কাকভেজা

এই যে শুনুন। আপনার নামই তো আকাশ?
-হুমম।
আমি বৃষ্টি। আপনার কথা অনেক শুনেছি।আপনি নাকি অনেক বোকা?
-হুমম।
শুনেছি আপনি নাকি জেনে শুনে বোকামি করেন। কথাটা কি সত্যি?
-না মানে
এত মানে মানে করেন ক্যান? কথা বলতে পারেন না? আজব
-ইয়ে মানে। মেয়েদের সাথে কথা বলতে আমার ভয় লাগে।
শুনুন আমার সাথে মিনমিন করে কথা বলবেন না। আমি পছন্দ করিনা। তেলাপোকা দেখে ভয় পাওয়া ছেলে আমার পছন্দ না।আপনি প্যান্ট এত উপরে পরেন ক্যান? আরও নিচে পরবেন।
-হুমম।
আপনি প্রতিদিন আমার বাড়ির সামনে দাঁড়িয়ে থাকেন।আমার মা ভীষণ দজ্জাল। আপনাকে দেখে ফেলেছে। হাতের কাছে পেলে মেরেও ফেলতে পারে।
-ইয়ে মানে কি করব এখন?

এই যে শুনুন। আপনার নামই তো আকাশ?
-হুমম।
আমি বৃষ্টি। আপনার কথা অনেক শুনেছি।আপনি নাকি অনেক বোকা?
-হুমম।
শুনেছি আপনি নাকি জেনে শুনে বোকামি করেন। কথাটা কি সত্যি?
-না মানে
এত মানে মানে করেন ক্যান? কথা বলতে পারেন না? আজব
-ইয়ে মানে। মেয়েদের সাথে কথা বলতে আমার ভয় লাগে।
শুনুন আমার সাথে মিনমিন করে কথা বলবেন না। আমি পছন্দ করিনা। তেলাপোকা দেখে ভয় পাওয়া ছেলে আমার পছন্দ না।আপনি প্যান্ট এত উপরে পরেন ক্যান? আরও নিচে পরবেন।
-হুমম।
আপনি প্রতিদিন আমার বাড়ির সামনে দাঁড়িয়ে থাকেন।আমার মা ভীষণ দজ্জাল। আপনাকে দেখে ফেলেছে। হাতের কাছে পেলে মেরেও ফেলতে পারে।
-ইয়ে মানে কি করব এখন?
এরপর আমাকে দেখতে ইচ্ছে হলে ফোন করবেন। আমি চলে আসবো।
-হুমম।
ঢাকা শহরে ইদানিং খুব বৃষ্টি হচ্ছে।এত বৃষ্টি হওয়ার কথা না। দুইটা কাক সরু তারের উপর বসে বৃষ্টিতে ভিজছে। কিন্তু তারা বিষয়টা উপভোগ করছে কিনা বোঝা যাচ্ছে না। মানুষ প্রায়ই বৃষ্টি হলে ‘কাকভেজা’ শব্দটি ব্যবহার করে। মনে হয় কাক দুটি এই বিষয়টা নিয়ে চিন্তিত।

মিসেস সৈকত খুব চিন্তিত।তার মেয়ে বৃষ্টি বাইরে গেছে।এখন বাজে সন্ধ্যা ছয়টা তেইশ।বৃষ্টি এখনো বাড়ি ফেরেনি।কিন্তু সৈকত সাহেবকে মোটেও চিন্তিত দেখাচ্ছে না। তিনি ব্যালকনিতে বসে সিগারেট টানছেন। অনেক চেষ্টার পরও মুখে চিন্তার ছাপ ফুটিয়ে তুলতে পারছেন না।

এই বৃষ্টি। কোথায় যাও?
-বাইরে।
বাইরে তো বৃষ্টি।
-আপনি বৃষ্টি ভয় পান?
হুমম।
-তাহলে হাত ধরেন আমার।
এখন কি করব?
-কি আর করবেন? আমার সাথে বৃষ্টিতে ভিজবেন।
-ইয়ে মানে
সরু তারের উপর দুটি কাক বসে আছে।নিচ দিয়ে হেঁটে যাচ্ছে একজোড়া মানব মানবী।কাক দুটিকে চিন্তিত মনে হচ্ছেনা।মানুষদেরকে কাকাভেজা হতে দেখে তারা সুখী। খুবই সুখী।

১০ thoughts on “কাকভেজা

  1. নাহ! অত্যাধিক সংক্ষিপ্ত,
    নাহ! অত্যাধিক সংক্ষিপ্ত, অসম্পূর্ণ এবং অসমাপ্ত গল্প। কিছুই হয় নাই। অথচ কি মুশকিল, পড়তে ভালো লাগছে। এভাবে ২ -১ লাইন লিখে পাঠকের মনে অশান্তি করে কি মজা পান ভাই? আর একটু কষ্ট করেন। এই অণু মনু ফনু গল্পের হাত থেকে রক্ষা করেন। ভালো করে একটা সুন্দর গল্প লিখেন। অপেক্ষায় থাকলাম।

    1. এই অণু মনু ফনু গল্পের হাত

      এই অণু মনু ফনু গল্পের হাত থেকে রক্ষা করেন।

      :মাথাঠুকি: :মাথাঠুকি: :মাথাঠুকি: মনটা ভরল না… :কানতেছি: :কানতেছি:

    1. ঠিক, এইবার অনুগল্প বাদ দিয়া
      ঠিক, এইবার অনুগল্প বাদ দিয়া পুরা গল্প লেখেন :ভেংচি: 😀 … যেন কোন অপূর্ণতা না থাকে… :থাম্বসআপ: :থাম্বসআপ:

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *