আমি একজন ভারতীয় দালাল ভাই……

কদিনের জ্বালাময়ী স্ট্যাটাস দেখে দেখে আমি ক্লান্ত,সাথে ক্লান্ত আমার হোমপেজও।দেশপ্রেমিক ফেসবুকাররা ভারতীয় পন্য বর্জনের ডাক দিয়েছেন।তবে শুধু স্টার জলসা,জ্বি বাংলা,স্টার প্লাস,ভারতীয় পিঁয়াজ,শাড়ি,গরু,সাহিত্য,সিনেমা এসবের মাঝেই আটকে আছে ওদের লিস্ট।আমার মাথায় আরো কিছু লিস্টআসছে…
১.রাতে জ্বালাময়ী স্ট্যাটাস দিয়েসকালে ঘুম থেকে উঠে “ভারতীয় টুথপেস্ট” দিয়ে দাঁত মাজতে মাজতেস্ট্যাটাসের লাইক গোনাটা আগে বন্ধ করুন হে দেশপ্রেমিকগন!!

কদিনের জ্বালাময়ী স্ট্যাটাস দেখে দেখে আমি ক্লান্ত,সাথে ক্লান্ত আমার হোমপেজও।দেশপ্রেমিক ফেসবুকাররা ভারতীয় পন্য বর্জনের ডাক দিয়েছেন।তবে শুধু স্টার জলসা,জ্বি বাংলা,স্টার প্লাস,ভারতীয় পিঁয়াজ,শাড়ি,গরু,সাহিত্য,সিনেমা এসবের মাঝেই আটকে আছে ওদের লিস্ট।আমার মাথায় আরো কিছু লিস্টআসছে…
১.রাতে জ্বালাময়ী স্ট্যাটাস দিয়েসকালে ঘুম থেকে উঠে “ভারতীয় টুথপেস্ট” দিয়ে দাঁত মাজতে মাজতেস্ট্যাটাসের লাইক গোনাটা আগে বন্ধ করুন হে দেশপ্রেমিকগন!!
২.লা লিগা,ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগ,বুন্দেসলিগা দেখতে দেখতে ফেবুতে স্ট্যাটাস দেয়া আগে ছাইড়াদেন!সঙ্গে ছাড়েন অ্যাশেজ,বিভিন্নআর্ন্তজাতিক ক্রিকেট ম্যাচ,বিশ্বকাপ,আর্ন্তজাতিক ফুটবল ম্যাচ।কারন ইএসপিএন,স্টার স্পোটর্স,স্টার ক্রিকেট,টেন স্পোটর্স ,সনি সিক্স এদের বর্জন করতে হবেনা???
৩.জাকির নায়েকের লেকচার শোনা ছাইড়া দেন।সাথে ছাড়েন পিসটিভি দেখা।কারন এগুলো নিশ্চয় ভারতীয় পন্যের বাইরে না??
৪. ফেবুতে গরম করা ভারতীয় পন্য বর্জনের স্ট্যাটাস দিলাম রাত ১১টায়।রাত ১২টায় জানুর সাথে আলাপলাগাইলাম।সাথে আছে “ভালবাসার টানে পাশে আনে!”সো এয়ারটেল প্রেমীরা সিমগুলো ফেলে দেন প্লিজ…….
৫.হিরো হোন্ডা,পালসারে চড়ে জানু নিয়ে ঘুরে বেড়ানো,ভারতীয় অটোতে চড়ে যাতায়াত করা,মাহেন্দ্র ট্যাক্টর দিয়া জমি চাষ করা ছাড়ুন না ভাই।কৃষক ভাইরা নাহয় লাঙ্গল দিয়া চাষ দিবো নাহয় জাপানি ট্যাক্টর চালাইবো। ও টাটা কোম্পানির ট্রাক বাসগুলাও ছাড়তে হবে! দরকার পড়লে হেঁটে যামু। চলো বহুদুর!!
৬.DISH TV,TATA SKY,AIRTEL TV এসব স্যাটেলাইন এন্টেনাগুলা দিয়া আর কি হবে?এখন থেকে আবার বাশঁ ঘুরানো এন্টেনা দিয়া BTV দেখা শুরু করতে হবে।কি ভাই পারবেন তো?
৭.সামনের কোরবানি ঈদে ভারতীয় সস্তা গরু রেখে
সৌদি থেকে আমদানিকৃত উট দুম্বা দিয়ে ঈদ চালানো হবে।ঠিক আছেনা ভাই?
আর কিছু মনে পড়ছেনা আপাতত।নতুন আইডিয়া থাকলে দেন..
¤[যারা ফেলানীর বিচারের কথা বাদ দিয়ে এই মুক্তবাজার অর্থনীতিতে শুধু ভারতীয় পন্য বর্জনের কথা বলতেসে তাদের বৃদ্ধাঙ্গুলি!!বিচার সুষ্ঠ হচ্ছে কিনা তা যখন বিচার শুরু হয়েছিল তখন দেখার প্রয়োজন মনে করছিলেন?তখন কই ছিল জ্বালাময়ী ভাষন?? ভারতীয় পন্য বর্জন করলেই রায় ঠিক হয়ে যাবেনা।সবার আগে এই সিজনাল প্রেম বাদ দিয়া নিজেদের শুধরাতে হবে]
**চাইলে ভাদা গালি দিতে পারেন!

১৪ thoughts on “আমি একজন ভারতীয় দালাল ভাই……

  1. প্রথমেই বলে রাখলাম, পুরোপুরি
    প্রথমেই বলে রাখলাম, পুরোপুরি অযৌক্তিকতায় ভরা একটা পোস্ট এইটা। ভারতীয় পণ্য অবশ্যই বর্জন করবো। তবে, যেসব পণ্যের দিক থেকে আমরা স্বয়ংসম্পুর্ণ নই সেগুলো এখনি বর্জন করার প্রশ্ন উঠে না। বয়কট করা হচ্ছে, প্রতিবাদের একটা শান্তিপূর্ণ প্রক্রিয়া। গান্ধি যেমন অসহযোগ আন্দোলন করেছিলেন অনেকটা তেমন। কিন্তু, একটা বিষয় আমার পরিষ্কার হইতেছেনা, ভারতীয় পণ্য বর্জনের কথা উঠলে আপনাদের এত জ্বলে কেন?? নিজে বর্জন না করতে পারলে, চুপ করে বসে থাকলেই হয়। একজন যদি বর্জন করতে পারে তো করুক না। আপনাদের এলার্জী কোথায়? ঘরে বসে বসে চিল্লাইতে পারেন, একবার রাস্তায় নামতে পারেন না? সীমান্তে একটা একটা করে মানুষ মরতেছে, তো আমরা প্রতিবাদ করলেই আপনার সুশীলতা দেখান কেন? আমাদের করণীয় টা কী তাহলে? কতরকম যুক্তি দেখাইতে পারেন, কিন্তু ভারতমাতা বর্জনে এত আপত্তির কারণ কি? ভারতীয় পণ্য বর্জন মানে ভারতের এই প্রহসনের রায়ের প্রতিবাদের অসহযোগ। কিন্তু আপনাদের এইসব পোস্ট দেইখা মনে হয় যেন, ঐসব কোম্পানির পণ্য না কিনলে আপনাদের পেটে ভাত জুটবে না!

    এইসব সুশীলতা পরে কোনো ইস্যুতে করলেও হবে। আপাতত, বোন হত্যার বিচার চাইতে প্রবলেম নাই। নয়তো, এভাবেই আরো শত শত ফেলানী কাঁটাতারের উপর ঝুলে থাকবে। এবং, বারবার আমাদের হারিয়ে দিয়ে নিজে জিতে যাবে। কে জানে, স্বর্গের কাঁটাতারের দোলনায় ফেলানীরা হয়তো আপনাদের ভারত প্রেম নিয়ে হাসাহাসি করছে!!

  2. ‘ভারতের দালাল ভাই’ বিএসএফের
    ‘ভারতের দালাল ভাই’ বিএসএফের আইনে বিচার হইছে। এই আইনে কোন শাস্তি চাওয়াটাই বোকামী। এছাড়া বিএসএফের বিশেষ আদালতে বিচার। আমরা কেমনে ন্যায় বিচার বলে চিল্লাই এটাই বুঝি না। যেখানে নিজেদের বাঁচানোর জন্য বিএসএফ আইন পাশ করছে, সেখানে সেই আইনে বিচার চাওয়া আর বোকার রাজ্যে বাস সমান কথা। আর আন্দোলন, সব কিছু নিয়েই আন্দোলন, বর্জন করতে করতে এক সময় আমরা না আবার নিজেদের বর্জন করে ফেলি।

  3. এত কিছু করতে হবেনা
    এত কিছু করতে হবেনা আপাতত।প্রথমে ভারতীয় হিন্দি সিরিয়াল গুলা দেখা বাদদেন তাইলেই অর্ধেক দেশপ্রেমিক হবেন।যাই হারে সবাই হিন্দি সিরিয়াল দেখে তাতে আমার সন্দেহ মানুষ প্রথমে এইগুলানই না ছারতে পারবে বাকি গুলান ত পরের কথা।

  4. প্রতিবাদ করবেন তবে প্রতিবাদের
    প্রতিবাদ করবেন তবে প্রতিবাদের অনেক ভাষা আছে।কিছু বর্জন করবো কিছু করবোনা তা তো হয়না।আমরা ভারতীয় দূতাবাসের সামনে আন্দোলন করতে পারি,তাতে বিশ্বের মানুষকে একটা মেসেজও দেয়া হবে।এসব না করে এই মুক্তবাজার অর্থনীতির যুগে পন্য বর্জন করে আপনি কি হিন্দি চুল ছিড়বেন ভারতের??

    1. অসহযোগ আন্দোলন সম্পর্কে ধারণা
      অসহযোগ আন্দোলন সম্পর্কে ধারণা থাকলে আপনি এই প্রশ্ন তুলতেন না। পণ্য বয়কট করার মাধ্যমে শান্তিপূর্ণ আন্দোলনের প্রক্রিয়া যুগ যুগ ধরে চলে আসছে। আর দূতাবাসের সামনে দাঁড়িয়ে মানববন্ধন আমার কাছে ন্যাকমো ছাড়া আর কিছুই মনে হয়না। আমাকে এমন একটা নজির দেখান, যেখানে দূতাবাসের সামনে মানববন্ধনে কোনো ইতিবাচক রেজাল্ট পাওয়া গেছে। যেখানে ভারতীয় মানবাধিকার সংস্থা এই রায়ের প্রতিবাদ করে সেখানে আপনারা বাঙালি হয়ে কিভাবে চুপ করে থাকেন? আমরা তো বলিনি যে বোম মেরে ভারত উড়িয়ে দাও। শান্তিপূর্ণ অসহযোগ সৃষ্টির দাবী করলে আপনাদের এত জ্বলে কেন??

  5. গান্ধীর অসহযোগ আন্দোলন ছিল
    গান্ধীর অসহযোগ আন্দোলন ছিল বিদেশী সব পন্য বর্জনের বিষয়ে।দুই চারটা পন্য বর্জন করে অহিংসবাদী গান্ধী সাজার মানেটা কি ভাই???আমার চুলকানোর তো কিছু নাই

  6. গান্ধীর অসহযোগ আন্দোলন ছিল
    গান্ধীর অসহযোগ আন্দোলন ছিল বিদেশী সব পন্য বর্জনের বিষয়ে।দুই চারটা পন্য বর্জন করে অহিংসবাদী গান্ধী সাজার মানেটা কি ভাই???আমার চুলকানোর তো কিছু নাই

  7. ভাই মন্তব্যে ভাষাগত দিকটা ঠিক
    ভাই মন্তব্যে ভাষাগত দিকটা ঠিক রাখলে ভালো লাগে।এসব কী ছিড়াছিড়ির কথা বলেন?আর কিছু বলতে চাইতেছি না।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *