ঊর্মিকা




এইখানে, আমার পাজরে-জলের ঊর্মিকা
এসে নোঙর ফেলে।
হিম-শীতল পবন, রৌদ্র দহন শেষে
আসে নিবিড়ে-খুব সন্নিকটে।
কয়, ক’গাছা কাঁচের চুড়ির দামে
হৃদয় কিনতে এলে?
দক্ষিণের দ্বীপ হতে সমুদ্র চিলের ডানায়
ভর করে আসে সোনালী রোদ। ঠোঁটে মেখে
একটু মুচকি হেসে, তার জবাবে বলি-
এবার থেকে তোমার চোখ আমার শীতলক্ষ্যা হল।
আমি তার ত্রিদিব মায়ায় ডুবে গেছি।
তোমার মুখ হল কৃষ্ণচূড়ার সাঝি আমার।
কাঁচের চুড়ির দামে কিনতে নয়-
তোমায় আমি হৃদয় দিয়ে কিনে নিয়েছি ।

১৯ thoughts on “ঊর্মিকা

  1. আগেরগুলোর মত অসাম না হলেও ভাও
    আগেরগুলোর মত অসাম না হলেও ভাও লেগেছে…

    কি করবো বলুন,প্রবলেমটা হল আপনি নিজের এমন একটা স্ট্যান্ডার্ড তৈরি করে ফেলেছেন :মাথানষ্ট: , যা আসলে চাহিদা খুব বেশী বাড়িয়ে দেয়, যেটা আসলে উচিৎ না… :মাথাঠুকি: :মাথাঠুকি:

    গোলাপ নেন ভাই… :গোলাপ: :গোলাপ: :গোলাপ: :বুখেআয়বাবুল:

    1. ধন্যবাদ শিখা। অপেক্ষায় আছি
      ধন্যবাদ শিখা। অপেক্ষায় আছি আপনার কবিতায় উচ্ছ্বসিত মন্তব্য করার :ফুল: :ফুল:

  2. কাঁচের চুড়ির দামে কিনতে

    কাঁচের চুড়ির দামে কিনতে নয়-
    তোমায় আমি হৃদয় দিয়ে কিনে নিয়েছি ।

    অসাধারণ বলেছেন,অসাধারণ……………………

      1. চাঁদকে দুই ফালি করে-এক ফালি

        চাঁদকে দুই ফালি করে-এক ফালি দেব তোমাকে আর এক ফালি,
        দীঘির জলে ভিজিয়ে খেয়ে নেব

        মাইরালা… :মাথাঠুকি: :মাথাঠুকি: :ভেংচি: 😀 আমিও খাইতাম চাই… :নৃত্য: :নৃত্য: :পার্টি:

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *