দুঃখিত স্যার, প্রতারণার ভয় দেখিয়ে প্রতারিত করতে চেয়ে লাভ নেই, প্রতারিত অনেক হয়েছি! আর কতো?

দুর্যোধনদার পোস্টটির বিপরীতে সামুতে একটি পোস্টই লেখার ইচ্ছে ছিল। কিন্তু সামু আবার ‘নিরপক্ষে ব্লগ।’ রাজাকার-বাঙালি শুয়োর-মানুষ সব এক, তাই ও কাজে হাত দিলাম না। তিনি বিশাল লেখক, ফেসবুকের পীর মানুষ, মুরিদের তার অভাব নাই। আমার মতো চুনোপুঁটি কিছু বললে মুরিদেরা হামলে পড়বে তাও জানি, কিন্তু কি আর করা, সত্য তো সত্যই! টুঁটি আমার চিপে ধরে যাবে বটে, সত্যের না!


দুর্যোধনদার পোস্টটির বিপরীতে সামুতে একটি পোস্টই লেখার ইচ্ছে ছিল। কিন্তু সামু আবার ‘নিরপক্ষে ব্লগ।’ রাজাকার-বাঙালি শুয়োর-মানুষ সব এক, তাই ও কাজে হাত দিলাম না। তিনি বিশাল লেখক, ফেসবুকের পীর মানুষ, মুরিদের তার অভাব নাই। আমার মতো চুনোপুঁটি কিছু বললে মুরিদেরা হামলে পড়বে তাও জানি, কিন্তু কি আর করা, সত্য তো সত্যই! টুঁটি আমার চিপে ধরে যাবে বটে, সত্যের না!

পোস্ট এর শিরোনাম ছিল ‘দুঃখিত বন্ধুরা, আমি আর প্রতারিত হচ্ছি না।’ প্রতারিত ‘আমি ও আমরাও’ হয়েছি বৈকি! লীগের প্রতি প্রচণ্ড ক্ষোভ আমাদের মনেও তৈরি হয়েছে। কিন্তু দুর্যোধন এর মতো সুযোগসন্ধানী মানসিকতা থেকে এ ক্ষোভ নয়! লীগের কাজে ফুটো খুঁজে বের করার নিমিত্তে এই ক্ষোভ নয়! এই ক্ষোভ হচ্ছে প্রানের দাবী পূরণ না হবার। গোলাম আজমের (আসতাগফিরুল্লাহ) রায়ে শিবিরও অসন্তুষ্ট, আমাদের মতো সাধারন মানুষও অসন্তুষ্ট, দুইটা কি একই ধরনের অসন্তোষ?

রায়ে লীগের আইনি ভুমিকা রয়েছে বটে, এটা অনস্বীকার্য, কিন্তু শেষ পর্যন্ত ভারডিক্ট প্রসিকিউশনের হাতে! তবে আঁতাত টার্ম টেনে কি স্বার্থ সিদ্ধি করতে যায় দুর্যোরা? কি সুন্দর ছাগুর সূরে ম্যাতকার ডেকে শাহবাগ এর কাচ্চির হিসেব চাইলেন উনি! যেন ওখানে হাজার হাজার মানুষ না খেয়ে অক্কা পেতে সমবেত হতে গিয়েছিলেন।

উনি লিখেছেন,

‘প্রহসনের এই রায়ের দুইদিনের মাঝেই আমরা তাদের দেখবো গলাবাজি করতে – “আওয়ামী লীগ ছাড়া কে ট্রাইবুনালে গঠন করেছে ? কে বিচার করতে পারে ? সুতরাং লীগই শেষ ভরসা …..আপীল চাপীল বাল ছাল ব্লা ব্লা ব্লা ব্লা …..’

— তাহলে দুর্যোধন, পরিষ্কার করুণ, কে বিচার করবে এদের? রায় কার্যকর কে করবে? হলফ করে বলতে পারেন বিএনপি করবে? আমি হলফ করে বলতে পারি বিএনপি করবে না, এই জামাতই তাদের রাজনৈতিক দাবার ঘুঁটি এবং মাঠে খেলার সৈন্য থেকে শুরু করে নগদ নারায়ণের উৎস! এসব হাতছাড়া করলে গোলাপী বেগমের সিঙ্গাপুর গিয়ে স্পা করা বেরোবে যে সেটা সবাই বুঝে। অতঃপর? আমরা কি করে আশা করবো জামাত ক্ষমতায় থেকে জামাতের বিচার করবে? এবং কি করেই বা নিশ্চিত হবো রায় উল্টে দেবেনা অন্যায় ভাবে? বেরিয়ে আসবে না এই দন্ডপ্রাপ্ত অমানুষেরা?

লীগ চেতনা ব্যাবসায়ী, লীগ মুক্তিযুদ্ধ বেচে খায়, ওকে দুর্যোদা মানলাম! বিএনপি কি বেচে খায় তাহলে? জামাতি এসেটস? ধর্ম? অস্বীকার করতে পারেন?

পোস্ট এর প্রেক্ষিতে আমার মন্তব্য ছিল,

‘এবং আমাদের বিএনপিকে এবং বিএনপিকেই ভোট দিয়ে দেশে রাজাকারদের অবস্থান সুসংহত করতে হবে। দেখতে হবে তাদের ভি সাইন সহ বেরিয়ে আসা।

সেই দিনেরই অপেক্ষায় বাংলাস্তান।’

ভুল কিছু বলেছি? লীগ না হলে আর কে? জামাত বিএনপি জোট? আপনি তৃতীয় শক্তি নিয়ে টুঁ শব্দ করবেন না অথচ পকর পকর করবেন প্রতারিত হয়েছেন এ কেমন কথা? মানে কি ‘লীগের কাছে অনেক মারা খাইছি এবার রাজাকারদের হাতে মারা খাবার শখ হইছে?’

আর উনি উত্তর দিলেন,

‘হ্যাঁ । এবং অবশ্যই আওয়ামী লীগকে ভোট দিয়ে লুটপাট,জোচ্চুরি শেষে মুক্তিযুদ্ধ নিয়ে ব্যবসাও দেখতে হবে । তবে কাদের মওল্লা মনে হয় বি এন পি’র সময় ভি সাইন দেখিয়েছিলো , এইটা ঠিক । গোলাম আজমও ফাসি দন্ড পায় নি বি এন পির আমলে- এটাও ঠিক । রাজাকার হলেও খালেদা জিয়ার বেয়াইন যুদ্ধাপরাধী না । তাই খালেদা জামাত কোলে নিয়ে বসে থাকলেও শেখ হাসিনা কোলে নিয়ে বসেন না , সরাসরি কোলে ওঠেন ।’

— ওয়াহ! সাচ্চা পাকিস্তানি জ্যায়সা বোলা হ্যাঁয় উসনে! অতঃপর আর কি দুর্যোদা? আপনার এলাকায় গোলাম আজম বিএনপি জামাত জোটের প্রতিনিধিত্ব করলেও আশা করি আপনি তাকেই ভোটটা দিয়ে আসবেন! কারণ আপনি তো আর আওয়ামীলীগ এর কাছে প্রতারিত হতে চান না!!!

২৩ thoughts on “দুঃখিত স্যার, প্রতারণার ভয় দেখিয়ে প্রতারিত করতে চেয়ে লাভ নেই, প্রতারিত অনেক হয়েছি! আর কতো?

  1. হাসার জন্য উত্তম পোস্ট । হিট
    😀 😀 😀 হাসার জন্য উত্তম পোস্ট । হিট খাইবেন । এই পোস্ট অনেকেই পড়বো আর আমার মতো হাসবো ।
    আর আপনি বলেন তো এখন কয়জনকে শাহবাগে যাইতে বললে যাবে ? ফাঁসির দাবী করাও সবাই ছাইড়া দিছে । খামোখা শক্তির অপচয় ।
    তাদের রাজনৈতিক স্বার্থ অনুযায়ী তারা কাজ করবে স্বাভাবিক ।
    একদল ধর্ম নিয়ে ব্যবসা করে আর আরেকদল করে ধর্ম নিরপেক্ষতাকে নিয়ে । বুঝুন , মাথা খাটান । অন্ধ সাপোর্টার হইয়ে না ।

    1. মাথা খাটিয়ে কেন ফাটিয়েও
      মাথা খাটিয়ে কেন ফাটিয়েও রাজাকার জোটকে ভোট দেবার মতো ‘মাথাবান’ আমার পক্ষে হওয়া সম্ভব না। বাবা ছিল মুক্তিযোদ্ধা, রক্তের সাথে বেঈমানী করতে বলেন??? লীগকে ভোট না দিলাম! কিন্তু বিএনপি জামাত জোট? রাজাকার জোট? ওয়াক থুঃ!

      1. মাথা খাটিয়ে কেন ফাটিয়েও

        মাথা খাটিয়ে কেন ফাটিয়েও রাজাকার জোটকে ভোট দেবার মতো ‘মাথাবান’ আমার পক্ষে হওয়া সম্ভব না।

        আপনাকে তাদের ভোট দেবার কথা বলা হয় নি বলা হয়েছে নিরপেক্ষ ভাবে চিন্তা করার যে আওয়ামীলিগ কি করেছে

  2. দুর্যোধন হল চায়নিজ সুশীল ।এই
    দুর্যোধন হল চায়নিজ সুশীল ।এই ধরনের সুশীলরা বড় ভয়ঙ্কর হয়।এদের কে এক কথায় বলে দুমুখো সাপ।এরা অন্ধকারে বেশি দেখে ।

    আতাঁত হলে কি ৯০ বছর কিংবা ৯০মিনিট ও জেল দিবে?সব সম্ভবের দেশে বেকসুর খালাস দিলে কি মহাভারত অশুদ্ধ হত?৯০ বছরের সাজা মাথায় নিয়ে কোন পাগল সরকারের সাথে আতাঁত করবে?

    আদালত স্বাধীন ।সরকারের এ ব্যাপারে কিছুই করার নেই ।হ্যা, সরকারের ব্যর্থতা আছে মানি কিন্তু আতাঁত হয়নি হলফ করে বলতে পারি ।

    1. আদালত স্বাধীন
      এইটা কেমতে

      আদালত স্বাধীন

      এইটা কেমতে কইলেন ???????????????? কোন ঘটনা দেইখা কি মনে হয় নাই এইটা বলা সম্ভব না ।
      আর আমাদের একেকজনের একেক মত । আমার সাথে দুর্যোধনের মতামতের অনেক মিলে । আমি উনার সাথে সর্বদা আছি বলা যায় । উনার রাজনৈতিক মতাদর্শ আমাকে সঠিক সিদ্ধান্ত নিতে সাহায্য করে ।
      উনি সুশীল নন । বুঝেন বলেই আতাত বলেছেন ।

      1. আমিও লজ্জিত, লীগের ব্যর্থতার
        আমিও লজ্জিত, লীগের ব্যর্থতার থেকে আমার প্রানের দাবী পূরণ না হওয়ায় হতাশ। কিন্তু শেষ পর্যন্ত আমি বিএনপির পক্ষে থাকতে পারবো না যতক্ষণ জামাতি সহবাস থেকে সরে না আসবে তারা। জামাত মানেই থুঃ! আমার অবস্থান পরিষ্কার! সেক্ষেত্রে আমি না ভোটের পক্ষে বলতে পারি, বলতে পারি তৃতীয় কোন শক্তি নিয়ে কিন্তু দুর্যোধন এর মতো কইতে পারবো না, ‘লীগ আজমের ফাঁসি দেয় নাই তাই এখন আজমের দলের সাথেই গলা মিলাইতে হবে!’ @জিন্দা জাবের তুহিন

        1. লীগের বিরোধিতা কড়া মানেই আপনি
          লীগের বিরোধিতা কড়া মানেই আপনি বুঝতেছেন বিএনপি করা । আর মান্যবর ভাই যা বলছে তার পর আসলে আর কিছু লাগে না । দুর্যোধন সাথে কতিপয় সুশীল গোষ্ঠীর তীব্র ঝামেলা আছে । দুর্যোধনের নামে কিছু পাইলেই ছুটে আসে দৌড়ে । কারণ সুশীল পেঁদানো তার অভ্যাস আর আমারও 😛
          [ উপরের কয়েকটা লাইন আপনার আর কয়েকটা অন্যদের ]

      2. উনি হচ্ছেন সেই হাস্যকর
        উনি হচ্ছেন সেই হাস্যকর ক্যারেক্টার যার ‘গোপন আঁতাতের সন্দেহে বিশাল চুলকানী’ অথচ প্রকাশ্য সহবাস চোখে দেখতে পারেন না!

        1. সময় আরও আছে । আপনার ভুল ভাঙবে
          সময় আরও আছে । আপনার ভুল ভাঙবে আসা করি । আর আমি আগেই বলেছি ,
          উনার সাথে আমার রাজনৈতিক চিন্তা মিলে যায় ।
          তাহলে আমিও উক্ত ক্যাটাগরির অন্তর্ভুক্ত যেইটায় দুর্যোধনকে ফালাচ্ছেন ।

    2. আতাত হয়েছি কি হয় নাই তা
      আতাত হয়েছি কি হয় নাই তা আগামীকাল বুঝা যাবে…

      “দুর্যোধন হচ্ছে দুমুখো সাপ।এরা অন্ধকারে বেশি দেখে”

      এইটা অসাধারণ বলেছেন…

    3. আপনার সাথে একশতভাগ সহমত। এই
      আপনার সাথে একশতভাগ সহমত। এই সব ভেকধারী সুশীল এর কারনে ক্ষতিগ্রস্ত ও বিভ্রান্ত হচ্ছে কতিপয় অন্ধ মুরিদ। লীগের বিরোধিতা করতে গিয়ে কখন রাজাকারদের সাথে দোস্তি হয়ে যাচ্ছে এদের টেরও পাচ্ছেনা!

  3. ভাই আমরা জানি যে যদি বিচার
    ভাই আমরা জানি যে যদি বিচার করে লীগ ই করবে অন্য কাঊ কে দিয়ে আসা নাই তাই বলে লীগে সব অন্যায় মেনে নেব?
    এই ৯০ বছরের কারদন্ডের মাধ্যমে বাঙ্গালি জাতি ৯০ বার ধর্ষিত হল এটা নিশ্চুপতায় মেনে নেব?>?
    এটাই প্রশ্ন লীগ কে দিয়ে অনেক আসা ছিল কিন্তু তারা এর মর্যাদা রাখল না!!!!

    1. লীগ প্রচুর বাজে কাজ করেছে,
      লীগ প্রচুর বাজে কাজ করেছে, যদিও রায় লীগ দেয়নি, ইন্ডিড। কিন্তু মানতে হবে কেন? আমাদের আন্দোলন হোক জামাত বিরোধী! যদি আমরা মন থেকে চাই ওরা না থাকুক সেইভাবে শক্ত আন্দোলন হোক! লীগের সমালচনা করবেন, করতেই হবে, বিএনপিরও সমালোচনা করবেন, কিন্তু জামাত? থুঃ! থুঃ! থুঃ! এই যায়গায় পরিষ্কার হলে কি করে লীগের দোষে বিএনপি-শিবিরের প্রতি মোহাব্বত জাগবে???

      1. বি এন পি জামাতের প্রতি মোটেও
        বি এন পি জামাতের প্রতি মোটেও আমার মহব্বত জনমাবেনা
        আমি শুধু আওয়ামিলীগের দোষ টা দেখাচ্ছি

        আমার পোস্ট গুলো পড়ুন তাহলেই বুঝবেন

  4. জিয়া গোলামকে নাগরিকত্ব দিল!
    জিয়া গোলামকে নাগরিকত্ব দিল! বিএনপি আজ পর্যন্ত প্রকাশ্যে বিচারের বিরুধীতা করতেছে!

    এতে কোন অসুবিধা হয়না অথচ লীগ একটা বিচারকে দাড় করিয়েছে,শত প্রতিকুলতার মাঝে দু চারটা রায় ও দেয়া হয়েছে, কার্যকরের প্রতিশ্রূতি ও দেয়া হচ্ছে এরপর ও দু একটা রায় আইনি জটিলতার কারনে আশানুরুপ না হওয়ায় চুশীলদের কথা শুনলে বুঝা যায়… (মডারেটের ভয়ে লিখলাম না)

    1. একটা সহজ উদাহর দেই?
      আপনার

      একটা সহজ উদাহর দেই?
      আপনার বাবা রাস্তা দিয়ে যাচ্ছে দেখছে এক ছেলে তার বাবা কে গালি দিচ্ছে এবং তার বাবার কাছ থেকে জোর করে টাকা নিয়ে যাচ্ছে সে যত টা ব্যথিত হবে তার চেয়েও শত গুণ ব্যথিত হবেন যদি আপনি তার সাথে এমন করেন

      আসলে আওয়ামিলীগের কাছে আমাদের চাওয়াটা আরো বেশি ছিল যা তারা পূরন করতে পারে নি তাই আমাদের এত আক্ষেপ

  5. আপনার সব কথা মানলাম।। কিন্তু
    আপনার সব কথা মানলাম।। কিন্তু একটু খেয়াল করে দেখবেন কি দূর্যোদা শুধুমাত্র আওয়ামী লীগের দোষগুলো দেখিয়ে পোস্টটা দেননি এর সাথে গণজাগরণ মঞ্চ এবং ইমরান এইচ সরকারকেও উল্লেখ করেছেন।। আওয়ামী লীগ সম্পর্কে উনার কথাটা এমন ছিল,

    আগেও আমি কট্টর আওয়ামী পন্থী আর দলকানা ছুপা আওয়ামীদের দেখেছি রায়ের আগের দিন কাচ্চি খাওয়ার ডাকাডাকি , ভার্চুয়াল মুক্তিযুদ্ধে শরিক হবার জন্য গলাবাজিতে । আজও কট্টর আওয়ামী পন্থী লেখকদের আমি দেখবো হাহাকার করতে ‘’আওয়ামী লীগ বহুত বুড়া হায় , পরের ভোট আর আওয়ামী লীগকে দেব না ।“ এবং আমি এটাও জানি , প্রহসনের এই রায়ের দুইদিনের মাঝেই আমরা তাদের দেখবো গলাবাজি করতে – “আওয়ামী লীগ ছাড়া কে ট্রাইবুনালে গঠন করেছে ? কে বিচার করতে পারে ? সুতরাং লীগই শেষ ভরসা …..আপীল চাপীল বাল ছাল ব্লা ব্লা ব্লা ব্লা …..ম্যা ম্যা ম্যা ….. “ এবং যে কে সেই লবডংকা । তারাই বলবে কে ভার্চুয়াল মুক্তিযোদ্ধা আর কে ভার্চিউয়াল রাজাকার । কিন্তু ‘বয়সের বিবেচনায়’ গোলাম আজমকে ৯০ বছরের কারাদন্ড প্রদানকারী আওয়ামী লীগ সরকার এরপরও থাকবে মুক্তিযুদ্ধের একমাত্র পক্ষশক্তি ।

    আর তারপর উনার কথাগুলো বেশিরভাগই ছিল গণজাগরণ মঞ্চ বিরোধী।। উনি গণজাগরণ মঞ্চের পেছনে কলকাঠি নাড়ার জন্য সরকারকে দোষারোপ করেছেন।। উনি প্রতারিত হওয়া বলতে বুঝিয়েছেন আর শাহবাগ না যাওয়া এবং চেতনা ব্যবসার নামে মানুষের সেন্টিমেন্ট নিয়ে খেলা না করা।। সরকার বিরোধী এবং গণজাগরণ মঞ্চকে দোষারোপ করে উনি বলেছেন,

    আমি আগেও ধারনা করেছিলাম , শাহবাগে জমায়েত হওয়া বিসিএস নিয়ে ক্ষুব্ধ তরুনদের সরাতে গনজাগরন মঞ্চ নামের বর্তমানের দালালমঞ্চটিকে জাগাতে হলে যাবজ্জীবন বা লম্বা বছরের কারাদন্ড দেয়ার বিকল্প নেই । তারা আবারো ঢাকঢোল নিয়ে রাস্তায় নেমে পড়বে , সরকারের বিরুদ্ধে আর রায়ের বিরুদ্ধে জমায়েত হবে এবং ২৪ ঘন্টার মাঝেই জমায়েতের মাঝে লুকিয়ে থাকা দালালেরা সকল চক্ষুলজ্জার মাথা খেয়ে , সকল বিবেক বিক্রি করে দেবে পাঞ্জাবীওয়ালার কাছে । সিচুয়েশান স্ট্যাবিলাইজ হবার সাথে সাথে তারা আবারও বলে উঠবে ‘ আওয়ামী লীগ ছাড়া ট্রাইবুনাল করে কে ? বিচার করে কে ? সরকারের সাথেই আছি, সরকারের সাথে না থাকলে তুই রাজাকার তুই রাজাকার …..’’

    এর মানে এই না যে উনি কোথাও উল্লেখ করেছেন বা বলেছেন ভোট দিন বিম্পি+জামাতকে, ওরাই দেশ উদ্ধার করবে বা যুদ্ধাপরাধীদের ফাঁসী দেবে।।
    আপনি যেহেতু উনার পোস্টের বিপরীতে এটা লিখেছেন সেহেতু আপনার উচিত ছিল উনার পোস্টের সবকিছু পুঙ্খানুপুঙ্খভাবে পড়ে তারপর লেখা।। আপনার কিছু বিষয়ের উপর অতিরিক্ত জোর প্রদান আমার কাছে ত্যানা পেঁচানো মনে হয়েছে।।

    1. অতএব চেতনা ব্যবসায়ীরা ,

      অতএব চেতনা ব্যবসায়ীরা , আপীলের ব্যবস্থাই করুন আর যা-ই করুন , তালেবানি জুজুর ভত দেখান আর ট্যাগিং চর্চার ভয় দেখান ……. চেতনা ব্যবসার দিন শেষ ।

      সি ইউ ইন পে ব্যাক টাইম । উই উইল মেইক দ্যা পেমেন্ট ইন ফুল । আন্ড জাস্ট ।

      “আরও কি শুনতে চান?”

      আরও যদি কিছু যদি জানতে চান এটার দিকে তাকানঃ

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *