সিরিয়ার শিশুর চাওয়া।

ফজরের আজান শোনা যাচ্ছে……
ছোট আলী তার বাবার হাত ধরে মসজিদে যাচ্ছে।
তার মন বিষন খারাপ। কারন এখন মসজিদে আগের মত মানুষ আসেনা।
তার বন্ধুরা ও কেউ আসেনা। মসজিদে কেন গতকয়েকদিন ধরে তো খেলার মাঠে ও কেউ যায়না।
বড় এক দিন কাটে আলীর।
ও বুঝেনা কেন এমন হচ্ছে।
খালী সবার থেকে শুনে আমেরিকা নামের একটা দেশ তার দেশে সাথে ঝগড়া করতে চাই।
কিন্তু তার পিচ্চি মাথা ঢুকেনা কেন ঝগড়া করবে।
ওরা তো না হয় বল/ব্যাট/খেলনা এসবের জন্যে ঝগড়া করে।
কিন্তু এত বড় বড় মানুষ গুলো কেন ঝগড়া করবে??
ও শুনেছে ঐদেশে বারাক ওবামা নামের একজন ভয়ংকর মানুষ থাকে। সবাই ঊনার কথা মত চলে।

ফজরের আজান শোনা যাচ্ছে……
ছোট আলী তার বাবার হাত ধরে মসজিদে যাচ্ছে।
তার মন বিষন খারাপ। কারন এখন মসজিদে আগের মত মানুষ আসেনা।
তার বন্ধুরা ও কেউ আসেনা। মসজিদে কেন গতকয়েকদিন ধরে তো খেলার মাঠে ও কেউ যায়না।
বড় এক দিন কাটে আলীর।
ও বুঝেনা কেন এমন হচ্ছে।
খালী সবার থেকে শুনে আমেরিকা নামের একটা দেশ তার দেশে সাথে ঝগড়া করতে চাই।
কিন্তু তার পিচ্চি মাথা ঢুকেনা কেন ঝগড়া করবে।
ওরা তো না হয় বল/ব্যাট/খেলনা এসবের জন্যে ঝগড়া করে।
কিন্তু এত বড় বড় মানুষ গুলো কেন ঝগড়া করবে??
ও শুনেছে ঐদেশে বারাক ওবামা নামের একজন ভয়ংকর মানুষ থাকে। সবাই ঊনার কথা মত চলে।
মোনাজতে বসে আলী দোয়া করে আল্লাহ যেন তাকে ঐ বারাক ওবামা নামক মানুষ টার সাথে দেখা করিয়ে দেয়।
ও খালী জিজ্ঞেস করবে উনারা এত বড় মানুষ হয়ে ও কেন ঝগড়া করে।
যদি ও ওড় ভয় করবে। কিন্তু ও জিজ্ঞেস করবে।
আর উনি যদি কোনো উত্তর না দেয় তখন খালী বলবে
”প্লীজ আংকেল আমাদের কে আগের মত খেলতে দিন।মসজিদে গিয়ে বন্ধুদের সাথে আগের মত নামায পড়তে দিন”

৪ thoughts on “সিরিয়ার শিশুর চাওয়া।

  1. যুদ্ধ মানে মানবতার চরম
    যুদ্ধ মানে মানবতার চরম অবমূল্যায়ন। “যুদ্ধ চাই না, শান্তি চাই!”===কথাটা মনে হয় মিনিং লেস হয়ে যাচ্ছে দিন দিন।

    :দীর্ঘশ্বাস:
    পিচ্চি তো দেখি ব্যাপক পরহেজগার! :ফেরেশতা:

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *