সরি

সুন্দরী মেয়েদের প্রতি সব ছেলেরই খানিকটা দুর্বলতা থাকে। আড় চোখে দেখা, নানা অজুহাতে তার সাথে কথা বলা ইত্যাদি ইত্যাদি ব্যাপার তো থাকেই ওই মেয়েকে নিয়ে। রাকিবের অবশ্য মেয়ে ঘটিত কোন দুর্বলতা ছিল না। কিন্তু কিভাবে কিভাবে যেন তিথির সাথে রাকিবের সম্পর্কটা গড়ে ওঠে। আজ তাদের সম্পর্কের এক বছর হতে যাচ্ছে।

তিথিকে অনেক কাঠ খড় পুড়িয়ে রাকিবের সাথে দেখা করার জন্যে আসতে হয়েছে। বারবার বলেছিল আরেকদিন দেখা করার জন্যে। কিন্তু রাকিব নাছোড়বান্দা। আজ ও দেখা করবেই। বাসায় অনেক ঝামেলা থাকা সত্যেও তিথিকে আসতে হয়েছে।

>হ্যা, কই তুমি। আর কতক্ষন লাগবে আসতে।


সুন্দরী মেয়েদের প্রতি সব ছেলেরই খানিকটা দুর্বলতা থাকে। আড় চোখে দেখা, নানা অজুহাতে তার সাথে কথা বলা ইত্যাদি ইত্যাদি ব্যাপার তো থাকেই ওই মেয়েকে নিয়ে। রাকিবের অবশ্য মেয়ে ঘটিত কোন দুর্বলতা ছিল না। কিন্তু কিভাবে কিভাবে যেন তিথির সাথে রাকিবের সম্পর্কটা গড়ে ওঠে। আজ তাদের সম্পর্কের এক বছর হতে যাচ্ছে।

তিথিকে অনেক কাঠ খড় পুড়িয়ে রাকিবের সাথে দেখা করার জন্যে আসতে হয়েছে। বারবার বলেছিল আরেকদিন দেখা করার জন্যে। কিন্তু রাকিব নাছোড়বান্দা। আজ ও দেখা করবেই। বাসায় অনেক ঝামেলা থাকা সত্যেও তিথিকে আসতে হয়েছে।

>হ্যা, কই তুমি। আর কতক্ষন লাগবে আসতে।

<হ্যা তিথি, আসলে হয়েছে কি মানে একটু ঝামেলা হয়ে গেছে, আমি আজ আসতে পারব না। >ঝামেলা হয়ে গেছে মানে। এত ঝামেলা করে আমি আসতে পারলাম আর তুমি এখন বলছ আসতে পারবা না। এই সব কাহিনী করার মানে কি। তুমি জানো আমি কতো কষ্ট করে এসেছি।

<একটা মানুষ তো ঝামেলায় পড়তেই পারে। গতকাল বলছি আসতে কারন গতকাল ঝামেলা ছিল না। >চুপ কর। যেইদিনই আমাদের দেখা করার কথা থাকে ঐদিনই একটা না একটা ঝামেলা তুমি লাগাবাই।

<আহা, ঝামেলা কি আর দিনক্ষন দেখে হয় নাকি। আমার এক ফু- >হইছে, আর এক্সকিউজ দেখাইতে হবে না তোমাকে। আমার প্রবলেম তো তোমার কাছে প্রবলেম মনে হয় না। তুমি থাক তোমার প্রবলেম নিয়ে। আর কখনও আমার সাথে যোগাযোগের চেষ্টা করবা না। রাখলাম।

আসলে কোন প্রবলেমই হয়নি। রাকিব সব সময় ইচ্ছা করেই এমন করে। কোন এক অদ্ভুত কারনে তিথিকে রাগিয়ে দিয়ে রাকিব এক অদ্ভুত আনন্দ পায়। রাগত অবস্থায় ওর কথাগুলো কেমন যেন জড়িয়ে যায়। বাচ্চাদের মতো লাগে তখন। তিথি যখন রেগে রেগে কথা বলে তখন রাকিব ভেবেই পায় না এমন অদ্ভুত সুন্দর একটা মেয়ে কোন ভাগ্যে সে পেয়েছে।

রাকিব আসবে না বললেও তিথি বসে আছে লেকের ধারে। বসে থাকবে। কারন তিথি জানে শত ঝামেলা হলেও রাকিব আসবে। এসে মুখটা একটু বাঁকা করে বলবে “সরি”।

আর এই “সরি” টা শোনার জন্যেই রাকিব না আসা পর্যন্ত বসে থাকবে তিথি।

১২ thoughts on “সরি

  1. মানব – মানবীর অদ্ভুত রসায়ন
    মানব – মানবীর অদ্ভুত রসায়ন !!!
    বেঁচে থাক ঘাস, ফুল,লতা -পাতা
    বেঁচে থাক শাশ্বত ভালোবাসা ।
    বেঁচে থাক এইসব অভিমান নীরবতা …

Leave a Reply to সৌ রভ Cancel reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *