টুকরো টুকরো পরাজয় ক্ষুদ্র ক্ষুদ্র মৃত্যু

আজকের এই টুকরো টুকরো পরাজয়
আমাকে বেঁধে ফেলে
জীবনের চক্রবুহ্যের মাঝে,
এই ক্ষুদ্র ক্ষুদ্র মৃত্যু
মনে করিয়ে দেয় জীবনের দিনলিপি।
কোনো এক লাশকাটা ঘর
কিংবা মাংসের দোকানে মৃত হৃত্পিন্ড দেখে
নিজেকে দেখতে পাই ঐ
মাছিপড়া,কালচে রক্তেমাখা ছোট্ট মাংসপিন্ডে।
ভয় হয়,ভয়ে শিউরে উঠি
কিন্তু একবিন্দু ঘৃণাও লাগেনা ঐ প্রচন্ড দৃশ্যে।
হৃত্ পিন্ডটিকে খুব স্নিগ্ধ পবিত্র লাগে
কিন্তু ঐ মাছি যেন পৃথিবীর জঘন্য সমাজব্যবস্থা।
মাছিকে আমি আবহমানকাল ভয় পাই
হয়তোবা ঘৃণাও করি।
জীবনের এই টুকরো টুকরো পরাজয়
আর ক্ষুদ্র ক্ষুদ্র মৃত্যু
কোনোদিনই আমায় গ্রাস করত না
যদি পেতাম সেই –

আজকের এই টুকরো টুকরো পরাজয়
আমাকে বেঁধে ফেলে
জীবনের চক্রবুহ্যের মাঝে,
এই ক্ষুদ্র ক্ষুদ্র মৃত্যু
মনে করিয়ে দেয় জীবনের দিনলিপি।
কোনো এক লাশকাটা ঘর
কিংবা মাংসের দোকানে মৃত হৃত্পিন্ড দেখে
নিজেকে দেখতে পাই ঐ
মাছিপড়া,কালচে রক্তেমাখা ছোট্ট মাংসপিন্ডে।
ভয় হয়,ভয়ে শিউরে উঠি
কিন্তু একবিন্দু ঘৃণাও লাগেনা ঐ প্রচন্ড দৃশ্যে।
হৃত্ পিন্ডটিকে খুব স্নিগ্ধ পবিত্র লাগে
কিন্তু ঐ মাছি যেন পৃথিবীর জঘন্য সমাজব্যবস্থা।
মাছিকে আমি আবহমানকাল ভয় পাই
হয়তোবা ঘৃণাও করি।
জীবনের এই টুকরো টুকরো পরাজয়
আর ক্ষুদ্র ক্ষুদ্র মৃত্যু
কোনোদিনই আমায় গ্রাস করত না
যদি পেতাম সেই –
এক হাজার আটটিনীলপদ্মের উত্তর।

-ব্যর্থ কবি-

৪ thoughts on “টুকরো টুকরো পরাজয় ক্ষুদ্র ক্ষুদ্র মৃত্যু

  1. এটা মোটামুটি ভালো লেগেছে।
    এটা মোটামুটি ভালো লেগেছে। একটু ধীরে সুস্থে পোস্ট দেন। প্রথম পাতায় আপনার একার পোস্ট দিয়ে ভরিয়ে রাখলে হবে? অন্যদেরও একটু চান্স দেন।

  2. এসব আবাল পাবলিক আসে কোত্থেকে?
    এসব আবাল পাবলিক আসে কোত্থেকে? ব্লগে এসেই জ্ঞানের ডায়রিয়া শুরু হয়ে গেছে!

  3. প্রথমদিন ব্লগে এসেই আহাম্মকের
    প্রথমদিন ব্লগে এসেই আহাম্মকের মতন একসাথে ৪/৫ কবিতা পোস্ট করেছিলাম।একেবারে যেন জ্ঞানের ডায়রিয়া ছুটে গিয়েছিল।তখন ব্লগিংয়ের তেমন কোনো ধারণাই ছিলনা।যাই হোক সেই দিনের কথা মনে পড়লে হাসি পায় আবার দুঃখও লাগে।কবিতাটা মোবাইল ব্রাউজিং এর কারণে কবিতার আঙ্গিকে দিতে পারিনি তখন।আজ কবিতার আঙ্গিকে সাজিয়ে দিলাম।মন্তব্যকারী ভাইদের অশেষ ধন্যবাদ ব্লগিং সম্পর্কে আমায় ধারণা দেবার জন্য।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *