একজন প্রশ্ন করলো ধর্ম কাকে বলে?

ধর্ম হচ্ছে এক ধরনের অন্ধবিশ্বাস, অজ্ঞতা, কুসংস্কার, ভয়, আতংক, সন্ত্রাস, রাজনীতি, এসবের সঙ্করায়নে তৈরি এক ধরণের টিনের চশমা যা পরলে আপনি সত্যকে মিথ্যা আর মিথ্যাকে সত্য দেখতে পারেন। এই টিনের চশমা পরেই কেবল ঘোরী, কাসেম, বখতিয়ার খলজির মত অশিক্ষিত বর্বর গুন্ডাদের বীর বলে মনে হবে, নারীকে ফসলের ক্ষেত মনে হবে, আবার সারমাদ শহীদকে মনে হবে পাগল। আবার চরিত্রহীন কাউকে মনে হবে দেবতা, গরুকে মা বলে ভ্রম হবে। গডসে’কে জাতীয় বীর মনে হবে। তবে সুখের বিষয় হল এ চশমা যখন তখন খুলে ফেলা যায়। বদলে নেয়া যায়। তবে যাদের ছোটবেলায় পাওয়া শিক্ষা ‘চশমা খুললে অন্ধ হয়ে যাবি’ তে অগাধ বিশ্বাস তারা জীবনে একটিবারের জন্যও এ চশমা খোলেন না। তারা আসলে বাঁচতে শেখার আগেই মরে যান। জীবনকে বুঝতে হলে টিনের চশমা খোলা দরকার। অন্তত দিনের কিছু সময়।

ধর্ম আসলে দুই প্রকার। আমার ধর্ম, আর তোমার ধর্ম। তবে আমার ধর্ম হচ্ছে শ্রেষ্ঠ ধর্ম। ‘তোমা হইতে আমি উত্তম’ এ হল সকল ধর্মের মূল কথা।

নিজের ঘোল কেউ টক বলে না, নিজের মা’কে কেউ বেশ্যা বলে না। তেমনি নিজের ধর্মকেও কেউ খারাপ বলে না।

ছোটবেলায় পাশের এলাকায় এক সম্ভ্রান্ত (ফাইভ স্টার মানের) বেশ্যার ছেলে ছিল আমাদের বন্ধুদের বন্ধু। সে মায়ের সারা রাতের আয় করা টাকায় ফুটানি করত। কিন্তু কেউ মা তুলে গালাগাল দিলেই সিরিয়াস হয়ে যেত। বিরাট মারামারি লেগে যেত মুহূর্তেই তেমনিভাবে ধার্মিকেরাও ধর্মকে ব্যবহার করে অপকর্ম করে যায়, কিন্তু ধর্মকে কটাক্ষ করে কিছু বললেই সিরিয়াস রূপ ধারণ করেন।

যেভাবে পাঁঠার জবান নেই তাই পো-পো করে, কবি, সাহিত্যিক, শিল্পীরা কথা, সুরের জাল বুনে একই কথা বলে। সবার লক্ষ্য কিন্তু ওই পাঠার মতই একটি বিন্দুতে সীমাবদ্ধ। তাই ‘আমার ধর্ম’টাই শ্রেষ্ঠ ধর্ম, যতই যুক্তি তর্ক হোক না কেন। যুক্তি দিয়ে লাভ নেই, আসল পয়েন্টে আসুন। কারণ, আমরা সবাই তো একেকটা টিনের চশমা পরা পাঁঠা, আর তোমা হইতে আমি উত্তম।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *