ইস্টিশনে রেটিং সিস্টেম: সময়ের প্রয়োজনে

মাথায় চিন্তাটার শুরু হয়েছে ব্লগার নাভিদ কায়সার রায়ান এর একটা মন্তব্য থেকে। অস্বীকার করার উপায় নেই, বর্তমানে ইস্টিশনের প্লাটফরমে ছাগলের আনাগোনা খুব বেশি মাত্রায় না হলেও আশঙ্কাজনক মাত্রায় দেখা যাচ্ছে। এখনই ছাগুদের ঝাঁটাপেটা করে দূর করতে পারলে, ভবিষ্যতে সামুর মত ইস্টিশনও ছাগলের খোঁয়াড়ে পরিণত হওয়াটা কেউ ঠেকাতে পারবে না।

মাথায় চিন্তাটার শুরু হয়েছে ব্লগার নাভিদ কায়সার রায়ান এর একটা মন্তব্য থেকে। অস্বীকার করার উপায় নেই, বর্তমানে ইস্টিশনের প্লাটফরমে ছাগলের আনাগোনা খুব বেশি মাত্রায় না হলেও আশঙ্কাজনক মাত্রায় দেখা যাচ্ছে। এখনই ছাগুদের ঝাঁটাপেটা করে দূর করতে পারলে, ভবিষ্যতে সামুর মত ইস্টিশনও ছাগলের খোঁয়াড়ে পরিণত হওয়াটা কেউ ঠেকাতে পারবে না।

বর্তমানে সকল ব্লগপোস্ট মূল্যায়নের পদ্ধতিই হচ্ছে, হিট গণনা। একটা পোস্ট কতজন পড়েছে, সেটার ওপর ভিত্তি করেই হিসেব করা হয় ব্লগপোস্টের মান। ইস্টিশনেরও “জংশন” নামে একটা ট্যাব আছে, সর্বোচ্চ হিট পাওয়া পোস্টগুলোর জন্য। কিন্তু, সত্যিই কি সর্বোচ্চ হিট পাওয়া পোস্টটা সবসময় ব্লগের উন্নতমানের পোস্ট হয়? আমরা যারা নিয়মিত ব্লগিং করছি, তারা সকলেই জানি, সর্বোচ্চ হিট পাওয়া পোস্টটা সবচেয়ে ভাল পোস্ট হবার সম্ভাবনা যতটুকু তার চেয়ে অনেক অনেক বেশি সম্ভাবনা সেটা সবচেয়ে বেশি ক্যাচালপূর্ণ পোস্ট হওয়ার।

ইস্টিশনে আমার নিকটা খোলা হয়েছিল মে দিবসে – অর্থাৎ পহেলা মে। নিকটা খোলার কিছুদিনের মধ্যেই ১০ই মে কলেজ থেকে ফিরে একটা পোস্ট দেখলাম – “সিপি গ্যাং|আওয়ামী গ্যাং |চটি গ্যাং” শিরোনামে। প্রথমবারের মত ব্লগের কাঁদা ছোড়াছুড়িতে নিজেও খানিকটা জড়িয়ে গিয়েছিলাম। এই ক্যাচাল সর্বস্ব পোস্টটি বর্তমানে ইস্টিশনের ইতিহাসের দ্বিতীয় সর্বোচ্চ হিট পাওয়া পোস্ট। কিন্তু, পোস্টটা অনলাইনে বিশাল পরিমাণে কাঁদা ছোড়াছুড়ির বাইরে আর কোন সার্থকতা দেখাতে পেরেছে বলে আমার জানা নেই।

সেটা নিয়ে কাউন্টার পোস্ট ছিল – “CP গ্যাং কালপুরুষ এর আসল কাহিনী পেশ করছেন আসল পুরুষ” শিরোনামে। বেশ কিছুদিন এই দু’টো পোস্টই ছিল ইস্টিশনের সর্বোচ্চ হিটেড পোস্ট।

এটা নিয়ে আমার নিজেরও একটা পোস্ট ছিল – “CP গ্যাং: কালপুরুষ, আসল পুরুষের অক্লান্ত স্পাইগিরি এবং ক্লান্ত কালবৈশাখি” শিরোনামে। কিন্তু, পরবর্তীতে এই কাঁদা ছোড়াছুড়িতে বিরক্ত হয়ে সেই পোস্টের শেষে যোগ করে দিয়েছিলাম, আমার পোস্ট সহ সিপি গ্যাং সম্পর্কিত সকল পোস্ট যেন ইস্টিশন মাষ্টার সরিয়ে নেয়। অবশ্য, তা করা হয় নি। এবং আমার অতিশয় নিম্নমানের সেই পোস্ট আমার সর্বোচ্চ হিট পাওয়া পোস্ট।

আরেকটা হাস্যকর পোস্টের কথা বলতে পারি – “বিবাহ বহির্ভূত শারীরিক সম্পর্ক কেন জরুরী?” পৃথু সনালের এই হাস্যকর পোস্টটাও বেশ সাড়া ফেলেছিল ব্লগে। সাড়া ফেলার কারণ সেই একই। পোস্টের মান নয় কমেন্ট সবার ক্যাচাল। অবশ্য এটা নিয়ে গাজী ফাতিহুন নূর ভাইয়ের অসাধারণ একটা কাউন্টার পোস্টও ছিল।

এরপর ইস্টিশন থেকে ইনঅ্যাকটিভ হয়ে যাই বেশ কিছুদিনের জন্য। মূল কারণটা ছিল, মাত্রাতিরিক্ত ফেসবুক স্ট্যাটাস মার্কা ব্লগপোস্ট। কিন্তু, কেমন যেন একটা মায়া পড়ে গিয়েছিল। এই মাসের শুরু থেকে আবার অ্যাকটিভ হই। আসার পরপরই যেই আইডিটা নজর কাড়ে সেটা হচ্ছে “ব্ল্যাক বোল্ট।” এই আইডি নিয়ে হইচই আমি অ্যাকটিভ হবার আগের। তাই, তা নিয়ে এখানে মন্তব্য করছি না। তবে, ইহা যে ছাগুগিরি করেই পরিচিতি পেয়েছে, বুঝতে সমস্যা হল না।

নিজে যেই ক্যাচালে যুক্ত হলাম সেই আইডির নাম রাজু রণরাজ। তার শুরুর পোস্টগুলো বেশ কৌতূহলোদ্দীপক। লীগের সমর্থনে বেশ কিছু লেখা লিখলেন। তারপর, হঠাৎ করে একদিন পেছন দিয়ে কিছু একটা দেখা গেল। সব ব্লগাররা খেয়াল করলেন, সেটা আসলে একটা লেজ। হ্যাঁ, প্রজন্ম চত্বর নিয়ে অবমাননা পূর্বক পোস্টের মাধ্যমে রণরাজ তাহার ল্যাঞ্জা উন্মুক্ত করল। হ্যাঁ, সেই পোস্টও বিশাল হিট ছিল। হিট তার পরের ছাগুবাদী পোস্টগুলোও। যদিও পোস্টের মান অতিশয় জঘন্য তারপরও সেগুলো বহুদিন সেগুলো জংশনে স্থান পেল, বিতর্কিত বক্তব্যের কারণে।

আর অধুনা দেশী ডাইলখোর এবং বিজয় টেবলেট সেবনকারী “দেশী পোলা”র ক্যাচাল তো এখনও চলমান। আজও কলেজ থেকে চরম মুড অফ নিয়ে ফিরে, ব্লগে বসে তার পোস্ট আর কমেন্টগুলো পড়ে হাসতে হাসতে গড়িয়ে পড়লাম।

অথচ, এই হাস্যকর পোস্টগুলোই ইস্টিশনে নতুন কারও চোখের সামনে তুলে ধরা হচ্ছে। নতুন কেউ ইস্টিশনে এলে সবার আগে তার চোখ যাবে বর্তমানে হিট পোস্টগুলোর দিকে। বর্তমানে “জংশন” এ থাকা পোস্টগুলোর মধ্যে সর্বদাই একটা না একটা ছাগু পোস্ট খুঁজে পাওয়া যায়। এবং সে ধারণ নিয়ে নেবে, ইস্টিশনের প্লাটফরম একটা ছাগলের খোঁয়াড়।

ক্যাচালবাজ পোস্ট সামনে তুলে ধরা ঠেকাতেই প্রধাণত প্রয়োজন হলেও, বর্তমানে এটা সবচেয়ে বেশি দরকার ছাগুপোস্টকে হাইলাইট করা বন্ধ করতে।

কিছুদিনের মাঝেই আশা করি সাকা চৌধুরীর ফাঁসির রায় হয়ে যাবে। তাই সাকার গেলমানরা এখন আবাসস্থল সংকটে ভুগছে। তারা থাকার জায়গা না পেয়ে ইস্টিশনের প্লাট ফরমকে বেছে নিচ্ছে। প্লাটফরমটা যেন ছাগলের খোঁয়াড়ে পরিণত না হয়, সেজন্য আমরা সকল ব্লগাররা লড়ছি। এগিয়ে আসতে হবে ইস্টিশন মাষ্টারকেও। অমিত লাবণ্যকে কোন ওয়ার্নিং ছাড়াই সরাসরি ব্যান করা হয়েছিল তার কমেন্টের জন্য। অথচ, এই ছাগুরা ইস্টিশনকে এভাবে দূষিত করছে, তাতে তাদের পোস্ট মূল পাতা থেকে সরিয়ে নেয়া ছাড়া উল্লেখযোগ্য কোন উদ্যোগ কেউ দেখেছে বলে জানি না।

যদি তাদের ব্যান করা নাই হয়, তবুও অন্তত এটুকু যেন করা হয়, যেন তাদের পোস্টগুলো সবার চোখে আঙ্গুল দিয়ে সামনে তুলে না আনা হয়। আর তার উপায় একটিই। ব্লগপোস্টে রেটিং এর ব্যবস্থা করা। পোস্টের মান অনুযায়ী ব্লগাররা পোস্টে রেটিং দেবেন। সেটি প্রদর্শনের জন্য একটি স্বতন্ত্র ট্যাব থাকবে। এবং অবশ্যই ওপরের দিকে। কু ঝিক ঝিক ট্যাবের খুব বেশি উপযোগিতা আছে বলে আমার মনে হয় নি। তাই সেখানেই জায়গা করে দেয়া যায়, ব্লগারদের রেটিংএ সেরা পোস্টগুলোর। তাহলে, বাজে পোস্টগুলো যেমন তলানিতেই থাকবে, তেমনি ভাল পোস্টগুলোও খুব সহজেই ওপরে উঠে আসতে পারবে।

ইস্টিশনের স্বার্থেই ইস্টিশন মাষ্টারের এটুকু উদ্যোগ নিশ্চয়ই আমরা যাত্রীরা আবদার করতেই পারি।

৪৩ thoughts on “ইস্টিশনে রেটিং সিস্টেম: সময়ের প্রয়োজনে

  1. হুম ভাই তার সাথে গল্পগুজব /
    হুম ভাই তার সাথে গল্পগুজব / বিশ্রামাগার নামে একটি ট্যাব প্রয়োজন যেখানে গল্প করা যাবে।

    রেটিং পদ্ধতি চালু করা হোক

    1. ধুর মিয়া! গল্পগুজবের জন্য
      ধুর মিয়া! গল্পগুজবের জন্য ট্যাব লাগে নাকি??? এক লাইনের একটা পোস্ট দিবেন, “আসেন গল্প করি।” তারপর সেটার কমেন্টেই শুরু।

      চলেন এখানেই শুরু করি – “ভাবী কেমন আছে?”

      1. খাইছে আম্রে …
        খাইছে আম্রে :-B :ভেংচি: … কালবৈশাখী কারে কি জিগায় :হাহাপগে: :হাহাপগে: … পুলাপাইনের তো এখনও বিয়ার বয়সই হয় না… :ভেংচি: 😀 😀

          1. আমারে কি রাহাত ভাই পাইছেন !!
            আমারে কি রাহাত ভাই পাইছেন !! 😉 ক্লান্ত কাল বৈশাখী ঠিক বলছে অবিবাহিত বঊ থাকে 😛
            হুম ভাই ভাল আছে আপনার খবর কি???

          2. নামে বহুত কিছু আসে যায়।
            নামে বহুত কিছু আসে যায়। ‘শেক্স’পিয়রের নাম একটু উল্টাপাল্টা করলে খবর আছে।

            আর আমি রাহাত ভাই গোত্রীয় মানুষ। বউ নাই।

          3. মাইনসের কি অবিবাহিত বউ থাকে

            মাইনসের কি অবিবাহিত বউ থাকে না???

            মাইরালা :বিষয়ডাকী: :চোখমারা: :ভেংচি: … এইসব কি শুনি!!! :হাহাপগে: :হাহাপগে: 😀

  2. কু ঝিক ঝিকে রেটিং সিস্টেমের
    কু ঝিক ঝিকে রেটিং সিস্টেমের উপর লেখা দেখতে পেয়ে ভেবেছিলাম এটা মনে হয় পুরনো পোষ্ট। পড়তে গিয়ে দেখি না, এটা তো নতুন লেখা। কালবৈশাখী একদম আমার মনের কথা সুন্দর গুছিয়ে বলেছেন। শুভেচ্ছা।
    ভাল একটা টপিক শুরু করেছেন। দেখা যাক অন্যেরা কি বলে।

    1. মাথায় অনেকদিন ধরেই বেশ কিছু
      মাথায় অনেকদিন ধরেই বেশ কিছু বিষয় ঘুরছিল। মাষ্টারের প্রতি সব সাজেশন মিলিয়ে একটা পোস্ট লেখার ইচ্ছে ছিল। কিন্তু, কালকে আপনার কমেন্টের পর সমসাময়িক পরিস্থিতি দেখে মনে হল, এখন এই রেটিং সিস্টেমই সবচেয়ে বেশি দরকার।

  3. সবচে ভাল হয় এক আইপি থেকে
    সবচে ভাল হয় এক আইপি থেকে একবার পড়া হলে দ্বিতীয়বার পড়ার সময় যেন তা আবার হিট হিসেবে কাউন্ট না হয়, এই ব্যবস্থা করা!! কারণ তাতে করে মন্তব্য বেশী হলেও হিট কম থাকবে… সহজেই সবাই বুঝবে এইটা ক্যাচালপূর্ণ পোস্ট, মানসম্মত নয়!!
    আর যেইটার হিট আর ক্লান্ত-র দেয়া আইডিয়া মত রেটিং-এ এগিয়ে থাকবে সেটাই হবে মানসম্মত এবং জনপ্রিয় পোস্ট… প্রস্তাবে এই একটু সংশোধন আনার পর বাস্তবায়ন করলে খারাপ হয় না!!
    ধন্যবাদ ক্লান্ত কালবৈশাখী :ধইন্যাপাতা: :ধইন্যাপাতা: :গোলাপ: :গোলাপ: :থাম্বসআপ:

    1. হ্যাঁ, এই আইডিয়াটাও ভাল। এমন
      হ্যাঁ, এই আইডিয়াটাও ভাল। এমন করা যায়, নতুন কোন ট্যাবের দরকার নেই। জংশনের পোস্ট আসার সিস্টেমই চেঞ্জ করে একই সাথে হিট+রেটিং হিসাব করে জনপ্রিয় পোস্ট থাকবে।

    2. তারিক ভাইয়ের সাথে কইষা
      তারিক ভাইয়ের সাথে কইষা সহমতাইলাম। আর ক্লান্ত ভাইকেও ধইন্যা, ইস্টুশন মাস্টারের দৃষ্টি আকর্ষণ করার জন্যে।

  4. ব্লগের মডারেশন প্যানেল এবং
    ব্লগের মডারেশন প্যানেল এবং কারিগরি টিম প্রস্তাবনাগুলা নিয়ে ভেবে দেখতে পারেন। ব্লগের সার্বিক মানোন্নয়নে যে কোন পদক্ষেপকে স্বাগত জানাই। ক্লান্ত কালবৈশাখিকে ধন্যবাদ গুছিয়ে বিষয়টা তুলে ধরার জন্য।

    1. কাউকে ব্যান করার আগে তাকে যেন

      কাউকে ব্যান করার আগে তাকে যেন আত্মপক্ষ সমর্থনের সুযোগ দেয়া হয় সেই দাবীটিও জানাইলাম ।

      কইষা সহমতাইলাম।

  5. একদম মনের কথা বলেছেন বিষয়টা
    একদম মনের কথা বলেছেন :বুখেআয়বাবুল: বিষয়টা ভেবে দেখবার জন্য ইষ্টিশন মাষ্টারের প্রতি আহ্বান রইল। :অপেক্ষায়আছি:

  6. ক্লান্ত কালবৈশাখী খুব
    ক্লান্ত কালবৈশাখী খুব গুরুত্বপূর্ণ একটা বিষয় তুলে ধরেছেন। :গোলাপ: :ধইন্যাপাতা: :গোলাপ: কিন্তু আমি মনে করি রেটিং সিস্টেম ব্লগার দের মাঝে বিভেদ সৃষ্টি করতে পারে। আর সাধারণত ভাল পোস্ট গুলোই বেশি হিট হয়ে থাকে। আপনি সিপি গাং সংক্রান্ত যে পোস্ট দিয়েছিলেন সেটা যদি বেশি হিট হয়ে থাকে তবে সেটাও ছিল সময়ের দাবী। ছাগুদের ব্যাপারে যে আশংকা করছেন যে কেউ ভাববে এই ব্লগে ছাগুদের দৌড়াত্ত বেশি সাথে এটাও দেখবে যে এখানকার ব্লগার রা কেমন সোচ্চার। এখন আমরা

    অনেকেই উদ্যোগী হয়ে বলছি পরে দেখা যাবে রেটিং দেয়াতেও অনেকে আগ্রহ হারিয়ে ফেলবে। আবার যদি মডারেশন প্যানেল এর উপর ছেড়ে দেয়া হয় সেটা নিয়েও বিতর্ক হওয়া স্বাভাবিক।
    সেক্ষেত্রে আমি মনেকরি মান্থলি একটা ব্যবস্থা থাকতে পারে যেখানে ১০ টা পোস্ট কোথাও তালিকা থাকতে পারে। সেটা দুই ক্যাটাগরিতে

    1) সর্বচ্চো হিট-৭
    2) সার্বিক গুরুত্ব বিবেচনায়-৩

    তাহলে যারা ইস্টিশনে কিছু পড়তে চাইবেন তারা একটা দিক নির্দেশনা পেতে পারেন। আমি বলছি না আমার মত সঠিক। আমার যা মনে হয়েছে সেটা বলছি।

    1. কিরণ ভাইয়ের কথাটাও ভেবে দেখার
      কিরণ ভাইয়ের কথাটাও ভেবে দেখার মত। রেটিং সিস্টেম হয়তোবা নতুন ব্লগারদের জন্য অস্বস্তিকর হয়ে পড়বে। এক্ষেত্রে সাহিত্যের উপর খুব বেশি আঘাত পড়বে বলে মনে হচ্ছে। আর আমাদের মূল সমস্যাতো ছাগলদের নিয়ে। তাই ছাগলদের জন্য আলাদা ব্যবস্থা করা যায়।

      1. শুধু ছাগল না। সব লেখা তো আর
        শুধু ছাগল না। সব লেখা তো আর ভাল হয় না। এক্ষেত্রে ভাল ভাল লেখা গুলো যদি একসাথে পাওয়া যেত তাহলে খুব ভাল হতো।

        1. ভালো লিখা গুলোর জন্য আলাদা
          ভালো লিখা গুলোর জন্য আলাদা ট্যাব খুললেই ভালো হবে মনে হয়। ব্লগারদের মন্তব্যের উপর ভিত্তি করে ভালো লিখাগুলো একত্র করা যাবে।

          1. আমার এই নিয়া মাথা ব্যথা নাই
            আমার এই নিয়া মাথা ব্যথা নাই ভাল লেখতে তো পারি ই না আর আমার লেখা কিছু মানুষ আছে এরা পরলেই হবে । এরা সবাই এখানে আছে তারা না দেখলেও বাইন্ধা নিয়া পরাব । 😀

            আমার অখাদ্য কুখাদ্য লেখা হজম না করলেও উগলে দিতেও তাদের যেতে বাধ্য করাবো। 😉

    2. কিরণ ভাই অস্পষ্ট কিন্তু
      কিরণ ভাই অস্পষ্ট কিন্তু মোটামুটি একটা ধারণা দিতে পেরেছেন। আমিও কিরণ ভাইয়ের সাথে একমত। আসলে আমরা ভাল লেখার একটা তালিকাও চাই। সেটা কিভাবে হবে তা ভেবে দেখা যেতে পারে।
      রেটিং সিস্টেম নিয়ে বিতর্ক হতে পারে, আবার সেটা নিয়ে নানান ঝামেলা হতে পারে সেটা আতিক ভাই ও একবার উল্লেখ করেছেন।

      1. আতিক ভাইয়ের মন্তব্যটা উল্লেখ
        আতিক ভাইয়ের মন্তব্যটা উল্লেখ করলাম
        ভাই রেটিং ফেটিং এর মধ্যে নাইক্কা। পরে পাবলিকে জিগাইব- ঐ ইস্টিশনে তর রেট কতো?

      2. তাছাড়া অনেকে কবিতা পছন্দ করে
        তাছাড়া অনেকে কবিতা পছন্দ করে না। আবার বোঝেও না। তারা দেখা গেল একজন কবিকে ঠিক মতো মূল্যায়ন করতে পারল না।
        আবার ছাগু টাইপের যারা আছে তারা কিন্তু একা থাকে না। গ্রুপ ধরে থাকে। ভোটাভুটির কোন ব্যাপার থাকলে সেখানে ছাগুরাও উলটা সুযোগ পেয়ে যেতে পারে।
        আসলে একটা লেখা ভালো না খারাপ সেটা কিভাবে নির্ধারণ হবে তার উপর অনেক কিছু নির্ভর করছে।

  7. আমি আরো আগে প্রথম পেইজের
    আমি আরো আগে প্রথম পেইজের নীতিমালা নিয়ে কিছু দাবী তুলেছিলাম। মূল সমস্যা হল প্রথম পেইজে একাধিক ভালো লিখা থাকে। দেখা যায় হয়তো পাঁচটা লিখাই খুব ভালো। কিন্তু স্টিকি করা থাকে দুইটা। এখন কিছু তুলনামূলক কম ভালো লিখা এবং ফেসবুক স্ট্যাটাসময় লিখার ঠ্যালায় ঐ লিখাগুলো প্রথম পেইজ থেকে চলে যায়। ইস্টিশন নতুন ব্লগ। তাই এখানে যারা ব্লগ পড়তে আসেন, তারা ভেবে নেন, ইস্টিশনে এইসব আজাইরা লিখা দিয়ে ভরপুর! এইজন্যই প্রথম পেইজ নীতিমালা খুব দরকার। আর রেটিং ছাড়াও কিন্তু পোস্টের মানদন্ড বিচার করতে পারেন মডারেশন প্যানেল। যেমন ঐপোস্টের গুরুত্ব, সমসাময়িক সমাধান, মন্তব্যের আলোচনা সমালোচনা ইত্যাদি।

  8. সব কথা মানলাম। তবে একটা কথা
    সব কথা মানলাম। তবে একটা কথা মানতে পারলাম না কু ঝিক ঝিক ট্যাবের খুব বেশি উপযোগিতা আছে বলে আমার মনে হয় নি। কু ঝিক ঝিক ট্যাব আছে বলেই ইস্টিশনে এত আরামে ব্লগিং করা যায়। নাইলে কেউ বুঝতেই পারতোনা, কে কখন কোথায় কমেন্ট করছে। সবকিছু জীবন্ত ইস্টিশনে 🙂

  9. প্রিয় যাত্রীগণ,
    আপনাদের সকলের

    প্রিয় যাত্রীগণ,
    আপনাদের সকলের আন্তরিক সুপরামর্শ ব্লগের মডারেশন প্যানেলের পক্ষ থেকে গুরুত্বের সাথে বিবেচনায় রাখা হলো। মডারেশন প্যানেল আলোচনার মাধ্যমে একটি সিদ্ধান্তে আসার পর আমাদের কারিগরি টিম যথাসম্ভব দ্রুত তা কার্যকর করার চেষ্টা করবে। আপনাদের ব্লগিং ফলপ্রসূ ও আনন্দময় করার ক্ষেত্রে ইস্টিশন সবসময়ই আন্তরিক। আমাদের লক্ষ্যই প্রাণে প্রাণ মেলানো…

    1. ব্যাপারটা গুরুত্বের সাথে
      ব্যাপারটা গুরুত্বের সাথে নেবার জন্য ইষ্টিশন মাস্টারকে অসংখ্য ধন্যবাদ… :ধইন্যাপাতা: :ধইন্যাপাতা: :ধইন্যাপাতা: :ধইন্যাপাতা: :ধইন্যাপাতা: :ধইন্যাপাতা: :ধইন্যাপাতা: :ধইন্যাপাতা: :বুখেআয়বাবুল:

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *