ত্রিপা

আমার থাকা না থাকাটা কারো কাছে তেমন কোন পার্থক্য তৈরি না করলেও আমার নিজের কাছেই খুব কষ্টকর বিষয়।মেনে নেওয়া খুব কঠিন হয়ে যায় নিজের বিবেকের কাছে।আকাশ ফ্যাকাসে থেকে আরও বেশি ফ্যাকাসে হয়ে যায় আমার চোখে।

ত্রিপার সাথে প্রথম পরিচয় কবে হয়েছিল তা একদমই মনে নেই।কেবল যখন ওঁর নাম জানলাম তখনই আমার খাওয়া-ঘুম,পড়াশোনা,এমনকি সব কিছুর নিয়ন্ত্রণকারী হয়ে দাঁড়ালেন সেই মহীয়সী।তারপর আস্তে আস্তে অনেক সময় চলে যাচ্ছিল আমাদের ফাঁকি দিয়ে।কিন্তু আমরা কেউ কাউকে ফাঁকি দিয়েছি বলে মনে পড়ে না।


আমার থাকা না থাকাটা কারো কাছে তেমন কোন পার্থক্য তৈরি না করলেও আমার নিজের কাছেই খুব কষ্টকর বিষয়।মেনে নেওয়া খুব কঠিন হয়ে যায় নিজের বিবেকের কাছে।আকাশ ফ্যাকাসে থেকে আরও বেশি ফ্যাকাসে হয়ে যায় আমার চোখে।

ত্রিপার সাথে প্রথম পরিচয় কবে হয়েছিল তা একদমই মনে নেই।কেবল যখন ওঁর নাম জানলাম তখনই আমার খাওয়া-ঘুম,পড়াশোনা,এমনকি সব কিছুর নিয়ন্ত্রণকারী হয়ে দাঁড়ালেন সেই মহীয়সী।তারপর আস্তে আস্তে অনেক সময় চলে যাচ্ছিল আমাদের ফাঁকি দিয়ে।কিন্তু আমরা কেউ কাউকে ফাঁকি দিয়েছি বলে মনে পড়ে না।

তারপর কোন এক বর্ষায় ত্রিপার হাতে ছিল একরাশ বকুল ফুল।আমার চশমা একা একাই মনে হয় হাতে চলে এসেছিলো,নিরব পাথরের মূর্তির মত দাঁড়িয়ে ছিলাম আমি।আমি জানতেও চাইনি ও ফুলগুলো কোথায় পেল?

আমাদের চলার পথটা আলাদা হতে শুরু করেছিল ঠিক সেদিন থেকে,যেদিন আমি ওকে বলেছিলাম “ভালোবাসি”!

এই শব্দটা গল্প-কবিতায় খুব অসাধারণভাবে দুজন মানুষকে কাছাকাছি নিয়ে আসলেও আমি ত্রিপার থেকে সরে গিয়েছিলাম বহু শতাব্দী দূরে,নিজের ক্লান্তিকর একাকীত্বকে সাথী করে!

১২ thoughts on “ত্রিপা

  1. কি লিখেছেন কিছুই বুঝলাম না।
    কি লিখেছেন কিছুই বুঝলাম না। দ​য়া করে ব্লগকে ফেসবুক বানাবেন না প্লিজ।মিনিংলেস পোস্ট দেয়ার কোন মানে হ​য় না।

    1. আমরা হয়ত অনেকেই পড়ি।তবে পড়ার
      আমরা হয়ত অনেকেই পড়ি।তবে পড়ার পর ভাবার ইচ্ছা রাখি না,ভাবতে পারলে হয়ত আরও অনেক কিছু বুঝতে পারতাম।ধন্যবাদ আপনার মতামতের জন্য,চেষ্টা করবো ভালো লিখতে।

  2. এই সব কথা ব্লগে না লিখে নিজের
    এই সব কথা ব্লগে না লিখে নিজের ব্যাক্তিগত ডায়রীর পাতায় লিখলে ভাল হবে ।খামোখা কেন ডাটা খরচ করে অন্যের সমালোচনা শুনতে যাবেন?

    আপনার কাছ থেকে আরো ভাল কিছু লিখা প্রত্যাশা করি ।শুভকামনা থাকল ।

    1. আসলে ভাইয়া লেখাটা অনেক
      আসলে ভাইয়া লেখাটা অনেক আগের।আমার এক ভাইয়ার কাছে অনেক চিপাচিপি করার পর তার প্রেম কাহিনী বলেছিলেন,তাও মাত্র দুই লাইনে।আমি একটু টেনেটুনে বড় করলাম আর কি!
      চেষ্টা থাকবে ভালো লেখার!

Leave a Reply to অবাস্তব স্বপ্নচারী Cancel reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *