রিক্তহস্ত আহ্বান প্রণয়ী!

সে অস্পর্শীয়া! অধরা অধরস্পর্শ, মেঘ ন্যায় নিরেট,
নিকষ আঁধার, অজুহাত মাত্র কাঁদার! নিস্ফল সনেট!
কল্পনা মাঝে খানিক বিরতি, কষ্টময় খানিক নিয়তি,
সে স্বপ্নমাঝে, বাস্তবতায়, হারানো খানিক প্রণতি।
সে ঘুম আমার নির্ঘুম চোখজুড়ে; ডাকি অন্তঃপুরে
বারেবার, নিস্ফল সে আহ্বান, ব্যর্থতায় ঘরে ফেরে।
মায়াজালের মায়াবতী সে, হারানো মন্ত্রটুকু আমার,
জপ শত বিফল! মায়াময় তার দৃষ্টিপাতের ব্যাকুলতায়
শুষ্ক চোখজুড়ে রক্তক্ষয়ী ছিদ্র বয়ে আহ্বানের কান্নাটুকু,
অজানায় অবিরত যে বয়, সে বহমানের কল্লোলটুকু।
কল্পনগরীজুড়ে কল্পিত চিত্রকর্মের আল্পিত মোহময়তা-
নিয়ে, ঈপ্সিত হৃদপটে চিত্রিত চোখজোড়ার কমনীয়তা-

সে অস্পর্শীয়া! অধরা অধরস্পর্শ, মেঘ ন্যায় নিরেট,
নিকষ আঁধার, অজুহাত মাত্র কাঁদার! নিস্ফল সনেট!
কল্পনা মাঝে খানিক বিরতি, কষ্টময় খানিক নিয়তি,
সে স্বপ্নমাঝে, বাস্তবতায়, হারানো খানিক প্রণতি।
সে ঘুম আমার নির্ঘুম চোখজুড়ে; ডাকি অন্তঃপুরে
বারেবার, নিস্ফল সে আহ্বান, ব্যর্থতায় ঘরে ফেরে।
মায়াজালের মায়াবতী সে, হারানো মন্ত্রটুকু আমার,
জপ শত বিফল! মায়াময় তার দৃষ্টিপাতের ব্যাকুলতায়
শুষ্ক চোখজুড়ে রক্তক্ষয়ী ছিদ্র বয়ে আহ্বানের কান্নাটুকু,
অজানায় অবিরত যে বয়, সে বহমানের কল্লোলটুকু।
কল্পনগরীজুড়ে কল্পিত চিত্রকর্মের আল্পিত মোহময়তা-
নিয়ে, ঈপ্সিত হৃদপটে চিত্রিত চোখজোড়ার কমনীয়তা-
সে, ভুলে যাবার অসম্ভবতায় অবস্থিত, স্পন্দিত রক্তক্ষরণে
হৃদয়ের ভাঁজ ভেঙ্গে দেখা একখন্ড ভালোলাগা বিস্মরণে!
কামার্ত-ক্ষুধিত দেহজুড়ে ব্যাথিত অনুভূতির অনুপস্থিতি
তার স্বাক্ষরে ভাস্বর! আবেগহীন মস্তিষ্ক ভাসায় অচেনায়,
ভাসায় অনুভূতিতে কোন অজানা, সুমিষ্ট-অদেখা হাঁসিটায়,
এই হৃদয় অনিচ্ছায়-অবাধ্য প্রতিনিয়ত সে বুকে হারায়!
সে পথের বাঁকে অনিশ্চয়তা হয়ত, কোন কল্পমানবী নয়,
বাস্তবতা! সে নিষ্ঠুর-গভীর পতন; পরিনাম নির্মম নিশ্চয়
অলীক হোক, তবু একমাত্র অবলম্বন, কভু হারাবার নয়!

১৩ thoughts on “রিক্তহস্ত আহ্বান প্রণয়ী!

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *