সেই ঢাকা; এই ঢাকা # ২য় পর্ব (মন্দির ও গির্জা)

প্রথম পর্বে ঢাকার বিভিন্ন সময়ের মানচিত্র গুলোর ছবি নিয়ে পোস্ট দিয়েছিলাম। এই পর্বে ঢাকার পুরাতন মন্দির আর গির্জাগুলোর বিভিন্ন সময়ের ছবি দিচ্ছি। বলে রাখা ভাল, অনেক আগে ঢাকায় মন্দির আর গির্জা ছিল হাতেগোনা কয়েকটি। তাই সেগুলোর ছবিই দিচ্ছি। মসজিদগুলো নিয়ে আলাদা একটা পোস্ট পরবর্তীতে দেওয়ার ইচ্ছে আছে।

ঢাকেশ্বরী মন্দির


প্রথম পর্বে ঢাকার বিভিন্ন সময়ের মানচিত্র গুলোর ছবি নিয়ে পোস্ট দিয়েছিলাম। এই পর্বে ঢাকার পুরাতন মন্দির আর গির্জাগুলোর বিভিন্ন সময়ের ছবি দিচ্ছি। বলে রাখা ভাল, অনেক আগে ঢাকায় মন্দির আর গির্জা ছিল হাতেগোনা কয়েকটি। তাই সেগুলোর ছবিই দিচ্ছি। মসজিদগুলো নিয়ে আলাদা একটা পোস্ট পরবর্তীতে দেওয়ার ইচ্ছে আছে।

ঢাকেশ্বরী মন্দির

ঢাকার প্রাচীন নিদর্শনগুলোর মাঝে অন্যতম হচ্ছে ঢাকেশ্বরী মন্দির। ঢাকেশ্বরী মানে হচ্ছে “Goddess of Dhaka”. ১২’শ শতাব্দীতে সেন বংশের রাজা বল্লাস সেন এই মন্দির তৈরি করেন। কালক্রমে এই অঞ্চলের সনাতন ধর্মাবলম্বীদের প্রধান উপাসনালয় হিসেবে এটি স্বীকৃতি পায়। ঢাকেশ্বরী মন্দিরের প্রথম যেই ফটো পাওয়া যায় সেটি তোলা হয়েছিল ১৮৯০ সালে। আলকচিত্রি কে সেটি অবশ্য জানা যায় নি।

এর পরের ছবিটি তোলা হয়েছিল ১৯০০ সালে।

ব্রিটিশ লাইব্রেরীর সৌজন্যে ১৯০৪ সালে তোলা ঢাকেশ্বরী মন্দিরের আরও একটি ছবি পাওয়া যায়। বুড়িগঙ্গার তীর ঘেঁষে স্থাপিত মন্দিরটির সৌন্দর্য ফুটে উঠেছে ছবিটিতে। পুরাতন ছবিগুলোর মাঝে এটিই সর্বাপেক্ষা স্পষ্ট।

এবার বর্তমান সময়ের ঢাকেশ্বরী মন্দিরকে দেখুন। রূপ, জৌলুষ মোটেই কমে নি, বরং কিছু ক্ষেত্রে বেড়েছে বলেই মনে হচ্ছে।

রমনা কালী মন্দির

ভারতীয় উপমহাদেশের বিখ্যাত এক মন্দির ছিল রমনা কালী মন্দির। ভাওয়ালের রাণী শ্রীমতী বিলাসমনি দেবীর অর্থানুকূল্যে এই মন্দির তৈরি হয়েছিল। তৈরির সময় এটি ছিল পুরাতন ঢাকার একমাত্র landmark. কারণ, উঁচু টাওয়ারের কারণে এটিকে অনেক দূর থেকে দেখা যেত।

মুক্তিযুদ্ধ চলাকালীন সময়ে ১৯৭১ সালের ২৭ মার্চ মন্দিরটিতে পাকিস্তানী বাহিনী হামলা চালিয়ে ১০০ এর বেশি সাধারণ মানুষ হত্যা করে এবং মন্দিরটিকে ভেঙ্গে গুঁড়িয়ে দেয়। নিচের ছবিটি সেই ধ্বংসপ্রাপ্ত মন্দিরের।

স্বাধীনতার পর হিন্দু ধর্মাবলম্বীদের দাবী সত্ত্বেও মন্দিরটিকে আর পুনর্নির্মাণ করা হয় নি বরং মন্দিরের জায়গাটুকু ঢাকা ক্লাবকে বরাদ্দ দেওয়া হয়। মাটিতে মিশিয়ে দেওয়া হয় ধ্বংসপ্রাপ্ত কালী মন্দিরের অবশিষ্ট অংশটুকুও। এই জায়গা নিয়ে এখনও মামলা চলছে। অনুসারীরা তাই এখন সেই জায়গার পাশেই নির্মিত নতুন কালী মন্দিরে পূজা-অর্চনা সম্পন্ন করে থাকেন।

জয় কালী মন্দির

জয় কালী মন্দিরের অবস্থান পুরাতন ঢাকার ঠাঠারি বাজার এবং ওয়ারির মধ্যখানে। ১৫৯৩ সালে এই মন্দিরটি তৈরি করেন শ্রী তুলসি নারায়ন ঘোষ এবং শ্রী নব নারায়ন ঘোষ। নিচের ছবিটি জয় কালী মন্দিরের পুরাতন ছবি। সাল এবং চিত্রগ্রাহকের নাম জানতে পারি নি। কেউ জানালে উপকৃত হব।

পরিচর্যার অভাবে মন্দিরটি প্রায় ধ্বংস হতে চলেছিল। পরবর্তীতে ১৯৯০ সালের দিকে অনুগ্রাহীরা এই মন্দিরের সংস্কার করেন। মন্দিরটির বর্তমান চিত্রটি দেখে নিন।

American Church

১৭ শতাব্দীর দিকে আমেরিকানরা প্রথম বাংলাদেশে আসে ব্যবসার কাজে। ধর্মকর্ম সারবার জন্য তাঁরা চার্চ তৈরি করে ১৭৮১ সালে। চার্চটির অবস্থান পুরাতন ঢাকার আরমানিটোলা তে।

আমেরিকান চার্চ এর বেশ কিছু পুরাতন ছবি পাওয়া যায় যেগুলো সম্ভবত ব্রিটিশ আমলে তোলা।

এবার আমেরিকান চার্চ এর বর্তমান ছবিটাও দেখে নেওয়া যাক।

St. Thomas Church

১৮১৯ সালে নির্মিত এই চার্চটির অবস্থান পুরাতন ঢাকার বাহাদুর শাহ পার্কে। ১৮২৪ সালের ১০ জুলাই কলকাতার বিশপ Reginald Heber তাঁর ঢাকা ভ্রমণের সময় চার্চটি উদ্বোধন করেন। নিচের চার্চের যেই ছবিটি দেখছেন সেটি তোলা হয়েছিল ১৮৭০ সালে।

চার্চের বর্তমান ছবিটিও দেখে নিন।

Holy Rosary Church

Holy Rosary Church হচ্ছে ভারতীয় উপমহাদেশের প্রথম চার্চ যেটি তৈরি হয়েছিল ১৬৭৭ খ্রিষ্টাব্দে পর্তুগীজ মিশনারিদের দ্বারা। এটিকে বলা হয় “Mother of all churches”. ঢাকার তেজগাঁওতে চার্চটি অবস্থিত। দুঃখের বিষয় অনেক খুঁজেও চার্চটির পুরাতন কোন ছবি খুঁজে পাই নি। তাই বর্তমান ছবি দিয়েই পোস্ট শেষ করছি।

পরের পর্বে ঢাকার মসজিদগুলো নিয়ে লিখব। তাঁর আগ পর্যন্ত সবাই ভাল থাকুন।

১ম পর্ব # মানচিত্র

২২ thoughts on “সেই ঢাকা; এই ঢাকা # ২য় পর্ব (মন্দির ও গির্জা)

  1. প্রথম পর্বের পর থেকেই ২য়টার
    প্রথম পর্বের পর থেকেই ২য়টার জন্য ওয়েট করতেছিলাম… আমার অপেক্ষা সার্থক :তালিয়া: :থাম্বসআপ: … আরেকটা শঙ্খচিলের ডানা স্পেশাল… :ভালাপাইছি: :ভালাপাইছি: :তালিয়া: :তালিয়া: :বুখেআয়বাবুল:

    চালায়া যান… :তালিয়া: :ধইন্যাপাতা: :গোলাপ: :ফুল:

    1. সময় নিয়ে পড়বার জন্য আপনাকেও
      সময় নিয়ে পড়বার জন্য আপনাকেও ধন্যবাদ। :ধইন্যাপাতা: ঢাকা যে কত অসাধারণ একটা শহর, এর অলিতে গলিতে যে কত ইতিহাস ছড়িয়ে আছে সেটা ভাবলেই অবাক লাগে। সাথেই থাকুন, আমার সাথে আপনারাও অতীত থেকে ঘুরে আসতে পারবেন।

      1. ঢাকা যে কত অসাধারণ একটা শহর,

        ঢাকা যে কত অসাধারণ একটা শহর, এর অলিতে গলিতে যে কত ইতিহাস ছড়িয়ে আছে সেটা ভাবলেই অবাক লাগে।

        সত্যিই… :মাথানষ্ট: :মাথানষ্ট: আফসোস, সেই ঢাকা আর এই ঢাকার মাঝে আজ কত তফাৎ… :মাথাঠুকি: :মাথাঠুকি: :মাথাঠুকি: :মাথাঠুকি: :মাথাঠুকি:

      1. ইস্টিশনে ছবিব্লগ পেয়েছি খুব
        ইস্টিশনে ছবিব্লগ পেয়েছি খুব কম। আর যে কয়টা ভালো লেগেছে তার সব কয়টাই “শঙ্খচিলের ডানা” ভাইয়ের।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *