সুদ কি আসলেই খারাপ?

সুদ কি আসলেই খারাপ? প্রশ্নটা হয়তো একটু বিদঘুটে মনে হল, কারন আমাদের প্রচলিত ধর্ম ও প্রচলিত সমাজের চেতনায় এই জিনিশটা আমরা বেশীর ভাগ মানুষ কমবেশি সবাই খেলেও এটিকে খারাপ বলেই ভাবি। আধুনিক অর্থনৈতিক ব্যবস্থা সুদ ছাড়া অচল। সুদের লেনদেনের পদ্ধতি গতানুগতিক এবং আধুনিক যেকোনো ভাবেই হোক-না কেন, সুদ কখনই আমার কাছে খারাপ কিছু মনে হয় না। নিম্নে এই ব্যাপারে সংক্ষেপে আলোচনা করলামঃ



সুদ কি আসলেই খারাপ? প্রশ্নটা হয়তো একটু বিদঘুটে মনে হল, কারন আমাদের প্রচলিত ধর্ম ও প্রচলিত সমাজের চেতনায় এই জিনিশটা আমরা বেশীর ভাগ মানুষ কমবেশি সবাই খেলেও এটিকে খারাপ বলেই ভাবি। আধুনিক অর্থনৈতিক ব্যবস্থা সুদ ছাড়া অচল। সুদের লেনদেনের পদ্ধতি গতানুগতিক এবং আধুনিক যেকোনো ভাবেই হোক-না কেন, সুদ কখনই আমার কাছে খারাপ কিছু মনে হয় না। নিম্নে এই ব্যাপারে সংক্ষেপে আলোচনা করলামঃ

গতানুগতিক পদ্ধতিতে একজন ব্যক্তি সুদের ব্যবসা করে। তার কাছ থেকে নির্দিষ্ট হারে সুদ দেবার প্রতিশ্রুতি দিয়ে সাধারণ মানুষ বিপদে পড়লে টাকা ধার নেয়। এই ক্ষেত্রে টাকা ধার নেবার সময় টাকা গ্রহীতা এবং দাতার মধ্যে একটা চুক্তি হয়। এই চুক্তি নিয়ে যদি প্রতারণা না হয় তাহলে আমি এর মধ্যে অনৈতিক কিছু দেখি না। একজন টাকা গ্রহীতা হিসেবেই বলবো দাতা আমাকে ডেকে আনে নি, বরং আমি আমার অতীব গুরুত্বপূর্ণ প্রয়োজনে তার কাছ থেকে সহযোগিতা পেয়েছি নির্ধারিত লাভ দেবার প্রতিশ্রুতিতে। যদিও এই ধরণের গতানুগতিক পদ্ধতি এখন আধুনিক অর্থনৈতিক ব্যবস্থায় কমে গেছে, আর সুদ নিয়ে প্রতারণাও মানুষ শিক্ষিত হবার সাথে সাথে কমে যাচ্ছে। একটা পর্যায়ে আধুনিক ব্যাংকিং ব্যাবস্থার বিপ্লবের সাথে সাথে এই ধরণের সুদ আদান-প্রদান সম্পূর্ণ উঠে যাবার সম্ভাবনা অনেক বেশী।

আধুনিক পদ্ধতিতে ব্যাংক বা অন্য কোন অর্থনৈতিক প্রতিষ্ঠানের কাছে নির্ধারিত টাকা প্রদান করলে একটা লাভ দেয়া হয় যাকে আমরা সুদ বলি। আধুনিক অর্থনৈতিক চাকা এই সুদ ছাড়া কল্পনাও করা যায় না। আপনি কোন অর্থনৈতিক প্রতিষ্ঠানে গচ্ছিত অর্থ তখনই রাখবেন যখন আপনি নিরাপদ অনুভব করবেন এবং তা থেকে একটি লাভ পাবার নিশ্চয়তা পাবেন। যে অর্থনৈতিক প্রতিষ্ঠানকে আপনি গচ্ছিত অর্থ দিচ্ছেন তারা কিন্তু বসে বসে আপনার টাকা পাহারা দিয়ে আপনাকে লাভ দিচ্ছে না, বরং ঐ টাকা তারা অন্য জায়গায় খাটিয়ে, ব্যবসা-বাণিজ্য করে আপনাকে লাভের ক্ষুদ্র অংশ দিচ্ছে। তাই এই ধরণের সুদের উপরও আপনার হক আছে এবং এতে দোষের কিছু নেই।

সব ধরণের সুদই কমবেশি উপরের দুই ধারার মধ্যে পড়বে। সুদ খারাপ কিছু নয়, যতক্ষণ-না তা নিয়ে কোন প্রতারণা হচ্ছে। আধুনিক পদ্ধতিতেও সুদ নিয়ে প্রতারণা হয়, অনেক প্রতিষ্ঠান উচ্চ হারে সুদ দেবার প্রতিশ্রুতি দিয়ে পরে আসল নিয়েও ভেগে যায়। তাই সুদ খান, তবে খাবার আগে নিশ্চিত হয়ে নিন যে প্রতারিত হবেন।

২ thoughts on “সুদ কি আসলেই খারাপ?

  1. যেটা অপরিহার্য সেটা থেকে মুখ
    যেটা অপরিহার্য সেটা থেকে মুখ লুকিয়ে থাকা অর্থহীন। আমাদের সমাজ সুদ ছাড়া অচল। তবে, প্রান্তিক জনগোষ্ঠীকে মহাজনের হাত থেকে তুলে এনে ৩৫% সুদের এন.জি.ও. এর কাছে ছেড়ে দেয়ার আগেও দু’বার ভাবতে হয়।

  2. এখনো এই ধরনের আবাল চোদা মানুষ
    এখনো এই ধরনের আবাল চোদা মানুষ আমাদের সমাজে বাস করে.. সুদ নাকি তার কাছে ভাল মনে হয় … মনে হয় হের বাপের সুদের বিসনেস আসে….

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *