না পাঠানো চিঠি …২

প্রিয় মেঘ,

আমি জানি এখন তুমি গভীর ঘুমের তলদেশে ডুবে আছো । যেখানে নেই কোন শাসন, বারণ, মান – অভিমান । নেই অসম্ভব কিছু পাওয়ার তীব্র আনন্দ কিম্বা হারানোর গাঢ় বেদনা । আর তাই ঘুম আমার কাছে শ্রেষ্ঠতম বিনোদন । আশ্রয়হীনের শেষ আশ্রয় । ঘুমাও তুমি ।

এই লেখা যখন তুমি পড়ছো, আমি হয়তো তখন বাসের জানালা দিয়ে তাকিয়ে আছি বাংলার শ্যামল প্রকৃতির দিকে । গাড়ির তীব্র গতির সাথে ছুটে চলেছি আমিও । পেছনে ফেলে আমার আনন্দ বেদনায় বোনা জীবনের সাত কাহন ।


প্রিয় মেঘ,

আমি জানি এখন তুমি গভীর ঘুমের তলদেশে ডুবে আছো । যেখানে নেই কোন শাসন, বারণ, মান – অভিমান । নেই অসম্ভব কিছু পাওয়ার তীব্র আনন্দ কিম্বা হারানোর গাঢ় বেদনা । আর তাই ঘুম আমার কাছে শ্রেষ্ঠতম বিনোদন । আশ্রয়হীনের শেষ আশ্রয় । ঘুমাও তুমি ।

এই লেখা যখন তুমি পড়ছো, আমি হয়তো তখন বাসের জানালা দিয়ে তাকিয়ে আছি বাংলার শ্যামল প্রকৃতির দিকে । গাড়ির তীব্র গতির সাথে ছুটে চলেছি আমিও । পেছনে ফেলে আমার আনন্দ বেদনায় বোনা জীবনের সাত কাহন ।

প্রতিবার যাত্রায় আমার এমন অনুভূতি হয় জানো । মনে হয় কী যেন ফেলে গেলাম । কেউ বুঝি আমার জন্য অকারণ রোদনে বারে বারে আঁচলে মুখ লুকোচ্ছে । কিন্তু আমিতো জানি এরকম ভাবনা উদ্ভট কল্পনা ছাড়া আর কিছু নয় । তবু এই ভাবনাটি কী এক অজানা সুখে মনকে ভরিয়ে দেয় কিছু সময়ের জন্য । যাত্রা পথেই আমি যেন নিজেকে ফিরে পাই । নিজের সাথে কথা হয় মনে মনে ।

আমার যাপিত জীবন একঘেয়ে বলা যাবে না কোন মতে । বিভিন্ন কাজে এবং অকাজে ডুবে আছি অষ্টপ্রহর । অকাজে বললাম এজন্য যে, মাঝে মাঝে সময়কে আমার কাছে খুব সস্তা মনে হয় । মনে হয় আমার সবগুলো পকেটভর্তি রাশি রাশি টাকার মতো অঢেল সময় । আর তাই বেরিয়ে পড়ি নিরুদ্দেশের পথে । সময়কে খরচ করি বেহিসেবির মতো । আমার সময় তবু ফুরোয় না । সময় না ফুরোলেও ক্লান্তি আমাকে ফিরিয়ে আনে একফোটা নিদ্রার লোভে ।

তোমার কথা ভেবেছি গত দু’দিন । জীবনের জটিলতাগুলো কেন এমন অমোঘ নিয়তির মতো মনে হয় !!! হাহাহাহাহা … তুমি হাসছো ভূতের মুখে রাম নাম শুনে ! নাহ, নিয়তি টিওতিতে আমার বিন্দুমাত্র আস্থা নেই । ও বলার জন্য বলা । যেমন কেউ দোয়া চাইতে আসলে খুব ভক্তি ভরে দোয়া করে দেই এটা বিশ্বাস করেই যে এসব অপ্রাকৃত দোয়াতে কোন লাভ নেই ।

তুমি বলেছো, তুমি খুব চঞ্চল স্বাধীনচেতা একজন মানুষ । কিন্তু আর কিছুদিন পরে গ্রহন করতে যাচ্ছ স্বেচ্ছাবন্দী জীবন । পরিবার, সমাজ , প্রথার কথা বিবেচনা করে । যা কিছু তোমার ব্যক্তিগত, খুব প্রিয় সব বিসর্জন দিয়ে তুমি হবে কারো ইচ্ছের দাসী । শুনে আমার খুব খারাপ লেগেছে । কিছুটা কষ্টের বোধ আমারও হয়েছে নিরবে । তোমাকে বুঝিয়েছি অনেক । মনে করিয়ে দিয়েছি জীবনের অনেক মহৎ স্বপ্নের কথা । সত্যের কথা । বলেছি দুর্লভ জীবনের হিরণ্ময়তার কথা । কিন্তু খুব আশ্চর্য হয়ে আবিষ্কার করেছি এসব কিছুই তোমার শিক্ষিত মননে সামান্যতম ঢেউ বিস্তার করতে পারেনি । পরে ভেবে বুঝেছি মরা গাঙ্গের কাছে আছড়ে পড়া ঢেউয়ের গল্প রূপকথা ছাড়া আর কিছু নয় ।

তবু তোমাকেই বলছি শোন, ভেঙ্গে পড়ার আগে মচকে যেওনা না। জীবনের গল্প অতো ছোট নয় । আর জীবন শোক ভোগ করার জন্যও নয় । প্রতি মুহূর্ত বেঁচে থাকার নাম জীবন । তুমি যদি জীবনের দিকে হাত বাড়াও । জীবন তোমাকে ফিরিয়ে দেবে না । বিশ্বাস রেখো …

তোমার স্নিগ্ধ সৌন্দর্যের পূজারি
আহত পরিব্রাজক

২২ thoughts on “না পাঠানো চিঠি …২

  1. আপনি তিব্র গতিতে ছুটে চলা
    আপনি তিব্র গতিতে ছুটে চলা বাসে বসে চিঠিও লিখতে পারেন! :খাইছে:
    আপনার তো দেখি ভাই ম্যালা গুণ! আমার হাতের লেখা এমনিতেই ভালো না- বাসে বসে লিখলে ডাক্তারের প্রেসক্রিপশন হয়ে যাবে! 😛
    ল্যাপটপ/ট্যাবে লিখে থাকলে অবশ্য আলাদা কথা…!

    “ভেঙ্গে পড়ার আগে মচকে যেওনা না। জীবনের গল্প অতো ছোট নয় । আর জীবন শোক ভোগ করার জন্যও নয় । প্রতি মুহূর্ত বেঁচে থাকার নাম জীবন । তুমি যদি জীবনের দিকে হাত বাড়াও । জীবন তোমাকে ফিরিয়ে দেবে না । বিশ্বাস রেখো …”

    দারুন বলেছেন! বিশ্বাস রাখলাম… বিশ্বাসেই তো সব!
    :ফুল:

    1. সফিক ভাই,
      ধুর মিয়া, আপনি না

      সফিক ভাই,
      ধুর মিয়া, আপনি না একটা ইয়ে – বাসে বসে লিখিনি । লিখে উঠেছি ।
      আর হাতে লিখিনি ল্যাপটপে !!!
      – হুম বিশ্বাসেই সব ।
      ধন্যবাদ !!!

      1. ও আগে কইবেন তো!

        ও আগে কইবেন তো! 😛

        :হাহাপগে: :হাহাপগে: :হাহাপগে:

        আপনাকে দেখাবো বলে একটা “নাটক” পোস্ট করেছিলাম… কোন সাজেশন থাকলে পড়ে একটু জানাবেন তো-

        http://istishon.blog/node/4623

  2. পুরো চিঠির মধ্যেই একটা ছন্দ
    পুরো চিঠির মধ্যেই একটা ছন্দ ছিল যেটা খুব ভাল লাগলো। চিঠিগুলো একটা একটা করে পোস্ট না করে, একসাথে করা যায় না? তাহলে লেখাগুলো একসাথে পড়া যেত।

  3. খুবই চমৎকার চিঠি । আমাদের
    খুবই চমৎকার চিঠি । আমাদের চিাঠি লেখার পাগলামি সময়টাকে আবারও মিস করলাম । তবে মনে হচ্ছে চিঠিটা কাউকে পোস্ট করলে মন্দ হতো না । হাহাকারের ঔষুধ জুটেও যেতে পারতো ।

    মাইন্ড না করলে একটা তথ্য দিই ।
    “না পাঠানো চিঠি “শিরোনামে সুনীলের একটা দীর্ঘ কবিতা আছে । সেটা নিয়ে নাটক,সিনেমা,শর্টফিল্ম সবই হতে পারে । এই লেখার ক্ষেত্রে নামটা প্রাসঙ্গিক, তবে না পাঠানো চিঠি বললেই আবার ওই দীর্ঘ কবিতার পুরো দৃশ্যপট চোখের সামনে ভেসে উঠে । যাউক গা….

    1. আমজাদ,
      আমার জানা ছিলোনা ।

      আমজাদ,
      আমার জানা ছিলোনা । এরপর থেকে অবশ্যই এই শিরোনাম থাকবেনা । তথ্যটা জানাবার জন্য অনেক ধন্যবাদ ! একজন সুনীল ভক্তর কাছে এই তথ্য থাকাটাই স্বাভাবিক … হাহাহাহাহাহাহাহ …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *