-মানুষের কোন ঠিকানা নেই-

বন্ধু, প্রিয়তমা, সুধিজন
সামরিক-বেসামরিক,
সকলের অন্তরাত্না হতে মুছে গেলো কবি ও কবিতা ।

নক্ষত্রের নিচে কালো রত্রীর দীর্ঘশ্বাস তাদের ভালোলাগেনা ।
নরম তোষকে আদুরে গৃহকর্তা জানেনা
লাশকাটা ঘরে অজ্ঞাত জননীর নাভীকাটা সন্তানের দেহে
বাইশটি জীবিত পোকা দাড়িয়াবান্দার কোট কেটেছে ।



বন্ধু, প্রিয়তমা, সুধিজন
সামরিক-বেসামরিক,
সকলের অন্তরাত্না হতে মুছে গেলো কবি ও কবিতা ।

নক্ষত্রের নিচে কালো রত্রীর দীর্ঘশ্বাস তাদের ভালোলাগেনা ।
নরম তোষকে আদুরে গৃহকর্তা জানেনা
লাশকাটা ঘরে অজ্ঞাত জননীর নাভীকাটা সন্তানের দেহে
বাইশটি জীবিত পোকা দাড়িয়াবান্দার কোট কেটেছে ।

শ্রমিকের উত্তপ্ত ঘামে কাঁশফুলে আগুন লেগে যায় ।
এক খন্ড মফস্বলে বড় হতে থাকে নষ্ট বীজের ফল ।

গেরুয়া পোষাক, কালো বুট পরা জল্লাদেরা
ব্রেসিয়ার খুলে চেক করতে থাকে আত্নঘাতি বিস্ফোরক ।
সিথির সিদুর থেকে মুছে দেয় প্রিয়তমার চুম্বন ।

স্পষ্ট করে বলছি- মানুষের কোন ঠিকানা নেই ।
আমার ভাবনা হয় মানুষ নিকৃষ্ট কিছুর বংশধর ।

পৃথিবির জন্মের পর
মিথ্যে প্ররোচনায় সহবাস হয়েছিলো গোলাপের সাথে তেলাপোকার ।
তারপরের ইতিহাসটু্কু সন্দেহাতী্তভাবেও প্রমানীত হয়নি
মানুষ কার বংশধর?
গোলাপের না তেলাপোকার না অন্যকিছুর ?
আমার ভাবনা হয় মানুষ নিকৃষ্ট কিছুর বংশধর ।

৯ thoughts on “-মানুষের কোন ঠিকানা নেই-

  1. চমৎকার লিখেছেন। অনেকদিন পর
    চমৎকার লিখেছেন। অনেকদিন পর ব্লগে একটা ভালো কবিতা পড়লাম। :থাম্বসআপ: :থাম্বসআপ: :থাম্বসআপ:

  2. প্রতিটি প্যারা আলাদা আলাদা
    প্রতিটি প্যারা আলাদা আলাদা অর্থবহন করছে। সম্মিলিত ভাবে কবিতার ধারাবাহিকতা ছিলোনা। কেমন জানি খাপছাড়া খাপছাড়া। উপমাগুলো সুন্দর, সাবলিল ও আধুনিক। পড়ে ভালোই লাগলো। এটি একটা কবিতা না হয়ে অনেকগুলো অনুকাব্য হলেই ভালো হতো বলে মনে হয়।

  3. আপনার এই কবিতাটা আমাকে খুব
    আপনার এই কবিতাটা আমাকে খুব একটা আকৃষ্ট করলো না কেন এইটা নিয়ে আমাকে কিছু ব্যক্তিগত বিশ্লেষণ করতে হবে …

      1. বিশ্লেষণ টা আসলে আত্ম
        বিশ্লেষণ টা আসলে আত্ম বিশ্লেষণ । মজার বেপার হল গতকাল রাতে আপনি যখন ফেইস বুকে চ্যাটে কবিতাটি পড়তে দিলেন তখন কিন্তু ভালো লেগেছে ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *