আসুন প্রতিরোধ করি ফেসবুক হ্যাকিং।

কি-বোর্ডে সমস্যা থাকার কারনে এই পোস্টটি লিখতে একটু কষ্ট হয়ে পড়েছে । আমি মূর্খ একজন মানুষ । ভুল হলে ঠিক করে দিবেন । এর জন্য আগেই মাফ চেয়ে নিচ্ছি । 🙂

বর্তমান সময়ে খুব আলোচিত বিষয় ফেসবুক হ্যাকিং । তিল তিল করে গড়ে ওঠা ফেসবুক পরিবার নিমিষেই ভেঙে যাচ্ছে হ্যাকিংয়ের কবলে পড়ে। আইডিটি হ্যাক হলে শুধু নিজেরেই সমস্যা না । সাথে সাথে ফ্রেন্ড লিস্টে থাকা বন্ধু এবং আত্মীয়-স্বজনেরও কষ্ট ও লজ্জার কারন হয় । কিন্তু অনেকেরই জানা নেই, সামান্য কিছু সাবধানতা অবলম্বন করলেই এসব হ্যাকিং থামানো সম্ভব।

ফেসবুক সাধারণত ফিশিং , কিলগার , ম্যাজিক এবং সোশ্যাল ইঞ্জিনিয়ারিং দিয়েই হ্যাক হয় ।


কি-বোর্ডে সমস্যা থাকার কারনে এই পোস্টটি লিখতে একটু কষ্ট হয়ে পড়েছে । আমি মূর্খ একজন মানুষ । ভুল হলে ঠিক করে দিবেন । এর জন্য আগেই মাফ চেয়ে নিচ্ছি । 🙂

বর্তমান সময়ে খুব আলোচিত বিষয় ফেসবুক হ্যাকিং । তিল তিল করে গড়ে ওঠা ফেসবুক পরিবার নিমিষেই ভেঙে যাচ্ছে হ্যাকিংয়ের কবলে পড়ে। আইডিটি হ্যাক হলে শুধু নিজেরেই সমস্যা না । সাথে সাথে ফ্রেন্ড লিস্টে থাকা বন্ধু এবং আত্মীয়-স্বজনেরও কষ্ট ও লজ্জার কারন হয় । কিন্তু অনেকেরই জানা নেই, সামান্য কিছু সাবধানতা অবলম্বন করলেই এসব হ্যাকিং থামানো সম্ভব।

ফেসবুক সাধারণত ফিশিং , কিলগার , ম্যাজিক এবং সোশ্যাল ইঞ্জিনিয়ারিং দিয়েই হ্যাক হয় ।

#ফেসবুক হ্যাকিং থেকে বাঁচার প্রথম উপায় হলো ফেসবুক আইডিতে ব্যাবহার করা মেইল এবং ফেসবুক আইডির পাসওয়ার্ড ভিন্ন রাখা। হ্যাকাররা হ্যাকের পরই প্রথম লক্ষ থাকে ই-মেইল এড্রেসটা বদলে ফেলা। আর কোনোক্রমে ই-মেইল এড্রেসটি বদলে ফেলতে পারলে আর হ্যাকিং হওয়া ফেসবুক অ্যাকাউন্টটি পুনরুদ্ধার করা খুবই কঠিন হয়ে যায়। কারণ হ্যাকিং হওয়ার পর অ্যাকাউন্টটি পুনরুদ্ধার করার একমাত্র উপায় হলো ই-মেইল এড্রেস।

#ফেসবুকের কোথাও পাসওয়ার্ড দেয়ার প্রয়োজন হলে প্রথমেই লক্ষ রাখতে হবে ওয়েব এড্রেসটি মূল ফেসবুকের এড্রেস কিনা। অনেক সময় কাছাকছি এড্রেসের এবং দেখতে সম্পূর্ণ ফেসবুকের ওয়েবসাইটের মতো সাইটগুলোতে পাসওয়ার্ড দিলেই সাইটটি হ্যাক হয়ে যায়। facebook.com-এর পরিবর্তে যদি facebookie.com, facabook.com ইত্যাদি রকম দেখা যায় তবে কখনোই ইউজার নেম এবং পাসওয়ার্ড দেয়া যাবে না।

#পাবলিক কম্পিউটারে বসলে কাজের শেষে অবশ্যই লগআউট করতে হবে। এবং পাবলিক কম্পিউটারে কখনোই পাসওয়ার্ড রিমেম্বার দেয়া যাবে না।

#কম্পিউটারকে সব সময় ম্যালওয়ার ভাইরাস থেকে মুক্ত রাখতে হবে। এগুলো অনেক সময় পাসওয়ার্ড চুরি করে নিয়ে যায়।এর জন্য আপনাকে ভালো একটি এন্তি ভাইরাস ইউজ করতে হবে । সাথে সাথে তা আপডেট করতে হবে ।

#কখনও কোথাও থেকে আসা Facebook Password Reset Confirmation এরকম মেইলে পাসওয়ার্ড রিসেটে ক্লিক করা যাবে না।

#পাবলিক কম্পিউটারে বসলে কাজ শেষে অবশ্যই cache এবং cookies ডিলেট করতে হবে।

#মেইলে আসা সফটওয়্যার না বুঝে সেটআপ দেয়া যাবে না। অনেক সময় দেখা যায়, ফাইলটি দেখতে ভিডিও বা অডিও ফাইল মনে হচ্ছে কিন্তু আসলে এটি একটি সেটআপ ফাইল, যেটি সেটআপ দিলেই কম্পিউটারের পাসওয়ার্ড চলে যাবে দুর্বৃত্তদের কাছে।

# ফেসবুকে অপরিচিত কাউকে নিজের সম্পর্কে কোন রকম তথ্য না দেওয়া । যেমন : মোবাইল নাম্বার , প্রিয় কোন জিনিসের নাম , প্রিয় বেক্তিত্ত ।

#কিছু দিন পর পর ফেসবুক পাসওয়ার্ড পরিবর্তন করা দরকার ।

আরেকটি পদ্ধতি ব্যাবহার করে আমরা আমাদের ফেসবুক আইডি রক্ষা করতে পারি ।হ্যাকার যদি ফিশিং বা অন্য কোন উপায়ে আপনার পাসওয়ার্ড জেনেও যায় তাহলেও সে আপনার আইডির কোন ক্ষতিই করতে পারবে না ।

এর জন্য প্রথমেই যা করতে হবে তা হল যদি আপনার ফেসবুক অ্যাকাউন্টে এ আপনার মোবাইল নাম্বার দেওয়া না থাকে তবে তা দিন । এবার আপনার account settings এ যান । সেখানে Account Security এর পাশে লিখা change অপশনে ক্লিক করুন ।

এবার Login Notifications এর নিচে লিখা Send me a text message সিলেক্ট করুন । এতে করে যদি আপনার সবসময় ব্যাবহার করা ডিভাইস (যেমন আপনার নিজের কম্পিউটার,মোবাইল) ছাড়া অন্য কোন ডিভাইস থেকে লগইন করা হয় তবে সাথে সাথে আপনার মোবাইল একটি মেসেজ আসবে যেখানে আপনাকে বিষয়টি জানানো হবে। এরপর Login Approvals এর নিচে লিখা Require me to enter a security code sent to my phone সিলেক্ট করুন । এতে করে যদি আপনার সবসময় ব্যাবহার করা নিজের ডিভাইস ছাড়া অন্য কোন ডিভাইস থেকে লগইন করার চেষ্টা করা হয় তবে ফেসবুক একটি কোড চাইবে যা আপনার মোবাইলে মেসেজ করে পাঠানো হবে। কোডটি ছাড়া কোনভাবেই লগইন করা সম্ভব হবে না ।তাই আপনার পাসওয়ার্ড পাওয়া সত্ত্বেও কেউ আপনার অনুমতি ছাড়া আপনার ফেসবুক অ্যাকাউন্টে লগইন করতে পারবে না, সে যতো ভালো হ্যাকারেই হোক না কেন । মেসেজ পাঠাতে কোন চার্জ নিবে না,এটি সম্পূর্ণ ফ্রি ।

এই সেটিংস এর কিছু অসুবিধা আছে তা হল,আপনি নিজেও আপনার মোবাইল সাথে না রাখলে অন্য ডিভাইস থেকে লগইন করতে পারবেন না ,কারন যে কোডটি চাওয়া হবে তা শুধু আপনার মোবাইল এ মেসেজ করে পাঠানো হবে । আর যদি কেউ আপনার ডিভাইস দিয়েই আপনার অ্যাকাউন্টে প্রবেশ করতে চায় তবে এই সেটিংসে কোনো কাজ হবে না ।

#যদি ফেসবুক একাউন্টের পাসওয়ার্ড হ্যাক হয় এবং মেইল একাউন্টটি ঠিক থাকে তবে এই লিঙ্ক থেকে রিকয়েস্ট পাঠালে পাসওয়ার্ড সমাধান পাওয়া যাবে।

https://ssl.facebook.com/reset.php

#যদি ওপরের লিঙ্কে কাজ না হয় তবে পাসওয়ার্ডটি পাওয়ার জন্য নিম্নলিখিত লিঙ্কে ক্লিক করতে হবে। পরবর্তী নির্দেশনা অনুযায়ী কাজ করতে হবে।

http://www.facebook.com/help/identify.php?show_form=hack_login_changed

#যদি ই-মেইল এড্রেসটি পরিবর্তন হয়ে যায় তবে নিম্নলিখিত লিঙ্কে ক্লিক করতে হবে। ফর্মটি পূরণ করে পাঠালে ফেসবুকের কর্মকর্তারা যোগাযোগ করবে।

https://ssl.facebook.com/help/contact.php?show_form=hacked_self_recovery

আশা করি পোস্টটি আপনাদের কাজে আসবে । ভালো থাকবেন । 🙂

১৩ thoughts on “আসুন প্রতিরোধ করি ফেসবুক হ্যাকিং।

  1. যথেষ্ট তথ্য বহুল ও মূল্যবান
    যথেষ্ট তথ্য বহুল ও মূল্যবান একটা পোস্ট… খালি ধন্যবাদ দিয়ে ছোট করবো না!
    :bow: :বুখেআয়বাবুল:

  2. ধন্যবাদ আপনাকে গুরুত্বপূর্ণ
    ধন্যবাদ আপনাকে গুরুত্বপূর্ণ পোস্ট দিয়ে আমাদের সহযোগিতা করার জন্য ।
    আমি সিকিউরিটি লগইন অপশন চেঞ্জ করে দিয়েছি । সাময়িক কিছু অসুবিধা হতে পারে জেনেও আমার কাছে এই পদ্ধতি সব থেকে কার্যকর মনে হয়েছে । আমার ফেইস বুক একাউন্তটির সেফটি আমার কাছে ফার্স্ট প্র্যায়ারোটি ।

  3. অবশ্যই অতি প্রয়োজনীয় ও জরুরী
    অবশ্যই অতি প্রয়োজনীয় ও জরুরী একটি পোস্ট । প্রিয়তে রাখলাম ।
    ধন্যবাদ লেখককে ।

  4. দারুণ একটা কাজ করেছেন। আমার
    দারুণ একটা কাজ করেছেন। আমার খুব কাজে লাগবে। ধন্যবাদ ধন্যবাদ ধন্যবাদ। :ধইন্যাপাতা: :ধইন্যাপাতা: :ধইন্যাপাতা:

  5. দারুণ একটা কাজ করেছেন। আমার
    দারুণ একটা কাজ করেছেন। আমার খুব কাজে লাগবে। ধন্যবাদ ধন্যবাদ ধন্যবাদ। :ধইন্যাপাতা: :ধইন্যাপাতা: :ধইন্যাপাতা:

Leave a Reply to শ্রমিক Cancel reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *