অনধিকার চর্চা !!!

একজন কাছের মানুষ্‌কে তার এক্‌টি বিষয়ে সরাসরি বলেছিলাম যে–
“এই ব্যাপারটা এইরকম হলে ভাল হত”।
সম্ভবত আমার এই কথাটার জন্য সে মনে কষ্ট পেয়েছে। অনিচ্ছায় তার মনে কষ্ট দেওয়ার জন্য তার কাছে ক্ষমা চেয়ে তার উদ্দেশ্যে বলতে চাই “মানুষের ভালমন্দ বলা এবং ভুল হলে তা ধরিয়ে দেওয়া তার একান্ত কাছের মানুষের অন্যতম দায়িত্ব।”হয়ত সেই দায়িত্ববোধের থেকেই অহেতুক অনধিকার চর্চা করেছি।


একজন কাছের মানুষ্‌কে তার এক্‌টি বিষয়ে সরাসরি বলেছিলাম যে–
“এই ব্যাপারটা এইরকম হলে ভাল হত”।
সম্ভবত আমার এই কথাটার জন্য সে মনে কষ্ট পেয়েছে। অনিচ্ছায় তার মনে কষ্ট দেওয়ার জন্য তার কাছে ক্ষমা চেয়ে তার উদ্দেশ্যে বলতে চাই “মানুষের ভালমন্দ বলা এবং ভুল হলে তা ধরিয়ে দেওয়া তার একান্ত কাছের মানুষের অন্যতম দায়িত্ব।”হয়ত সেই দায়িত্ববোধের থেকেই অহেতুক অনধিকার চর্চা করেছি।

একটু লক্ষ্য করলে দেখা যায় ছোট বাচ্চারা অন্যদের সাথে ঝগড়া অথবা মারামারি করলে পিতামাতা তার একান্ত আদরের সন্তান্‌টিকেই আগে শাষন করেন অন্যের সন্তান্‌কে নয়। তার মানে কিন্তূ এই নয় যে পিতামাতার মনে নিজের সন্তানের জন্য মমতার ঘাটতি আছে।পিতামাতা সবসময়্‌ই চায় তাদের আদরের সন্তান ভাল হোক,এর জন্য সাময়িক কঠোর হতেও তারা পিছপা হন না।

মানুষের ভুল ধরিয়ে দিলে রাগ করে কিন্তূ এটা যে তার নিজের জন্য কতটা উপকারি তা ভেবে দেখে না। মনোরঞ্জনের জন্য প্রশংষা করে অনেক কথাই বলা যায়।কিন্তূ এতে করে নিজেদের ছোটছোট ভুল্‌গুলো প্রশংষার স্রোতে হারিয়ে যায়।হয়ত অনেক সময় তা অজানাই থেকে যায় শুধ্‌রানো তো অনেক দুরের কথা।

Human Psychology ­ বলে ‘মানুষ তার নিজের প্রশংসা শুন্‌তে যতটা ভালবাসে নিজের খারাপ গুন সম্পর্কে শুন্‌তে তার থেকে অনেক বেশিই অপছন্দ করে’।এই অপছন্দ করার পিছনেও একটা Strong Logic আছে আর তা হল সে ওই কথাগুলো শোনার জন্য প্রস্তুত থাকে না।

সর্বশেষে বলব, আপন মানুষেরা কখনও চায় না তার প্রিয় মানুষ্‌টিকে অন্য কেউ কিছু বলবে। তাই তারা অনিচ্চছায় হলেও ভুল্‌গুলো ধরিয়ে দেন যাতে আমরা নিজেদের শুধ্‌রে নিতে পারি এবং ভবিষ্যতে অন্য কারো কথায় কষ্ট না পাই।

>>“অন্য কার কথায় আমরা কষ্ট পেলে সেই কষ্টের চেয়ে অনেক বেশী কষ্ট আপন্‌জনেরা পায়”।

৫ thoughts on “অনধিকার চর্চা !!!

  1. ভালো বলেছেন।মানুষ সত্যি একটা
    ভালো বলেছেন।মানুষ সত্যি একটা আজিব প্রাণী।সে ভুল করে নিজেই বুঝতে পারে যে,ভুল হয়েছে।তবু সেই ভুলটাকে অন্য কেউ ধরিয়ে দিলে এবং শুধরানোর একটা ধারণা দিলে সে কষ্ট পায়।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *