মেয়েরা নেংটু হয়ে চলুক…….আপনি আপনার “দন্ড” সামলান..!!




নারীদের যাহারা ভোগের সামগ্রী মনে করেন নারীদের পোষাক লইয়া তাহাদের চিন্তার অন্ত নাই। কারন তাহারা খুব ভালভাবেই জানে যে কোন পোষাক পড়িলে মেয়েদের অধিকতর আকর্ষণীয় ভোগ্যবস্তু হিসাবে মনে হয়। কিন্তু এই ছাগুপ্রজাতির প্রাণীরা একটি বিষয় হিডেন রাখে তা হলো নারী যে পোষাকই পড়ুক না কেন তাতে ছাগুদের প্রেমদন্ড উত্থিত হইবেই। আমি একটা বিষয়ে সন্দেহাতীতভাবে নিশ্চিত যে রাস্তায় বোরকা পড়া বা বোরকা ছাড়া নারীদের দেখিয়া যেসব মুমিন বান্দাদের প্রেমদন্ড উত্থিত হয় তাহাদের নিজেদের মা-বোনদের দেখিয়াও একই ঘটনা ঘটে। তাই মুমিনদের হাত থেকে বাঁচার জন্য তাহাদের মা-বোনেরা কঠোর পর্দা পালন করিয়া থাকে বলিয়াই আমার ধারণা। এবং একই কারণে ফেইসবুকে কিছু ছাগী বোরকার পক্ষে সাফাই গায় । তবে এরা আসলেই ছাগী না ছাগীরুপী ছাগু সে বিষয়ে আমার বিস্তর সন্দেহ রয়েছে।

যারা পর্দাই ধর্ষণ প্রতিরোধের একমাত্র উপায় হিসাবে মানেন তাহাদের বলি আপনাদের মুসলিম বিশ্বেই সবচেয়ে বেশি নারী নির্যাতন হয়। সবচাইতে বেশি নারী ধর্ষণের শিকার হয়। আপনাদের পবিত্র মধ্যযুগীয় মুসলিম দেশেই মেয়েদের স্কুলে বোমা মারা হয়। আপনাদের তীর্থভূমি মুসলিম দেশেই ধর্ষিতা হবার পরও ভিকটিমকে পাথর ছুঁড়ে হত্যা করা হয়। তাই বোরকাওয়ালীরাও আপনাদের “সুদৃষ্টি” হইতে মুক্ত নয়।

আলাদীনের চেরাগ পাইলে তাহার কাছে প্রথম যেটা চাইতাম সেটা হইল “শ্রেষ্ঠ ধর্মে”র অনুসারী “শ্রেষ্ঠ ধার্মিক”দের জন্য পুরো মধ্যপ্রাচ্য বরাদ্দ দেয়া হোক। তাহারা সেখানেই তাহাদের ধর্মের শ্রেষ্ঠত্ব বজায় রাখিবে। তবে নারীরাই যেহেতু নরকের দ্বার তাই সেই মুসলিম মহাদেশে কোন নারী থাকিবে না। যেহেতু মুমিনদের জন্য পরপারে বাহাত্তরটি পর্দাবিহীন তেঁতুল বরাদ্দ আছে তাই তাহাদের এই জগতে নারীসঙ্গের কোন প্রয়োজন নেই। এই মুমিন বান্দাগন যত তাড়াতাড়ি পরপারে বিদায় হন ততই পৃথিবীর জন্য মঙ্গল। কারন এই মুমিন বান্দারাই পৃথিবীতে যত হানাহানির মুলে।

আর এই মুমিন বান্দাদের বাইরে যাহারা মেয়েদের পোষাক নিয়ে গবেষণা করে দিস্তার পর দিস্তা কাগজ, গিগার পর গিগা ইন্টারনেট আর সময়ক্ষেপন করিতেছেন তাহাদের উদ্দেশ্যে বলি আপনারা আপনাদের প্রেমদন্ড সামলান। তাহলেই সব ঠিক হয়ে যাবে। সময়, কাগজ, অর্থ সবই বাঁচিবে। মেয়েগুলিও রক্ষা পাইবে নির্যাতনের হাত থেকে। তাহারা মানুষের মর্যাদা পাবে। আমাদের মাঝে মানুষের বড়ই অভাব।

ব্যক্তিগত মতামত:
পোষাক সম্পর্কে আমার ব্যাক্তিগত মতামত হল ছেলে-মেয়ে উভয়কে বলছি নিজের দেশকে ভালবাসুন। নিজের দেশের, নিজের সংস্কৃতির পোষাক পড়ুন। পাশ্চাত্য শর্ট ড্রেস যেমন আমাদের সংস্কৃতি নয় তেমনি ভৌতিক অবয়বের বোরকাও আমাদের সংস্কৃতি নয়। কিছু আবাল ছেলে যেমন দামী প্যন্ট কিনে তা ব্লেড দিয়ে কেটে স্টাইল দেখায় কিন্তু তা আলোচনায় আসেনা। পাশ্চাত্যের সব দোষ শুধু মেয়েদের পোষাকে ক্ষেত্রেই। আপনাদের বলি, পাশ্চাত্যের সংস্কৃতি তাদের নিজস্ব সংস্কৃতি। এটা নিয়ে আমাদের সমালোচনা করার কোন অধিকার নেই। নিজেদের দিকে তাকান। আমরা যদি ওদের সংস্কৃতি না গ্রহণ করি তবে কিভাবে ওরা আমাদের উপর চাপিয়ে দেবে বলুন তো? মনে রাখবেন পর্দা ছাড়াই ওরা আজ বিশ্ব শাসন করছে। যে কম্পিউটার, যে মোবাইল দিয়ে তোরা অনলাইনে ছাগুগিরি ফলাস সেগুলিও কিন্তু ওদের তৈরি। কোন মুমিন বান্দার তৈরি নয়। লজ্জা করে না?

আমার ধারণা, পৃথিবীতে জ্ঞান-বিজ্ঞানের সর্বক্ষেত্রে সবচেয়ে বেশি পিছিয়ে আছে মুসলিমরা। শুধুমাত্র কিছু অন্ধ ধর্মান্ধ ছাগুদের জন্য।

(বিশেষ দ্রষ্টব্য: পোস্টটি শুধুমাত্র ধর্মব্যাবসায়ী ছাগু ও বুদ্ধিহীন বুদ্ধিব্যবসায়ীদের বিরুদ্ধে।)

২৯ thoughts on “মেয়েরা নেংটু হয়ে চলুক…….আপনি আপনার “দন্ড” সামলান..!!

  1. এইটা কিন্তু ঠিক যে ছাগীরা
    এইটা কিন্তু ঠিক যে ছাগীরা বোরখার তলাতেই খ্যামটা নাচ দেয়। মেয়েরা যদি বোরখা পরতে চায় পরুক তাদেরকে পোষাকের জন্য জোর করার দরকার নাই। কিন্তু অবাক লাগেব তখনই যখন দেখি তথাকথিত মুষ্টিমেয় পুরুষেরা তাদের বোরখা পরানোর জন্য জোর করে। অথচ দেখেন আজ পর্যন্ত একটা মেয়ে কখনো রাস্তায় কোন ছেলেকে বলে নাই যে হাফপ্যান্ট পরে খালিগায়ে ঘুরতেসস ক্যান!!

    1. নেটে বোরকাওয়ালীদের যেসব জঘন্য
      নেটে বোরকাওয়ালীদের যেসব জঘন্য ছবি পাওয়া যায় তাতে আপনার যুক্তি প্রমাণের অপেক্ষা থাকে না ।

  2. আমার ধারণা, পৃথিবীতে

    আমার ধারণা, পৃথিবীতে জ্ঞান-বিজ্ঞানের সর্বক্ষেত্রে সবচেয়ে বেশি পিছিয়ে আছে মুসলিমরা। শুধুমাত্র কিছু অন্ধ ধর্মান্ধ ছাগুদের জন্য।

    এইটা কোন ধারনা নয়, প্রমাণিত সত্য…
    আপনার লিখাটা ভাল লাগল অনেক :থাম্বসআপ: :থাম্বসআপ:

  3. হ্যাঁ আমাদের প্রেম দন্ড
    হ্যাঁ আমাদের প্রেম দন্ড সামলাতে হবে। যদি নগ্ন মেয়েও সামনে থাকে প্রেম দন্ড সারা না দেয় তাহলে যেমন কোন কার্য হবে না তেমনই
    বোরকা পড়া মেয়ে যদি সেই প্রেম দন্ডের সামনে আসে তাহলে সেও রক্ষা পাবে না।

    হায় এ দুনিয়া একে অপরকে দোসারোপ করতে পেরেই খালাস!!!!

  4. আরে ভাই মালগো জিগান না ।
    আরে ভাই মালগো জিগান না । মেয়েদের পোশাক নিয়া তোমাগো তরফায় কেন।

    এরা মেয়েদের সাথে মেধা, যোগ্যতায় না পাইরা শারীরিক শক্তি দেখাইতে আইছে।

  5. দৃষ্টিভঙ্গি এবং মানসিকতা
    দৃষ্টিভঙ্গি এবং মানসিকতা ফেয়ার হলে যে কোন পোশাকই গ্রহণ যোগ্য। কিন্তু যাদের উদ্দেশ্যে লিখেছেন তাদের মানসিকতাতেই যে ভেজাল!!

    1. আপনি ঠিক বলেছেন । তবে কি
      আপনি ঠিক বলেছেন । তবে কি জানেন একদিকে জোব্বা সংস্কৃতি আর অপরদিকে নগ্ন সংস্কৃতির চিপায় পড়ে আমাদের বাঙ্গালী সংস্কৃতি আজ মৃতপ্রায় । তাই আমার আগে দরকার নিজ সংস্কৃতি রক্ষা করা ।

  6. কালবৈশাখী ভাই আপনি ভাল লেখেন
    কালবৈশাখী ভাই আপনি ভাল লেখেন তা আমি জানি। আমি আপনার অনেক ভাল পোস্ট পড়েছি। তবে এই লেখার মানের সাথে পোস্টের শিরোনামটা বেমানান ! পোস্টের শিরোনাম সুন্দর ভাষায় দিলে বোধ হয় ভাল হতো। লেথাটি বাস্তব ভিত্তিক কোন সন্দেহের অবকাশ নাই…..

  7. আপনাদের কথায় একটা বিষয় প্রমাণ
    আপনাদের কথায় একটা বিষয় প্রমাণ হল যে মধুর গন্ধ পেলেই সেখানে মাছি বসে । যা এই পোস্টের বক্তব্যের অন্যতম একটা বিষয় । কিন্তু মধুতে মুখ লাগিয়ে মাছিরা এবার তোতো স্বাদই পেয়েছে….কি বলেন ? এবার আপনারা নামকরনের স্বার্থকতা বিচার করুন…….হা….হা…হা…

    1. তেতুল তেতুল তেতুল!!!
      তেতুল তেতুল তেতুল!!! :হাহাপগে: :হাহাপগে: :হাহাপগে: :হাহাপগে: লালা লালা লালা :হাহাপগে: :হাহাপগে: :হাহাপগে:

  8. মুসলিম বিশ্বেই সবচেয়ে বেশি
    মুসলিম বিশ্বেই সবচেয়ে বেশি নারী নির্যাতন হয়। সবচাইতে বেশি নারী ধর্ষণের শিকার হয়।
    লেজ কাটা, তাই ভয় নাই!!

  9. “আমার ধারণা, পৃথিবীতে
    “আমার ধারণা, পৃথিবীতে জ্ঞান-বিজ্ঞানের সর্বক্ষেত্রে সবচেয়ে বেশি পিছিয়ে আছে মুসলিমরা। শুধুমাত্র কিছু অন্ধ ধর্মান্ধ ছাগুদের জন্য।”

    …সর্বক্ষেত্রে কিনা জানি না, তবে এইসব ধর্মান্ধ ছাগুদের জন্যই যে জ্ঞান-বিজ্ঞানে মুসলিমরা পিছিয়ে আছে তাতে কোন সন্দেহ নেই…

    বিধাতা এদের জ্ঞান দান করুন… আমিন…
    :তালিয়া:

  10. শিরোনাম দেখে নয় জংশনে বহুল
    শিরোনাম দেখে নয় জংশনে বহুল পঠিত হতে দেখে লেখাটি পড়লাম ।
    লেখাটির মূল বক্তব্য মুক্তমনা সবার মনের কথা । আরও গুছিয়ে লিখলে
    ভালো হতো ।

    ওরে নবীন ওরে আমার কাঁচা আধ মরাদের ঘা মেরে তুই বাঁচা

    1. ধন্যবাদ ।সবসময় গুছিয়ে লেখার
      ধন্যবাদ ।সবসময় গুছিয়ে লেখার প্রয়োজন বোধ করিনা । কারণ মাঝে মাঝে ওদের টুটি চেপে ধরতে ইচ্ছে হয় !

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *