকা লাগতেছে
    -এর সাথে মানুষের জ্বিন-ভূত দেখে বলে যে বিশ্বাস আছ সেটাও কি এই ব্যাধির লক্ষণ?

  3. বেশিরভাগ ক্ষেত্রে তাই ই। বহু
    বেশিরভাগ ক্ষেত্রে তাই ই। বহু ভুতে পাওয়া(!) রোগীর মন বিশ্লেষন করে সাইকিয়াট্রিস্টরা আবিষ্কার করেন যে আসলে তারা স্কিৎজোফ্রেনিয়াক।

  4. শব্দটা বোধ হয় সিজোফ্রেনিয়া
    শব্দটা বোধ হয় সিজোফ্রেনিয়া হিসেবে উচ্চারিত হয়। ইংরেজি বানান দেখে অনেকেই বিভ্রান্ত হয়।
    এই রোগ সম্পর্কে অনেকেই জানেন না। তাই অনেক রোগীকে ভুতে ধরার ওঝার কাছে নিয়ে আরও টর্চার করা হয়। সচেতন না হয়ে উপায় নাই। লেখার জন্য ধন্যবাদ।

    1. আমি অনেক আমেরিকানদের
      আমি অনেক আমেরিকানদের স্কিৎজোফ্রেনিয়া উচ্চারন করতে দেখেছি। সিজোফ্রেনিয়া ব্রিটিশ উচ্চারনভঙ্গি। ব্যাপারটা বানানগত ন​য়। ধন্যবাদ।

    2. আতিক ভাই চমৎকার একটা পয়েন্ট
      আতিক ভাই চমৎকার একটা পয়েন্ট তুলেছেন! অফিসে লিখটা দেখে এই কথাটাই মাথায় আসছিল, এখন দেখি রাইনই ঠিক!!
      উচ্চারন স্কিৎজোফ্রেনিয়া টাইপেরই হবে একটু পার্থক্য আছেঃ
      ইউটিউব এবং howjsay ডট কমে একই উচ্চারণ শুনাচ্ছে…
      তবে ঠিক স্কিৎজোফ্রেনিয়া নয় মনে হয় ‘স্কাৎজোফ্রেনিয়া’ বলছে…

  5. রাইন লিখটা আর তহ্যবহুল করতে
    রাইন লিখটা আর তহ্যবহুল করতে পারতেন… তবে এমন চমৎকার কিন্তু অপেক্ষাকৃত জটিল এবং দরকারি বিষয়টি নিয়ে লিখার জন্য :ধইন্যাপাতা: :ধইন্যাপাতা: :ধইন্যাপাতা: :ধইন্যাপাতা: :গোলাপ: :গোলাপ: :ফুল: :ফুল:
    যেমন- ‘স্কাৎজোফ্রেনিয়া’য় আক্রান্ত রোগীদের মস্তিষ্কের পরিবর্তনটা কেমনঃ

    অথবা, মস্তিষ্কের কোন ভাগে এর প্রভাব কেমন হয়?

    এদিকে সংজ্ঞাটাও আরও গুছানো হতে পারত;
    ‘স্কাৎজোফ্রেনিয়া’ এমন একটি মানসিক ব্যাধি যাতে আক্রান্ত ব্যক্তির চিন্তা শক্তির ব্যাপক ক্ষতিসাধন হয়ে থাকে এবং আক্রান্ত ব্যক্তি গতানুগতিক আবেগময় প্রবৃত্তিধারা অধিক মোহাচ্ছন্ন থাকে।’ এইটা আমি এখনই মন্তব্যের খাতিরে লিখলাম আরও চমৎকার এবং সর্বজন গ্রহনযোগ্য সংজ্ঞা নিশ্চয় পাওয়া যাবে, যেত!!

    যাহোক ব্যতিক্রমধর্মী এই পোস্টটির জন্য রাইন আপনাকে অফুরন্ত :ধইন্যাপাতা: :ধইন্যাপাতা:

    1. পোস্টটা আরও সমৃদ্ধ হইল…
      পোস্টটা আরও সমৃদ্ধ হইল… :তালিয়া: :তালিয়া: :তালিয়া: :তালিয়া: :তালিয়া: :থাম্বসআপ: :থাম্বসআপ: :গোলাপ: :গোলাপ: :বুখেআয়বাবুল:

    2. আপনারা থাকতে আমার আরো লিখতে
      আপনারা থাকতে আমার আরো লিখতে হবে কেন​!! এইযে দেখেন ছবি দিয়ে দিয়েছেন, কাব্যিক সংজ্ঞা দিয়েছেন। এইগুলা দেয়ার কথাই আমি ভাবিনাই। আমার উদ্দ্যেশ্য ছিল এই রোগটা সম্পর্কে সবাইকে যা হোক একটা পরিচ​য় করানোর। আপনারা আরো বেশি তথ্য নিয়ে এসেছেন সামনে তাই ধন্যবাদ। 😀 😀 😀 😀 আর অফুরন্ত ধইন্যাপাতার জন্য আরো ধন্যবাদ। ধইন্যাপাতার দাম বেশি, ফ্রি দেয়ায় আপনাকে মারহাবা…..

      1. পাগলামির আবার কাব্যিক
        পাগলামির আবার কাব্যিক সংজ্ঞা… :মাথাঠুকি: :মাথাঠুকি: :মাথাঠুকি: :মাথাঠুকি: :মাথানষ্ট: :মাথানষ্ট: :মাথানষ্ট: :মাথানষ্ট: :আমারকুনোদোষনাই: :আমারকুনোদোষনাই: :আমারকুনোদোষনাই: :আমারকুনোদোষনাই: :আমারকুনোদোষনাই:

        1. এই রোগটা কিন্তু পাগলামি না।
          এই রোগটা কিন্তু পাগলামি না। পাগলামি আর অসুস্থতার মাঝে পার্থক্য আছে। আশা করি আপনার মত বুদ্ধিমান মানুষ এই পার্থক্যটা বুঝবে।

          1. “Why so serious?”
            আমিতো

            “Why so serious?”
            আমিতো আপনার একটা কথার রেশ নিয়ে এমন ফান করলাম!!
            খেপলেন ক্যান! :মাথাঠুকি: :মাথাঠুকি: :মাথাঠুকি: :মাথাঠুকি: :ভাঙামন: :ভাঙামন: :ভাঙামন: :মনখারাপ: :মনখারাপ: :মনখারাপ:

    3. এভাবেই আমরা ইস্টিশনে এসে
      এভাবেই আমরা ইস্টিশনে এসে আড্ডা-তর্ক সমালোচনা-মন্তব্য করতে করতে একে অপরকে সমৃদ্ধ করি, নিজেও সমৃদ্ধ হই!
      তারিক ভাই, হৃদয়ের গভীর থেকে :ভালুবাশি: নেন…

      1. (No subject)
        :ধইন্যাপাতা: :ধইন্যাপাতা: :ধইন্যাপাতা: :গোলাপ: :গোলাপ: :গোলাপ: :গোলাপ: :বুখেআয়বাবুল: :বুখেআয়বাবুল: :বুখেআয়বাবুল: :বুখেআয়বাবুল: :নৃত্য: :নৃত্য: :নৃত্য: :নৃত্য: :থাম্বসআপ:

  6. চমৎকার বিষয়ের অবতারণা করেছেন।
    চমৎকার বিষয়ের অবতারণা করেছেন। বিস্তারিত কিছু লিখার ইচ্ছা ছিলো এই বিষয়ে। যাই হোক, আপনি সব কিছুই তুলে ধরেছেন প্রায়। আর তারিক ভাইও ভালো করেছেন কিছু বিষয় হাইলাইট করে।

  7. সুন্দর তথ্যবহুল পোস্ট ।
    সুন্দর তথ্যবহুল পোস্ট :থাম্বসআপ: :থাম্বসআপ: :থাম্বসআপ: । “A Beautiful Mind” মুভি টা দেখলে সিজোফ্রেনিয়া সমন্ধে আরও জানা যাবে। ডন ভাই কই দ্যা রিভিউ মাস্টার।

    1. আমার খেয়ালই ছিল না …
      আমার খেয়ালই ছিল না :মাথাঠুকি: :মাথাঠুকি: … কিরন ভাই অশেষ ধইন্না লন মনে করায়া দেয়ার লাইগা :ধইন্যাপাতা: :ধইন্যাপাতা: :গোলাপ: :গোলাপ: … যেমনেই হোক আগামী দুইদিনের মধ্যে মাস্টারপিস “A Beautiful Mind” এর উপর কিছু লিখার চেষ্টা করবো… :থাম্বসআপ: :থাম্বসআপ: :থাম্বসআপ: :থাম্বসআপ:

    1. আর আপনিও কিন্তু ম্যালা দিন পর
      আর আপনিও কিন্তু ম্যালা দিন পর ইস্টিশনে আইলেন! ঈদের সময় বলে টিকিট পেতে সমস্যা হচ্ছিলো বুঝি? তা আসলেন কিভাবে শেষ পর্যন্ত? স্ট্যান্ডিং টিকিট কেটে নাকি ট্রেনের ছাদে চড়ে???
      :হাসি: :হাসি: :হাসি:

      1. পরীক্ষা ছিল ভাই সেই দুঃখের
        পরীক্ষা ছিল ভাই সেই দুঃখের কথা কি বলব​……. :মাথাঠুকি: :আমারকুনোদোষনাই: :আমারকুনোদোষনাই: :চা:

  8. স্কিতজোফ্রেনিয়া বরাবরই আমার
    স্কিতজোফ্রেনিয়া বরাবরই আমার প্রিয় একটি বিষয়। এটা নিয়ে অনেক আর্টিকেল পড়েছি। প্রতিবারই নতুনভাবে ভালো লাগে। রহস্যময় ব্যাপারটা জানার আরও আগ্রহ তৈরী হয়।
    আপনার লেখাটাও ভালো লাগলো। অল্প কথায় প্রধান দিকগুলো তুলে ধরেছেন :গোলাপ:

  9. জানলাম । সুন্দর পোস্টের জন্য
    জানলাম । সুন্দর পোস্টের জন্য ধন্যবাদ । অনেকের ভিতরেই এই রোগের লক্ষন দেখা যায় । এইটা একটা কমন রোগ মে বি

  10. নতুন কিছু জানলাম। পোষ্টের
    নতুন কিছু জানলাম। পোষ্টের জন্য ধন্যবাদ।

    আপনারা সবাই এতো কিছু জানেন? ফিলিং ঈর্ষা :নৃত্য:

    1. উইমা কি ক​য়!! অশেষ
      উইমা কি ক​য়!! অশেষ :ধইন্যাপাতা: :ধইন্যাপাতা: :ধইন্যাপাতা: :ধইন্যাপাতা: :ধইন্যাপাতা: :ধইন্যাপাতা: :ধইন্যাপাতা: :ধইন্যাপাতা: :ধইন্যাপাতা: :ধইন্যাপাতা:

  11. স্কিৎজোফ্রেনিয়া রোগটা
    স্কিৎজোফ্রেনিয়া রোগটা পৃথিবীর ইতিহাসে অন্যতম ভয়াবহ ব্যাধি কেননা আর সব রোগ হয় শরীরে, ফলে রোগ নির্ণয় করে চিকিৎসার জন্য মেডিসিনের ব্যবস্থা করা যায়। বাট এই রোগটার জন্ম মানুষের মনের গভীরে,মানুষের সবচেয়ে রহস্যময় অংশে… তাই বেশিরভাগ ক্ষেত্রেই রোগীর চিকিৎসাটা খুব অসম্ভব কিছু হয়ে দাঁড়ায়… :মাথাঠুকি: :মাথাঠুকি:

    লেখাটার ব্যাপারে সবাই যা বলার বলে দিয়েছেন :থাম্বসআপ: … গুরুত্বপূর্ণ একটা ব্যাপারে চমৎকার একটা লেখার জন্য রাইন আপুকে অসংখ্য ধইন্নাসহ গোলাপ… :ধইন্যাপাতা: :ধইন্যাপাতা: :ধইন্যাপাতা: :ধইন্যাপাতা: :ধইন্যাপাতা: :ধইন্যাপাতা: :গোলাপ: :গোলাপ: :গোলাপ: :গোলাপ: :ফুল:

    1. আপনাকে শুধু
      আপনাকে শুধু :ধইন্যাপাতা: :ধইন্যাপাতা: :ধইন্যাপাতা: :ধইন্যাপাতা: :ধইন্যাপাতা: :ধইন্যাপাতা: :ধইন্যাপাতা: :ধইন্যাপাতা:

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *