বিলকিস

বর্ষা বিরক্ত। তার প্রচন্ড তান্ডবে মেজাজ খারাপ। বিশেষ ভঙ্গিমায় সে রাগ করে আছে। তার রাগের কথা কেউ জানে না। ঘরের কেউই বুঝতে পারে না। রাগের সময় তার মাথা ঠিক থাকে না। উল্টাপাল্টা বকাবাজি করে।
– মেরাজ। এই মেরাজ।
… জি আফা।
– কই থাকিস তুই? শোন সারা দিন আমার সাথে থাকবি। অনেক কাজ আছে।
… আফা, আমিতো অহন বাজারে যামু। খালাম্মায় টেয়া দিসে।
– ওকে চল। আজকে আমি তোকে নিয়ে বাজারে যাব।
… আপ্নে কুনোহানে যাইবেন না?
– না। বদমাইশ টা আজকে আমাকে কোথাও নিয়ে যাওয়ার কথা। আজকেও আসতে পারবে না।
… হে হে হে হে… বদমায়েশরা এমুনি করে। খালাম্মা আপ্নেরে যাইতে দিব?

বর্ষা বিরক্ত। তার প্রচন্ড তান্ডবে মেজাজ খারাপ। বিশেষ ভঙ্গিমায় সে রাগ করে আছে। তার রাগের কথা কেউ জানে না। ঘরের কেউই বুঝতে পারে না। রাগের সময় তার মাথা ঠিক থাকে না। উল্টাপাল্টা বকাবাজি করে।
– মেরাজ। এই মেরাজ।
… জি আফা।
– কই থাকিস তুই? শোন সারা দিন আমার সাথে থাকবি। অনেক কাজ আছে।
… আফা, আমিতো অহন বাজারে যামু। খালাম্মায় টেয়া দিসে।
– ওকে চল। আজকে আমি তোকে নিয়ে বাজারে যাব।
… আপ্নে কুনোহানে যাইবেন না?
– না। বদমাইশ টা আজকে আমাকে কোথাও নিয়ে যাওয়ার কথা। আজকেও আসতে পারবে না।
… হে হে হে হে… বদমায়েশরা এমুনি করে। খালাম্মা আপ্নেরে যাইতে দিব?
– বেয়াক্কেলের মতো হাসবি না। খালাম্মা কে কিছু বলতে হবে না। চল।
বাজারে গিয়ে বর্ষার মেজাজ আরো খারাপ। রাস্তায় মেরাজ কে তিনবার চর মেরেছে। মেরাজ বর্ষাদের সাথে অনেক দিন কাজ করে। রাস্তার ফুটপাথ থেকে বর্ষার বাবা ওকে নিয়ে এসেছিলো। মেরাজ বর্ষার সাথেকখোনোই রাগ করে না। বর্ষার সাথে থাকতেই সে বেশী পছন্দ করে। বর্ষা মেরাজের সাথে সবসময় চেচায়। কখনওগায়ে হাত তুলে নাই। আজ হাত তুলেছে। মেরাজ চুপ করে আছে। প্রতিদিন বাজারের উছিলায় তার কিছু এক্সট্রা ইনকাম হয়। আজকে হয় নাই।
বর্ষার প্রতি সে একটু একটু রাগ হইতেসে। মেরাজ মেয়েদের উপর রাগ করলে বিলকিস বলে গালি দেয়। বর্ষা একটা বিলকিস। নামটা জোরে বললে আরেকটা চর খেতে হবে। মেরাজ মনে মনেই গালি দিচ্ছে।
‘ব’ তে ‘বর্ষা’ … … তুই বিলকিস, তুই বিলকিস।
বিলকিস একটু পর হয়তো রিক্সাওয়ালার সাথেও বকাবাজি করতে পারে। রিক্সাওয়ালাকে আগে থেকে বুঝাইতে হবে। রিক্সাওয়ালার বুদ্ধি থাকলে কিছু মনে করবে না। রিক্সাওয়ালার খুব সুন্দর গঠন। সেদ্রুত রিক্সা চালাইতেছে। সুন্দর মেয়েরা রিক্সায় উঠলে তাদের ভিতরেঅতিরিক্ত একটা অসাড় শক্তি কাজ করে।
রিক্সাওয়ালা কে বিলকিস কিছু বলেনাই। সিড়ি দিয়ে উঠার সময় বুয়ার ইশারা সে বুঝতে পারলো।
– কি বুয়া? কিছু বলবা?
… আফা, ভাই জান আইছিলো। আপনের লাইগা অনেক ক্ষন অই কোনার দোকানে দাড়াইয়া আছিলো। হেরপর, আমারে এই কাগজটা দিয়া চইলা গেছে।
বর্ষা কাগজটা হাতে নিল।
“বর্ষা,
তোমার জন্য অনেক ক্ষন অপেক্ষা করেছিলাম। ধৈর্যের বাধ ভেঙ্গে তোমাকে একটা প্রশ্ন লিখে চলে গেলাম।
“কোথায় গিয়েছিলে? ”
জানি হয়তো আসল কথা বলতে পারবা না।আসলে তোমরা মেয়েরা কোন ভাবেই নিজেদের ধরে রাখতে পারো না। তুমিই আমাকে বলেছিলে, কোন ভাবেই সময় বের করতে না পারলে, প্রয়োজনে স্কুলের চাকরী ছেড়ে দিতে। চাকরি ছাড়তে হয় নাই। আমি এমনিতেই স্কুল থেকে আগে আগে বের হয়েছি। এসে তোমাকে পাই নাই। তুমি হয়তো অন্য কোন সুখের ঠিকানায় মাথা ঠুকাচ্ছো।
তুমি অনেক সুন্দর একটা মেয়ে। তবে তোমাকে নারী বলা যায় না। একজন সত্যিকারের নারীর বৈশিষ্ট্য তোমার মধ্যে নাই। আসা করি সত্যি কারের ঐ বৈশিষ্ট্য গুলো জেনে নিবা।
মেয়েদের জন্য দুইটা জিনিষ খুব খারাপ। অতিরিক্ত সাহস আর এক ঘুয়েমি। তোমার ভিতরে দুইটা জিনিষই কাজ করে। তোমাকে ভালো মেয়ে বলা যায় না।”
চিঠিটা পড়ে বর্ষা চুপ হয়ে আছে। তার মাথা ধরেছে। চারদিকের সবকিছুএলোমেলো মনে হইতেছে। সে চুপ করে বসে আছে।

১০ thoughts on “বিলকিস

  1. মেয়েদের জন্য দুইটা জিনিষ খুব

    মেয়েদের জন্য দুইটা জিনিষ খুব খারাপ। অতিরিক্ত সাহস আর এক ঘুয়েমি। তোমার ভিতরে দুইটা জিনিষই কাজ করে। তোমাকে ভালো মেয়ে বলা যায় না।”

    —— বাহ ! ভালো ফতোয়া দিলেন মশাই । খুব জানতে মন চাইতেছে ছেলেদের জন্য এমন কোন ২ টা জিনিস আছে নাকি ?

  2. শুরুটা ভাল ছিল। শেষটা খারাপ
    শুরুটা ভাল ছিল। শেষটা খারাপ লেগেছে। বিশেষত ভাল মেয়ের বৈশিষ্ট্য হিসেবে যা বললেন তা খুবই আপত্তিজনক।

  3. নাভিদ ভাই আসেন।তবে গতকাল এটা
    নাভিদ ভাই আসেন।তবে গতকাল এটা বসে এফবিতে শেয়ার দেয়া দেখছি।তাই জোড়া লাগতে পারে।এইসব কোন জাতীয় ফতোয়া দিলেন ?

  4. মেয়েদের জন্য এই ভালো না সেই
    মেয়েদের জন্য এই ভালো না সেই ভালো না……
    তা একটু ছেলেদের জন্য কিছু লিখেন, কোনটা কোনটা ভালো না । !
    নাকি সব রসিকতা মেয়েদের জন্যই প্রযোজ্য!!!!

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *