অনুকরণীয় বা অনুসরনীয় দৃস্টান্ত

ভারতের কাছ থেকে আমাদের ইতিবাচক অনেক কিছুই শেখার আছে। তবে আমরা সাধারণত সেই সব ইতিবাচক বিষয় গুলো থেকে শিক্ষা নেই না বা সেগুলা অনুসরন করি না। কিন্তু ভারতে সংঘঠিত নেতিবাচক উদাহরণ গুলো কে আমরা “অবশ্য পালনীয় কর্তব্য” হিসাবে পালন করতে সর্বদা উদগ্রীব থাকি, দুর্ভাগ্যজনক হলেও এটাই বাস্তবতা ! কয়েক মাস আগে চলন্ত বাসে ভারতের এক মেডিকেল ছাত্রী বাস শ্রমিকদের কাছে গ্যাং রেপড হয়ে কয়েকদিন মৃত্যুর সাথে যুদ্ধ করার পর মারা যায় , পুরো ইন্ডিয়া ক্ষোভে ফুসে উঠছিল সে ঘটনায়, জাতি-ধর্ম-বর্ণ, ভদ্র লোক-ক্রিমিনাল নির্বিশেষে পাবলিক এতটাই ক্ষোভে উত্তাল ছিলো যে , পালের গোদা রাম সিং কে যে সেলে ঢুকানে হৈছিল , সেই সেলের অন্যান্য কয়েদিদের হাতে গনধোলাইর শিকার হয়ে মারা যায় ! মানে ক্রিমিনালরা ও তাকে ক্রিমিনাল জগতের কলঙ্ক হিসাবেই ধরে নিয়ে গনধোলাই সহযোগে পরপারে পাঠিয়ে দেয় …. সেই ফুসে ওঠা ক্ষোভের ঢেউ অবশ্য এদেশেও কিছুটা আঘাত হানে….

কিন্তু যন্ত্রণাময় ব্যাপার হচ্ছে, এ ঘটনা থেকে শিক্ষা নিয়ে কোথায় বাস মালিকেরা কিংবা বিআরটিসি বা যথাযথ কতৃপক্ষ মহিলাদের জন্য আরো বেশি নিরাপত্তার ব্যাবস্থা করবে, তা না , উল্টা বাস্তবমুখি শিক্ষাটা নিয়ে নগদেই তা এপ্লাই করল বঙ্গদেশীয় একদল বিদ্যোৎসাহী বাস শ্রমিক !!! সেই ঘটনার ২/৩ দিনের মধ্যে এদেশেও দিনে দুপুরে এক নারী পাশবিকতার শিকার হলেন, কি ‘মচেৎকার’ ! অর্থাৎ বাংলাদেশের বাস ড্রাইভার আর হেল্পারদের চোখ খুলে দিল দিল্লির ঘটনা , তারা ভাবল – আরে চলন্ত বাসে ধর্ষন তো বেশ সহজ এবং হেব্বি এডভেঞ্চারাস !! আর ধরা খাওয়ার সম্ভাবনা খুবই কম। কারণ আমাদের দেশে বা এই উপমহাদেশে, কোন মহিলা এরকম পাশবিকতার শিকার হলে মান ইজ্জত হারানোর ভয়ে চুপচাপ সব কিছু হজম করে ফেলে !!!! এটাই ধর্ষণে উৎসাহিত করে বিকৃত মস্তিস্ক সম্পন্ন লোকদের……

যাই হোক গত কাল ও ইন্ডিয়াতে এরকম একটা ঘটনা ঘটছে, এবার শিকার হলেন ভারতীয় এক মহিলা পুলিশ কর্মকর্তা ! আশ্চর্যের ব্যাপার- পুলিশদের ও এদের খপ্পর থেকে নিস্তার নাই ! যেভাবে তার ওপর নির্যাতন করা হয় তা শুনলে যে কারো মাথায় রক্ত উঠে যাবে …….
মাওবাদীদের হামলায় ঝাড়খণ্ডের সেই মহিলা পুলিশ কর্মকর্তার দেবর মারা যায় …. লাশ সৎকারের উদ্দেশ্যে তিনি আরো ২/৩ জন আত্নীয় সহ হাসপাতাল থেকে লাশ বহনকারী এম্বুলেন্সে করে বাড়ির দিকে যাচ্ছিলেন, পথে এক দল ডাকাত তাদের গতি রোধ করে সেই লাশ বহনকারী এম্বুলেন্সেই লাশের পাশে রেখে তার ওপর এই উপর্যুপরী পৈশাচিক অত্যাচার চালায় !!

আর কদিন আগে ঐশীর ঘটনাটা সম্পর্কে পত্রিকায় পড়লাম, কফির সাথে ঘুমের ঔষধ মিশিয়ে বাবা মা কে হত্যা করার আইডিয়া টা সে পাইছিল সত্য ঘটনা অবলম্বনে নির্মিত “ক্রাইম পেট্রল” নামে ইন্ডিয়ান একটা ক্রাইম বেজড টিভি শো থেকে !!! সাম্প্রতিক কালে সেদেশে ও এরকম একটা ঘটনা ঘটছিল ….. কি বিচিত্র এই দুনিয়া ! বর্বরতার সমস্ত রেকর্ড ছাড়িয়ে যাবে এসব ঘটনা !

ইদানীং মনে হচ্ছে নির্মমতায় মানুষ আদি যুগ কেও ছাড়িয়ে যাবে, এই একবিংশ শতকের “সুসভ্য মানব সমাজ ‘ যে সব নজির বা কীর্তি ধারাবাহিক ভাবে উল্কার বেগে গড়ে যাচ্ছে মানুষ, সে সব করা তো দূরে থাক ; সে গুলোর কথা কল্পনা করতেও হয়ত আদ্দি কালের অসভ্য/বর্বর/ জংলী মানুষেরা লজ্জা পেত …. কিন্তু এখনকার মানুষের এসব “বোধ” বা বিবেকের ওপর ও ফর্মালিন ঢেলে দেয়া হয় !

যাই হোক, ইন্ডিয়ার এসব নেতিবাচক ঘটনা যেভাবে আমরা একের পর এক অনুসরণ করছি , তাতে আমাদের আতঙ্কিত হবার যথেষ্ঠ অবকাশ আছে ! হয়ত খুব শিঘ্রই বাংলাদেশেও মহিলা পুলিশ দের ধর্ষন কিংবা বা লাশবাহী এম্বুলেন্সে ডেডবডির পাশে গ্যাং রেপ করাটা ও প্রসিদ্ধি লাভ করবে ! কারণ এম্বুলেন্সে বিছানার এন্তেজাম থাকে এবং উন্নত মানের শীতাতপ নিয়ন্ত্রন ব্যাবস্থা ও থাকে , তাই আরামসে এসব আকাম এম্বুলেন্সে করা যাবে এবং এটা আসলেই বেশ নিরাপদ ! কারণ , এম্বুলেন্সের ভেতরে কি হচ্ছে সেসব সাধারনত পুলিশ বা জনগন সেভাবে খেয়াল করে না ….

হে আল্লাহ, ইন্ডিয়ান এসব বর্বরতম উদাহরনের অনুসরণ করা থেকে এই জাতি কে হেফাযত করো , আমরা বর্বর জাতি হিসাবে কোন ভাবেই প্রতিষ্ঠিত হতে চাই না , আমরা সহজ সরল অতিথি পরায়ন এবং হেল্প ফুল বাঙ্গালী হিসাবেই সারা বিশ্বে প্রতিষ্ঠিত হতে চাই ।

১০ thoughts on “অনুকরণীয় বা অনুসরনীয় দৃস্টান্ত

  1. আন্তর্জাতিক ক্রাইম এর খবর তো
    আন্তর্জাতিক ক্রাইম এর খবর তো আর চাপা দিয়ে রাখা যাবে না?!! তবে ইন্ডিয়ান টিভি সিরিয়ালগুলো যদি বন্ধ করার কোন উপায় কেউ বের করতো…!?! আফসোস!!! :মাথাঠুকি:

    1. অবশ্য হিন্দি সিরিয়ালের
      অবশ্য হিন্দি সিরিয়ালের প্রবেশাধিকার বন্ধ করা গেলেও লাভ হবে না, তাদের এদেশীয় দোসররা অলরেডি মাঠে নেমে গেছে …. কদিন আগে এশিয়ান টিভি নামে একটা বাংলা চ্যানেল তাদের আনুষ্ঠানিক সম্প্রচার শুরু করে, সেখানে প্রায় সবকিছুই হিন্দি চ্যানেল গুলোর অনুকরণে নির্মিত….. তারকাদের অংশগ্রহণে নির্মিত নাচ গানের প্রতিযোগিতামুলক অনুষ্ঠান বা কুইজ শো , নানান কিছিমের বাইক্কা জিনিস, দুপুর ভর্তি সিরিয়াল আর সন্ধ্যা ভর্তি নাচা-গানা ইত্যাদির এক বিচিত্র সমাবেশ , এদের নকলবাজির খপ্পর থেকে হিন্দি চ্যানেল তো বটেই এমন কি কলকাতার বাংলা চ্যানেল গুলো ও রক্ষা পায় নাই ….

      এটাই হৈতেছে বিষয় ….. ইন্ডিয়ান ক্রিমিনাল দের কাছ থেকে যেমন এদেশের ক্রিমিনাল রা অনুপ্রাণিত হয়, তেমনি তাদের চ্যানেল গুলোর বাইক্কা অনুষ্ঠান থেকেও অনুপ্রেরণা নেন এদেশের নাটক সিনেমা বা রিয়ালিটি শো গুলোর প্রযোজক পরিচালকরা…….

      এই ইউটিউবের যুগে এসব দেখা বন্ধ করেও লাভ নাই, আর সেটা হয়ত উচিত ও হবে না …… কিন্তু তাদের দেশে তো ভাল ভাল অনেক কিছু হয়, সেগুলো কেন আমরা অনুসরন করি না !?
      আফসোস!!! :মাথাঠুকি: :মাথানষ্ট:

  2. অপরাধ যে দেশেই হোক, অপরাধ।
    অপরাধ যে দেশেই হোক, অপরাধ। শাস্তির বিষয় এখানে মুখ্য। কঠিন থেকে কঠিনতম শাস্তি দেওয়া উচিত।

  3. হয়ত খুব শিঘ্রই বাংলাদেশেও

    হয়ত খুব শিঘ্রই বাংলাদেশেও মহিলা পুলিশ দের ধর্ষন কিংবা বা লাশবাহী এম্বুলেন্সে ডেডবডির পাশে গ্যাং রেপ করাটা ও প্রসিদ্ধি লাভ করবে ! কারণ এম্বুলেন্সে বিছানার এন্তেজাম থাকে এবং উন্নত মানের শীতাতপ নিয়ন্ত্রন ব্যাবস্থা ও থাকে , তাই আরামসে এসব আকাম এম্বুলেন্সে করা যাবে এবং এটা আসলেই বেশ নিরাপদ ! কারণ , এম্বুলেন্সের ভেতরে কি হচ্ছে সেসব সাধারনত পুলিশ বা জনগন সেভাবে খেয়াল করে না ….

    — ব্রাদার, এতো ফেনিয়ে ফেনিয়ে ডিটেইলসে না লিখলেও পারতেন !!! একটা লেখা দিয়েও কিন্তু লেখকের মানসিকতা বুঝতে পারা যায় । আর হুমায়ূন আজাদ তো সৈয়দ শামসুল হকের বিরুদ্ধে সরাসরি অভিযোগ তুলেছে – ” নিষিদ্ধ লোবান ” উপন্যাসে নাকি হকি সাহেব হিন্দু নারীকে লেখনী দিয়ে কাম চরিতার্থ করেছেন । আমি সে অভিযোগ তুলছি না আপনার বিরুদ্ধে তবে খিয়াল কইরা …

    এছাড়া আপনার লেখার উদ্দেশ্য বিধেও নিয়ে আমার দ্বিমত নেই । নান্দনিক বোধ ধারণ করা উচিৎ প্রতিটি মানুষের । সুন্দরের সপক্ষে হোক মানুষের অবস্থান ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *