কখনোই দেখতে পারবে না

কখনো কি দেখেছো একটি মায়ের চোখ দিয়ে বেয়ে পড়া ফোঁটা ফোঁটা রক্ত,
না,আমি জানি,তুমি দেখনি ,
তুমি তা কখনোই দেখতে পারবে না ।

কখনো কি দেখেছো ছোট্ট বোনের হাতের চুড়ি খানখান করে ভেঙ্গে যাওয়া,
পুতুল খেলার বয়সে যে হয়েছে আজ বীরাঙ্গনা ,
যার চিৎকারে সমস্ত সত্তা নিজেকে কুকুর বলে গালি দেয়,
না,আমি জানি,তুমি দেখনি ,
তুমি তা কখনোই দেখতে পারবে না ।

কখনো কি দেখেছ স্বপ্নদ্রষ্টা বাবার বুকে অজস্র বুলেটের ফুটো ,
যেখান থেকে রক্ত নয়,বের হয় তীব্র ঘৃণা আর সততার হাহাকার,
না,আমি জানি তুমি দেখনি ,
তুমি তা কখনোই দেখতে পারবে না ।

কখনো কি দেখেছো সরল ভাইয়ের সরল চোখের আকুল আবেদন ,

কখনো কি দেখেছো একটি মায়ের চোখ দিয়ে বেয়ে পড়া ফোঁটা ফোঁটা রক্ত,
না,আমি জানি,তুমি দেখনি ,
তুমি তা কখনোই দেখতে পারবে না ।

কখনো কি দেখেছো ছোট্ট বোনের হাতের চুড়ি খানখান করে ভেঙ্গে যাওয়া,
পুতুল খেলার বয়সে যে হয়েছে আজ বীরাঙ্গনা ,
যার চিৎকারে সমস্ত সত্তা নিজেকে কুকুর বলে গালি দেয়,
না,আমি জানি,তুমি দেখনি ,
তুমি তা কখনোই দেখতে পারবে না ।

কখনো কি দেখেছ স্বপ্নদ্রষ্টা বাবার বুকে অজস্র বুলেটের ফুটো ,
যেখান থেকে রক্ত নয়,বের হয় তীব্র ঘৃণা আর সততার হাহাকার,
না,আমি জানি তুমি দেখনি ,
তুমি তা কখনোই দেখতে পারবে না ।

কখনো কি দেখেছো সরল ভাইয়ের সরল চোখের আকুল আবেদন ,
মৃত্যুর আগে একটিবার আলিঙ্গন ,আর ঠোঁটের কোনে নির্মল হাসি
না, আমি জানি , তুমি দেখনি ,
তুমি তা কখনোই দেখতে পারবে না ।

কখনো কি দেখেছো ঠেলাগাড়ি উপরে দুমড়ানো মানুষের লাশ
অথবা ডোবার ধারে ফুলে উঠা কিছু মাংসপিণ্ড ?
কখনো কি দেখেছো শিয়াল কুকুরের মুখে মানুষের মাংস
অথবা মানুষের মাথা নিয়ে ফুটবল খেলা…………
না, আমি জানি,তুমি দেখনি,
তুমি তা কখনোই দেখতে পারবে না ।

কখনো কি দেখেছো দাউ দাউ করে আগুন জ্বলছে পুরো একটি গ্রামে অথবা একটি হৃদয়ে;
কখনো কি দেখেছো রাজপথে আলপনার বদলে মানুষের গলিত লাশ,
কখনো কি দেখেছো সবচেয়ে বড় আলপনা থেকেও বড় লাশের সারি;
না, আমি জানি , তুমি দেখনি,
তুমি তা কখনোই দেখতে পারবে না ।

কখনো কি দেখেছো শুকুনের অধীর আগ্রহে অপেক্ষা
চকচক করা চোখে মড়া খাওয়ার লালসা,
কখনো কি দেখেছো হলুদ মগজ দিয়ে তৈরি হয়েছে বাংলাদেশের মানচিত্র
না , আমি জানি , তুমি দেখনি ,
তুমি তা কখনোই দেখতে পারবে না ।

তাইতো আজ তুমি উল্লাসিত , আনন্দে মত্ত, হিংস্র, পাশবিক
আজ তুমি তাই কবর থেকে তুলে তাদেরই মাংস খাচ্ছ ;
অবশিষ্ট যা বাকি আছে সবার চোখের আড়ালে নিজের পশ্চাৎদেশ দিয়ে তা ভক্ষণ করছ,
তাইতো আজ তুমি সেই মৃতপ্রায় মায়ের বুক থেকে কলিজা টেনে বের করছ,
সেই বাবার যুদ্ধাহত পায়ে লথি মেরে হাড্ডি গুঁড়িয়ে দিচ্ছ ।
তাই তো আজ তুমি শকুন-হায়নার দলকে নিজের কাঁধে উঠিয়েছ,
আর আয়েশে চোখ বন্ধ করে ফেলছ ।

কারন আমি জানি, তুমি স্বাধীনতা দেখনি ,
তুমি তা কখনোই দেখতে পারবে না ।

৩ thoughts on “কখনোই দেখতে পারবে না

  1. ভালোই।তবে একই রকম লাইন বারবার
    ভালোই।তবে একই রকম লাইন বারবার রিপিড করে কিছু কথা সংযোজন করে লিখাতে মাঝে একটু একঘেয়েমি এসে গিয়েছিল।বড় কবিতা লিখতে গেলে এই বিষয়টার দিকে বেশি নজর দিতে হয়।যাই হোক ভালোই।চালিয়ে যান।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *