এই লেখাটা তোমার জন্য…

[Note : এই লিখাটি ব্লগার আরিফ জেবতিক এর ফেসবুকে পোস্ট দেয়া একটি নোট থেকে নেয়া।সকলের জন্য জানা প্রয়োজন ও গুরুত্বপুর্ন মনে করায় লিখাটি কপি করে ইস্টিশন ব্লগে হুবহু তুলে দিলাম।]
.
.

[Note : এই লিখাটি ব্লগার আরিফ জেবতিক এর ফেসবুকে পোস্ট দেয়া একটি নোট থেকে নেয়া।সকলের জন্য জানা প্রয়োজন ও গুরুত্বপুর্ন মনে করায় লিখাটি কপি করে ইস্টিশন ব্লগে হুবহু তুলে দিলাম।]
.
.
অনলাইনচারিদের মাঝে শাহবাগ গবেষক অনেক বেশি, এতে অবাক হওয়ার কিছু নেই। এর মাঝে বিভিন্ন দল-উপদল আছে, নেতা হওয়ার আকাংখায় মানুষদের ভিড় আছে। আরেকদল আছে, সূর্য কেন পূর্বদিকে উঠে, এজন্যই গণজাগরণ মঞ্চের দিকে আঙুল তুলে আনন্দ পায়। আমাদের মহল্লার মন্টু আজকে আছাড় খেয়েছে, মন্টুরে তুলে তার পায়ে সেভলন লাগানোরে গুরুত্বপূর্ণ মনে হয় না- গুরুত্বপূর্ণ হইল ফেসবুকে স্ট্যাটাস দেয়া- মন্টু তো শাহবাগে যাইত-তাইলে আজকে তার আছাড় খাওয়া নিয়ে গণজাগরণ মঞ্চ নীরব কেন? বাহ, মন্টুর আছাড় খাওয়ার সুযোগে বেশ এক হাত নেয়ার সুযোগ পাওয়া গেল-অতএব সেই তৃপ্তি নিয়া ঘুম দ্যাও, সকাল উইঠা স্ট্যাটাসে লাইক গুনো। বাঁশ মারার ক্ষেত্রে বাঁশের কেল্লার চাইতেও এসব ভাসুরেরা বেশি জান পেহচান।

ওকে ভাই, আমার কথাটা শোনো। গণজাগরণ মঞ্চ কোনো আঁকাশ থেকে পড়া প্লাটফরম নয়, তোমার আমার সকলের অংশগ্রহন ছিল বলেই গণজাগরণ মঞ্চ তৈরি হয়েছিল। এখন যদি তোমার ভালো না লাগে, কার বাপের কী? বাট আমার অনুরোধটা হইল, তুমি তোমার কাজটা নিজের মতো করে করো।
গণজাগরণ মঞ্চ তৈরি হওয়ার অনেক আগে থেকেই পিয়াল ছিল, জেবতিক ছিল, আমি-তুমি-সে ছিলাম।আমরা সবাই নিজের জায়গা থেকে নিজের সাধ্যমতো কাজ করেছি, করছি। মানি ভুল আছে, ত্রুটি আছে আবার সমবেত সাফল্যও আছে। আসো, নিজের জায়গা থেকে নিজের কাজটা করে যাই। অমুক কেন আইলো,তমুক কেন খাইলো না সেই প্যানপ্যানানি বাদ দিয়ে তুমি তোমার কাজটা করো।

গণজাগরণ মঞ্চ ভালো লাগে না তো তুমি নির্মূল কমিটিতে কাজ করো, নির্মূল কমিটি ভালো লাগে না সেক্টর কমান্ডার ফোরামে কাজ করো, সেটাও পছন্দ না হলে আইসিএসএফ যাও। সচলায়তনের ছেলেরা দিনের পর দিন যুদ্ধাপরাধীদের বিচারের দাবিতে হাজার হাজার স্টিকার ছাপিয়ে পথেঘাটে মেরেছে-তুমি তাঁদের সঙ্গে কাজ করো। আমারব্লগের ডেডিকেটেড ব্লগাররা ঝড়-ঝঞ্জা উপেক্ষা করে বিচারের দাবিতে গণস্বাক্ষর সংগ্রহ করেছে লাখ লাখ, তুমি তাঁদের সঙ্গে ভিড়ে যাও। এদের কাউকেই যদি ভালো না লাগে তাহলে তুমি নিজের মতো করে কিছু করো। একেবারেই কিছু যদি না পারো তাহলে অন্তত তোমার ব্লগে, টুইটারে, ফেসবুক স্ট্যাটাসে এসব খুনী-সন্ত্রাসীদের বিরুদ্ধে কথা বলো।

কিন্তু তোমার সময় নষ্ট হয় নিজেদের দিকে আঙুল তোলাতুলিতে। আওয়ামী লীগ কেন আইল,তুমি গোস্বা করলা। আরে ভাই, বিচার তো তোমার আমার বাপের সম্পত্তি না যে আওয়ামী লীগ এখানে আইতে পারব না। আওয়ামী লীগ এই বিচার চায়, সুতরাং তারা প্রবল প্রতাপে থাকবই। আবার আওয়ামী লীগ আইলো তো চিনা বাম কেন আইল- আরে চিনাবামে যদি বিচার চায় তাইলে তোমার আমার আপত্তি কেন? সব মানলাম কিন্তু কুদ্দুসেও কথা বলে কেন, কুদ্দুস তো আগে বিচার চাইত না। গুড গুড, চাইত না এখন চায়, ভবিষ্যতে হয়তো আবার চাইব না, কিন্তু এতে করে তোমার বিচার চাওয়ার মাত্রা তো উঠানামা করা ঠিক না।
শোন বৎস, তোমার প্রতিপক্ষ তোমার মতো বাছাই করে না। যে-ই এই বিচারের বিপক্ষে সে-ই তাদের স্বজন। সারাজীবন যারা মওদুদীবাদের বিরোধিতা করল সেই হুজুররা পর্যন্ত এখন এক কাতারে। এক সারিতে বসে বীর মুক্তিযোদ্ধা অলি ভাই আর কুলাংগার রাজাকারেরা।

তুমি যদি সত্যি হও, তবে পায়ের নিচের মাটিতে শক্ত করে দাঁড়িয়ে নিজের কাজটুকু করো। এই দেশকে যদি মাতৃজ্ঞান করো, তাহলে মনে রেখো তোমার মা ধর্ষিত হয়েছিলেন এসব কুলাংগারদের কাছে।তুমি সেই মায়ের সন্তান, মাতৃসম্ভ্রমের বিচার করা তোমার জন্মের দায়।
কোন হরিদাস পাল আইলো কি গেল, কে বিক্রি হয়ে গেল কি নেতিয়ে গেল, কে মাঠ ছেড়ে পালালো সেটা বিবেচনা করার সময় কোথায়?

৩ নম্বর সেক্টর ভালো না লাগে তো ৪ নম্বরে যাও, ৪ ভালো লাগে না তো ৬ নম্বর সেক্টরে লড়াই করো। নইলে নিজের জন্য মুক্তাঞ্চল বানিয়ে নিয়ে নিজেই হেমায়েত বাহিনী, মামা বাহিনী কি কাদেরিয়া বাহিনীর কমান্ডার হয়ে উঠো। কিন্তু মূল লড়াইটা মুক্তিযুদ্ধ। সেক্টর ভালো লাগে না বলে বাসায় ঘুমিয়ে থাকলে আখেরে তুমি নিজেও ডুবে যাবে।
যে সময় তুমি অন্যের সমালোচনা করে কাটাও ঠিক তার চাইতে বেশি পরিমান শক্তি যদি তোমার প্রতিপক্ষের বিরুদ্ধে দিয়ে তুমি ময়দানে না থাকো, তাহলে তুমি তো ভাই আমার স্বজন না। তোমার দায় দেশের প্রতি, আর কারো প্রতিই তোমার কোনো স্থায়ী দায় নেই..

মুল লিখা… https://m.facebook.com/notes/arif-jebtik/%E0%A6%8F%E0%A6%87-%E0%A6%B2%E0%A7%87%E0%A6%96%E0%A6%BE%E0%A6%9F%E0%A6%BE-%E0%A6%A4%E0%A7%8B%E0%A6%AE%E0%A6%BE%E0%A6%B0-%E0%A6%9C%E0%A6%A8%E0%A7%8D%E0%A6%AF/10151829293090996/

একই বিষয়বস্তুর উপর লিখা একটি ব্লগ পোস্ট আমি নিজেও বেশ কয়েকদিন আগে লিখে ইস্টিশন ব্লগে পোস্ট করেছিলাম।তবে আমার লিখাটি আরিফ ভাইর লিখার মত ততটা গোছালো বা আকর্ষনীয় হয়নি।লিংক দিলাম, চাইলে সেটাও একবার দেখে নিতে পারেন… http://istishon.blog/node/3143

১৬ thoughts on “এই লেখাটা তোমার জন্য…

  1. গুড! ভাল জিনিস শেয়ার করেছেন।
    :থাম্বসআপ: :থাম্বসআপ: :থাম্বসআপ: :থাম্বসআপ: :থাম্বসআপ: :থাম্বসআপ: :থাম্বসআপ:
    গুড! ভাল জিনিস শেয়ার করেছেন।

  2. আশার কিনারের ঠায় দাড়িয়ে এখনো
    আশার কিনারের ঠায় দাড়িয়ে এখনো সোনার বাংলার স্বপ্ন দেখি, রাজাকার মুক্ত বাংলাদেশের স্বপ্ন দেখি, মৌলবাদ ও ধর্মী উগ্রবাদ মুক্ত সুখী সমৃদ্ধশালী বাংলাদেশের স্বপ্ন দেখি ।

    আমার স্বপ্ন দেখার শেষ হবে না, এই আমিটি অবশিষ্ট থাকা পর্যন্ত।
    আমি বিশ্বাস করি, ৩০ লক্ষ শহীদের রক্ত আর ২লক্ষ মা বোনের সম্ভ্রম বৃথা যাবে না, যেতে পারে না।স্বাধীনতার জয় হবেই।
    জয় বাংলা ।

  3. অফটপিক- আমার দেশের একটা পুরনো
    অফটপিক- আমার দেশের একটা পুরনো লেখা পড়লাম একটু আগে| ঐখানে জেবতিক,পিয়াল,সবাক পাখি ওরফে সুমন ভাইকে ভয়ংকর ইসলাম বিদ্বেষী ব্লগার বলা হয়েছে!!!
    :মানেকি:

    সর্বোপরি ধন্যবাদ এমন লেখা শেয়ার করার জন্য| এতে যারা নিজেরা নিজেরা খোঁচাখুঁচি করে তাঁদের কিঞ্চিৎ সুবোধ বুদ্ধির উদয় হবে আশা করি|

  4. এ লেখাটা মূলত রাকিবের মত
    এ লেখাটা মূলত রাকিবের মত মানুষকে উদ্দেশ্য করে লেখা।যারা,নেতা হওয়ার বাসনায় বসে থাকে।আর দেশের ক্ষতি করতে থাকে

    1. ওরা সবাই এক ই।জানি না শাহবাগে
      ওরা সবাই এক ই।জানি না শাহবাগে যেয়ে কখনো রাকিবের সব বিষয়ে মাতব্বরি করা দেখছেন নাকি ।দেখলে বুঝতেন

  5. ধন্যবাদ আপনাদেরকেও
    ধন্যবাদ আপনাদেরকেও ।মুক্তিযুদ্ধের স্বপক্ষের সবার কানে কথাগুলো পৌছে দেয়ার আহবান জানাইলাম ।

  6. চমৎকার ঝর ঝরে লেখা …
    চমৎকার ঝর ঝরে লেখা … ধন্যবাদ আরিফ জেবতিক ভাইকে এবং ধন্যবাদ শাহিন ভাইকে শেয়ার করার জন্য । আসলেই নিজেদের মধ্যে কাদা ছুঁড়াছুঁড়ি করে কোন লাভ নেই । প্রয়োজন ঐক্য । মনে রাখতে হবে আমাদের অনৈক্যই ওই হায়েনাদের শক্তির জায়গা ।

    1. মনে রাখতে হবে আমাদের অনৈক্যই
      মনে রাখতে হবে আমাদের অনৈক্যই ওই হায়েনাদের শক্তির জায়গা ।

      ধন্যবাদ ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *