ঘাটের প্রেম

জল,মাটি, ঘাস কিংবা বাতাস
আমিও ছিলেম সখি এসবের ভিড়ে ।
তুমি ছিলে দখিনের ঘাটে
কি জানি কিসের ভয়! রচিয়া ললাটে
তুমি কভু তাকাওনি ফিরে ।
কি জানি কিসের ভয়! করিয়া সঞ্চয়
ফিরে গেলে দ্বীপ নেভা ঘরে ।
মনে রেখো অচেতনা
নামহীন সুনয়না
তুমি আছো কবির অন্তরে ।



জল,মাটি, ঘাস কিংবা বাতাস
আমিও ছিলেম সখি এসবের ভিড়ে ।
তুমি ছিলে দখিনের ঘাটে
কি জানি কিসের ভয়! রচিয়া ললাটে
তুমি কভু তাকাওনি ফিরে ।
কি জানি কিসের ভয়! করিয়া সঞ্চয়
ফিরে গেলে দ্বীপ নেভা ঘরে ।
মনে রেখো অচেতনা
নামহীন সুনয়না
তুমি আছো কবির অন্তরে ।
আরো কিছুক্ষন ঘাটে থাকিতে যদি
হয়তো আমিও হতাম মগড়া নদী ।
জলে-ঢেউ-এ ভেসে যেত প্রেম
তোমার প্রেমের কবি আমিও হতেম ।
সেই প্রেম সেই ভালোবাসা নিয়া
আজো আমি কেদে উঠি ঘুম ভাঙ্গিয়া
চেয়ে দেখি স্মৃতি আছে ঘিরে
আমিও আছি সখি সকলের ভীড়ে।
সেই ঘাট সেই জল- আজো করে টলোমল
তুমি কভু আসোনাতো ফিরে ।
আমি আছি ঘাটে বসা
বুকে নিয়ে কত আশা
তুমি বুঝি আসবেগো ফিরে ।
আমিও আছি সখি সকলের ভীড়ে।

৪ thoughts on “ঘাটের প্রেম

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *