চেতনা ব্যাবসায়ী আওয়ামিলীগকে বর্জন করুন

সাম্প্রতিক সময়ে পাকিস্থানি নাগরিক শহিদ আফ্রিদির নিজস্ব ফ্যাশন হাউজ ইদিয়ানের অপেনিং এ শহিদ আফ্রিদির সাথে বাংলাদেশের মডেল কন্যা মেহজাবিন ক্যাট ওয়াক করেছেন। এমন সংবাদ প্রকাশের পর থেকেই তথাকথিত (আওয়ামি) চেতনাধারীদের মায়াকান্না শুরু হয়।


সাম্প্রতিক সময়ে পাকিস্থানি নাগরিক শহিদ আফ্রিদির নিজস্ব ফ্যাশন হাউজ ইদিয়ানের অপেনিং এ শহিদ আফ্রিদির সাথে বাংলাদেশের মডেল কন্যা মেহজাবিন ক্যাট ওয়াক করেছেন। এমন সংবাদ প্রকাশের পর থেকেই তথাকথিত (আওয়ামি) চেতনাধারীদের মায়াকান্না শুরু হয়।

এই ঘটনার পর থেকেই মেহজাবিনকে উদ্দেশ্যে একের পর এক অশ্লিল গালী দিয়ে আওয়ামি ছেলিব্রিটিরা(!) চেতনা শানিত করার যুদ্ধে লিপ্ত হয়ে পড়েন। যিনি যত বেশি অশ্লিল গালী দিতে পারবেন তিনিই তত বড় চেতনাধারী (অশ্লিলতার মাপকাটিতে :হাহাপগে: ) টাইপের চিন্তাভাবনা নিয়ে আওয়ামি চেতনাধারীরা দিনভর স্টাটাস দিতে থাকেন। একের পর একঅশ্লিল গালি ভর্তি স্টাটাস দিয়ে চেতনা শানিত করার পর মেহজাবিনের অনলাইন লাইফ হেল করার উদ্দেশ্যে সিপি (সিপি মানে খেয়াল কইরা 😀 ) রাসেল তার দলবল নিয়ে মেহাজবিনের স্টাটাস আর ইনবক্সে অশ্লিল গালী দেয়া শুরু করেন।

তাদের শানিত চেতনার (পড়ুন অশ্লিল গালীর) বানে বিদ্ধ হয়ে এক পর্যায়ে মেহাজবিন তার ফেইসবুক আইডি ডিএকটিভ করেন। তার পর আওয়ামি চেতনাধারী রাসেল রহমান, গর্ভবরে মেহাজবিনের আইডি ডিএক্টিভেটেড হওয়ার খবর প্রকাশ করে একটি স্টাটাস দেন –

এজ পার CP গ্যাং প্রমিজ
মেহেজাবিনের অনলাইন লাইফ হেল করা হইছে…
দ্যাট পাকি কক সাকিং বিচ হ্যাজ ডিএক্টিভেটেড…

মেহাজাবিন… রেস্ট ইন হেল/পাকি
বাংলার বুকে কুনু পাকিচুদা দেখতে চাই না

তার এই স্টাটাস দেখার পর আমার মেজাজ খারাপ হয়। আমি জানি এবং বুঝি মেহজাবিন খারাপ কাজ করেছেন, তার মানে এই নয় যে অশ্লিল গালী দিয়ে তার আইডি ডিএকটিভ করাতে বাধ্য করতে বাধ্য করা হবে। তাছাড়া মেহজাবিনের চেয়ে বড় বড় ঘটনা আওয়ামি নেতারা ঘটিয়েছেন, তাহলে মেহজাবিন কেন বলির পাঠা হবে অথবা তাকে নিয়ে কেন এতো মাতামাতি হবে।

আমি রাছেল রহমানের এই স্টাটাস দেখার পর মেহজাবিনকে গালি দেয়া প্রতিবাদ করে একটা স্টাটাস দিয়ে রাছেল রহমান নামক মৌসুমী চেতনাধারীকে কয়েকটি প্রশ্ন করেছিলাম তা হলো –

সাম্প্রতিক সময়ে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী মহিউদ্দিন খান আলমগির ইসলামি ব্যাংকের একটি শাখা উদ্ভোদন করেছেন, পারবেন তাকে গালি দিতে ?

পাকিস্থানী নাগরিক সাকলাইন মুস্তাককে বাংলাদেশের বোলিং কোচ বানিয়ে টাইগারদের বোলিং শিখানো হচ্ছে, পারবেন জিল্লুর রহমানের ছেলে পাপন সাহেবকে গালী দিতে ?

জানি পারবেন না, তাহলে কেন মেহজাবিনকে গালী দিচ্ছেন, সে মেয়ে বলে, তার রাজনৈতিক ক্ষমতা নাই বলে ?

এই প্রশ্নের উত্তরে রাসেল রহমান এবং তার ভাইরা আমাকে অশ্লিল গালী দেন এবং আমার পিতাকে রাজাকার আখ্যায়িত করে আমাকে ছাগু ট্যাগ দেন।

এবার মূল কথায় আসি :

শহিদ আফ্রিদির ফ্যাশন হাউজের অপেনিং এ যাওয়ার কারনে মেহজাবিন বর্তমানে আলোচনার কেন্দ্রবিন্তুত চলে এসেছেন, সবাই এই ঘটনাকে যার যার মত বিশ্লেষন করে সবশেষে মেহজাবিনের সমালোচনা করছেন। এক কথায় বলতে গেলে পাকিস্থানি নাগরিকের ফ্যাশন হাউজের অপেনিং এ যাওয়ার কারনে মেহজাবিন এখন জাতীর শত্রুতে পরিণত হয়ে গেছেন।

বর্তমানে আওয়ামি লীগ দেশ শাষন করছে, দেশের প্রতিটি ঘটনা সরকারের গোচরে থাকে। একজন ভিনদেশি যদি এদেশে কোন ধরনের ব্যাবসা প্রতিষ্টান করতে চান তাহলে সরকারের উচপর্যায় থেকে অনুমোদন নিতে হয় (আমার ধারনা অনুযায়ী), শহিদ আফ্রিদি নিশ্চই সরকারের কাছ থেকে অনোমোদন নিয়েই এদেশে ব্যাবসা শুরু করেছেন ?

পাকিস্থানি নাগরিক শহিদ আফ্রিদিকে এদেশে ফ্যাশন হাউজ করার অনুমতি নিশ্চই মুক্তিযোদ্ধের সপক্ষের শক্তি দাবিদার আওয়ামিলীগ সরকার দিয়েছে ?

আচ্ছা ভাইজান , যে দেশে পাকিস্থানি নাগরিকের সাথে হাটলে একজন বাঙালী জাতীর শত্রু হয়ে যায়, সেদেশে একজন পাকিস্থানীকে ফ্যাশন হাউজ করার অনুমতি দেয়া কত গুরুতর অপরাধ চিন্তা করছেন। আওয়ামি সরকার অনুমতি দিয়েছে বলেই মেহজাবিনরা পাকিস্থানি নাগরিকের ফ্যাশন হাউজের অপেনিং এ যাওয়ার সুযোগ পেয়েছে।

আপনারা খেয়ে না খেয়ে চুনুপটি মেহজাবিনদের সমালোচনা করছেন কিন্তু পাকিস্থানী নাগরিককে এদেশে ব্যাবসা করার অনুমতি দাতা আওয়ামি সরকারের সমালোচনা করছেন না কেনো ?

শহিদ আফ্রিদিকে এদেশে ফ্যাশন হাউজ করতে দেয়ার অপরাধে আওয়ামিলীগ সরকারকে বর্জন করুন, সাথে চোখে আঙ্গুল দিয়ে মুক্তিযুদ্ধের চেতনা বিরোধী কর্মকান্ড করার পরও যারা আওয়ামি সরকারের কোন দোষ খুঁজে পায়না সেসব দলকানা আওয়ামি সমর্থকদের বর্জন করুন।

এসব চেতনা ব্যাবসায়ী এবং মৌসুমী চেতনা ধারীরা মুক্তিযুদ্ধের চেতনাকে ঢাল হিসেবে ব্যাবহার করে আমাদের বিভ্রান্ত করে চলেছে প্রতিনিয়ত।

মৌসুমি চেতনাধারী এবং আওয়ামি সমর্থক রাসেলের কথার সুত্র ধরে বলছি বলছি –

আওয়ামিলীগ … রেস্ট ইন হেল/পাকি
বাংলার বুকে কুনু পাকিচুদা দেখতে চাই না

২৫ thoughts on “চেতনা ব্যাবসায়ী আওয়ামিলীগকে বর্জন করুন

  1. প্রথম পোস্ট লিখে ফেললাম।
    সকল

    প্রথম পোস্ট লিখে ফেললাম।

    সকল যাত্রীদের প্রতি ভালোবাসা রইল। :ফুল:
    আশা করি দীর্ঘ ভ্রমনের প্রতিটি মুহুর্তে সাথে থাকতে পারবো।

  2. আপনার প্রথম পোষ্টে অনেক
    আপনার প্রথম পোষ্টে অনেক বিভেদের উদ্রেগ পাচ্ছি ।আর মখা আলমগীর আর পাপনকে নিয়ে অনেক পোষ্ট আছে যা হয়তো আপনার চোখে পড়ে নি ।আর মেহেজাবীনের ইনবক্স আপনি চেক করলেন কিভাবে প্রশ্ন রইলো ।সংঘাতময় পোষ্ট দেওয়া থেকে বিরত থাকবেন ।শুভকামনা রইলো

    1. সংঘাতময় !!!
      আপনি কি

      সংঘাতময় !!! :-B
      আপনি কি আওয়ামিলীগ বিরোধী পোস্ট দেয়া হতে বিরত থাকার আহব্বান জানাচ্ছেন ?

      মেহজাবিনকে নিয়ে কথা বলা হয়েছে কিন্তু যারা পাকিস্থানী নাগরিককে ফ্যাশন হাউজ খোলার অনুমতি দিয়েছিলো, তাদের বিরুদ্ধে কেউ কথা বলেছিলো ?

      1. ভাই পেছনের লোকগুলোকে ও অনেক
        ভাই পেছনের লোকগুলোকে ও অনেক কিছু বলা হয়েছে ।আর মেহেজাবীন লাইমলাইটে ছিলো বলেই দোষারোপটা তাকেই করা হয়েছে ।যেমনটা মন্ত্রীরা অপরাধ করলে দোষী হয় সরকার ।

        আপনি যে তথাকথিত চেতনা বলে লাফাচ্ছেন তা অনেকেই ধারণ করে ।আওয়ামীলিগের সাথে আমাদের চাওয়ার মিল কিছুটা আছে বলেই আমরা সমর্থন করি ।তাই বলে একেবারে কখনোই ছেড়ে দেয় নি কেউ ।আর যে পোষ্টে ভিন্নমত থাকে আমি সেসব পোষ্টকেই সাংঘার্ষিক বলেছি

        1. আপনি যে তথাকথিত চেতনা বলে

          আপনি যে তথাকথিত চেতনা বলে লাফাচ্ছেন তা অনেকেই ধারণ করে ।

          হুমম, অনেকে তথাকথিত চেতনাধারী আবার অনেকে সত্যিকারের চেতনাধারী।

          ধন্যবাদ।

  3. শহিদ আফ্রিদিকে এদেশে ফ্যাশন

    শহিদ আফ্রিদিকে এদেশে ফ্যাশন হাউজ করতে দেয়ার অপরাধে আওয়ামিলীগ সরকারকে বর্জন করুন,

    প্রশ্ন-১ ঃ আওয়ামীলীগ সরকার কে বর্জন করে আপনি কি বলতে চাচ্ছেন বি এন পি তথা হেফাজতি তথা শিবিরদের হাতে ক্ষমতা তুলে দিতে!! ?
    একটু ব্যাখ্যা করবেন !!

    সাম্প্রতিক সময়ে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী মহিউদ্দিন খান আলমগির ইসলামি ব্যাংকের একটি শাখা উদ্ভোদন করেছেন, পারবেন তাকে গালি দিতে ?

    ফ্যাক্ট = না জেনে , উপযুক্ত তথ্য প্রমান বেতিত আবেগের বসে কিছু লিখতে নাই ।

    মখা আলমগির এর এই কর্মে প্রচুর সমালোচনা হয়েছে ব্লগ এবং পত্রিকাতে । তথ্য টা মাথায় রাখবেন ।

    আপনার মতে সমিকরন করলে হবে , আওয়ামীলীগ সরকার < মেহেজাবিন ভাই আপনাকে কি আমরা মেহেজাবিননামা চেতনা বেবসায়ি বলতে পারি ? প্রথমত , আজ আমাদের চেতনা , আমাদের প্রত্যাশা পুরনের জন্য আমাদের এই আওয়ামীলীগ সরকার কে দরকার । বি এন পি আসলে কি হবে সেটা ভেবে এখনো ভিত হতে হয় । পাপন আর মখা নিয়ে তুল্লেন । আরে ভাই এইটা আমরাও জানি । সমালোচনাও করি । কিন্তু বাস্তব ভিতিতে মেহেজাবিন কে সরকার এর উপরে রাখতে পারব নাহ । আপনার মতে সরকার এর দোষ সব- মেহেজাবিন নিস্পাপ !! দোষ থাকবেই , কিন্তু আমরা পড়ছি ফাটা বাঁশের চিপায় , কারন আওয়ামীলীগ ছাড়া আমাদের কোন গতি নাই । নির্মম হলেও এটা সত্য ।

    1. প্রশ্ন-১ ঃ আওয়ামীলীগ সরকার কে

      প্রশ্ন-১ ঃ আওয়ামীলীগ সরকার কে বর্জন করে আপনি কি বলতে চাচ্ছেন বি এন পি তথা হেফাজতি তথা শিবিরদের হাতে ক্ষমতা তুলে দিতে!! ?
      একটু ব্যাখ্যা করবেন !!

      প্রশ্ন-১ : দেশে যদি আম্লিগ না থাকতো তাহলে কি আপনি বি এন পি তথা হেফাজতি তথা শিবিরদের ভোট দিতেন ?

      একটু ব্যাখ্যা করবেন !!

      ফ্যাক্ট = না জেনে , উপযুক্ত তথ্য প্রমান বেতিত আবেগের বসে কিছু লিখতে নাই ।
      মখা আলমগির এর এই কর্মে প্রচুর সমালোচনা হয়েছে ব্লগ এবং পত্রিকাতে । তথ্য টা মাথায় রাখবেন

      ফ্যাক্ট = না বুঝে, শুধুমাত্র আবেগের বসে কিছু লিখতে নাই ।
      আমি এই প্রশ্ন শুধুমাত্র আওয়ামি চেত্নাধারীদের করেছিলাম, যারা মখার সমালোচনা করেনি কিন্তু মেহজাবিনকে নিয়ে লাফাচ্ছে।

      1. প্রশ্ন-১ : দেশে যদি আম্লিগ না

        প্রশ্ন-১ : দেশে যদি আম্লিগ না থাকতো তাহলে কি আপনি বি এন পি তথা হেফাজতি তথা শিবিরদের ভোট দিতেন ?

        একটু ব্যাখ্যা করবেন !!

        বাস্তবে আসেন । আমি কল্পনার জগতে বিচরণ করি নাহ । আপনার এই প্রশ্ন টা অবান্তর । কেননা যেটা আছে সেটা কেন ভাবব যে নাই !!!!!!

        1. আপনার প্রশ্নটাও অবান্তর ছিলো
          আপনার প্রশ্নটাও অবান্তর ছিলো কারন,

          আম্লিগকে বর্জন করা মানেই যে বি এন পি তথা হেফাজতি তথা শিবিরদের হাতে ক্ষমতা তুলে দেয়া এরকম কিছু নয়। যারা রাজাকারদের ঘৃণা করে তারা কখনও বিএনপিকে ভোট দেবে না বরং নতুন কাউকে খুঁজে আনবে।

          1. আবারো প্রেক্ষাপট ছাড়া কথা
            আবারো প্রেক্ষাপট ছাড়া কথা বললেন ।

            আম্লিগকে বর্জন করা মানেই যে বি এন পি তথা হেফাজতি তথা শিবিরদের হাতে ক্ষমতা তুলে দেয়া এরকম কিছু নয়। যারা রাজাকারদের ঘৃণা করে তারা কখনও বিএনপিকে ভোট দেবে না বরং নতুন কাউকে খুঁজে আনবে।

            স্বপ্ন দেখতে থাকেন । সাম্নের নির্বাচনে দেখতে পারবেন ।

          2. সপ্ন দেখতে সমস্যা নাই তবে
            সপ্ন দেখতে সমস্যা নাই তবে দালালী করতে পারবো না।
            আন্ধার মতো সমর্থনও করতে পারবো না। 😀

            ধন্যবাদ।

    2. আপনার মতে সমিকরন করলে হবে ,

      আপনার মতে সমিকরন করলে হবে , আওয়ামীলীগ সরকার < মেহেজাবিন

      ভাই আমি জানি আপনি অনেক ব্যাস্ত আপনার হাতে সময় অনেক কম, তার পরও বলব দয়া করে আমার স্টাটাস ভালো পড়ে তারপর মন্তব্য করেন।

      আম্লিগ সমর্থকরা মেহজাবিনকে আম্লিগের চেয়ে বেশি গুরুত্বপূর্ণ হিসেবে উপস্থাপন করার চেষ্টা করলেও, আমি মুক্তিযুদ্ধের চেতনার দাবীদার আম্লিগকে বড় করে উপস্থাপন করার চেষ্টা করেছি।

      ভাই আপনাকে কি আমরা মেহেজাবিননামা চেতনা বেবসায়ি বলতে পারি ?

      অবশ্যই আমাকে ট্যাগ দেবেন, কারন আমি চেত্নার ডিলার আম্লিগের বিরুদ্ধে কথা বলেছি।
      আম্লিগ এবং আম্লিগ সমর্থকদের মত চেত্নার ডিলার হতে পারিনি এটাই আমার সৌভাগ্য। আম্লিগের বিরুদ্ধে কথা বললে ট্যাগায়িত হবো এ আর নতুন কি !!

    3. প্রথমত , আজ আমাদের চেতনা ,

      প্রথমত , আজ আমাদের চেতনা , আমাদের প্রত্যাশা পুরনের জন্য আমাদের এই আওয়ামীলীগ সরকার কে দরকার ।

      বি এন পি আসলে কি হবে সেটা ভেবে এখনো ভিত হতে হয় ।

      হুমম আম্লিগ সরকার যা করবে আমরা তাই মাইনা নিমু, আম্লিগকে আন্ধার মতো সমর্থন কইরা যামু কারন বি এন পি আসলে কি হবে সেটা ভেবে এখনো ভিত। তাছাড়া আম্লিগের বিরুদ্ধে কথা কইলে আম্লিগ হামাদের জ্বেলে ঢুকাইতারে।

      পাপন আর মখা নিয়ে তুল্লেন । আরে ভাই এইটা আমরাও জানি । সমালোচনাও করি । কিন্তু বাস্তব ভিতিতে মেহেজাবিন কে সরকার এর উপরে রাখতে পারব নাহ ।

      আপনার মতে সরকার এর দোষ সব- মেহেজাবিন নিস্পাপ !!

      আমি কবে কইলাম মেহেজাবিন নিস্পাপ !! :মাথাঠুকি:
      আমি কবে কইলাম মেহেজাবিন সরকারের উপ্রে !! :মাথাঠুকি:

      দোষ থাকবেই , কিন্তু আমরা পড়ছি ফাটা বাঁশের চিপায় , কারন আওয়ামীলীগ ছাড়া আমাদের কোন গতি নাই । নির্মম হলেও এটা সত্য ।

      দোষ থাকবেই, কিন্তু আমরা পড়ছি ফাটা বাঁশের চিপায় , কারন আম্লিগ চেত্নার ডিলারশিপ নিয়ে রাখছে, আওয়ামীলীগ ছাড়া আমাদের কোন গতি নাই । নির্মম হলেও এটা সত্য ।

  4. সুন্দর পোস্ট! তবে এখানে কিছু
    সুন্দর পোস্ট! তবে এখানে কিছু লেজ প্রকাশ হয়ে যাওয়া হাম্বালীগার আছে। যারা হাম্বালীগের সমালোচনা দেখলেই ভাবে সে জামাত-বিএনপি। সিমান্তের হত্যা নিয়ে কিছু বললেও আপনাকে ছাগু ট্যাগ দিয়ে দেবে। এইসব হাম্বাদেরকে লাথির ওপর রাখবেন। যেমনটা জামাতি ছাগুদেরকে আমরা রাখছি। মেহজাবীনকে গালি দেয়া যায়, তবে হাম্বালীগকে গালি দেয়া যাবেনা। ব্যাপারটা এমন, হাম্বালীগ আফ্রিদীকে ব্যবসা করার অনুমতি দিছে, তাই বইলা আপনারে মডেলিং করতে কইছে? 😀

    চিহ্নিত হাম্বাগুলারে চিনে রাখলাম।

    1. সিরাম মন্তব্য করছেন, বস।
      সিরাম মন্তব্য করছেন, বস। :হাহাপগে:

      বহু সময় পরে একজন মনের মত মানুষ পেলাম।

      ধন্যবাদ।

  5. ভালাই ল্যাখছেন বস।
    ভালাই ল্যাখছেন বস। :বুখেআয়বাবুল: :বুখেআয়বাবুল: :বুখেআয়বাবুল:
    ল্যাঞ্জা ইজ অলওয়েজ ডিফিকাল্ট টু হাইড। বিম্পি- জামাত- হাম্বুলীগ এখন আর কোন তফাত পাইনা। এতদিন ধইরা রাস্তায় ফাঁসি চাই ফাঁসি চাই কয়া চিল্লায়া ফাডায়ালাইলাম, শালার এখন রায়ই দেয়না। হইলনি কিছু কাদের মোল্লার? আবার মুক্তিযুদ্ধের চেতনা বিক্রী করতে গিয়া বাকি সবাইরে ছাগু ট্যাগ দিয়া পরাণ ফাডায়ালায়। যুদ্ধাপরাধীর শাস্তি হোক বা নাহোক, এগ ক্ষমতায় য্যামতে হোক অমতে থাকতেই অইব। এগ ধারণা, আমরা সবাই এগ মতন ৫ বচ্ছর পরপর পাল্টী খাওয়া পার্টি। হয় আম্বাতুল বাম্বুলীগ, নয় জাতীয়তাবাদী গুলাপি দল।
    এরা বুঝেইনা, কতগুলা লোকে এই আন্দোলনের প্রেক্ষাপটে কসম খাইছে, জীবনে আর এগ কাউরে ভোট দিবনা।
    আপসুস! আপসুস!

  6. ভাবতেছি বিক্রয় ডট কমে আমি
    ভাবতেছি বিক্রয় ডট কমে আমি একটা এড দিবো। আমার চেতনা বিক্রি করে দেবো। সবাই ব্যবসা করতেছে, আমি করলে দোষ কি? :ভেংচি:

  7. মুক্তিযুদ্ধের চেতনা ব্যবসায়ী
    মুক্তিযুদ্ধের চেতনা ব্যবসায়ী আম্বালীগ আর বিএনপি জামায়াতের মধ্যে পার্থক্য আমি এখনো খুইজা পাইলাম না। আর আওয়ামীলীগের বিকল্প মানেই বিএনপি বা জামায়াত হবে কেন?

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *