ছারপোকা

ছারপোকা

ছারপোকা অথবা ছার পোকা (ইংরেজি: Bed bug) সিমিসিডে গোত্রের একটি ছোট্ট পরজীবী পতঙ্গবিশেষ। এটি মানুষ ও উষ্ণ রক্তবিশিষ্ট অন্যান্য পোষকের রক্ত খেয়ে বেঁচে থাকে।
মূলত: এ পোকাটি বিছানা, মশারী, বালিশের এক প্রান্তে বাসা বাঁধলেও ট্রেন কিংবা বাসের আসনেও এদের দেখা মেলে। বিছানার পোকা হলেও এর অন্যতম পছন্দের আবাসস্থল হচ্ছে – ম্যা-ট্রেস, সোফা এবং অন্যান্য আসবাবপত্র। পুরোপুরি নিশাচর না হলেও ছারপোকা সাধারণত রাতেই অধিক সক্রিয় থাকে এবং মানুষের অগোচরে রক্ত চোষে নেয়। মশার ন্যায় ছোট্ট কামড় বসিয়ে এরা স্থান ত্যাগ করে।

ছারপোকা

ছারপোকা অথবা ছার পোকা (ইংরেজি: Bed bug) সিমিসিডে গোত্রের একটি ছোট্ট পরজীবী পতঙ্গবিশেষ। এটি মানুষ ও উষ্ণ রক্তবিশিষ্ট অন্যান্য পোষকের রক্ত খেয়ে বেঁচে থাকে।
মূলত: এ পোকাটি বিছানা, মশারী, বালিশের এক প্রান্তে বাসা বাঁধলেও ট্রেন কিংবা বাসের আসনেও এদের দেখা মেলে। বিছানার পোকা হলেও এর অন্যতম পছন্দের আবাসস্থল হচ্ছে – ম্যা-ট্রেস, সোফা এবং অন্যান্য আসবাবপত্র। পুরোপুরি নিশাচর না হলেও ছারপোকা সাধারণত রাতেই অধিক সক্রিয় থাকে এবং মানুষের অগোচরে রক্ত চোষে নেয়। মশার ন্যায় ছোট্ট কামড় বসিয়ে এরা স্থান ত্যাগ করে।
আমাদের গ্রাম দেশে এই মহা হারামি ক্ষুদ্র পরজীবী প্রাণীটি হতে বাঁচতে অনেকে অনেক ব্যবস্থা নেন। কেও বিষ দেন, কেও চক বিষ দেন কেও বা দেন কেরোসিন। তবে এই ক্ষুদ্র পরজীবীটির হাত হতে বাঁচার সবচেয়ে ভাল ও কার্যকারী উপায় হল— গরম পানি। গ্রামের মানুষেরা গরমের দিন তাদের চৌকি ও বিছানা পত্র বের করে রোদে দেয়। আর গরম পানি দিয়ে চৌকি কে উত্তম রূপে ধৌত করে এবং বিছানার কভার জাতীয় সকল কিছু গরম পানিতে খার বা ডিটারজেণ্টা দিয়ে সেদ্ধ করে। আর বিছানার তোষক ও বালিশ গুলি ভাল ভাবে রৌদ্রে শুকিয়ে নেয়।
এই ক্ষুদ্র পরজীবী প্রাণীটি যেহেতু গরম ও আলো সহ্য করতে পারে না। তাই এই পদ্ধতিতে মরে ছাপ হয়। বংশ নির্বংশ হয় ছারপোকা নামক ক্ষুদ্র এই পরজীবীটি।
বৈজ্ঞানিক শ্রেণীবিন্যাস
জগৎ/রাজ্য: Animalia
পর্ব: Arthropoda
শ্রেণী: Insecta
বর্গ: Hemiptera
উপ-বর্গ: Heteroptera
পরিবার: Cimicidae

এবার আসি আসল কথায়। এই পরজীবীটির সঙ্গে আমাদের রাজনীতিবিদের চরিত্র যেন আমি হুবহু মিল খুঁজে পাই। ছারপোকার মত চুপিসারে সেই স্বাধীনের পর হতে এই দেশের প্রত্যেক রাজনীতিবিদরা আমাদের রক্ত চুষে নিচ্ছে। এরা বহুরূপী সেজে আমাদের রক্ত চুষে খাচ্ছে। খেতে খেতে একেকজনের এমনই অবস্থা যে এদের নাম দেওয়া দরকার POLITICAL BUG. পুরোপুরি নিশাচর না হলেও ছারপোকা সাধারণত রাতেই অধিক সক্রিয় থাকে এবং মানুষের অগোচরে রক্ত চুষে নেয়। মশার ন্যায় ছোট্ট কামড় বসিয়ে এরা স্থান ত্যাগ করে।তেমনি আমাদের দেশের রাজনীতিবিদরা চুপি চুপি নিশাচরের মত এবং দেশের মানুষের অগোচরে দেশের সম্পদ চুরি করছে । মেরে দিচ্ছে জনগণের সম্পদ। ছারপোকার যেমন রক্ত খেয়ে পেট ভরে টিপটিপে হয়, তেমনি দেশের রাজনীতিবিদরা জনগণের সম্পদ খেয়ে সম্পদের পাহাড় গড়ছে। আবার ধরা পড়ার ভয়ে সম্পদ এবং নিজে পালিয়ে যাচ্ছে দেশের বাহিরে।
তাই চিন্তা করা দরকার এবং অচিরেই একটি উপায় বের করা দরকার ছারপোকার মত এদের মারার কোন পদ্ধতি পাওয়া যায় কি না? https://www.facebook.com/golammaula.akas/posts/591944504206812

১৪ thoughts on “ছারপোকা

  1. কঠিন কাজ॥ যে দেশের ৯০ ভাগ
    কঠিন কাজ॥ যে দেশের ৯০ ভাগ মানুষ অনিয়মের সাথে জড়িত, সেই দেশে এমন ঘটনা সহজে বন্ধ করা অসম্ভব॥

  2. গরম পানি ঢাললে কেমন হয়???
    গরম পানি ঢাললে কেমন হয়??? 😀 :হাসি: :হাহাপগে:

    শুরু আর শেষটা একেবারেই ভিন্ন ধর্মী! ভালোই লাগলো…
    তবে আসলেই নাগরিক-এর একথা ঠিক। এই সমস্যা সমাধান করা অনেকটা দুধ থেকে চুল না সরিয়ে চুল থেকে দুধ সরানোর মত!

  3. “ছারপোকা” শব্দের ব্যাসবাক্য
    “ছারপোকা” শব্দের ব্যাসবাক্য কি জানেন??
    পোকা ছাড়ে যে। :ভেংচি: :ভেংচি: :ভেংচি:
    এমনি বললাম, কারণ এই “পরজীবী”টির সাথে যাদের তুলনা দিয়েছেন তারা তো খালি বংশবিস্তার করতেই থাকে, করতেই থাকে, করতেই থাকে………… :মাথাঠুকি: :মাথাঠুকি:

  4. অবশ্যই আছে। সব রাজনীতিবিদদের
    অবশ্যই আছে। সব রাজনীতিবিদদের একত্র করে একটা বস্তায় বন্দি করে কিছুক্ষন গরম পানিতে সিদ্ধ করে রৌদ্রে শুকিয়ে ডিটারজেন্ট দিয়ে ধুইতে হবে……

    1. সব রাজনীতিবিদদের একত্র করে

      সব রাজনীতিবিদদের একত্র করে একটা বস্তায় বন্দি করে কিছুক্ষন গরম পানিতে সিদ্ধ করে রৌদ্রে শুকিয়ে ডিটারজেন্ট দিয়ে ধুইতে হবে

      :ভেংচি: :হাহাপগে: :হাহাপগে: :হাসি: 😀

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *