নিষ্ঠুরতার উৎকর্ষতা !!

আমার দুই বছরের ভাগ্নের অনুসন্ধিতসু মনের খুব প্রিয় একটা প্রশ্ন হচ্ছে “টাকা কৈ ?” তার এই কথায় আমরা হেব্বি মজা পাই , ডিজিটাল পুলাপাইন জন্ম নিয়াই টাকার সন্ধানে ব্যাস্ত ! যাই হোক, কদিন আগে সে টাকার কথা বলার আগে আমিই তাকে জিজ্ঞাসা করলাম “টাকা কই মামা ?” তার জবাব “টাকা ব্যাঙ্কে” !! এই কথা শুনে বাসার সবাইরই আক্কেল গুড়ুম অবস্থা !! আরো একবার মনে মনে স্বীকার করতে বাধ্য হলাম – এই পোলা ড্যাম ব্রিলিয়ান্ট হবে , এতে কুনোই সন্দেহ নাই !!


আমার দুই বছরের ভাগ্নের অনুসন্ধিতসু মনের খুব প্রিয় একটা প্রশ্ন হচ্ছে “টাকা কৈ ?” তার এই কথায় আমরা হেব্বি মজা পাই , ডিজিটাল পুলাপাইন জন্ম নিয়াই টাকার সন্ধানে ব্যাস্ত ! যাই হোক, কদিন আগে সে টাকার কথা বলার আগে আমিই তাকে জিজ্ঞাসা করলাম “টাকা কই মামা ?” তার জবাব “টাকা ব্যাঙ্কে” !! এই কথা শুনে বাসার সবাইরই আক্কেল গুড়ুম অবস্থা !! আরো একবার মনে মনে স্বীকার করতে বাধ্য হলাম – এই পোলা ড্যাম ব্রিলিয়ান্ট হবে , এতে কুনোই সন্দেহ নাই !!

গত দু বছরে আমাদের পরিবারে সব চেয়ে আনন্দের ঘটনা হচ্ছে – আমার ভাগ্নের জন্ম । বাসায় আমরা কেবল ৩ জন প্রানী, আমি আর বাবা-মা । বোনের বাসা একেবারে কাছেই, তাই প্রতিদিনই হয় বাবা কিংবা মা তাকে নিয়ে আসে, নইলে বোন তাকে আমাদের বাসায় পাঠিয়ে দেয় বা নিজেই নিয়ে আসে ।

আপাতত আমদের বাসার সমস্ত আনন্দের উৎস সে, তাকে ঘিরেই আমাদের সব কিছু আবর্তিত হয় ! আমার আশা, যে ভাবেই হোক তারে ক্রিকেটার বানামুই আর তার বাপ তো এখন থেকেই তার জন্য স্কুলের সন্ধানে ব্যাস্ত !! এই এক যুগ আসছে আর কি, আগে হৈলে বলা হত “গাছে কাঠাল গোফে তেল”, কিন্তু এই হাইব্রিড যুগে এটাই স্বাভাবিক । আমার বোন এবং বাবা-মার ও অনেক স্বপ্ন তাকে ঘিরে , অন্যান্য সবার ও যেমন সন্তান বা নাতি-পুতি বা কে ঘিরে অনেক আশা থাকে, সে রকম আর কি …

কিন্তু গতকাল থেকে মনটা অসম্ভব খারাপ, এক কুলাঙ্গার সন্তান তার বাপ- মারে কি নৃশস ভাবেই না হত্যা করল !! তাও আবার মেয়ে সন্তান , যাদের মধ্যে কোমলতা বা মায়া মমতা অনেক বেশি থাকার কথা !! একজন সন্তান কতটুকু অমানুষ হলে খুনীদের পাশে দাঁড়িয়ে দাঁড়িয়ে বাবা-মাকে হত্যার দৃশ্য দেখে কিংবা আরো নিষ্ঠুর হবার ইন্সট্রাকশন দেয় !! একটা মানুষ কিভাবে তার মাকে ১১ বার ছুরি চালায় – তার বাবাকে জবাই করে !!?

আমি জানি না নিজের সন্তানের এই নিষ্ঠুরতা দেখে সেই হতভাগা বাবা মায়ের মানসিক অবস্থা কি রকম ছিল !? তাদের হয়ত শারীরিক যন্ত্রনার চেয়ে মানসিক যন্ত্রনা অনেক অনেক বেশি ছিল, সন্তানের জন্য যে কোন বাবা মা জীবন দিতে প্রস্তুত , অথচ সেই সন্তানের সৌজন্যে কি নিষ্টুর ভাবেই না খুন হলেন তারা !!

আমি জানি , এগারো বার ছুরিকাঘাত হয়ে শারীরিক মৃত্যুর আগেই তার মা “এগারো বার মানসিক ভাবে” মৃত্যুবরণ করেছিলেন, এ ছোট্ট ব্যাপার টা বোঝার জন্য সাইকোলজিতে মাষ্টার্স করতে হয় না ।

এই মেয়েটার জন্মাবার পর নিশ্চয়ই তাদের পুরো পরিবারে আনন্দের বন্যা বয়ে যায়, ঠিক ভাগ্নের জন্ম হবার পর আমাদের পরিবারে ও যেমটা ঘটেছিল ! আমাদের যেমন ভাগ্নে কে নিয়ে অনেক অনেক আশা-ভরসা, তেমনি তার পরিবারের ও অবশ্যই তাকে নিয়ে অনেক আশা আকাঙ্খা ছিল …… কিন্তু এক লহমায় সব কিছু ধুলিস্যাত – ধুলোয় উড়িয়ে দিল সব স্বপ্ন-আশা-আকাঙ্খা !

সেই সাথে পুরো দেশের মানুষের আশা-আকাঙ্খা ও কি ধুলিস্যাত করে দেয়নি সে ?এমন কেউ কি আছে, এই খবর টা দেখে
যার বুকে হাহাকার জাগে নাই !? নিজের সন্তানের হাতে নিষ্টুরতার শিকার হবার অমঙ্গলের শঙ্কায় একবার ও বুক কাপে নাই !?

আমার মনে এখন বারবার কেবল ভাগ্নের মায়াময় চেহারাটা ভাসে, বেশি কিছু আর ভাবতে পারি না …… (আল্লাহ মাফ করুন)…………..

১০ thoughts on “নিষ্ঠুরতার উৎকর্ষতা !!

  1. যে ভাবেই হোক তারে ক্রিকেটার

    যে ভাবেই হোক তারে ক্রিকেটার বানামুই

    — ভাগ্নে কি হতে চায় বা কিসের প্রতি তার ঝোঁক বা প্রবণতা বেশি সেটাও একটু খুঁজে দেখেন । আফটার অল লাইফ টা তার ।
    — ঘটনাটা দুঃখজনক । এর কারণ এবং তার পেছনের কারণ আমাদের ভেবে দেখতে হবে ।

    1. “যে ভাবেই হোক তারে ক্রিকেটার
      “যে ভাবেই হোক তারে ক্রিকেটার বানামুই ” এইটা বলছি আসলে এই কারণে যে , সন্তানদের প্রতিটা পরিবারেরই অনেক স্বপ্ন বা আশা থাকে সেটা বোঝানোর জন্য । এখন যে যুগ তাতে বাধা দেয়ার প্রশ্নই আসে না, তার যেটা পছন্দ সে সেটাই করবে , কিন্তু তাকে নিয়ে আমরা বিশেষ কিছু আশা করতেই পারি , অন্যান্য পরিবারের মতই ।
      BTW মন্তব্যের জন্য ধন্যবাদ 🙂

  2. স্যাড স্টোরি। তবে কয়েক মাস পর
    স্যাড স্টোরি। তবে কয়েক মাস পর মানুষ এই স্টোরি আর খাবেনা। মিডিয়া নতুন খাদ্য সন্ধানে বের হবে। সবাই “কী দুঃখ কী দুঃখ” বলে লাফাচ্ছে। কিন্তু কেউই বলেনা “কী করণীয় কী করণীয়” //////

  3. অনেকে এই ঘটনার জন্য আমাদের
    অনেকে এই ঘটনার জন্য আমাদের সমাজ ব্যবস্থকে দায়ী করছেন যা মোটেও মেনে নেয়া যায় না ।ঐশীর ক্ষমার অযোগ্য অপরাধের দায় সমাজব্যবস্থার উপর চাপিয়ে দেওয়া যায়না।
    ঐশী জঙ্গলে বাস করে না ।ঐশী নামকরা ধনী, শিক্ষিত ও উন্নত পরিবারের মেয়ে।এত উন্নত ও শিক্ষিত সমাজের অধিবাসীরা যদি সমাজের দোষে এমন করতে বাধ্য হয় তবে আমরা আর কেমন সমাজ প্রত্যাশা করবো?
    সমাজ নয়, অর্থ আর পারিবারিক নিয়ন্ত্রনহীন অধিক স্বাধীনতাই ঐশীদের এমন অবস্থায় পৌছায় ।

    1. পরিবার কি সমাজের বাইরের কিছু?
      পরিবার কি সমাজের বাইরের কিছু? ঐ মেয়ে যেই সমাজে বেড়ে উঠেছে সেটার কথা বলছে সবাই। আপনি টেনে নিজের ঘাড়ে নিচ্ছেন কেন শাহিন ভাই?

    2. শাহিন ভাই,
      আপনার কথার সাথে

      শাহিন ভাই,
      আপনার কথার সাথে একমত হতে পারলাম না । আপনি খণ্ডিত কারণ বললেন । আমাদের চিন্তা, চেতনার জগত সৃষ্টিতে পরিবার, সমাজ এবং রাষ্ট্র প্রতিটি সংগঠনের ভুমিকা গুরুত্বপূর্ণ । একটাকে বাদ দিয়ে আরেকটা চলতে পারেনা । আমাদের চরিত্র এবং এর বিকাশে উল্লেখিত প্রতিষ্ঠানের দায় দায়িত্ব পালন ভীষণভাবে জরুরী । আমারা কেবল দেখছি একটি হত্যাকাণ্ড ঘটেছে এবং ঘটিয়েছে আর কেউ না নিজের সন্তান, কিন্তু ভেবে দেখছিনা এর পেছনে কি কারণ কার্যকর ছিল ।

      আপনি অর্থের কথা বলছেন, আচ্ছা ওর বাবা – মা কি অর্থ দিতো ইয়াবা কিনে খাওয়ার জন্য ? কোন বাবা -মা কি সন্তান কে বেয়াড়া, উচ্ছৃঙ্খল হবার জন্য প্ররোচনা দেয় ?

  4. দায় কি একা ঐশী বা তার
    দায় কি একা ঐশী বা তার পরিবারের। সমাজ বা রাষ্ট্র ব্যবস্থার কি কোন দায় নাই? সব চাইতে বড় ক্ষতি কিন্তু ঐশী ও তার পরিবারেরই হয়েছে। আমরা তো কিছু দিন চিৎকার করেই শেষ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *