সুখী মানুষদের রঙ্গ-তামাশা

পৃথিবীর সুখী মানুষদের তালিকায় আমাদের ঠাঁই হয়ে যাওয়াটা খুব একটা অসমীচীন নয়। কেননা আমরাই এমন সকল কাজ করতে পারি যা দেখে না হেসে থাকার জো নেই।

উজানের বিপরীতে চলা আমাদের একটা অভ্যাস। এই যেমন ধরেন আমাদের কথা-বার্তার ধরন এমন যেন বিয়ের পর বাসর রাতে স্ত্রীর সাথে সঙ্গম করলাম সকালে উঠে বিছানায় বাচ্চা থাকাটাই দরকার। অনেক ক্ষেত্রে না থাকাটাকেই আমরা উচিতই মনে করি না। অথচ বাস্তবতা হচ্ছে একটা দীর্ঘ সময় অপেক্ষা করা প্রয়োজন।
আবার ঠিক যখন তার উল্টোটা দরকার তখন ঠিকই তার বিপরীতে চলি। অর্থাৎ জিনিসটা দরকার এখনই কিন্তু আমরা বলি “বৎস ধীরে, ধৈর্য্য ধারণ করো“।


পৃথিবীর সুখী মানুষদের তালিকায় আমাদের ঠাঁই হয়ে যাওয়াটা খুব একটা অসমীচীন নয়। কেননা আমরাই এমন সকল কাজ করতে পারি যা দেখে না হেসে থাকার জো নেই।

উজানের বিপরীতে চলা আমাদের একটা অভ্যাস। এই যেমন ধরেন আমাদের কথা-বার্তার ধরন এমন যেন বিয়ের পর বাসর রাতে স্ত্রীর সাথে সঙ্গম করলাম সকালে উঠে বিছানায় বাচ্চা থাকাটাই দরকার। অনেক ক্ষেত্রে না থাকাটাকেই আমরা উচিতই মনে করি না। অথচ বাস্তবতা হচ্ছে একটা দীর্ঘ সময় অপেক্ষা করা প্রয়োজন।
আবার ঠিক যখন তার উল্টোটা দরকার তখন ঠিকই তার বিপরীতে চলি। অর্থাৎ জিনিসটা দরকার এখনই কিন্তু আমরা বলি “বৎস ধীরে, ধৈর্য্য ধারণ করো“।

উদাহারণ হিসেবে বলা যায় যুদ্ধাপরাধ বিচার। ৪২ টা বছর ধরে অপেক্ষমান পদে পদে মার খাওয়া জাতি যখন রায় পেলো তখন সেখানে অপেক্ষা করে রায় বাস্তবায়নে বিচার প্রক্রিয়া তৈরীকারীদের সহযোগিতা না করে বরং উল্টো তাদের অবস্থানকেই প্রশ্নবিদ্ধ করে তুলতে শুরু করে দিলো। ৪২ বছর অপেক্ষা করতে পেরেছে কিন্তু ফাঁসিটা বাস্তবায়ন করতে আরো কয়েকটি বছর অপেক্ষার তর সইছে না যেন তাদের। যার ফলে ধুম করে বলে দিলো “রাজাকারের পাহারাদার – আওয়ামীলীগের সরকার।
অথচ বলতেই ভুলে যাই এই সরকারই কিন্তু তাদের প্রথম সংসদ অধিবেশনে যুদ্ধাপরাধ বিচারের বিল পাশ করিয়েছিলো।

আবার সজীব ওয়াজেদ জয় যখন বলেছেন ইন্টারনেটের মূল্য হ্রাস করবেন আগামীবার নির্বাচিত হলে তখনও থেমে নেই তাদের কথার বাহার। কেউ বলছে নাকে মুলো ঝুলিয়ে আর কত, কেউবা ছদ্মবেশের আড়ালে থেকে বলছে এখনই কেন কমানো হচ্ছে না, কমালে তো ভোট বেড়ে যাবে নগদেই।
তো এই শ্রেণীর লোকদের বলতে হয়, “স্যার সরকার যখন কুইক রেন্টালের দায়ে ফেঁসেছিল তখন খুব খুব করে গলাবাজি করেছেন এই নিয়ে, কিন্তু এই রমযান জুড়ে, এই ঈদে যখন (অন্যান্য বারের তুলনায়) অনেকটা নিরবিচ্ছিন্ন বিদ্যুৎ সংযোগের মধ্যে ছিলেন তখন কিন্তু একবারের জন্যও গলাবাজি করেন নাই। বোধহয় আগে গলাবাজির জন্য আপনার গলা বসে গিয়েছিল!!! না হলে কেন বললেন না সরকারের এই সাফল্যের জন্য ভোট বাড়া উচিত?

এরপরেও কি বলবেন সুখী মানুষদের তালিকায় আমাদের রাখা উচিত নয়? এই সমস্ত মুখোশধারীদের কাজ-কর্ম দেখে যেসকল বিনোদন পাই তাতে কি কম সুখলাভ হচ্ছে? কি নির্মল বিনোদন এই সকল লোকদের থেকে পাচ্ছি যখন নিজেরাই বুঝতে পারছি “আরে এতো ছুপা সুশীল, পুরাই ড. ইউনুস, অস্থির বিনুদুন!!!” আর মনে মনে বলছি “ল্যাঞ্জা ইজ ভেরী ডিফিকাল্ট থিং টু হাইড

তো সবশেষে এসে একটা পাইকারী জোকস, বিংশ শতাব্দীর বাঙালি জাতির জন্য শ্রেষ্ঠ জোকস হলো- বাঁশেরকেল্লার পথচলা…লক্ষ্য একটাই “সত্যকে উন্মোচন করা”

পুর্বে প্রকাশিত

৬৩ thoughts on “সুখী মানুষদের রঙ্গ-তামাশা

  1. মানুষের আবেগ নিয়ে রাজনীতি
    মানুষের আবেগ নিয়ে রাজনীতি করাটাও খুব একটা সুখকর কিছু না ।
    ঘর পোড়া গরু আমরা সিঁদুরে মেঘ দেখলে ভয়তো কিছুটা হয় -ই ।

    1. তাহলে আর কিইবা বলার থাকে
      তাহলে আর কিইবা বলার থাকে বলুন!!! সিঁদুরে মেঘ দেখে ভয় পেতেই থাকুন আর অনলাইনে ফাটিয়ে বিপ্লব দীর্ঘজীবী হতেই থাকুক!!!

      1. বাংলাদেশের রাজনীতির দিকে
        বাংলাদেশের রাজনীতির দিকে তাকালেই বুঝা যায় , রাজনীতির অ আ ক খ না জেনেই অনেকে চন্দ্রবিন্দুর চাঁদ দেখে ফেলে। কিন্তু সর্বোপরি উন্নয়নের উ তে আঁটকে থাকে।

        1. অনেকে করে বৈকি!!!
          আবার অনেকে

          অনেকে করে বৈকি!!!
          আবার অনেকে উন্নয়ন দেখেও মুখ ঘুরিয়ে না দেখার ভান করে গীবত গাইতেই থাকে। ব্যাপারটা অনেকটা ভর পেট খাওয়া শেষে বলা মাংসের তরকারীটাতে নুন কম হইছে।

          1. উন্নয়নে মুখ ঘুরিয়ে গীবত গাওয়া
            উন্নয়নে মুখ ঘুরিয়ে গীবত গাওয়া যেমন অনুচিত ঠিক তেমনি উন্নয়নের ধাক্কায় ভুল গুলো ঢেকে ফেলাও সমান ভাবে দোষনীয়।

          2. ভুলগুলো ঢাকার কি আছে!!!
            ভুলগুলো ঢাকার কি আছে!!! প্রতিনিয়ত চায়ের টং দুকান থেকে লোকাল বাসের সিটে, লঞ্চের ডান্ডা থেকে রেলের ছাদে সবখানেই বাকশালীদের সমালোচনায় যেখানে জনগন মুখর সেখানে এগুলো ঢেকে রাখার কি আছে বুঝলাম না!!!!

          3. আপনার শেষের লাইন নিয়ে একটা
            আপনার শেষের লাইন নিয়ে একটা কথা বলতে চাচ্ছি ভাই, একটা প্রবাদ শুনেছেন তো বিপদে পড়লে গাধাকেও বাপ ডাকতে হয়?
            আর এই উন্নয়ন যে আমাদের দেশে তার জন্য আমি আওয়ামিলীগকে সেলুট জানাই। কিন্তু আমি শুধু তার মুষ্টিমেয় উন্নয়ন দেখে কি তার অন্যায় চুপ করে সহ্য করবো?
            আপনার বাবা মা আপনার ভাল রেজল্টের কারণে আপনার দুই একটা সাধারণ অপরাধ হয়তো ক্ষমা করবে এর পর কিন্তু ঠিক ই আপনাকে শাসন করবে তাই না?

          4. আপনার উত্তর নিচেই একটি প্রতি
            আপনার উত্তর নিচেই একটি প্রতি উত্তরে দিয়েছি। সকল প্রশ্নের সমাধান একখানে যেহেতু আপনার প্রতি কমেন্টের ধরনও একই।

      2. বিপ্লব অন লাইনে হবে, না
        বিপ্লব অন লাইনে হবে, না রাজপথে হবে সেই তত্ত্ব একজন বাকশালি ( আপনার মতে ) দিচ্ছে । বাহ চমৎকার ! বলি হজম শক্তি বাড়ান । বাংলাদেশে পাকিস্তান বড়ি জাতীয় কিছু থাকলে একটা সাজেসট করতাম ।

        কারা আন্দোলনের ঝোল নিজের পাতে টেনে নিয়ে টাইম মতো সটকে পড়ে সে আর কারো জানার বাকি আছে জনাব ? সে যাগগে, জামাত – শিবির নিধন ও মুক্তিযুদ্ধের প্রশ্নে ( যদিও মুক্তিযুদ্ধের সোল এজেন্সি আপনারাই দাবী করে থাকেন ) আগের মতো প্রাণে প্রাণ মেলাবোই …

        1. কারা আন্দোলনের ঝোল নিজের পাতে

          কারা আন্দোলনের ঝোল নিজের পাতে টেনে নিয়ে টাইম মতো সটকে পড়ে সে আর কারো জানার বাকি আছে জনাব ?

          উদাহারণ সমেত হাজির করবার জন্য বিশেষ বিশেষ অনুরোধ করা হলো। সিরিয়াসলিই বলছি দয়া করে উদাহারণ সমেত আপনার উক্ত কথার সত্যতা প্রকাশ করবেন। সেই পর্যন্ত অপেক্ষায় আছি। চাইলে পুরো একটা পোস্ট দিয়ে দিতে পারেন।

          1. হাসালেন, ব্যাপক হাসালেন
            হাসালেন, ব্যাপক হাসালেন উদাহরণ চেয়ে । দুঃখিত, আমার এতো হাসি আপনার আঁতে না লেগে যায় !
            হুম … বলছি গনজাগরন মঞ্চের শুরু এবং শেষের কথা ( যদিও শেষ বললে অনেকে ক্ষেপে যাবে, বলা যেতে পারে শেষ হইয়া ও হইলো না শেষ ) । শুরুটা অনলাইন একটিভিসট ও বাম সংগঠনের ছেলেমেয়েদের মাধ্যমে হয় ( অস্বীকার করবেন নাকি ? ) । পরে আসলেন মুক্তিযুদ্ধের সোল এজেন্টরা (!!!) সদলবলে । কারণ ইতোমধ্যে ফুলটি প্রস্ফুটিত হতে শুরু করেছে । তো মধুর লোভে মৌমাছি আসলে তাকে শুন্য হাতে ফিরিয়ে দেয় – এতো বড় স্পর্ধা কার আছে । মৌমাছির কামড় বলে কথা । মৌমাছি এলো, বসলো, ভ্রমরের ন্যায় গুণ গুনিয়ে আওয়াজ তুললো । সবাই ভাবলো মৌমাছি কামড়াবে না । তাই কি হয় । স্বভাব বলে কথা । ৮ তারিখ ( সম্ভবত ) প্রকাশ্য কামড়টি খেলো শ্লোগান কন্যা । ইতোমধ্যে মৌমাছি দের মধ্যে গুঞ্জন শুরু হল, ধর্ম ভিত্তিক রাজনীতি নিষিদ্ধের দাবী তোলা যাবেনা । কেবল জামাত নিষিদ্ধের দাবী তুলতে হবে । তাই হলো । কারণ, আমাদের সম্মিলিত আবেগ জমা দিয়েছি রাষ্ট্রের কাছে , সরকারের কাছে, যুদ্ধপরাধীর বিচার হবে, দেশ ধর্মীয় মৌলবাদ মুক্ত হবে যে । মঞ্চের প্রধান নেতাও সুর পরিবর্তন করে ফেললেন । আমরা ভুলে গেলাম কয়েকটি পরিচিত শ্লোগান । গলা ফাটালাম কেবল জামাত নিষিদ্ধের দাবীতে । এদিকে মৌমাছিরা দৈনন্দিন খুনো – খুনি, টেন্ডার বাজী ভুলে বেশ মেতে থাকলো মধু আহরণে । এবং আন্দোলন কে যৌক্তিক পরিণতির দিকে না নিয়ে তামাশা শুরু করলো হালকা গা গরম টাইপ কর্মসূচী দিয়ে । আন্দোলন তুঙ্গে তুলে তাকে নষ্ট করা হল ইচ্ছাকৃতভাবে । বড় বড় মহান মৌমাছিদের রক্তচক্ষুর ভয়ে । হুম এই পর্যায়ে হয়তো ভাবছেন, সব কলকাঠি যদি মৌমাছিরা নাড়ালো, তো তোমারা কোন পশম ফালাইতে গিয়েছিলা । দারুণ প্রশ্ন, উত্তর সেই পুরনো – ঐক্য বজায় রাখা । বৃহত্তর স্বার্থে আপাত ক্ষুদ্র স্বার্থ ত্যাগ । কিন্তু লাভ হলো নারে । লাভের গুড়ে বরাবর – ই মৌমাছি ! এখনো গণজাগরণ মঞ্চ মিছিল করে … তয় সেই মৌমাছিদের একটা কেও দেখা যায়না । মনে হয় … নতুন কোন ফুলে বসার ধান্দায় আছে । আরে বাসি ফুলে কি আর পূজা – আরচা করা চলে … ????
            ……… ( কারো বিশেষ অনুভূতিতে আঘাত লাগলে মলম ফ্রী, যেতে হবে গুলিস্তানে )

          2. হাসালেন, ব্যাপক হাসালেন

            হাসালেন, ব্যাপক হাসালেন উদাহরণ চেয়ে ।

            আসেন এবার আমি হাসি আপনি দেখেন :হাহাপগে: :হাহাপগে: :হাহাপগে: :হাহাপগে: :হাহাপগে: মলম লাগলে গুলিস্তান থেকে নিয়ে নিবেন ওক্কে!!!!

            ৮ তারিখ ( সম্ভবত ) প্রকাশ্য কামড়টি খেলো শ্লোগান কন্যা ।

            সম্ভবত!!! আপনি নিজেই জানেন না আপনার শুলুগান কইন্যা কয় তারিখ হাজিরা দিছিলো!!! আস্ক হার সে নিজেই আসছিলো ৮ তারিখে আর তারে দিবে কামড়!! ম্যান মানুষরে এতো বলদ ভাবেন কেনো? স্কুলে তো পড়া লেখা করছেন, তো সেই সুবাদে দুই চাইরটা বেতের বাড়িও নিশ্চয়ই নসীবে জুটছে। বেতের বাড়িতে শরীর ফুলে যায় কিন্তু লাঠির বাড়িতে মাথাডা ফুলে গেলো না কেনো? :হাসি: :হাসি: :হাসি: :হাসি: :হাসি:
            আপনারা এতো দিবাস্বপ্নে কেনো থাকেন জানিনা, কেমনে থাকতে পছন্দ করেন সেইটাও বুঝি না। গনজাগরন মঞ্চের সব আপনাদের সমর্থকপ ভাবেন নাকি? যদি ভাবেন তাইলে আবারো :হাহাপগে: :হাহাপগে: :হাহাপগে: :হাহাপগে:

            তা হাতে সময় আছে তো? আরো হজম হবে তো? তাহলে নিন পড়তে শুরু করুন শুভ বোধের উদয় হোক…..
            এটা শেষ হলে অতঃপর চট্টগ্রামের আন্দোলন স্থগিত এগুলা চট্টগ্রামের হালচাল ঠিক আছে ভাইয়া :নৃত্য: :নৃত্য: :নৃত্য: :নৃত্য:

          3. খালি ইমোর উপ্রে দিয়াই নিয়া
            খালি ইমোর উপ্রে দিয়াই নিয়া গেলেন!!!
            ভাই একটা কথা বলে যাই মনে রাখলে জীবনে কোথাও কোন সময় অপদস্থ হতে হবে না।
            ১. কখনো কাউকে নিজের থেকে ছোট মনে করবেন না।
            ২. না জেনে (সম্ভবত, গোপন সুত্র ইত্যাদি) লেজুড় লাগিয়ে আউ ফাউ কথা বলবেন না।

            সত্যিই বলছি সবার কাছে না হোক নিজের কাছে নিজেকে পরিষ্কার রাখতে পারবেন।

          4. ফাউল লোকজনের সাথে বেহুদা তর্ক
            ফাউল লোকজনের সাথে বেহুদা তর্ক চালানো আমার স্বভাব বিরুদ্ধ । আপনি আমার কমেন্ট থেকে যতো প্রকার সুখ নিতে চান নেন । আপনার এই পোস্টের প্রত্যেকটি কমেন্ট খুব মনোযোগ দিয়ে পড়ে আপনার জন্য ” ফাউল ” শব্দটা নির্বাচন করেছি ।

          5. একটা গল্প আশা করি জানেন “আঙুর
            একটা গল্প আশা করি জানেন “আঙুর ফল টক”, তো সেই গল্পের ন্যায় আমিও বলি যেহেতু আপনাকে আপনার প্রতিটি মন্তব্যের জবাব দিয়েছি এখন না পেরেই বলছেন আমি “ফাউল”।

            ব্যাপারটা ব্যায়াফুক মজার। যার তার দেয়া ট্যাগে “সুমিত চৌধুরী” ট্যাগায়িত হয় না। :শয়তান: :শয়তান: :শয়তান:

          6. আমার প্রতি টা মন্তব্যে একটা
            আমার প্রতি টা মন্তব্যে একটা করে প্রশ্ন ছিল। উত্তর কি দিয়েছেন? দেন নি বরং বলেছেন সবই নাকি এক টাইপ

  2. সমালোচনায় ব্যস্ত আমরা। কিন্তু
    সমালোচনায় ব্যস্ত আমরা। কিন্তু এই সমালোচনা করতে করতে যে দেশ পাকিস্তান হয়ে যাবে সেই ব্যপারে কিন্তু কোন চিন্তা নেই… :মাথাঠুকি: :মাথাঠুকি: :মাথাঠুকি:

    1. আমি ছোট মানুষ ছোট মস্তিস্কে
      আমি ছোট মানুষ ছোট মস্তিস্কে একটা কথা আসতেছ ভাই।
      আপনার কথায় সমালোচক দের জায়গায় আমি পিতা মাতাকে বসালাম আর সরকারের জায়গায় বসালাম সন্তান কে

      এখন সর্বদা যদি সন্তানের প্রশংসা করে পিতা-মাতা সে তো মনে করবে না জানি কি করে ফেলেছে।
      কিন্তু তার অন্যায়ের বিরুদ্ধে কথা বললে সে কিন্তু তা শুধরাবার চেষ্টা করবে তাই না? যদি তার অপরাধ নিয়ে প্রতিবাদ না করে তাহলে সে একই ভুল বার বার করে যাবে সেই জন্যেই অন্যায় এর বিপরিতে কথা বলাটা অত্যান্ত জরুরি। সেখানে বাবা মার কাছে কিন্তু সন্তান খুবই প্রিয়।

      তেমনি আমরা যদি সমালোচনা না করি তাহলে তো হলই!!!!

  3. আমাদের মত অনলাইন বিনোদন
    আমাদের মত অনলাইন বিনোদন পৃথিবীর অন্য কোন দেশের মানুষেরা পায় কিনা সন্দেহ!!! অফলাইনেও বোধয় আমরা কম যাই না… :নৃত্য: :নৃত্য:

    1. মূল কথাটি তুলে ধররার জন্য এক
      মূল কথাটি তুলে ধররার জন্য এক বুক নিঃস্বার্থ ভালোবাসা :ভালাপাইছি: :ভালাপাইছি: :ভালাপাইছি:

  4. দাদারা এসাইনমেন্ট দিয়ে
    দাদারা এসাইনমেন্ট দিয়ে পাঠিয়েছেন বুঝি?????
    আপনারা যখন অনর্থক গালির বন্যা বইয়ে দিয়ে বাম নিধনে নেমেছেন, তখন কি এই কথাটি মাথায় আসে নাই যে ঢিলটা বুমেরাং হতে পারে। কয়েকটা বামের কথাবর্তায় আপনাদের কি আর আসে যায়? উন্নয়নের জোয়ারে যদি ভাসিয়েই দিয়ে থাকেন, তাহলে দুই/চারজনের কথাবার্তায় কি আসে যায়? পক্ষের শক্তিকে শত্রুতে পরিণত করার ফল ভোগ করেন।

    মুলা ঝুলানো আম্বাদের পুরানো অভ্যাস। রাজপুত্র মুলা ঝুলাইছে, আপনারা নাচতে থাকেন, সমস্যাতো কিছু দেখছি না। ২/১ জন মুখোশধারীর কথায় এত আহত হওয়ার কি আছে রে ভাই। কারা মুখোশধারী আর কারা সঠিক, সেটা সময় ও এদেশের মানুষ বলে দেবে। কুইক রেন্টাল যদি ভালই হয় তাহলে এই ভাল নিয়ে নাচতে থাকেন। জনগণকে এর স্বপক্ষে বুঝান। যারা বুঝবে না, তাদের জন্য আপনাদের পবিত্র শব্দমালা ব্যবহার করেন।

    আজকে পরিস্থিতির জন্য দায়ী কারা? এটা একটু আত্মসমালোচনা করে দেখেন। দুরে সরিয়েছেন আপনারা, কাছে টেনে নেওয়ার দায়িত্বও আপনাদের। আর এই ধরনের পোস্ট লিখেও যে নিজেদের ক্ষতি করছেন সেই বুদ্ধিটা ধড়ে নাই। গালিবাজ ও স্বার্থবাজদের জন্য কোন করুনা করার মানসিকতা নাই। একটা গালির বদলে সরকারের দশটা অপকর্মের খতিয়ান নাজিল করা হবে প্রমাণসহ।

    1. আপনার কথাগুলো মানতে পারলাম না
      আপনার কথাগুলো মানতে পারলাম না ।
      শফির উপর রাগ করে যদি নামাজ রোজা ছেড়ে দেন, গয়েস্বর চন্দ্রের উপর অভিমান করে যদি পুজো অর্চনা ছেড়ে দেন তবে আখেরে ক্ষতিটা কার?
      আওয়ামীলীগের ভুল ত্রুটি থাকতেই পারে, থাকবেই ।তাই বলে আপনারা শুধু খারাপ দিকটাই তুলে ধরবেন?
      সবকিছুতে ষড়যন্ত্র খুজবেন?

    2. দাদারা এসাইনমেন্ট দিয়ে

      দাদারা এসাইনমেন্ট দিয়ে পাঠিয়েছেন বুঝি?????

      কাকতালীয়ভাবে যদি প্রমাণ করা যায় কারো এসাইনমেন্ট নিয়ে কাজ করছি কথা দিলাম অনলাইন জগতে “চুতিয়া” বলে গালি না দিয়ে “সুমিত” বলে গালি দেওয়াটা প্রচলন করা হবে।

      আপনারা যখন অনর্থক গালির বন্যা বইয়ে দিয়ে বাম নিধনে নেমেছেন

      অনর্থক!!!! আমার সমমনাদের খুব একটা শখ নেই সেধে কারো সাথে কুস্তাকুস্তি করার তবে কেউ যদি আমাদের আবেগের জায়গা ধরে টান দেয় তখন নিশ্চয়ই চুপ থাকব না।

      আওয়ামীলীগের ভুল নাই কিনবা নির্ভুল আওয়ামীলীগ এমন কথা আজ পর্যন্ত কোথাও বলেছি বলে মনে পড়ে না বরং প্রকাশ্যে গালি দিয়েছি সেটা মনে পড়ে। ভূল কে না করে? নিশ্চয়ই আওয়ামী কর্মীরা আসমানী দুত নন এরা সবাই মানুষ তবে নিঃসন্দেহে এরা বিএনপি-জামায়াত-বাম এদের থেকে ভালো।

      ও হ্যাঁ বলছিলেন যে আওয়ামী পক্ষের শক্তি বাম!!! আপনি বয়সে, জ্ঞানে, বুদ্ধিমত্তায় অবশ্যই আমার থেকে শ্রেয় সুতরাং এও জানেন বঙ্গবন্ধু হত্যায় মাওবাদীদের ভুমিকা কি ছিলো। নিশ্চয়ই আমি আমার পিতৃ হত্যাকারীদের ক্ষমা করবো না। আর হ্যাঁ ঐ যে বলেছি না “রাজাকারের পাহারাদার – আওয়ামীলীগের সরকার” এই শ্লোগান কিন্তু লাথি আকতাড় থেকেই এসেছিল, এই সেই লাথি যে ৮ তারিখ সন্ধ্যায় এসেছিল, এই সেই লাথি যে “ম্যা-ধাবী”দের সমর্থন দিয়েছিল। আর এই লাথি বামের সমর্থক।

      পরিশেষে ধন্যবাদ এই অধমের লেখা পড়ে দেখার জন্য।

    3. ভাই আজকের পরিস্থিতি জন্য যেমন
      ভাই আজকের পরিস্থিতি জন্য যেমন সরকার দায়ী তেমন দায়ী আমরাও এটা স্বীকার করতেই হবে। কারণ আমরে সমালোচনা করতেই থাকি প্রশংসা কি করেছি?

      আর একটা কথা আপনি রাজপুত্রের মুলা ঝুলানোর কথা বলছেন। তাহলে তো যুগ যুগ ধরে আমরা মুলার পেছনেই ছুটে বেড়িয়েছি।
      পরিক্ষার আগে মা বাবা বলে এইটা করতে পারলে এইটা দেব।
      আর সুনেন ভাই এই টা বলেছে বলে মুলা ঝুলানো হয়ে গেল। আসলে যত দোষ নন্দ ঘোষ।

      একটা ছোট্ট একটূ খারাপ উদাহরণ দেই
      নতুন বউ এর রুম থেকে পাদের গন্ধ অনুভব হচ্ছে এখন দুষ্ট ননদ বলছে বঊ খারাপ প্রথম দিনে এসেই কোন লাজ সরম নেই এই কাজ। এর পর বঊ বলে তার পাদে তো গন্ধই হয় না কখনও। এখন ননদ বলে যে এতো ভাল না পাদে গন্ধ হয় না নিশ্চই সমস্যা আছে বউ এ।
      আমাদের ও একই অবস্থা!!
      দাম কমাইছে খারাপ কেন কমাইলো
      দাম কমায় না খারাপ কেন কমায় না??

    1. গালিবাজদের সব কিছু মেনে নিতে
      গালিবাজদের সব কিছু মেনে নিতে হবে কেন? এই পোস্টের পোস্টদাতাও ফেসবুকের নষ্ট প্রজন্মের গালিবাজ। যার প্রয়োজনে চিংকুদের সাথে উঠাবসা করে আর প্রয়োজন ফুরাইলেই আসল চরিত্র প্রকাশ পায়।

      শফির উপর রাগ করে শফির বিরুদ্ধে কথা বলা বন্ধ করার কথা বলে আম্বা গালিবাজদের বাঁচানোর চেষ্টা কি এক? অন্ধের মত কথা বলছেন কেন? গালিবাজদের নিয়ে আপনার কখনই কোন অবস্থান কি ছিল? শফির বিরুদ্ধে বলে যাচ্ছি, বলে যাব। জামায়াত-শিবিরের বিরুদ্ধে বলে যাচ্ছি, বলে যাব। কিন্তু যাদের মুক্তিযুদ্ধের স্বপক্ষের শক্তি বলে মনে করছি, তারা যদি মনেই করে জামায়াত-শিবিরের চেয়ে বামরা খারাপ, তাহলে সেখানে আর কোন কথা থাকেনা। মুখোশধারী বলতে কি বুঝেন? কাদেরকে ইঙ্গিত করা হচ্ছে? ইন্টারনেটের দাম কমানোর মুলা ঝুলানোর কথা আমিই বলেছি। এটার জন্য যদি মুখোশধারী হয়ে থাকি, হলাম। এই পোস্টের পর যুবরাজের ব্যান্ডউইথ ব্যবসা নিয়ে কিছু বলার প্রিপারেশন নিচ্ছি। মুখোশধারীদের আশাকরি ভবিষ্যতে কোন প্রয়োজন হবেনা আম্বাদের।

      1. যার প্রয়োজনে চিংকুদের সাথে

        যার প্রয়োজনে চিংকুদের সাথে উঠাবসা করে আর প্রয়োজন ফুরাইলেই আসল চরিত্র প্রকাশ পায়।

        যারা ব্যক্তি পরিচয়টাকে সময়ে রাজনৈতিক পরিচয় করে তোলে তাদের জন্য কি টার্ম ব্যবহৃত হতে পারে? :কনফিউজড: :কনফিউজড:

        মুখোশধারী

        এই শব্দটা ব্যবহার কে করলো? :পার্টি: :পার্টি: :পার্টি:

        1. আমার এখন সন্দেহ হচ্ছে এই
          আমার এখন সন্দেহ হচ্ছে এই লেখাটি আদৌ তুমি লিখেছ কিনা? লিখলে তুমি জানতে তুমি কি লিখেছ! তারপরও কোড করে দিলামঃ

          এই সমস্ত মুখোশধারীদের কাজ-কর্ম দেখে যেসকল বিনোদন পাই তাতে কি কম সুখলাভ হচ্ছে? কি নির্মল বিনোদন এই সকল লোকদের থেকে পাচ্ছি যখন নিজেরাই বুঝতে পারছি “আরে এতো ছুপা সুশীল, পুরাই ড. ইউনুস, অস্থির বিনুদুন!!!” আর মনে মনে বলছি “ল্যাঞ্জা ইজ ভেরী ডিফিকাল্ট থিং টু হাইড”

          এখন বুঝতে পারছ মুখোশধারী শব্দটা কে ব্যবহার করেছে। আমি জানতে চাই এই মুখোশধারী কারা? সৎ সাহস থাকলে তাদের নাম সরাসরি বল। আমিও আম্বা মুখোশধারীদের চরিত্র উন্মোচন করব। জামায়াত-হিজুদের কর্তৃক হামলায় থাবার মৃত্যুকে কে, কোন উদ্দেশ্যে অন্যের ঘাড়ে চাপিয়েছিল, এসব রহস্য উন্মোচন হওয়া প্রয়োজন। মুখোশের আড়ালে চেতনার ব্যবসা করে কারা কিভাবে ধান্ধাবাজি করেছে, সেব তথ্যও জানা আছে। প্রকাশ করার সময় এসে গেছে।

      2. এই পোস্টের প্রকাশের
        এই পোস্টের প্রকাশের জায়গাগুলোই প্রমাণ করে সত্যিকারের মুখোশধারী কারা! চিনে রাখলাম।

        1. এইভাবে টেনে নেওয়াটা কেমন জানি
          এইভাবে টেনে নেওয়াটা কেমন জানি একটা প্রবাদের সাথে চলে যাচ্ছে না? :আমারকুনোদোষনাই: :আমারকুনোদোষনাই:

          1. বাহ্‌রে! মুখোশধারীর মত কাজ
            বাহ্‌রে! মুখোশধারীর মত কাজ করাটা অপরাধ না, আর মুখোশ উন্মোচন করে দিলেই প্রবাদ হয়ে যায়! এই কাজটিই বাকি ছিল? অনেকেই বলেছিল তোমার মুখোশটা কিভাবে উন্মোচিত হবে। তখন বিশ্বাস করি নাই। এখন নিজের চোখে দেখে হতবাক হয়ে গেলাম। যাক, ভালই হল, সময় থাকতে মুখোশ উন্মোচিত হল।

            এই পোস্টে আর কোন মন্তব্য করার রুচি নাই। এখানে ইতি………….

          2. মুখোশধারী বলতে কি বুঝেন?

            মুখোশধারী বলতে কি বুঝেন? কাদেরকে ইঙ্গিত করা হচ্ছে? ইন্টারনেটের দাম কমানোর মুলা ঝুলানোর কথা আমিই বলেছি। এটার জন্য যদি মুখোশধারী হয়ে থাকি, হলাম।

            এই কথাগুলো নিশ্চয়ই আমি লিখি নাই!!! আর আমি আপনার প্রোফাইলে চেক করে দেখলাম সেখানে আপনিও লিখেন নাই আর হ্যাঁ অবশ্যই আপনারে উদ্দেশ্য করে লিখলে অন্যখানেও প্রকাশ দিতাম না।

            অনেকেই বলেছিল তোমার মুখোশটা কিভাবে উন্মোচিত হবে।

            আর কতবার মুখোশ উন্মোচিত হতে হবে? সেই অনেকের কথার জন্যেই কিন্তু সরে যাওয়া। কেন খামাখা মাইনষ্যের কথা শুনবেন আমার জন্য? আর হ্যাঁ আমি কিন্তু কোনদিন কারো কান ভারী করি নাই।

          3. এই কথাগুলো নিশ্চয়ই আমি লিখি

            এই কথাগুলো নিশ্চয়ই আমি লিখি নাই!!! আর আমি আপনার প্রোফাইলে চেক করে দেখলাম সেখানে আপনিও লিখেন নাই আর হ্যাঁ অবশ্যই আপনারে উদ্দেশ্য করে লিখলে অন্যখানেও প্রকাশ দিতাম না।

            মুখোশধারীর বলে সম্বোধন করা বাক্যটার কোড উপরে একবার করেছি। আবারও দিলাম।

            এই সমস্ত মুখোশধারীদের কাজ-কর্ম দেখে যেসকল বিনোদন পাই তাতে কি কম সুখলাভ হচ্ছে? কি নির্মল বিনোদন এই সকল লোকদের থেকে পাচ্ছি যখন নিজেরাই বুঝতে পারছি “আরে এতো ছুপা সুশীল, পুরাই ড. ইউনুস, অস্থির বিনুদুন!!!” আর মনে মনে বলছি “ল্যাঞ্জা ইজ ভেরী ডিফিকাল্ট থিং টু হাইড”

            গত ২৪শে অগাষ্ট যুবরাজের বক্তব্যের পর আমিই প্রথম স্ট্যাটাস দিয়েছিলাম। তোমার আম্বাচোখে সেটা দেখনি। এসাইনমেন্ট নিয়ে ব্লগিং করলে এই সমস্যাটা হয়। আমার স্ট্যাটাসটা কোড করে দিলাম।

            নির্বাচনী মুলা-১: আওয়ামীলীগকে নির্বাচিত করলে যুবরাজ মহাশয় ইন্টারনেটের দাম কমাবেন। নির্বাচিত না করলে কমাবেন না। হু…….! এর আগে কমানো সম্ভব না। বাঙালীরে বিশ্বাস নাই। এর পরের বার নির্বাচিত করলে ইন্টারনেট ব্যাংক থেকে কিছু ব্যান্ডউইথ মুক্ত করবেন। জমানো ব্যান্ডউইথ এখন সুদে আসলে অনেক বাচ্চা দিচ্ছেন।

          4. দুঃখিত আমি খেয়ালই করি নাই
            দুঃখিত আমি খেয়ালই করি নাই আপনার দেয়া ২৪ তারিখের স্ট্যাটাস।
            যুবরাজ সাহেবের বক্তব্যের পর ফলাফল কি হয়েছে এটা নিয়ে একটা পোস্ট দিয়েও দিয়েছি আর আশা করছি আপনিও টেলিটকের ব্যাপারে অবগত আছেন ভালোই।
            সুতরাং এরপরেও কি বলবেন যুবরাজ মুলো ঝুলিয়ে বোকা বানাচ্ছে?

      3. আমার কথাটার মর্মার্থ বুঝতে
        আমার কথাটার মর্মার্থ বুঝতে পারেন নি ।
        anyway, আপনি প্রথম কমেন্টেই আওয়ামীলীগকে আম্বা বলে সম্বোধন করেছেন ।এখন আমি যদি আপনাকে হাম্বা(গরু)বলি তবে সেটা কি গালি না আপনার দানের প্রতিদান?
        আমি মনে করি গালি একটি উপহার এবং এই উপহারটি প্রয়োজনে দানের বিপরীতে দেয়া অসমীচীন নয় ।

  5. ভাই যান আমাদের পরিবারে
    ভাই যান আমাদের পরিবারে প্রচলিত একটা সহজ ঘটনা বলি।
    নতুন বউকে যখন শ্বাশুরি বকা দেয়, গেনর গেনর করে তখন প্রথম দুই একদিন বর কিছু বলে না। বাবা মায়ের পক্ষেই থাকে। কিন্তু যখন দেখে এটা অভ্যাস হয়ে গিয়েছে তখন কিন্তু ঠিকই বাবা মায়ের বিরুদ্ধে কথা বলে।

    এখানে আপনি একটু কল্পনা করেন। আমরা ৪২ বছর অপেক্ষা করেছি। আমি স্বীকার করি রাজাকারের বিচার যদি কেউ করতে পারে সেটা পারবে আওয়ামিলীগ এর ব্যতিত অন্য অপশন নেই। কিন্তু এরা যখন এটা নিয়ে এত ঘেনর ঘেন করতেছে আমরা আর কত সহ্য করবো।

    হ্যা এই সরকারের অনেক সফলতা আছে তা অস্বীকার করা যাবে না।
    কিন্তু এতদিন আমরা এই সরকারের উপর ভরসা করেছিলাম। আমাদের ভরসার ফলেই কিন্তু লীগ ক্ষমতায় আসে তাই না?
    কিন্তু জানেন ভাই নতুন বঊ এর উপর একবার যদি সন্দেহ হয় যে তার অন্য কারো সাথে সম্পর্ক আছে তাহলে সে যতই আপনার জন্য করুক আপনার সন্দেহ হবে সে অন্য কারো জন্য করছে। বুঝলেন ভাই????

    1. ভাই কেউ কিন্তু কসম দেয় নাই যে
      ভাই কেউ কিন্তু কসম দেয় নাই যে আওয়ামীলীগরেই আনা লাগবে। না আনেন, ভোট না দেন সমস্যা কই? এইটা ভাইবেন না আহহহ আওয়ামীলীগ আসে নাই দেখে আমি না খাইয়া মরবো। না আসুক আওয়ামীলীগ বাঙালি জাতি সাইধ্যা যতক্ষন মারা না খায় ততক্ষন কিন্তু তার ভালো লাগে না।

      বিএনপি-জামায়াত আসুক রাজাকারেরা ছাড়া পাক। আশা করি ২০০১-২০০৬ সাল দেখা হয় নাই সো অভিজ্ঞতা নিয়া নিয়েন। কেন আমরা সারাদিন ২০০১-২০০৬ সাল বলে চিক্কুর পাড়ি। হাওয়া ভবনের নাম শুনেছেন কাম দেখেন নাই, খাম্বা লিমিটেডের নাম শুনছেন কাম দেখেন নাই, টেন পার্সেন্ট নাম শুনছেন জিনিসটা কি তা দেখেন নাই। বিএনপি আসুক সব একসাথে দেখাবে তারা।

      1. আপনাকে আগেও বলেছি ভাই আমরা
        আপনাকে আগেও বলেছি ভাই আমরা এখানে সকলেই কিন্তু এই জামাত শিবির বিরোধি কিন্তু আমাদের প্রিয় আওয়ামিলীগ যখন এগুলো করে তখন কিন্তু খারাপ লাগে। আর সেই দোষ টাই আমরা ধরিয়ে দেই।

        আপনার বাবা মা কি আপনার চাচাতো ভাই বোন কে শাসন করে নাকি আপনাকে।??????????

  6. আফসোস, যেখানে আমাদের সবার
    আফসোস, যেখানে আমাদের সবার জামাত শিবিরের বিরুদ্ধে বলা উচিত, সেখানে আমরা নিজেরা নিজেদের বিরুদ্ধে বলছি। যেন আমরা দুপক্ষ!!!!
    নিজেদের মধ্যে এতো রেষারেষি না করে একটু জামাতের বিরুদ্ধে বললে সেটা উপকারী হতো।

    1. হুম কিন্তু নিজের দোষ দেখে তো
      হুম কিন্তু নিজের দোষ দেখে তো চুপ থাকা যায় না।

      জামাত এর বিরুদ্ধে আমিও পোস্ট করেছি আগে। আর ভাই আপনি ও করুন সমর্থন পাবেন সবার ।

      1. চুপ থাকার কথা কেউ বলে নি। লীগ
        চুপ থাকার কথা কেউ বলে নি। লীগ ধোঁয়া তুলসি পাতা না। অবশ্যই লীগের ভুল আছে। কিন্তু যেভাবে অনলাইনে দুদল তৈরি হয়েছে, একদল লীগের অন্ধ ভক্ত, অন্যদল লীগের সমালচনায় ঘুম হারাম করছে। স্পমালচনা করেন কিন্তু মাঝে মাঝে একটু ভালটাও বলতে হয়। কিন্তু তারা কোন কিছুতেই লীগের ভালটা দেখে না। দেখে না বিএনপি আমলে কি তাণ্ডব হয়েছিলো, দেখে না বিএনপি আমল থেকে কোন কোন ক্ষেত্রে উন্নতি হয়েছে।
        সমালোচনার একটি সময় দরকার। এখন ক্লান্তিলগ্নে যখন সবার জামাতের বিরুদ্ধে লড়াই করার কথা যাতে আবার জামাত শিবির ক্ষমতায় আসতে না পারে, সেখানে তা না করে একে অপরের পিছে লেগে আছে আদাজল খেয়ে……… :মাথাঠুকি:

        1. সমালোচনার একটি সময় দরকার। এখন

          সমালোচনার একটি সময় দরকার। এখন ক্লান্তিলগ্নে যখন সবার জামাতের বিরুদ্ধে লড়াই করার কথা যাতে আবার জামাত শিবির ক্ষমতায় আসতে না পারে, সেখানে তা না করে একে অপরের পিছে লেগে আছে আদাজল খেয়ে……..

          এক বুক ভালোবাসা রইল আপনার জন্য :ভালুবাশি: :ভালুবাশি: :ভালুবাশি:

  7. সুমিত ভাই, ধোয়া তুলসী পাতা
    সুমিত ভাই, ধোয়া তুলসী পাতা বলে একটা জিনিস আছে। এখানে আপনার কমেন্ট গুলো দেখে মনে হচ্ছে আপনি আওয়ামীকে এইটা রূপেই প্রকাশ করতে চান। এই যে দেখেন, নিজেদের মাঝেই কামড়া কামড়ি শুরু হইয়া গেল। এইটা অস্বীকার করার উপায় নাই যে আওয়ামি দ্বৈত নীতিতে বিশ্বাসী। উদাহরণ দেয়ার বিশেষ প্রয়োজন আছেকি? বাংলাদেশের মানুষের কয়েকটা আবেগের জায়গা ধরে কি নাড়া দেয়া হয়নাই? তাছাড়া আওয়ামীর মন্ত্রী গুলার মুখে টেপ মেরে রাখা উচিত ছিল। তার উপর আপনারা নিজেদের কথাই নিজেদের দুর্বলতার পরিচায়ক।

    অতিভক্তি কিন্তু চোরের লক্ষণ।

    1. জ্বি আমি চোর। আমি আওয়ামীলীগের
      জ্বি আমি চোর। আমি আওয়ামীলীগের দালাল ইহা নতুন কিছু নহে। অন্তত ছুপা হয়ে সুশীল সেজে মুচকি হেসে থাকার লোক না আমি। যা বলি স্পষ্টই বলি, মুখের উপরেই বলি, পিছে গিয়ে না।

      আওয়ামীলীগ ধোয়া তুলসি পাতা সেইটা আজ পর্যন্ত কখনোই বলি নাই, সুতরাং যা বলি নাই সেটা যদি আপনি আপনার “মনে হয়” থেকে বলে দেন তাহলে বলব মনে মলম লাগান। আপনার মনে অসুখ হইছে।

  8. আওয়ামীলীগ এত্তগুলা খারাপ ।তাই
    আওয়ামীলীগ এত্তগুলা খারাপ ।তাই লীগকে ভোট না দিয়ে জামাতকে দিন।দেশ ভাল থাকবে! আপনারা আরো ভাল থাকবেন ।চিঙ্কু,ঝান্ডু, পাকি, সাকি সব মিলে হয়ে যান আধুনিক বাংলাদেশ প্রেমী! নো আপত্তি!
    চিবাংলাস্তান জিন্দাবাদ!

    1. শহীদ ভাই, আওয়ামীকে ভোট দিবনা
      শহীদ ভাই, আওয়ামীকে ভোট দিবনা বলি নাই। কিন্তু যুক্তিহীন ভাবে ভুল গুলো আড়াল করে নিজেদের মাঝে কামড়া কামড়ি করা কতটুকু যৌক্তিকতার দাবী রাখে?

  9. একটা ব্যাপার দেখে বেশ মজা
    :হয়রান: :হয়রান: :হয়রান: :হয়রান: :হয়রান:
    একটা ব্যাপার দেখে বেশ মজা লাগে। অনেকেই আওয়ামী-বাম তর্ক দেখলেই বলে- কি শুরু করলেন? নিজেদের মধ্যে কামড়াকামড়ি করে জামাত-শিবিরের হাতে অস্ত্র তুলে দিচ্ছেন ক্যান?
    কিন্তু আওয়ামী পন্থীদের বক্তব্য শুনে কি মনে হয় বামদের তারা “নিজেদের” লোক বা সহযোদ্ধা মনে করে? করে যে না সেটা উপরের মন্তব্য দেখলেই বুঝতে পারা যায়। এরচেয়েও মজার ব্যাপার হচ্ছে দল কিন্তু আবার সেই বামদের নিয়েই মহাজোট করে বসে আছে। মন্ত্রীও বানাচ্ছে। দল মানে কিন্তু জাতীয়তাবাদী দল না, সরকারী দল বুঝাইছি।

    1. আতিক ভাই চান্স দিছে সেইটার
      আতিক ভাই চান্স দিছে সেইটার মর্যাদা নেতারা বুঝলেও কর্মীরা বুঝে না, কর্মীরা দেখেন ফাটাস ফাটাস মন্তব্য ছুইড়া দেয় “ও ওই শালা…. ওতো আগে বাম ছিলো এখন আওয়ামীলীগ হয়ে গেছে। ওরে দিয়া আর বাম চালানো যাবে না। ও এখন পুঁজিবাদী হয়ে গেছে, ওর মাঝে সমাজতান্ত্রিকতা নাই” এই বলে ৯ টাকার বেনসনে জোরসে একটা টান দিবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *