অনুকাব্য

প্রিয়-অপ্রিয়
সকলে গিয়াছে দূরে ।
শুধু তুমি জেনে নিয়ো
দিবা-নিশী অন্ত নাই
মহাকাল ব্যাপী শূণ্যতায়
কে যেন আমারে পোড়ে ?



প্রিয়-অপ্রিয়
সকলে গিয়াছে দূরে ।
শুধু তুমি জেনে নিয়ো
দিবা-নিশী অন্ত নাই
মহাকাল ব্যাপী শূণ্যতায়
কে যেন আমারে পোড়ে ?
——-
আমি খুব কষ্ট নিয়ে বাঁচি।
ধূসর কোন ধুয়ার উপর
যেমন সীমের বীচি
আমি তেমন করে বাঁচি ।
——-
আমার দেশে মানুষ আছে
লাখে লাখে ।
মানুষ আছে হাট-বাজারে ।
একটি মানুষ, পাইনা তাকে
যে রবে মোর মন মাজারে ।
——-
সে যে ভিনদেশী মেয়ে
ফুলের কারিগর ।
তারে কেমনে উঠাবো নায়ে
আমার নাউ যে নড়োবর!
——-
তোমার লগে নিবা মাঝি ?
আমি অভিশপ্ত বৈরাগী ।
চাল নাই চুলা নাই
নাই মাটি-ভিটে ।
দুঃখ লইয়া ঘুরি ফিরি
অন্তরে, আঙ্গুলে ও পীঠে ।
———
আজ ভালোবাশার বীজ বপিবো
হূদয়ে তোমার ।
জোৎন্স কিছু যাকনা খসে
নক্ষত্রের ছায়ায় বসে
ঘুচিবো আঁধার ।
———
ভাবছো কি গো সই?
খুব কি ক্ষতি
নীল মালতী?
আমি যদি তোমার হই ?

৪ thoughts on “অনুকাব্য

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *