##‪#‎অবশিষ্ট‬ এই কবিতা বন্ধু-###

এখন আর কবিতা হয়ে উঠতে ইচ্ছে করেনা
জীবন বড় বিষাদময় বন্ধু ।
বুকের বা’পাশটায় হাত রেখে দেখ
কত কবিতা ধুকপুকে মরে ।
জীবনের উষ্ণতম দ্রাঘিমাংশে
আমাদের কোন কবিতা ছিলো না ।
গভির কোন দীর্ঘশ্বাসে সময় হলে কান পেতে রেখো
বিমর্ষ কিছু কবিতার আর্তনাদ শুনতে পাবে ।
মুলত এসবই আমাদের জীবন ।



এখন আর কবিতা হয়ে উঠতে ইচ্ছে করেনা
জীবন বড় বিষাদময় বন্ধু ।
বুকের বা’পাশটায় হাত রেখে দেখ
কত কবিতা ধুকপুকে মরে ।
জীবনের উষ্ণতম দ্রাঘিমাংশে
আমাদের কোন কবিতা ছিলো না ।
গভির কোন দীর্ঘশ্বাসে সময় হলে কান পেতে রেখো
বিমর্ষ কিছু কবিতার আর্তনাদ শুনতে পাবে ।
মুলত এসবই আমাদের জীবন ।
গুহার অন্ধকার থেকে ঝকঝকে বেডরুম
সমস্ত জুড়ে ছিলো আমাদের কবিতা ।
তোমাদের শরীরে মানচিত্রের যে পোষাক
তার কোন জন্মদাতার নাম কি জানো ?
এর নামও কবিতা ।
ভারী হয়ে আসা জননির স্তনে
চুমুক দেয়া শিশুটি জানে- কবিতার নাম ।
অথচ তোমারা অস্বিকার করো-
দাত দিয়ে নখ কাটতে কাটতে ।
মধ্যবিত্ত পিতার ঘামের নির্যাসে যে কবিতা
তাতে কেবল দুর্গন্ধ বন্ধু !
অথচ পৃথিবীর আদি-অন্ত সমস্ত কবিতার জনক তিনি ।
তোমরা অস্বিকার করো-
নাকের বিষ্ঠা খোচাতে খোচাতে ।
আগুনে পুড়ে যাওয়া মহাকাল জানে
মৃত্যুর আড়ালে ডুবে থাকা কবিতার মানে ।
অবশিষ্ট এই কবিতা বন্ধু-
রেখে গেলাম তোমাদের পুরোনো সিন্ধুকে ।
অস্বীকার করোনা-
গুমোট গন্ধে ভরা বগলের ঘাম শুকতে শুকতে ।

৬ thoughts on “##‪#‎অবশিষ্ট‬ এই কবিতা বন্ধু-###

  1. আগুনে পুড়ে যাওয়া মহাকাল

    আগুনে পুড়ে যাওয়া মহাকাল জানে
    মৃত্যুর আড়ালে ডুবে থাকা কবিতার মানে ।

    — ভালো লেগেছে ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *