আমরা সত্যিকার অর্থেই বাঙ্গালী জাতির কলঙ্ক!

স্কুল, কলেজ, ভার্সিটি প্রায় সব জায়গাতেই একটা জিনিস খুব ভালভাবে উপলব্ধি করতে পেরেছি। সেটা হল, বাঙ্গালী জাতি হিসেবে আমরা একেঅন্যকে নিয়ে মজা নিতে খুব বেশি পছন্দ করি। অপরের খুব তুচ্ছ ব্যাপার গুলোতে নাক গলিয়ে তাকে পচানোর একটা মাধ্যম খুঁজে বের করি। আজ আমি লজ্জিত কারণ, কম হোক আর বেশি এগুলো আমার মধ্যেও কাজ করে! এই যেমন, যখন দেখি বন্ধু মহলে কেউ পা পিছলে কিংবা বসতে গিয়ে মাটিতে পরে গেছে। তাকে নিয়ে হাসি ঠাট্টা করি। একবারও যেয়ে একটু সহযোগিতা করে উঠিয়ে দেয়ার লোকদেখানো চেষ্টাটুকুও করি নাহ।

স্কুল, কলেজ, ভার্সিটি প্রায় সব জায়গাতেই একটা জিনিস খুব ভালভাবে উপলব্ধি করতে পেরেছি। সেটা হল, বাঙ্গালী জাতি হিসেবে আমরা একেঅন্যকে নিয়ে মজা নিতে খুব বেশি পছন্দ করি। অপরের খুব তুচ্ছ ব্যাপার গুলোতে নাক গলিয়ে তাকে পচানোর একটা মাধ্যম খুঁজে বের করি। আজ আমি লজ্জিত কারণ, কম হোক আর বেশি এগুলো আমার মধ্যেও কাজ করে! এই যেমন, যখন দেখি বন্ধু মহলে কেউ পা পিছলে কিংবা বসতে গিয়ে মাটিতে পরে গেছে। তাকে নিয়ে হাসি ঠাট্টা করি। একবারও যেয়ে একটু সহযোগিতা করে উঠিয়ে দেয়ার লোকদেখানো চেষ্টাটুকুও করি নাহ।
মানুষ হয়েও আমরা একে-অপরের দুর্বলতা নিয়ে মাতামাতি করি। একবারও ভাবি নাহ যাকে নিয়ে আমরা এত হাসি ঠাট্টা করছি, ব্যাপারটা তার ক্যামন লাগছে!

শুধু আমাদের চারপাশের বন্ধুমহলেই নয়, আমাদের সমাজেও এমনটা ঘটছে প্রতিনিয়ত। শিশুরা ছোটকাল থেকেই শিখে যাচ্ছে কিভাবে মানুষকে অপমান করতে হয়, কিভাবে মানুষকে পচায়ে ছোট করা যায়।
রাস্তার কোন এক মোড়ে ছোটখাটো একটা দুর্ঘটনা ঘটেছে। মটরবাইক আরোহী পরে গেছেন। এটা দেখেও রাস্তার পাশে একদল লোক হাসাহাসি করছে। আমি লজ্জিত হই যখন দেখি এগিয়ে যাবার কেউ নেই!

বেশ কিছু দিন আগের ঘটনা যখন ফেবুতে ঐশীকে নিয়ে লোকে এত কথা বলছে, আমি আবারও লজ্জিত হই যখন দেখি আমার জনৈক এক বন্ধু স্ট্যাটাস দেয় “ঐশী নামটা আজ থেকে একটা গালি।” হয়তো আপনার আপন বোনের নাম ঐশী হলে এভাবে লিখতে পারতেন নাহ। কারণ, কারো নামই তার চরিত্রকে ইন্ডিকেট করে না, ঐশী নাম হলেই মেয়েটি ঐশীর মতো নাও হতে পারে! সে কমনসেন্স আশা করি আপনার আছে।

দয়াকরে, আপনার ছোটখাটো মজার কারণে কারো লাইফ হেল করবেন না। কারণ চুলাচুলি করে এদেশে নোবেল পাওয়া যায় নাহ! লিঙ্কঃ http://studentbd24.com/?p=11074

কাজেই সচেতনতার শুরু হোক আপনার কাছ থেকেই যদিও আমরা সত্যিকার অর্থেই বাঙ্গালী জাতির কলঙ্ক!

৩ thoughts on “আমরা সত্যিকার অর্থেই বাঙ্গালী জাতির কলঙ্ক!

  1. আমি নিশ্চিত,, বান্ধবীরা ওকে
    আমি নিশ্চিত,, বান্ধবীরা ওকে ঐশীর কথা বলে ক্ষেপাতো, ছোট্ট মেয়ে তাই অভিমানে আত্মহত্যা করেছে। দুঃখজনক।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *