ও বন্ধু তোকে মিস করছি ভীষণ

২৪ জুলাই, ২০১৩, রাত ৩টা। আমার মোবাইলে একটা মেসেজ আসলো। শুভ্র পাঠাইছে। তেমন কিছু না। “ঐ ঘুম থেকে উঠসস। সেহরি খাবি না?”
আমি রিপ্লাই দিলাম না।

২৬ জুলাই ,২০১৩, অঙ্ক ফোন করলো।
+ ঐ সাকিব, খবর পাইসস নাকি?
-কিয়ের খবর?
+আমাগো কলেজের এক ছেলে নাকি মারা গেছে?
-কস কি মমিন? তুই কই থেকে পাইলি?



২৪ জুলাই, ২০১৩, রাত ৩টা। আমার মোবাইলে একটা মেসেজ আসলো। শুভ্র পাঠাইছে। তেমন কিছু না। “ঐ ঘুম থেকে উঠসস। সেহরি খাবি না?”
আমি রিপ্লাই দিলাম না।

২৬ জুলাই ,২০১৩, অঙ্ক ফোন করলো।
+ ঐ সাকিব, খবর পাইসস নাকি?
-কিয়ের খবর?
+আমাগো কলেজের এক ছেলে নাকি মারা গেছে?
-কস কি মমিন? তুই কই থেকে পাইলি?
+টিভিতে দেখ।
-ওকে।

টিভিতে দেখলাম এক ছেলের লাশ নাকি পাওয়া গেছে নদীতে। নাম বলল না। আমি গুরুত্ব না দিয়ে চলে গেলাম।
পরের দিন সকালে শিপলু ফোন করে বলতাছে,“ ঐ শুভ্র মারা গেছে?”
-কি বলিস? কবে? কেমনে?
-আমিও তেমন জানি না। রাতে লাশ দেখতে গিয়ে চিনলাম।
আমি দৌড়ে চলে গেলাম লাশ ঘরে। শত শত লাশের মাঝে শুভ্রর লাশ কিভাবে খুঁজে পাব। ঐ দূরে আরো কয়েকজন ফ্রেন্ড দেখতে পেলাম। দৌড়িয়ে সেখানে গেলাম। শুভ্রর লাশ। আমি নিস্তব্ধ। ঐ হাসিমাখা মুখ আমার দিকে অবাক দৃষ্টিতে তাকিয়ে থাকে। কি বলতে চাই সে? জানি না। আমি নিষ্ঠুর পৃথিবীতে একা একা হাঁটছি। আমার পাশ দিয়ে শুভ্র হেঁটে যায়। আমি ধরতে চাই। ও বলে, তুই পারবি না রে। আমি হারিয়ে গেছি আমার কবিতার মতো করে। তুই পারবি না………।
বাসায় ফিরে আসি। সব কেমন জানি উল্টাপাল্টা লাগছে। ফিজিক্‌স ফেয়ার খাতা করতে গিয়েই ওর কথাগুলো মাথায় এসে পরছে। আর আমার সাথে ল্যাবে তুই থাকবি না। বায়োলজি ল্যাবে তুই আর আমি মিলে অঙ্ককে নিয়ে গান বানাবো না। তুই আর ৪ নাম্বার বেঞ্চের মাঝখানে বসবি না। বাংলা ক্লাসে আর ঘুমিয়ে পরবি না। লবন সনাক্তকরণের সময় দুষ্টামি করতে গিয়ে আগুন ধরাবি না। ক্যান্টিনের খাবার নিয়ে ঝগড়া লাগাবি না। খেলার সময় আর ফাউল করবি না। তুই আর হাসবি না। গান গাইবি না……………………।

২৪ জুলাই, ২০২৫, রাত ৩টা। এবারও এখন রমজান মাস। তোর নাম্বারে মেসেজ পাঠালাম। “ কিরে ঘুম থেকে উঠবি না? সেহরি খাবি না?”
তোর রিপ্লাই নেই। তুই আর আমাকে রিপ্লাই দিস না। তুই আর কত ঘুমাবি? একটু জেগে উঠ। একটাবার বল শুধু,”ঐ এতক্ষণ পর মেসেজ দেস কেন?”

পাদটীকাঃ ১ সদ্য প্রয়াত নটরডেম কলেজের ছাত্র, আমাদের সহপাঠী নকিবুল ইসলাম আলয়ের স্মৃতি জন্য রচিত।
২ আমি তাকে চিনি না। ও গ্রুপ ৭ এর আমি গ্রুপ ৩ এর। তবুও সে আমার অতি কাছেরজনের মতো হয়ে গেছে।

৮ thoughts on “ও বন্ধু তোকে মিস করছি ভীষণ

  1. ধন্যবাদ আপনাকে বিস্তারিত
    ধন্যবাদ আপনাকে বিস্তারিত দেওয়ার জন্য খব কষ্ট পেলাম আসলেই প্রিয়জনের বিচ্ছেদের বেদনা মেনে নেওয়া যায়না …………… :মনখারাপ:

  2. মন খারাপ হয়ে গেলো। এখনও কাছের
    মন খারাপ হয়ে গেলো। এখনও কাছের কোন বন্ধুকে হারানোর বেদনা টের পাইনি। তবে বুঝতে পারি অনেক কষ্টের অনুভূতি। :মনখারাপ: :মনখারাপ: :মনখারাপ:

  3. দুঃখজনক।ধন্যবাদ আসল গল্পটি
    দুঃখজনক।ধন্যবাদ আসল গল্পটি লিখার জন্য।আপনার বন্ধুটির আত্মার মাগফেরাত কামনা করি ।

  4. আজ অফিসে গিয়ে ‍আমার খুব কাছের
    আজ অফিসে গিয়ে ‍আমার খুব কাছের এক বন্ধুর মারা যাওয়ার খবর শুনে মনটা ভীষণ খরাপ হয়ে গিয়েছিল। আপনার লেখা পড়ে বিষয়টা আবারও মনে পড়ে গেল। বাস্তবতা বড়ই নিষ্ঠুর!

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *