The Fountain: তুমি আমার পাশে বন্ধু হে, বসিয়া থাকো… একটু বসিয়া থাকো…

“The film is very much like a Rubik’s Cube, where you can solve it in several different ways, but ultimately there’s only one solution at the end.”
–Darren Aronofsky

দৃশ্যপট -১
সময়কাল- ১৫০০ সালের কিছু পরে
স্থান- নব্য আবিষ্কৃত আমেরিকা মহাদেশের কোন এক জায়গা


“The film is very much like a Rubik’s Cube, where you can solve it in several different ways, but ultimately there’s only one solution at the end.”
–Darren Aronofsky

দৃশ্যপট -১
সময়কাল- ১৫০০ সালের কিছু পরে
স্থান- নব্য আবিষ্কৃত আমেরিকা মহাদেশের কোন এক জায়গা

ঠিক ২০-২৫ গজ সামনেই অতি আরাধ্য সেই সিঁড়িপথ যা দিয়ে পাওয়া যাবে সেই অমূল্য রতনের সন্ধান।কিন্তু Tomas Verde তাড়াহুড়ো করতে চায় না। কেননা এই অমূল্য রতনের উপরই নির্ভর করছে যে তার রানী, তার প্রিয়তমা স্পেনের রানী হিসাবে দেশের সেবা করতে পারবে নাকি এক ষড়যন্ত্রকারী সেনাপতির হাতে অকল্পনীয় দুর্ভাগ্য বরন করবে। আর নির্ভরযোগ্য এক বীর যোদ্ধা হিসাবে রানির আস্থা সে বিফল হতে দিতে পারে না। হঠাৎ টমাস বুঝতে পারে, এই সরু পথটা আসলে একটা ট্র্যাপ। কিন্তু ততক্ষণে বহু দেরি হয়ে গেছে। হিংস্র মায়ান জংলিদের হুঙ্কারে চাপা পড়ে যায় তার সহযোদ্ধাদের আর্তনাদ।

দৃশ্যপট -২
সময়কাল- ২০০৫ সাল
স্থান- মধ্য আমেরিকার কোন প্রদেশ

নিজের ল্যাবে একনিষ্ঠ গবেষণায় লিপ্ত ডাঃ Tommy Creo। যদিও গবেষণাটা একটা বানরের মস্তিক নিয়ে, কিন্তু তার মুল উদ্দেশ্যটা হল খুব দ্রুত একটা উপায় বের করা যা তার ব্রেন ক্যানসারে আক্রান্ত মৃত্যুপথযাত্রী স্ত্রীকে দেবে বাঁচার নতুন আশা। টমি কি পারবে মৃত্যুকে পরাভূত করে তার স্ত্রীকে তার পাশে রাখতে , নাকি তার স্ত্রীর ইচ্ছা টাকে ঠেলে দেবে এক অনির্বচনীয় যন্ত্রণার দিকে???

দৃশ্যপট -৩
সময়কাল-২৫০০ সালের কিছু পরে
স্থান- মহাশূন্য

চারিদিকে অসীম শূন্যতা, তারই মাঝে এক ছোট্ট গোলক ,যাকে আমরা biosphere বলে জানি। এই গোলকের গন্তব্য এক মরনাপন্ন তারকা। গোলকের মাঝে এক বিশাল বিস্তৃত বৃক্ষ আর তার গোড়ায় এক প্রিয়তম আকুল হৃদয়ে বসে আছে। বৃক্ষটার বেচে থাকা তার জন্য খুবই জরুরি কেননা তার ধারনা(হ্যালুসিনেসন) এই বৃক্ষটা মারা গেলে তার প্রিয়তমাকে ফিরে পাবার শেষ আশাটাও হারিয়ে যাবে। কিন্তু বৃক্ষটা মারা যাচ্ছে। খুব ধীরে ধীরে সে তার প্রিয়তমাকে হারিয়ে ফেলছে ।

Darren Aronofsky নামের এক ভদ্রলোকের গল্পে ও তার পরিচালনায় হিউ জ্যাকম্যান ও Rachel Weisz এর অভিনয়ে ২০০৬ সালে মুক্তিপ্রাপ্ত এই রোমানটিক ড্রামা মুভিটি শুধুমাত্র রোমান্টিক ড্রামা জনরাতেই সীমাবদ্ধ থাকে নি, বরং ফ্যান্টাসি , ইতিহাস ,ধর্ম ও সাই-ফাই এর সুনিপুন ছোঁয়ায় পরিনত হয়েছে এক অনবদ্য শিল্পকর্মে ।যদিও মুভিটি মুক্তি পাবার পর দর্শক ও সমালোচকদের খুব বেশি নজর কাড়তে সক্ষম হয়নি, কিন্তু ধীরে ধীরে এটি জায়গা করে নিয়েছে সব শ্রেণীর দর্শক ও সমালোচকদের হৃদয়ের মণিকোঠায় ।

অভিনয় নিয়ে সিমপ্লি কিছু বলার নাই। উলভারিনে মারদাঙ্গা অভিনয়ের পরে এই মুভিতে কত কি করতে পারবেন, তা নিয়ে বোধহয় স্বয়ং জ্যাকম্যানের নিজের মধ্যেই সন্দেহ ছিল। কিন্তু অ্যারনফস্কির বিন্দুমাত্র কোন সংশয় ছিল না। জ্যাক তার নিজের অভিনয় আর Rachel এর সাথে তার কেমিস্ট্রি দিয়ে সবাইকে করলেন বাকহারা । হ্যাট’স অফফ… B| B|

আমাদের জীবনের মেয়াদ কতদিনের? আমাদের জীবনের চেয়েও প্রিয় আমাদের প্রিয়তম/প্রিয়তমা।কতুটুকু সময় এই প্রিয় মানুষের পাশে আমরা থাকতে পারি? ভালবাসা কি এতটাই ছোট্ট যে তা জীবনের ফ্রেমে বাধা সম্ভব?? The Fountain আপনাকে শোনাবে এক অনাদি-অনন্ত অমলিন ভালবাসার গল্প , শুধু পাশে থাকার এক ইস্পাতকঠিন প্রতিজ্ঞা যে ভালবাসাকে শতাব্দীর পর শতাব্দী বাঁচিয়ে রাখে অবিনাশী ও অমর করে… জরা, রোগশোক,যন্ত্রণার এই ছোট্ট জীবনের ফ্রেমে যাকে বাধা অসম্ভব। কি, সেই গল্প শুনতে আপনি তৈরি তো?? হ্যাপি মুভি ওয়াচিং… ^_^

IMDB- http://www.imdb.com/title/tt0414993/

Yifi torrent–http://yify/-torrents.com/movie/The_Fountain_2006

২০ thoughts on “The Fountain: তুমি আমার পাশে বন্ধু হে, বসিয়া থাকো… একটু বসিয়া থাকো…

  1. দেখা হয়নি মুভিটা। রিভিউ পড়ে
    দেখা হয়নি মুভিটা। রিভিউ পড়ে আগ্রহ পাচ্ছি। ধন্যবাদ। :থাম্বসআপ: :থাম্বসআপ: :থাম্বসআপ:

    1. ভালবাসা যে একটা চির শাশ্বত
      ভালবাসা যে একটা চির শাশ্বত বিষয়, :গোলাপ: এইটা এই মুভিতে চমৎকার করে ফুতিয়ে তোলা হয়েছে… :salute: দেইখেন ডাক্তার সাব… মন্তব্যের জন্য :ধইন্যাপাতা:

    1. হ, আম্মারে নিয়াও দেখতে পারেন
      হ, আম্মারে নিয়াও দেখতে পারেন অমিত ভাই, :ভেংচি: 😀 পরিবার নিয়া দেখার মত ছবি… :মুগ্ধৈছি: :তালিয়া: মৃত্যু দিয়ে যে ভালবাসাকে বিলীন করা যায় না, এই মুভিতে সেটাই দেখানো হয়েছে… :মাথানষ্ট: :গোলাপ: আমন্ত্রন রইল… :জলদিকর: ধন্যবাদ… :ফুল:

  2. দেখতে মঞ্চায়!!
    তবে Darren

    দেখতে মঞ্চায়!!
    তবে Darren Aronofsky’এর সেরা মুভি বোধকরি Requiem for a Dream (2000)… দেখে মাথা নষ্ট হতে বাধ্য।। আলোচনা আর করলাম না!!
    অসাধারণ একটা চলচ্চিত্র Requiem for a Dream…

    1. অনেকদিন ধরেই এটার নাম
      অনেকদিন ধরেই এটার নাম শুনছি,কালকে নিয়ে আসলাম। আজকে অবশ্যই দেখব… মনে করায়া দেয়ার জন্য :ধইন্যাপাতা: :ধইন্যাপাতা: :ফুল:

  3. এই মুভিটার সাথে সিলেটের
    এই মুভিটার সাথে সিলেটের আঞ্চলিক ভাষায় রচিত একটি নাটক দেখার অনুরোধ করলাম ।নাটকটির নাম,”হায়রে লন্ডন শান্তি নাই”।

    1. হুম, তারপর কি? মুভিটা
      হুম, তারপর কি? :মাথাঠুকি: মুভিটা দেখছেন? :কনফিউজড: না দেখে থাকলে দেখে ফেলেন… :থাম্বসআপ: :থাম্বসআপ:

  4. এটা মুভি নয়, একটি নাটক
    এটা মুভি নয়, একটি নাটক ।নাটকটিতে অত্যধিক বিনোদনের পাশাপাশি বিদেশে অবস্তানরত আমাদের বয়সী ছেলেদের বাস্তবিক নৈতিকতার অবনতি এবং সাথে পরিবার তথা বাবা-ছেলের সম্পর্কতে দুরত্ব সৃষ্টির কারন খুব সুন্দর করে ফুটিয়ে তোলা হয়েছে ।প্রথমদিকে বেশ মজা লাগলে নাটকের শেষ অংশটি বেশ বেদনাদায়ক ।নাটকটি আমার দেখা একটি শ্রেষ্ট নাটক ।
    নাটকটি সম্পুর্ন সিলেটি ভাষায় রচিত ।

    1. তাহলে তো দেখতেই হয় …
      তাহলে তো দেখতেই হয় :মাথানষ্ট: … অবশ্যই দেখে ফেলব। :থাম্বসআপ: :থাম্বসআপ: কিন্তুক আমি জানতে চাইছিলাম The Fountain মুভিটা দেখা হইছে কিনা… :মাথাঠুকি: :কনফিউজড: :আমারকুনোদোষনাই:

  5. ডন ভাই
    তুমি আমার পাশে বন্ধু

    ডন ভাই

    তুমি আমার পাশে বন্ধু হে

    গানের লিঙ্কটা দিতে পারবেন। ডাউনলোড করতাম। :বুখেআয়বাবুল: :কলদে: :চিঠি:

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *