বদি বন্দনা

শৈশব থেকে আজ পর্যন্ত ‘বদি’ নামধারী যে কয়টা পাবলিক দেখছি, সব শালাই তেড়ি মাদার্চোত…. সর্ব’প্রথম’  ‘বদি’ নামক  বদমাইশের সাথে পরিচয় হয় বাকের ভাইর সৌজন্যে ! এই বদির বেঈমানীর  কারণেই শেষ পর্যন্ত  মহান বাকের ভাইর ফাসি হয় ….

আর সর্ব’শেষ’ বদি নামক জঘন্য যে  ব্যাক্তিত্বের  বদমাইশি ‘উপভোগ’ কর্তেছি , তিনি হচ্ছেন কক্সবাজারের বর্তমান এমপি আওয়ামী লীগের আব্দুর রহামান বদি ….

বহুদিন ধরেই সাংসদ বদিকে ইয়াবা পাচারকারীদের “ডগ” ফাদার হিসাবে চিহ্নিত করে দেশের প্রায় সব পত্রিকাতেই এক বা একাধিক প্রতিবেদন ছাপা হবার পর অবশেষে সরকার এবং বদি দুজনেরই টনক নড়লো ….


শৈশব থেকে আজ পর্যন্ত ‘বদি’ নামধারী যে কয়টা পাবলিক দেখছি, সব শালাই তেড়ি মাদার্চোত…. সর্ব’প্রথম’  ‘বদি’ নামক  বদমাইশের সাথে পরিচয় হয় বাকের ভাইর সৌজন্যে ! এই বদির বেঈমানীর  কারণেই শেষ পর্যন্ত  মহান বাকের ভাইর ফাসি হয় ….

আর সর্ব’শেষ’ বদি নামক জঘন্য যে  ব্যাক্তিত্বের  বদমাইশি ‘উপভোগ’ কর্তেছি , তিনি হচ্ছেন কক্সবাজারের বর্তমান এমপি আওয়ামী লীগের আব্দুর রহামান বদি ….

বহুদিন ধরেই সাংসদ বদিকে ইয়াবা পাচারকারীদের “ডগ” ফাদার হিসাবে চিহ্নিত করে দেশের প্রায় সব পত্রিকাতেই এক বা একাধিক প্রতিবেদন ছাপা হবার পর অবশেষে সরকার এবং বদি দুজনেরই টনক নড়লো ….

এই টনক নড়ার ফলাফল স্বরুপ, বদি কাল টেকনাফ উপজেলা পরিষদ সন্মেলন কক্ষে আয়োজিত জেলা আইন শৃংখলা কমিটির বিশেষ সভায় বক্তব্য দিতে গিয়ে বলেন ” আমি নই, টেকনাফের সাংবাদিকেরা ইয়াবা ব্যাবসা করছেন অথচ বিভিন্ন সংবাদ মাধ্যমে আমাকে ইয়াবা পাচারের গড ফাদার বানানো হচ্ছে !!!  শপথ করে তিনি আরো বলেন “জীবনে ও  কোন দিন ইয়াবা ব্যাবসা করি নি, আমার পরিবারের কেউ এই হারাম ব্যাবসায় জড়িত নয়” …..

মাননীয় বদি, আপ্নে যে কতটা ‘ধোয়া  তুলিসি পাতা”  এটা এদেশের কাক পক্ষি ও জানে, জানেন না কেবল আপ্নে !! তবু আপ্নার বক্তব্যানুসারে  ধরেই নিলাম, সাংবাদিকেরাই  ইয়াবা ব্যাবসায়ীদের গড ফাদার, এরাই ইয়াবা পাচারের মাধ্যমে তরুন প্রজন্ম ধধংষ করে দিচ্ছে ….
সেক্ষেত্রে পাবলিক জানতে চায়-  ঐ এলাকার নির্বাচিত জনপ্রতিনিধি হিসাবে আপ্নে কার বাল ফেলেছেন , জনাব !!? সাংবাদিকেরা  আপ্নের নাকের ডগা দিয়া আপ্নার এলাকা থিকা ইয়াবা পাচার করে ,অথচ গত ৫ বছর ধৈরা আপ্নে কোন টু শব্দ ছাড়াই বৈসা ছিলেন  কেন !? 
কিসের বা কার স্বার্থে আপ্নের এই ‘পিন ড্রপ সাইলেনসে’র অবতারণা !!?
তার মানে আপ্নেও কি তাদের কাছ কমিশন খাইতেন !?  এ ছাড়া তো ৫ বছর ধৈরা আপ্নের নীরবতা অবলম্বনের আর কোন যৌক্তিক কারণ গুগলে সার্চ দিয়া ও খুজে পাওয়া যাচ্ছে না !!

আর যদি আপ্নে বলেন যে,  সাংবাদিকরা যে ইয়াবা পাচারকারীদের গড ফাদার সেটা আপ্নি হপায় জানলেন, আগে জানতেন না …. তাইলে ত আপ্নের দোষ আরো অনেক বেশি – কারন আপ্নে দায়িত্ব পালনে পুরাই ব্যার্থ, সুদীর্ঘ ৫ বছরে ও যে লোক তার নিজের এলাকার মাদক ব্যাবসায়ীদের চিহ্নিত করতে ব্যার্থ হয় , সেই লোকের উচিত পদত্যাগ করা ….
কারণ “ইয়াবা” এখন জাতীয় ইস্যু … দেশের লাখ লাখ লোক ইয়াবার ভয়াল থাবায় আসক্ত ……. “বাবা” ছদ্ম নামের এ নেশার মায়ায় আক্রান্ত ব্যাক্তিরা অনেক সময় নিজের আসল বাবা মাকে ও খুন করতে দ্ধীধা করে না…. এই নকল বাবার প্রতি এতই তাদের ভালবাসা….. আর এই নেশার যোগান দেয় মায়ানমার,  টেকনাফ সীমান্ত দিয়ে তা এদেশে আসে, সুতরাং ইয়াবা নির্মুলের জন্য সবচেয়ে গুরুত্বপুর্ণ অঞ্চল হচ্ছে এই টেকনাফ  উপজেলা …

খুব সহজেই এখানকার জনপ্রতিনিধির নায়ক হবার বেশ বড় সুযোগ ছিল…. জনপ্রতিনিধী রা কিছু ব্যাপারে একটু কঠোর হলে,  প্রশাসন ও শক্ত থাকে তাদের এবং কাজের গতি ও বেড়ে যায়….. তিনি একটু ততপর হলেই এ মাদকের অনুপ্রবেশ অনেকাংশেই রোধ করা যেত….. সরকারি দলের একজন জনপ্রিতিনিধি ইচ্ছা করলেই অনেক কিছু ঠেকাতে পারেন… কিন্তু অভাব কেবল সদিচ্ছার …

আর যেহেতু ইয়াবা আপাতত দেশের সবচেয়ে বড় সমস্যা, তাই এ জিনিস কিঞ্চিত পরিমান ঠেকাতে পারলেও বদির পক্ষে  মরহুম আহসান উল্লাহ মাস্টার , নারায়ন গঞ্জের মেয়র আইভি কিংবা  ওবায়দুল কাদেরের মত  “জনতার নায়ক” হওয়া মোটেই কঠিন হত না ….

কিন্তু নায়ক হবার এই সুযোগটা তিনি নিলেন না,  হয়ত “নায়ক হবার সুযোগে”র চেয়ে “ধান্ধার সুযোগটাই” তার কাছে বেশি  গুরুত্বপুর্ণ ছিল ….. অথচ দাড়ি মোচ মন্ডিত এবং সর্বদা টুপি-পাঞ্জাবি পরিহিত বদির লেবাস দেখলে কেউ কল্পনাই করতে পারবেনা যে, লেবাসের আড়ালে ঘাপটি মেরে পড়ে থাকা লোকটা কতটা ভয়ংকর !! যে কিনা রক্ষকের ভুমিকায় অবতীর্ণ হয়ে ভক্ষক গিরি করে বেড়াচ্ছেন প্রতিনিয়ত… আবার নিজের দোষ অন্যের ঘাড়ে চাপিয়ে দেয়ার গুন টাও তিনি বেশ ভাল ভাবেই রপ্ত করছেন !
আসলেই তিনি আদর্শ এক সাংসদ বটে …….

তবে “বাঘে ছুলে ১৮ ঘা,  পুলিশ ছুলে ৩৬ ঘা আর সাংবাদিক ছুলে ৭২ ঘা’ – প্রায় ধ্রুব সত্যে পরিণত হওয়া এই এক্স টেন্ডেড প্রবাদ টা  খুব  সম্ভবত সাংসদ বদি শোনেন নাই কখনো ……… তবে আফসোসের কিছু নাই, এবার খুব শিঘ্রি তিন সেটা বুঝবেন ইনশাল্লাহ ….

আর সরকারের প্রতি আহবান, বদির দিকে ‘খূব খিয়াল’ ; আস্কারা না দিয়ে যত দ্রুত  সম্ভব তার প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নেয়া হোক,  অন্যথায় “কোথাও কেউ নেই”র বাকের ভাইকে তার “একান্ত বশ্বস্ত চামচা” বদি যেভাবে লটকাই  দিয়েছিলেন,  ঠিক সেভাবেই কোন কিছু টের পাবার আগে সাংসদ বদি আপনাদের কে ও লটকাই দিবে ……
অতএব বদির প্রতি খূব খিয়াল ……

৩ thoughts on “বদি বন্দনা

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *