হ্যালো মিস্টার!গনজাগরন মঞ্চ বা লীগের পতনের কারন,নাস্তিকরা না,রাসেল রহমানের মত ******

আজ গনজাগরন মঞ্চের এই হালের জন্য অনেকেই দোষ দেয় রাজীবের মৃত্যুর।কিন্তু আমরা যারা কাছ থেকে রাজীব কে দেখেছি তারা জানি এই রাজীব হত্যায় জল ঘোলা করেছে রাসেলের মত চুতিয়ারা।আন্দাযে কিছু মানুষকে এই হত্যার জন্য ও দায়ী করে ওরা।আজ অনলাইনে নারীদের মর্যাদাহানি করেও কথা বলেও ওই রাসেলরাই।নারীবাদ প্রতিষ্ঠা করতে গেলে তাদের মেনশন করে, তাদের আইডি নিয়ে রিপোর্ট রির্পোট খেলেও ওরাই।ইমরান এর পান্জাবির নাটক করে,তাকে লাঞ্চিত করে ওরা নিজেদের শুধু ফেমাস ই বানাতে চেয়েছে।অথচ আজ এই হায়েনাদের নাম কেউ জানেনা।সবাই জানে সবকিছুর মূলে নাস্তিকতা।হ্যাঁ, একশো ভাগ সঠিক কথা হলো এই যে, আওয়ামী লীগ সরকার আর ক্ষমতায় না আসলে গণজাগরণ মঞ্চের নেতারা কথা বলার মতো, দাঁড়ানোর মতো জায়গাআর পাবে না। জানি, এখানেই শেষ নয়, মরতে হবে আমাদেরকেই।কিন্তু এই কথাটাতো কেউ চিন্তাও করতে পারেনি। মরতে হবে আওয়ামী লীগকেও। তবে কেন এই বিভক্তি? দোষ কার? কাদের? গণজাগরণ মঞ্চের? না। লীগের চামচা নেতাদের। ভালটার ভাগ যেমন আওয়ামী লীগের, খারাপটাকেও এড়ানোর কোনো সুযোগ নেই। সিটি কর্পোরেশন কেন আগামী জাতীয় নির্বাচনেও গণজাগরণ মঞ্চের নেতাদের একযোগে কাজ করতে হবে। কিন্তু তার পরিবেশটা কে তৈরি করবে? অবশ্যই আওয়ামী লীগ। জাতীয় ঐক্যের কথা বারবার বলেছি, বলছি। কিন্তু জাতীয় ঐক্য তো দূরের কথা, নিজেদের যে ১৪ দলীয় জোট কিংবা ছাত্রলীগের সাথে আমাদের ছাত্র সংগ্রাম পরিষদ, তার খবর কি আওয়ামী লীগ বা ছাত্রলীগ নেয়? ক্ষমতায় যাবার আগে আন্দোলনের সময় এই জোটের কতই না কদর ছিল, কিন্তু এখন? আওয়ামী লীগ জিতলে একাই জেতে, জেতার পরেও আওয়ামী লীগ একা হয়ে যায়। আর হারলেসবাই মিলে হারে। আওয়ামী লীগকেই সিদ্ধান্ত নিতে হবে যে সে কি করবে? হেফাজত লালনকারী, ইসলামী ব্যাংকের শাখা উদ্বোধনকারী, সাকাচৌধুরীর সাফাই সাক্ষী কিংবা গোলাম আজমের ফাঁসির না হওয়ার রায় স্বাগতকারী নেতা-মন্ত্রীদেরলালন করবেন নাকি ২০ শতাংশ ভোটার যারা যুদ্ধাপরাধীদের বিচার দেখার আশায় এখনো আওয়ামী লীগের মুখের দিকেই চেয়ে আছেন তাদের লালন করবেন- সিদ্ধান্তটি শেখ হাসিনাকেই নিতে হবে। এবারের ভুল যে আমাদের আরো কত বছর বইতে হবে, জানি না কেউই। মূল্যায়ন আমরা চাই না। জনগণ, গণজাগরণ মঞ্চ এমনকি ১৪ দল বা ছাত্র সংগ্রাম পরিষদ তো দূরের কথা, তৃণমূলে আওয়ামী লীগের যে সকল কর্মী বুক চিতিয়ে লড়াই করেন, অন্তত তাদের মূল্যায়ন হলেও কিছু বলা যেত। টের পাচ্ছেন না এখনো? সিটি নির্বাচনে ভোট কাস্টিং হার গড়ে ৬০-৬২ শতাংশ। বাকি ভোটার কই? কেন তারা ভোট কেন্দ্রে গেল না? হিন্দুদের নিরাপত্তা দিতে পারেন নি, উল্টো এখন আবার দেবোত্তর সম্পত্তি গ্রাস করার লক্ষ্যে আইন করতে চলেছেন। কিসের আশায় তারা ভোটকেন্দ্রে যাবে? মরতে? সে তো এমনিতেই হবে। অন্তত ভোটকেন্দ্রে না গিয়ে তারা কিছুটা হলেও পিঠ বাঁচাতে চেষ্টা করবে। আর তরুণ সমাজ কিংবা শিক্ষিত মধ্যবিত্ত সচেতন ভোটার, তাদের জন্যও বা কি করলেন? সংবিধানের প্রস্তাবনায় ‘বিসমিল্লাহ’ কিংবা ‘রাষ্ট্রধর্ম’ ইসলাম বহাল রেখে মূলনীতিতে ধর্মনিরপেক্ষতা ফিরিয়ে আনার মতো হাস্যকর সিদ্ধান্ত নিয়েছিলেন। মনে আছে তো? এতো কিছুর পরেও সেই অংশটি বিপুল সমর্থন দিতে চলেছিল।কিন্তু হেফাজতে ইসলামের হেফাজতকারী হিসেবে আবির্ভূত হলেন, রায় নিয়ে টালবাহানা চলছে। এরপর আর কোন ভরসায়? জানি, বিচারটিও আওয়ামী লীগ করেছে। আবারটালবাহানাটিও তো আওয়ামী লীগই করেছে।
ভরসা পেতে মন চায় না। তবু জানি লড়াই করেই মরতে হবে। লড়ব, মরব তবু ঝুলব না।
রবীন্দ্রনাথের ওই লাইন ক’টির উপরই আস্থা রাখি-
‘সত্য যে কঠিন
কঠিনেরে ভালবাসিলাম
সে কখনো করে না বঞ্চনা’।এখনি এসব লীগের চামচাদের অপপ্রচার বন্ধ করতে হবে।যা আছে কপালে। লড়েই মরি। এখনই হতাশ হবার বা ‘শেষ’ বলার সময় আসে নি। এখনো ঘুরে দাঁড়ানোর সুযোগ আছে।
জয় বাংলা।

৩৬ thoughts on “হ্যালো মিস্টার!গনজাগরন মঞ্চ বা লীগের পতনের কারন,নাস্তিকরা না,রাসেল রহমানের মত ******

  1. আপনার বিশ্লেষণের সাথে প্রায়
    আপনার বিশ্লেষণের সাথে প্রায় ১০০% একমত…
    অনেকটা আমার মনের কথাই বলেছেন! :থাম্বসআপ: :থাম্বসআপ: :থাম্বসআপ: :থাম্বসআপ:
    এত চমৎকার একটা লিখার শিরোনামটা একটু শালীন হলে ভাল হত মাস্টারদা…

      1. এমন হলে কেমন হয়
        এমন হলে কেমন হয় মাস্টারদা?
        “গনজাগরন মঞ্চ বা লীগ পতনের কারনঃ নাস্তিকতা না আদর্শহীনতা?”

        ধন্যবাদ… লিখতে থাকুন! আপনার লিখনিতে সাবলীল একটা ব্যাপার আছে…
        চমৎকার মাস্টারদা– ইস্টিশনে এমন গাড়িই চাই… চলুক!! :থাম্বসআপ:

  2. পোস্টের সাথে সম্পূর্ন সহমত।আর
    পোস্টের সাথে সম্পূর্ন সহমত।আর লিংকন ভাইয়ের কমেন্টের মত বলব শিরোনামটা একটু শালীন হতে পারত মাস্টায়দা।

  3. আওয়ামী লীগ জিতলে একাই জেতে,

    আওয়ামী লীগ জিতলে একাই জেতে, জেতার পরেও আওয়ামী লীগ একা হয়ে যায়। আর হারলেসবাই মিলে হারে। আওয়ামী লীগকেই সিদ্ধান্ত নিতে হবে যে সে কি করবে? হেফাজত লালনকারী, ইসলামী ব্যাংকের শাখা উদ্বোধনকারী, সাকাচৌধুরীর সাফাই সাক্ষী কিংবা গোলাম আজমের ফাঁসির না হওয়ার রায় স্বাগতকারী নেতা-মন্ত্রীদেরলালন করবেন নাকি ২০ শতাংশ ভোটার যারা যুদ্ধাপরাধীদের বিচার দেখার আশায় এখনো আওয়ামী লীগের মুখের দিকেই চেয়ে আছেন তাদের লালন করবেন- সিদ্ধান্তটি শেখ হাসিনাকেই নিতে হবে।

    সহমত।

    1. বিকল্পই কল্পিত আবার বিকল্পের
      বিকল্পই কল্পিত আবার বিকল্পের বিকল্প, জেগে আছেন না ঘুমাচ্ছেন দাদা?
      তবে আমিও চাই কিছু একটা নতুন হোক :অপেক্ষায়আছি: :অপেক্ষায়আছি: :অপেক্ষায়আছি:

      1. হাইপেশিয়া,
        জেগে থেকেই লিখেছি

        হাইপেশিয়া,
        জেগে থেকেই লিখেছি । আমি সম্ভবত বুঝাতে ব্যর্থ হয়েছি ।
        তরুণ প্রজন্মের অনেকের কাছে দৃশ্যমান আর কোন প্রগতিশীল দল না থাকায় আওয়ামীলীগকে বিকল্প হিসেবে হজম করছে । আওয়ামীলীগ বিকল্প হলে তার বিকল্প আমি চাইতেই পারি । মন্দের ভালো বেছে নেব আর কতকাল ? সম্পূর্ণ ভালো শক্তিশালী রাজনৈতিক দল প্রকৃত গণতন্ত্রের জন্য অত্যন্ত জরুরী । আমি কি কিছুটা বোঝাতে পারলাম । নাকি এসব ও আপনার কাছে জেগে ঘুমানো মনে হচ্ছে ?

  4. রাসেলের পোন্দানি খাইছেন
    রাসেলের পোন্দানি খাইছেন বুঝি?

    একজনকে ব্যাক্তিগত আক্রমন না করে কথাগুলো অন্যরকম ভাবেও বলতে পারতেন।

    লিংকটা দেখে নিয়েন ।
    http://m.facebook.com/l.php?u=http%3A%2F%2Fpabnawar71.com%2F%23%2F18%2Fzoomed&h=uAQGXAhDY&enc=AZNjGeR99WLVemeSQFQtBCJhNVEmoi8Pum2J7XhMd8XdP1gq9vRLsM4Iei4u_o5QqsHV1-Q2A_Q6xzNkmx_W99hHs186bIthb1Tp9mgLz6mJOdFLYd_ava-mprCI3UwtumX0zlKWVvLD8cywgfsX5Tiq&s=1

        1. (No subject)
          :মাথাঠুকি: :মাথাঠুকি: :মাথাঠুকি: :মাথাঠুকি: :মাথাঠুকি: :মাথাঠুকি:
          :হাহাপগে: :হাহাপগে: :হাহাপগে: :হাহাপগে: :হাহাপগে: :হাহাপগে: :হাহাপগে: :হাহাপগে:
          :হাসি: :হাসি: :হাসি: :হাসি: :হাসি:
          :কেউরেকইসনা: :কেউরেকইসনা: :কেউরেকইসনা: :কেউরেকইসনা:

    1. আপনি আমার মন্তব্য কপি করলেন
      আপনি আমার মন্তব্য কপি করলেন কেন? :মাথাঠুকি: :মাথাঠুকি: :মাথাঠুকি: :মাথাঠুকি: :মাথাঠুকি: 😉

  5. আমি রাসেলকে চিনি বা না চিনি,
    আমি রাসেলকে চিনি বা না চিনি, রাসেল খারাপ বা ভাল যা কিছু হোক, আমি রাসেলের চামচা হই আর না হই, তাতে কি আসে যায়?
    আমি কি আপনাকে বা আপনাদেরকে আক্রমন করে কোন কথা বলেছি?
    আমি শুধু মাত্র বলেছি, ব্যক্তি আক্রমন না করে কথাগুলো অন্যরকম ভাবেও বলতে পারতেন।তাছাড়া ব্যক্তি আক্রমন ইস্টিশন বিধির ও পরিপন্থি ।

    চিঙ্কু ভাইরা, ঝামেলা বাধাতে চাইয়েন না।এখানে গায়ে পড়ে ঝগঢ়া করতে আসিনি।ঝগঢ়া করতে চাই ও না।আপনি রাসেলের পোন্দানি না খেলে তাকে আক্রমন করে ব্লগপোস্ট লিখতেন না ।কেননা গনজাগরন নিয়ে প্রশ্ন কিন্তু আইজু প্রথম তুলেছে।আপনি রুদ্র সাইফুল, আইজুদের বাদ দিয়ে রাসেলের পিছু লাগছেন কেন?ডাল মে কুচ কালা হ্যায়?

    1. দুঃখিত মিস্টার শাহিন
      দুঃখিত মিস্টার শাহিন ভার্চুয়াল আইজু কে না চিনে কথা বলবেন না।আর ভার্চুয়াল এ আইজু কি বলে তা খুব বেশি একটা ইফেক্ট ফেলেনা

    2. রাসেল কি খুব ভাল মানুষ? তারমত
      রাসেল কি খুব ভাল মানুষ? তারমত অনাইন ধর্ষক আর গালিবাজ কয়টা আছে? এসব রাসেলদের মত কুলাঙ্গারদের জন্য অনলানের ঐক্যে ফাটল ধরেছে। এরা কারোনা কারো পক্ষে কাজ করে মুক্তিযুদ্ধের স্বপক্ষের শক্তিকে দ্বিধাবিভক্ত করছে। এতে লাভ হচ্ছে কার? আর ক্ষতিটাও হচ্ছে কার?

      এর সম্পূর্ণ দায় রাসেল রহমানদের উপরই বর্তায়।

  6. হতাশ হবার বা ‘শেষ’ বলার সময়
    হতাশ হবার বা ‘শেষ’ বলার সময় আসে নি। এখনো ঘুরে দাঁড়ানোর সুযোগ আছে।
    জয় বাংলা।

  7. হ্যাঁ, একশো ভাগ সঠিক কথা হলো

    হ্যাঁ, একশো ভাগ সঠিক কথা হলো এই যে, আওয়ামী লীগ সরকার আর ক্ষমতায় না আসলে গণজাগরণ মঞ্চের নেতারা কথা বলার মতো, দাঁড়ানোর মতো জায়গাআর পাবে না।

    আপনার লেখার প্রায় সবটার সাথেই একমত। এসব আসলে আমাদের সবারই মনের কথা। কিন্তু উপরের লাইনগুলো ঠিক মানতে পারছি না। কেন আওয়ামীলীগ সরকার না থাকলে গণ জাগরণ মঞ্চ কথা বলার মতো বা দাঁড়ানোর মতো জায়গা পাবে না? ঘাতক দালাল বিরোধী আন্দোলনের সূচনা কিন্তু সেই সময়েই হয়েছিল যখন জামাত বাংলাদেশে জামাত রাজনীতি শুরুর পরে সব চাইতে সুবিধাজনক অবস্থানে ছিল। তখন যদি আমরা দেশব্যাপী “জাতীয় সমন্বয় কমিটি”র ব্যানারে আন্দোলন সংগ্রাম করতে পারি তাহলে নেক্সট টাইম আওয়ামীলীগ সরকার না থাকলে পারবো না কেন? আপনি অবশ্য গণজাগরণ মঞ্চের নেতাদের কথা বলেছেন। তাঁদের সম্পর্কে কিছু বলবো না, কিন্তু যারা সত্যিকার অর্থেই প্রগতিশীল অসাম্রদায়িক এবং রাজাকারমুক্ত বাংলাদেশ দেখতে চায় তাঁরা যে কোন পরিস্থিতিতেই মাথা উঁচু করে তাঁদের দাবীর সমর্থনে সংগ্রাম করে যাবে, এটা নিশ্চিত জানবেন। ……… আর একটা কথা, আমাদের ঐক্যে ফাটল ধরানোর জন্য যাঁদের অভিযুক্ত করছেন তাঁদেরকে আমি অন্তত আওয়ামীলীগের কর্মী মনে করি না। তাঁরা আসলেই কি সে নিয়ে আমি নিজেও দ্বিধায় আছি। বঙ্গবন্ধুর ছবি দিয়ে প্রোফাইল ফটো বানিয়ে সেই আইডি থেকে কোন মহিলাকে যে ভাষায় আক্রমণ করা হয় বা হচ্ছে, তা কোন আওয়ামীলীগ কর্মী করতে পারেনা। হুম অনলাইন আওয়ামীলীগার বলতে পারেন। তবে তাঁরা ঐ গায়ে মানে না আপনি মোড়ল টাইপ। আওয়ামীলীগও তাদের দায় দায়িত্ব নিবে না বলেই আমার বিশ্বাস। ধন্যবাদ।

  8. ওহে আওয়ামী চুতিয়ারা থাবার
    ওহে আওয়ামী চুতিয়ারা থাবার মৃত্যুর পর থাবার বাসায় গিয়ে থাবাকে জাতীয় বীর ঘোষনা দিয়েছিল কে? গণজাগরণ মঞ্চ বা কোন বামদলের থাবাকে জাতীয় বীর ঘোষনা দেওয়ার কোন দাবী কি ছিল? যদিও থাবা গণজাগরণ মঞ্চের একজন কর্মী ছিল মাত্র। কিন্তু তাকে গণজাগরণ আন্দোলনের উদ্যোক্তাও নেতা বানিয়েছিল কারা? নিশ্চয় কোন বাম চুতিয়া না, আওয়ামী চুতিয়ারাই। গণজাগরণকে প্রশ্নবিদ্ধ করে আবার ইমরান এইচ সরকারের সাথে ফটোসেশন করেছে কোন চুতিয়ারা? চেতনা ব্যবসায়ীরা।

    রাসেল রহমান এমন কোন বালেশ্বর বাল হয়ে যায় নাই যে তার কোন অপকর্মের সমালোচনা করা যাবে না!

  9. বলোগারদের মন্তব্য দেখে
    বলোগারদের মন্তব্য দেখে যারপরনাই অবাক হতেই হয় ।এক গালিবাজের সমালোচনা করতেছে আরেক গালিবাজ!এক চুতিয়ার সমালোচনা করতেছে আরেক চুতিয়া!বাহ বেশ তো!

    অনেকে অনেকভাবে বিখ্যাত হতে চায়।কেউ বারাক ওবামাকে গালি দিয়ে, কেউ শেখ হাসিনাকে হুমকি দিয়ে, কেউ নিজের বিরুধীতা(পল্টিবাজি) করে, কেউ রাজাকারের পক্ষ নিয়ে কিন্তু আমার কাছে লাগতেছে আপনারা যা করছেন তা বিখ্যাত হবার বিফল চেষ্টা।
    অন্যকে গালি দিয়ে কিংবা আক্রমন করে লিখলেই ব্লগার হওয়া যায় না বা গেলেও এর কোন মানে নেই।নিজের লিখনি শক্তি দ্বারা ভাল ভাল লিখে নাম কামান ।শুভ কামনা ।

    1. এটা কাকে বললেন? ঢ়াসেল
      এটা কাকে বললেন? ঢ়াসেল ঢ়হমানকে? নাকি অন্য কাউকে? অনলাইনে ঢ়াসেল গংদের গালি শুনলে ভাল মানুষ অসুস্থ হয়ে যেতে বাধ্য। নাকি আপনি ঢ়াসেলদের গালিবাজি কার্যক্রমকে অন্ধভাবে সমর্থন করেন?

  10. চন্দ্রবিন্দু ভাই, আমি জানি
    চন্দ্রবিন্দু ভাই, আমি জানি আপনি গালিবাজ বা আক্রমনাত্মক লেখক না ।তাছাড়া আপনার লেখনি শক্তি আমার চাইতে অনেক বেশি।আমি ভাল ব্লগার বা লেখকদের শ্রদ্ধা ও সম্মান করি ।এমনকি ক্ষেত্রবিশেষে দুর্জন বিদ্বান হলেও আমার কাছে পরিত্যাজ্য নয়।
    আমার কথাগুলো আপনি ইচ্চা করে আপনার গায়ে মাখবেন না ।আমি যে কথাগুলো বলেছি তার সত্যতা এই পোস্টের শিরোনামেই পাবেন।তাছাড়া আমি প্রথম মন্তব্যেও কি বলতে চেয়েছি সেটা একটু খেয়াল করুন।এখানে আমি রাসেলকে সমর্থন করে কোন কথা বলি নাই।দোষ বলতে যা হয়েছে তা হল, রাসেলের উপর সরাসরি আক্রমন করায় পোস্ট লেখককে একটা খোঁচা মেরেছি(পোন্দানি শব্দটি ব্যবহার করেছি) এই যা।

    রাসেল গালিবাজ বা চুতিয়া(আমি মনে করি সেটা অবস্থাদৃষ্টে)হতে পারেন, তাই বলে আমাকে আপনাকে গালিবাজ বা চুতিয়া হতে হবে কেন?

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *