আগন্তুক মৃত শহরে

মায়াবতী বিষন্ন দুপুরে নির্জন বাসভূমে একা বসে ছিলো। একাকিত্বের মাঝে নিজেকে ধাতব শহরে যেন মৃত মনে হলো আর একটি কবিতার জন্ম হলো এক মৃত শহরে। মায়াবতীর নীল আবছা আঁচলে স্থায়িত্ব পেল আগন্তুক মৃত রাত্রির ………..

ঘড়ির কাঁটার সাথে কথা হয় বিদূষী দুপুরের
সদন মৃত্তিকায় অভিশপ্ত করে দেয় দিনান্তর
মুহুর্তে মনে হয় যেন-
পাশে দন্ডায়মান এক আত্মাহীন ধাতব শহর।



মায়াবতী বিষন্ন দুপুরে নির্জন বাসভূমে একা বসে ছিলো। একাকিত্বের মাঝে নিজেকে ধাতব শহরে যেন মৃত মনে হলো আর একটি কবিতার জন্ম হলো এক মৃত শহরে। মায়াবতীর নীল আবছা আঁচলে স্থায়িত্ব পেল আগন্তুক মৃত রাত্রির ………..

ঘড়ির কাঁটার সাথে কথা হয় বিদূষী দুপুরের
সদন মৃত্তিকায় অভিশপ্ত করে দেয় দিনান্তর
মুহুর্তে মনে হয় যেন-
পাশে দন্ডায়মান এক আত্মাহীন ধাতব শহর।
নব্য রাত্রির সমাচার নিয়ে অপেক্ষায় নশ্বর
আবার রক্ত ঝরবে,অশ্রু ঝরাবে হৃদ্যতা
খুন হবে চৈতন্যে- এক অস্পৃশ্য নীল আলোয়।

সুতীব্র হুঙ্কারে বাস্তব বিদীর্ণ হবে
আঁধারের রোমশ প্রাচীরে বেজে উঠবে-
নির্মল আকাশের হাহাকার!

২ thoughts on “আগন্তুক মৃত শহরে

  1. মায়াবতী, ভালো লেগেছে আপনার
    মায়াবতী, ভালো লেগেছে আপনার অনুভূতির প্রকাশ। নিঃসঙ্গতাকে আঁকড়ে বেঁচে থাকার কোনো যৌক্তিকতা নাই। ঝেড়ে ফেলে দিয়ে নতুন করে শুরু করুন।
    :গোলাপ: :গোলাপ: :গোলাপ: :গোলাপ:

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *