চুতিয়ারা আবার স্বাধীনতা বুঝে নাকি?

বঙ্গবন্ধু।
কারো কাছে তিনি দেবতা তুল্য। কারো কাছে তিনি জঘন্যতম মানুষদের মধ্যে একজন। তাকে নিয়ে লেখার কিছু নেই। না আমি কখনো শেখ মুজিব হতে পারবো, না পারবো তার ধারে কাছে যেতে। তাকে বিচার করার ক্ষমতা আমার নেই। কারোই নেই।

যারা তাকে বিচার করে, তারা যুদ্ধের সময় হয় ধরনীতে আসেনি অথবা এসেও মায়ের কোলে। তারা নিশ্চয়ই বলে নি, ” যার যা কিছু আছে তাই নিয়ে যুদ্ধে নেমে পড়।” এবং তার কথাতেই গোটা বাঙালি জাতি যুদ্ধে নামে এবং সেই যুদ্ধ জয় করে ছিনিয়ে আনে স্বাধীনতা।


বঙ্গবন্ধু।
কারো কাছে তিনি দেবতা তুল্য। কারো কাছে তিনি জঘন্যতম মানুষদের মধ্যে একজন। তাকে নিয়ে লেখার কিছু নেই। না আমি কখনো শেখ মুজিব হতে পারবো, না পারবো তার ধারে কাছে যেতে। তাকে বিচার করার ক্ষমতা আমার নেই। কারোই নেই।

যারা তাকে বিচার করে, তারা যুদ্ধের সময় হয় ধরনীতে আসেনি অথবা এসেও মায়ের কোলে। তারা নিশ্চয়ই বলে নি, ” যার যা কিছু আছে তাই নিয়ে যুদ্ধে নেমে পড়।” এবং তার কথাতেই গোটা বাঙালি জাতি যুদ্ধে নামে এবং সেই যুদ্ধ জয় করে ছিনিয়ে আনে স্বাধীনতা।

হ্যাঁ, তিনিই যুদ্ধের পর বলেছিলেন, ” সব ধর্ষিত নারীর ঠিকানা আমার ঠিকানা লিখে দাও। আর তাদের পিতার নাম লিখে দাও শেখ মুজিবর রহমান। ” এই কথা বলার সাহস আমার তো অন্তত হবে না!

আর আমরা তাকে কি দিয়েছি? ১৫ আগস্টের রাতে উপহার হিসেবে বুক ঝাঁঝরা করা গুলি? তার চলে যাওয়ার শুন্যতা আমরা কি এখনো পূরণ করতে পারছি? না। সত্যই পারছি না। পারবো না কোনোদিনই। আমরা তাকে দিতে পারবো কেবল হতাশা। তাকে উপহার দিব এমন এক বাংলাদেশ, যে বাংলাদেশ দেখে তিনি বলবেন, ” আমি এই দেশকে স্বাধীন করেছিলাম? ”
হ্যাঁ, বঙ্গবন্ধু। আপনি ভুল দেশকে স্বাধীনতা দিয়ে গেছেন।

চুতিয়ারা আবার স্বাধীনতা বুঝে নাকি ??

৯ thoughts on “চুতিয়ারা আবার স্বাধীনতা বুঝে নাকি?

  1. আসলেই বঙ্গবন্ধু এক অনিচ্ছুক
    আসলেই বঙ্গবন্ধু এক অনিচ্ছুক অপ্রস্তুত জাতিকে স্বাধীনতা এনে দিয়েছিলেন। বারবার রবার্ট ব্রাউনিং এর “দ্যা প্যাট্রিয়ট” কবিতাটা মনে পড়ে যায়।

  2. আসলে স্বায়ত্ত শাসন আর
    আসলে স্বায়ত্ত শাসন আর স্বাধীনতার মাঝে যে যোজন যোজন দূরত্ব এই ব্যাপারটা ভালো করে বুঝে ওঠার আগেই আমাদের স্বাধীনতা চলে এসেছিলো । কিন্তু তাকে বরণ করে নেবার ক্ষমতা, সাহস বা ইচ্ছা কোনটাই ছিলোনা । পরিণতি ১৫ আগস্ট, ৩ নভেম্বর …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *