যে কারণে সিপি গ্যাং প্রয়োজন এবং ব্ল্যাক বোল্টের ব্যান আবশ্যকঃ একটি টু ইন ওয়ান পোস্ট

এটা ছোট্ট একটা পোস্ট। ব্লগ লিখছি বেশিদিন না। আমি যেসব ব্লগে লিখি সব জায়গায় সেইম লেখা পোস্ট করি। ইনফ্যাক্ট, সব পোস্ট ইস্টিশনে দেইও না। আজ পর্যন্ত অন্যান্য সেসব ব্লগে আমার বিরুদ্ধে ট্যাগবাজি তো দূরে থাক, সামান্য কোন কটূ কথাও বলা হয়নি। গঠনমূলক সমালোচনা আর কটূ কথা এক জিনিস না। অনেক লীগাররাও সেসব পোস্টে ভিজিট করেছেন। বাট নোবডি গেইভ আ সিঙ্গেল স্ল্যাংগ। এমনকি শব্দনীড়ে একজন আসল মুক্তিযোদ্ধা (ভার্চুয়াল নয়) প্রায়ই আমার পোস্টে কমেন্ট করেন। হোয়াটএভার এটা কোন ফ্যাক্ট না। ফ্যাক্ট হল, অনলাইনের কিছু বামদের দাবি তারা ইস্টিশনে প্রাণে প্রাণ মেলাবেই। জী, লাস্টে একটা ‘ই’ ও আছে। আমি ঠিক বুঝতে পারছি না তারা কিভাবে প্রাণে প্রাণ মেলাবে। এখানে আসার পর থেকেই দেখছি দলবদ্ধ আক্রমণ, মতের বিপক্ষে গেলেই ট্যাগবাজি (বিএনপির প্রসংশা করলেও ছাগু) এমনকি আস্তিক হওয়ার অপরাধেও মাঝে মাঝে স্ল্যাংগ শুনতে হয়। আমি নতুন তো তাই গায়ের চামড়া এখনও গণ্ডারের মত হয়ে পারেনি। সো স্বাভাবিকভাবেই তা আমার গায়ে লাগে। কারণ আমার কাছে জীবনের থেকে ইজ্জতের মূল্য বেশি।

আমি কখনোই ট্যাগবাজি কিংবা গালিবাজিতে বিশ্বাসী নই কিন্তু আজ মনে হচ্ছে সিপি গ্যাং এর প্রয়োজন আছে। কারণ অনলাইনে ‘খাসী’ এবং ‘চিংকু’ নামক দুই অদ্ভুত প্রাণীর আবির্ভাব। বাংলাদেশের মোট জনসংখ্যার হিসাবে এদের সংখ্যা সর্বসাকুল্যে এক লাখ হবে কিনা তা নিয়ে আমার ঘোরতর সন্দেহ আছে। অথচ এরাই এদেশের বৃহৎ দুটি রাজনৈতিক দল, উভয়ে মিলিয়ে যাদের সমর্থন দেয় দেশের ৭৫ ভাগ মানুষ (কমপক্ষে) তাদেরকে ক্রমাগতভাবে আক্রমণ করে চলেছে। এদের ভেতর জীবনে নিজ মার্কায় দাঁড়িয়ে ২০০ ভোট পায়না কিন্তু এবার নৌকায় দাঁড়িয়ে মন্ত্রী হয়েছেন এমন ব্যক্তিও আছেন। কোন দলের বিরোধিতা করা খারাপ নয় কিন্তু তা হতে হবে যৌক্তিক। অথচ অনলাইনের এসব চিংকুরা যুক্তির ধার ধারে বলে আমার মনে হয়না। আবার তাদের অনেক যুক্তির সাথে জামাতিদের যুক্তির আশ্চর্যজনক মিল খুঁজে পাওয়া যায়। আফটার অল, ছাগু অ্যান্ড খাসী আর কাজিনস ইউ নো 😀

আমি ইস্টিশনে কাউকে আক্রমণ করিনি কিংবা ট্যাগিং এর ভেতরেও যায়নি। কিন্তু সবার রাগ যেন আমার উপর। কারণ একটাই- ”আস্তিক মুসলমান”, তাঁর উপর মাঝে মাঝে বিএনপির প্রশংসা করে। এমনকি ব্রাদারহুডের এর উপর চলমান নির্যাতনেরও সমালোচনা করে। অতএব কোন সন্দেহ নাই, নির্ঘাত ছাগু। অথচ ব্রাদারহুডের উপর এই নির্যাতনের সমালোচনা করে অনেক নিরপেক্ষ ব্লগার এমনকি পারভেজ আলমও ফেইসবুকে স্ট্যাটাস দিলেও তিনি বামদের জাতীয় পর্যায়ের নেতা :খুশি: দিজ ইজ কল্ড ডাবল স্ট্যান্ডার্ড। আর এখানেই সিপি গ্যাং দরকার। সিপি গ্যাং গালিবাজ বুঝলাম। বাট দে ফাইট ফর আ কজ অ্যান্ড দে ডু হ্যাভ আ প্রিন্সিপাল। আমি তাদেরকে সমর্থন দিচ্ছি না কিন্তু তারা এইসব ডাবল স্ট্যান্ডার্ড চিংকু থেকে অনেক ভালো।

এটা ঠিক যে সব বাম চিংকু নয় আবার সব চিংকু খাসীও নয়। তবে ইস্টিশন ব্লগ চিংকু আর খাসীদের স্বর্গরাজ্যে পরিণত হয়েছে। এরা নাকি অন্যের মত সহ্য করে! এরা নাকি গালি দেয় না! হাউ ফানি!!! তাদের মতবাদ দেশের ২% মানুষ মানে কিনা সন্দেহ কিন্তু তারা বাংলাদেশকে কমিউনিস্ট রাষ্ট্র বানাতে চায়। অথচ ৮৫ ভাগ মুসলমানের দেশ ওআইসি-এর সদস্য হলে এদের গায়ে লাগে। দিজ ইজ কল্ড ডাবল স্ট্যান্ডার্ড।

আর ব্ল্যাক বোল্টের উদ্দেশ্য তো ক্যাচাল লাগানো! ইস্টিশনের যাবতীয় সমস্যার মূল সে। নো ডাউট! সে পক্ষপাতিত্বের বিপক্ষে গিয়েছে, বৈষম্যের বিপক্ষে দাঁড়িয়েছে- সুতরাং নির্ঘাত ক্যাচালবাজ! অতএব ব্ল্যাক বোল্টের ব্যান চাই। আর ব্যান না হলে আজকের পর সেও ইস্টিশনে নিয়মিত সুস্থধারার পোস্ট দিতে পারবে বলে আমার মনে হয়না। আহা! কি বেহায়া ছেলে! তবুও ইস্টিশন ছাড়ছে না। চিংকু আর খাসীদের মনে তাই ক্ষোভ। এরা এটা জানে না ব্ল্যাক বোল্ট একটা কথায় বিশ্বাস করে–”বিনা যুদ্ধে নাহি দিব সূচাগ্র মেদিনী”’ তবে হ্যাঁ এটা ঠিক সে ইস্টিশনে রেগুলার থাকবে না। সো কাম অন চিংকুজ! ব্রিংগ ইট অন! এভরিবডি গো লাউড—

”ব্ল্যাক বোল্টের ব্যান চাই”
😀 😀 😀 😀 😀 😀

[বিঃদ্রঃ পারভেজ আলমকে হেয় করে কিছু বলিনি+তাড়াহুড়া করে লেখা সো স্পেলিং মিস্টেক থাকবেই]

২৩ thoughts on “যে কারণে সিপি গ্যাং প্রয়োজন এবং ব্ল্যাক বোল্টের ব্যান আবশ্যকঃ একটি টু ইন ওয়ান পোস্ট

    1. অবশ্যই। এতক্ষণ ছিল ছাগু। এখন
      অবশ্যই। এতক্ষণ ছিল ছাগু। এখন হল রিভার্স। সামনে বোধহয় রিভার্স নাস্তিক জাতীয় কিছু একটা ট্যাগ জুটবে।

      অফটপিকঃ শুনলাম আপনি নাকি সিপি গ্যাং এর কাছে যত্রতত্র উষ্ঠা খাচ্ছেন। এজন্যই কি ‘উষ্ঠা’ শব্দটা জিভে লেগে আছে?

      1. আমি নিজে ছাত্রলীগ করি, কিন্তু
        আমি নিজে ছাত্রলীগ করি, কিন্তু সিপি গ্যাং কে দু’চোখে দেখতে পারিনা। সিপি গ্যাং আওয়ামীলীগ এর ক্ষতি করছে তারা টেরও পাচ্ছেনা। আর চিঙ্কু আর খাসী কি? সংজ্ঞা দুইটা জানতে চাই আপনার কাছে

        1. আমি যতদূর
          আমি যতদূর জানি

          চিংকু=উগ্র/অন্ধ চীনা বাম মতান্তরে উগ্র মাওবাদী
          খাসী=চীনা বাম+উগ্র ধর্মবিদ্বেষী নাস্তিক

          তবে এ বিষয়ে সিপি গ্যাং ভালো বলতে পারবে। তাদেরকে যে আমি পছন্দ করি তা না। তবে এটা স্বীকার করতেই হবে দে হ্যাভ এন আইডিওলজি। সেটা আমার কিংবা আপনার আদর্শের বিপরীতে যেতে পারে বাট অ্যাটলিস্ট দে হ্যাভ ওয়ান অ্যান্ড দে ফাইট দ্য হেল আউট ফর ইট। পক্ষান্তরে, চিংকুদের আদর্শ কি? উগ্রবাদ? জোর করে কমিউনিস্ট রাষ্ট্র কায়েম? নাকি জামাতিদেরকে ইস্যু তৈরি করে দেওয়া?

          1. শোনেন, আওয়ামীলীগের পাস করানোর
            শোনেন, আওয়ামীলীগের পাস করানোর টেন্ডার বাম দলগুলো নেয় নাই, নাস্তিকরাও নেয় নাই। নাস্তিক রা কথা কইলে আওয়ামীলীগের কি আসলো গেলো তা দেইখা নাস্তিকেরা কথা বলবেনা। এটা মাথায় রাখেন। উগ্র নাস্তিক আবার কি জিনিষ? উগ্র নাস্তিক কতল করতে চাইলে জামাতি আর- সিপি এর মাঝে পার্থক্য নাই। বাপ- মা তুইল্যা গালি দিয়া বিপ্লব হয়না। আমি নিজেও তো নাস্তিক, আবার লীগ ও করি। এর লাইগ্যা বাম দলগুলারে খাসী বা চিঙ্কু বইলা ডাকিনা। বাম দল কিংবা কমিউনিজম সম্পর্কে জানুন। মাওবাদ সম্পর্কে জানুন আগে।

    2. শামীমা মিতু এইসব ছুপা,
      শামীমা মিতু এইসব ছুপা, রিভার্স এইসব শব্দ বাদ দেন। কারো সম্পর্কে না জেনেই ছুপা, টুপা এই শব্দগুলো লাগাবেন না। অতীতে আমাকেও অনেকে রিভার্স ছাগু বলেছে। আর সকালে দেখলাম সিপি আপনাকে নিয়ে পোস্ট দিয়েছে, ব্যাপারটা খুব খারাপ লাগলো। আপ্নিও একটা দিয়েছেন, কমেন্ট দেয়া যায়না দেখে সেখানে কমেন্ট করতে পারিনাই। সিপি এর যে মিনিং টা আপনি দিসেন সেটা ঠিকই আছে

    1. বুখে আয় বাবুল।

      :বুখেআয়বাবুল: :বুখেআয়বাবুল: বুখে আয় বাবুল। :বুখেআয়বাবুল: :বুখেআয়বাবুল:
      :ঘুমপাইতেছে: :ঘুমপাইতেছে: আমারও ঘুম পাইছে। তয় অনেকদিন ইনঅ্যাকটিভ ছিলাম বলে পোস্টের হিস্ট্রি ঠিকমত ধরতাম ফারি নাই।

  1. ব্লগে লেখা গুলো গল্প আর
    ব্লগে লেখা গুলো গল্প আর কবিতার মধ্যেই আমি সীমাবদ্ধ রাখি। কিন্তু এর পরেও সত্যকে উঠাতে গিয়ে প্রথমত সামুতে বেন খাই। কেন জানিনা… তারা তাদের মতামত প্রকাশ করছে, আমি আমারটা। যদি আমারটা ভাল না লাগে তাহলে আমার কাছের তথ্য নির্ভর প্রমান চাইলেই হয়।

    যাই হোক… নাগরিকে গিয়ে নিজের নাগরিকত্বের অধিকার পাই না। মুক্তমনাতে সত্যিকার অর্থে কোথায় মুক্ত মানের লেখা দেয়া যায় তা ও আমার জানা নাই। অতঃপর যদি আমার ব্লগে যাই, থাক এখন পর্যন্ত কেউ কিছু বলে নাই। যাই হোক…

    এর পর স্টেশনে আশার পর সিরিয়ার সাথে একাত্বতা প্রকাশ করার কারণে উগ্র পন্থি ট্যাগ খাইলাম।
    আর তারা তাদের কথা বললে সেটাই সেরা!!.…
    আহা…

    কৃষ্ন করলে লীলা খেলা আমি করলে পাপ…

  2. আমি তো বুঝি না যাদের গনভিত্তি
    আমি তো বুঝি না যাদের গনভিত্তি নেই, যাদের ২০০ ভোট পাওয়ার মতো ক্যাপাবিলিটি নেই মনে করেন, তাদের নিয়ে এতো কথা বলার কি আছে!! আমি এই ব্লগে খুব বেশি দিন হলো লেখালেখি করি না। তবে এখানে এসেছিলাম মূলত নোংরামি বিহীন একটা প্লাটফর্ম মনে করেই। সো ফার, আমার কাছে ইশটিশনকে নোংরামি মুক্তই মনে হয়েছে। কিন্তু সম্প্রতি কিছু লেখায় বা কমেন্টে আমরাই সুষ্ঠু পরিবেশটা ধরে রাখতে পারছি না। আমাদের মধ্যে কেন জানিনা সহনশীলতার খুব অভাব দেখা যাচ্ছে। আশা করি সবাই বিষয়টা নিয়ে একটু ঠাণ্ডা মাথায় চিন্তা করবেন। ……………………… আমি নিজেই বর্তমান সরকারের সমর্থক, কিন্তু চিংকু বা খাসি বা ঐ টাইপের কোন শব্দ ব্যবহারে উৎসাহ পাইনা। মাওবাদ একটা পন্থা। একটা পরীক্ষিত পন্থা। আমি সেই পন্থায় বিশ্বাস না করতেই পারি, তাই বলে সেই মতাদর্শ ধারণ করেন এমন কাউকে হুদাই কেন প্রতিপক্ষ বানাতে যাবো? শেষ ডাক্তার আতিক ভাইয়ের মতো আমারও বলতে ইচ্ছা করছে ……… :ঘুমপাইতেছে: :ঘুমপাইতেছে: :ঘুমপাইতেছে:

    1. আপাতত উত্তর বাংলা ভাইর সাথে
      আপাতত উত্তর বাংলা ভাইর সাথে সহমত পোষণ করে একটা মুভি দেখার প্রস্তুতি নিলাম । ব্ল্যাক এর এই উদ্ভট পোস্টের বিরুদ্ধে লেখার রুচি থাকলে কাল লিখবো ।

  3. ব্ল্যাক ভাই , বি এন পি করেন
    ব্ল্যাক ভাই , বি এন পি করেন আর যাই করেন, যা শুরু করেছেন সেটা ভালো কাজ হচ্ছে না। :থাম্বসডাউন:

  4. কমিউনিস্ট রাষ্ট্র বলতে কি
    কমিউনিস্ট রাষ্ট্র বলতে কি বুঝিয়েছেন সেটা বুঝতে পারিনি। ক্লিয়ার করবেন আশা করছি। আর বামদের চিংকু বলে যেভাবে চীনা বলে অভিহিত করেছেন তাতে বুঝলাম মাও সে তুং এর অনুসারীদের ছাড়া আপনি আর বামদের চিনেননা।

  5. ১) “আমি কখনোই ট্যাগবাজি কিংবা
    ১) “আমি কখনোই ট্যাগবাজি কিংবা গালিবাজিতে বিশ্বাসী নই কিন্তু আজ মনে হচ্ছে সিপি গ্যাং এর প্রয়োজন আছে। কারণ অনলাইনে ‘খাসী’ এবং ‘চিংকু’ নামক দুই অদ্ভুত প্রাণীর আবির্ভাব।”
    — সিপি গ্যাং এর আসলে কারণই তো মিস গেল!! ‘ছাগু’ শব্দ উচ্চারণে কুণ্ঠা কেন?
    ২) “বাট নোবডি গেইভ আ সিঙ্গেল স্ল্যাংগ”— এইটা হচ্ছে বায়বীয় একটা দাবী।। পরিষ্কার কথা চাই।। আমরা সবাই জানি সহিংসতা এবং গালাগালি অযোগ্যের হাতিয়ার…
    ৩) ” এরাই এদেশের বৃহৎ দুটি রাজনৈতিক দল, উভয়ে মিলিয়ে যাদের সমর্থন দেয় দেশের ৭৫ ভাগ মানুষ (কমপক্ষে) তাদেরকে ক্রমাগতভাবে আক্রমণ করে চলেছে।”— এই কথা যাদের জন্য সবচে বেশী প্রযোজ্য তাদের নামই নিলেন না। জামাতি-হেফাজতিরা দেশের কত% বলেন তো? আমার মতে তারাই দেশের সবচে বড় শত্রু।। কি করেছে সুযোগ পাওয়া জামাতের মন্ত্রীরা? ২০০ ভোট পাওয়া যাদের কথা বললেন তারা লাখ ভোট পাওয়া এমপিদের চেয়ে ভাল কাজ করছে…
    ৪) “তাদের মতবাদ দেশের ২% মানুষ মানে কিনা সন্দেহ কিন্তু তারা বাংলাদেশকে কমিউনিস্ট রাষ্ট্র বানাতে চায়। অথচ ৮৫ ভাগ মুসলমানের দেশ ওআইসি-এর সদস্য হলে এদের গায়ে লাগে। দিজ ইজ কল্ড ডাবল স্ট্যান্ডার্ড।”— যেমনটি আমরা দেখেছি যে কোন ধর্ম প্রতিষ্ঠিত হওয়ার সময় ০% থেকেই সর্বগ্রাসীরূপ নেয়। আবার বিএনপি-জামাত-জাপা যখন ৩/৫% বাঙালী পাহাড়িদের জন্য মায়া কান্না কেঁদে জাতীয়তা বাংলাদেশী করে আবার ১৫% অমুসলিমকে ২য় শ্রেণীর নাগরিক করার জন্য রাষ্ট্রধর্ম ইসলাম করে তখনও আমরা “ডাবল স্ট্যান্ডার্ড”-এর আদর্শ দৃষ্টান্ত খুঁজে পাই…

    আপনার ব্যান দরকার আছে কিনা মোডারেটর বুঝবে তবে পুনর্বাসন দরকার তাতে কোন সন্দেহ নেই।। ব্যবহার বংশের পরিচয় আর গঠনমূলক সমালোচনা শিক্ষিত এবং সভ্যদের পরিচয়…

  6. কোন মূর্খ্য পোস্টটা দিয়েছে?
    কোন মূর্খ্য পোস্টটা দিয়েছে? কোন মূর্খ্য ? তার শিক্ষাগত যোগ্যতা আমি জানতে চাই। মিথ্যে বুতে পারে তাই সার্টিফিকেটের স্ক্যানিং কপিও দেখতে চাই।

  7. কিছু কমু না। কখন খাসী ট্যাগ
    কিছু কমু না। কখন খাসী ট্যাগ খাই ঠিক নাই।

    তয় একখান কথা। এই পোস্টের ট্যাগের সংখ্যা দেখেই তব্দা খাইছি।

    উৎসব অনুগল্প ইতিহাস উপন্যাস কার্টুন খবর খেলাধুলা গল্প চলচ্চিত্র ঝালমুড়ি ভ্রমণ কাহিনী রিভিউ শোকগাঁথা হাহাপগে হুদাই – এই ট্যাগগুলো এই পোস্টে কী করতে আসল জানি না। শুধু হাহাপগে আর হুদাই ট্যাগ ছাড়া অন্য কিছুর কার্যকারিতা দেখছি না।

    ডা: আতিকের মত আমারও :ঘুমপাইতেছে: :ঘুমপাইতেছে: :ঘুমপাইতেছে: :ঘুমপাইতেছে:

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *